alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের মামলায়

এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের ৭ দিনের রিমান্ড

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রতারণা ও জালিয়াতি করে পিরোজপুরে গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের মামলায় এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান ও তাঁর তিন ভাইয়ের সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ (১৩ সেপ্টেম্বর) সোমবার পিরোজপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ম. মহী উদ্দিন এ আদেশ দেন।

এর আগে আসামিদের সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মনিরুল ইসলাম।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর তোপখানা রোড এলাকা থেকে গ্রাহকদের বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করার অভিযোগে এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান রাগীব আহসান ও তাঁর ভাই আবুল বাশার খানকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। ওই দিন বিকেলে পিরোজপুর সদর থানা-পুলিশ রাগীবের দুই ভাই মাহমুদুল হাসান ও খাইরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। রাগীবকে গ্রেপ্তারের পর পিরোজপুর সদর উপজেলার মূলগ্রাম গ্রামের বাসিন্দা হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে রাগীবসহ চারজনকে আসামি করে ৯৭ জন গ্রাহকের ১ কোটি ১৫ লাখ ৫৫ হাজার ৯৩৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্থানীয় থানায় মামলা করেন।

গত শুক্রবার মাহমুদুল হাসান ও খাইরুল ইসলামকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। গত শনিবার বিকেলে র‌্যাব রাগীব আহসান ও আবুল বাশার খানকে পিরোজপুর সদর থানায় সোপর্দ করলে পুলিশ তাঁদের একই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়। আজ আসামিদের রিমান্ড আবেদনের শুনানির জন্য পিরোজপুর জেলা কারাগার থেকে আদালতে নেওয়া হয়।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ জেট এম মাসুদুজ্জামান বলেন, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রত্যেক আসামিকে সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। আদালত সেই আবেদন মঞ্জুর করেন।

২০০৮ সালে পিরোজপুরে এহসান রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্স প্রতিষ্ঠা করেন রাগীব আহসান। পরে প্রতিষ্ঠানটির নতুন নাম দেওয়া হয় এহসান গ্রুপ। এটি এহসান মাল্টিপারপাস কো–অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড, এহসান সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড, ড্যাফোডিল মাল্টিপারপাস কো–অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড, এহসান বেসিক সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড এবং এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্স লিমিটেড নামের পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের নামে অধিক মুনাফা দেওয়ার কথা বলে সঞ্চয় আমানত নিয়ে ব্যবসা শুরু করে।

গ্রাহকের টাকায় এই গ্রুপ হোটেল, মার্কেট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ট্রাভেলস, বস্ত্র ব্যবসাসহ ১৭টি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে আসছিল। গ্রাহকদের বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়ে রাগীব আহসান পরিবারের সদস্য ও নিকটাত্মীয়দের নামে-বেনামে সম্পত্তি করেছেন। ২০১৯ সালের জুলাই মাস থেকে প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের মাসিক মুনাফা ও আমানতের টাকা ফেরত দেওয়া বন্ধ করে দেয়। এর পর থেকে প্রায়ই প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে জামানতের টাকা ফেরত পেতে ভিড় করতেন গ্রাহকেরা।

ছবি

ভোলায় এ্যাসিড নিক্ষেপে ছাত্রী হত্যা মামলায় অপু’র আমৃত্যু যাবজ্জীবন

ছবি

রাজারবাগের পীরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট

সাভারে বাসা ভাড়ার নামে শিশু অপহরণ

ছবি

কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার রাতারাতি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক!

গ্রাহকের কোটি টাকা হাতিয়ে উধাও স্বপ্ন সঞ্চয় সমবায়

বালিয়াকান্দিতে চাকরির নামে টাকা হাতিয়ে উল্টো মামলা!

ছবি

ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডির বাসায় র‌্যাবের অভিযান

ছবি

রাজারবাগের পীরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কিশোর গ্যাং-এর উত্থান

ছয় বছরে বিআরটিএ কর্মকর্তার সম্পদের পাহাড়, মামলা দুদকের

ছবি

বিমানের সাবেক ১৭ সিবিএ নেতার দুর্নীতির তদন্ত কেন নয়?

ছবি

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এ্যাসাইনমেন্ট পরীক্ষার ফি আদায়ের অভিযোগ

বাসা ভাড়ার অভিনব কৌশলে শিশু অপহরণ, আটক: ১

ছবি

চাকরির আট বছরেই বিআরটিএ কর্মকর্তা ১২ কোটি টাকার মালিক

চাকরির প্রলোভনে যৌনপল্লীতে বিক্রি : চাচার বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

শরীয়তপুরের ছামাদ মাস্টার হত্যায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড, ৯ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

আদালতে হাজিরা দিলেন পরীমণি

ফুলপুরে ১০ টাকা কেজি ধরের ৪৮ বস্তা চাল উদ্ধার

দুর্গাপুরে সাংবাদিকের ওপর হামলা : থানায় অভিযোগ

মান্দায় বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার, পুত্রবধূ আটক

শেরপুরে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, যুবক গ্রেপ্তার

ছবি

কম্পিউটার অপারেটরের চাকরি থেকে এখন ‘সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার’ মালিক

উলিপুরে ন্যায্য মূল্যের চাল কালোবাজারে বিক্রির সময় আটক ২

প্রতিদিন অভিনব কৌশলে দেশে ইয়াবা আনা হচ্ছে

ছবি

জাপানি নারীকে সাবেক স্বামীর ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নোটিশ

ছবি

আগামীকাল আদালতে হাজিরা দেবেন পরীমণি

জীবন বীমার এমডির নিয়োগ বাণিজ্যসহ সারাদেশে ১০ অভিযোগের তদন্তে দুদক

ছবি

বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা: দুদকের পাঁচ আবেদনে রায় ২৭ সেপ্টেম্বর

ছবি

পরিচয়ে টাকা, কাগজপত্র গ্রহণেও টাকা, পরে উধাও

ছবি

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি-সম্পাদকসহ ১১ জনের ব্যাংক হিসাব তলব

ছবি

স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক মালেকের রায় ২০ সেপ্টেম্বর

২৫ মানবপাচার মামলার চার্জশিট

ছবি

রাগীবসহ তার চার ভাইয়ের ৭ দিনের রিমান্ড

অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসী নারীর ফাঁদে পড়লেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী

ছবি

অর্থ পাচারকারীদের তথ্য হলফনামা করে দিতে বললেন: হাইকোর্ট

ছবি

প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার পথে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের মামলায়

এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের ৭ দিনের রিমান্ড

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রতারণা ও জালিয়াতি করে পিরোজপুরে গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের মামলায় এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান ও তাঁর তিন ভাইয়ের সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ (১৩ সেপ্টেম্বর) সোমবার পিরোজপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ম. মহী উদ্দিন এ আদেশ দেন।

এর আগে আসামিদের সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মনিরুল ইসলাম।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর তোপখানা রোড এলাকা থেকে গ্রাহকদের বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করার অভিযোগে এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান রাগীব আহসান ও তাঁর ভাই আবুল বাশার খানকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। ওই দিন বিকেলে পিরোজপুর সদর থানা-পুলিশ রাগীবের দুই ভাই মাহমুদুল হাসান ও খাইরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। রাগীবকে গ্রেপ্তারের পর পিরোজপুর সদর উপজেলার মূলগ্রাম গ্রামের বাসিন্দা হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে রাগীবসহ চারজনকে আসামি করে ৯৭ জন গ্রাহকের ১ কোটি ১৫ লাখ ৫৫ হাজার ৯৩৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্থানীয় থানায় মামলা করেন।

গত শুক্রবার মাহমুদুল হাসান ও খাইরুল ইসলামকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। গত শনিবার বিকেলে র‌্যাব রাগীব আহসান ও আবুল বাশার খানকে পিরোজপুর সদর থানায় সোপর্দ করলে পুলিশ তাঁদের একই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়। আজ আসামিদের রিমান্ড আবেদনের শুনানির জন্য পিরোজপুর জেলা কারাগার থেকে আদালতে নেওয়া হয়।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ জেট এম মাসুদুজ্জামান বলেন, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রত্যেক আসামিকে সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। আদালত সেই আবেদন মঞ্জুর করেন।

২০০৮ সালে পিরোজপুরে এহসান রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্স প্রতিষ্ঠা করেন রাগীব আহসান। পরে প্রতিষ্ঠানটির নতুন নাম দেওয়া হয় এহসান গ্রুপ। এটি এহসান মাল্টিপারপাস কো–অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড, এহসান সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড, ড্যাফোডিল মাল্টিপারপাস কো–অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড, এহসান বেসিক সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড এবং এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্স লিমিটেড নামের পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের নামে অধিক মুনাফা দেওয়ার কথা বলে সঞ্চয় আমানত নিয়ে ব্যবসা শুরু করে।

গ্রাহকের টাকায় এই গ্রুপ হোটেল, মার্কেট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ট্রাভেলস, বস্ত্র ব্যবসাসহ ১৭টি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে আসছিল। গ্রাহকদের বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়ে রাগীব আহসান পরিবারের সদস্য ও নিকটাত্মীয়দের নামে-বেনামে সম্পত্তি করেছেন। ২০১৯ সালের জুলাই মাস থেকে প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের মাসিক মুনাফা ও আমানতের টাকা ফেরত দেওয়া বন্ধ করে দেয়। এর পর থেকে প্রায়ই প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে জামানতের টাকা ফেরত পেতে ভিড় করতেন গ্রাহকেরা।

back to top