alt

সারাদেশ

শাবির ঘটনায় পুলিশের দায় থাকলে ব্যবস্থা

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২

ব্রিফিংয়ে কথা বলছেন পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি মো. হায়দার আলী খান । ছবি: সংগৃহীত

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষ। পুলিশ সদর দফতর এ বিষয়ে তদন্ত করছে। তদন্তে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার সত্যতা পাওয়া গেলে দায়ীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পুলিশ সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে চতুর্থ দিনের অধিবেশন সম্পর্কে মিডিয়া ব্রিফিংয়ে এসে এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন পুলিশ সদর দফতরের ডিআইজি (অপারেশন্স মিডিয়া অ্যান্ড প্লানিং) মো. হায়দার আলী খান।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামের মিডিয়া সেন্টারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

শাবিপ্রবির আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অর্থ দিয়ে সহায়তার অভিযোগে সাবেক কয়েকজন শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ সেখানে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙিয়ে অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমিও ১০ হাজার টাকা দিলাম, পারলে পুলিশ আমাকে গ্রেফতার করুক।’ এখন পুলিশ তাকেও গ্রেফতার করবে কি না- জানতে চাইলে ডিআইজি হায়দার আলী খান বলেন, ‘এটি অবশ্যই তদন্তের বিষয়। তদন্তে যদি অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তাহলে কি শাবিপ্রবির পরিস্থিতি সম্পর্কে পুলিশ সদর দফতর অবগত নয়? জবাবে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বতন্ত্র কিছু নিয়ম-কানুন আছে। তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনা বিভাগ রয়েছে। পুলিশ শুধু ল’ অ্যান্ড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট, আইনশৃঙ্খলার বিষয়টি দেখে। তাও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনের আমন্ত্রণেই পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত হয়।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, পুলিশ তাদের ওপর হামলা ও হয়রানি করেছে। সেটি পুলিশ সদরদপ্তর তদন্ত করছে কি-না বা কারো দায় দেখছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই পুলিশ সদরদপ্তর দেখছে, বিভাগীয় তদন্ত করছে। তদন্তসাপেক্ষে যদি কোনো অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাহলে দায়ীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

গত ১৩ জানুয়ারি রাতে বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রী হলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নামেন ওই হলের শিক্ষার্থীরা। পরদিন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আইসিটি ভবনে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে। ১৫ জানুয়ারি বিকালে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েনের প্রতিবাদে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিপেটা করে, কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ও সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাসহ অন্তত অর্ধশত আহত হন। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয় শাবি কর্তৃপক্ষ।

তবে তা উপেক্ষা করে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কিলোতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অনশন শুরু করেন। প্রায় ২৮ জন শিক্ষার্থী অনশনে যোগ দেন। বুধবার সকালে তাদের অনশন ভাঙান অধ্যাপক জাফর ইকবাল।

নোয়াখালীতে ৯টি অবৈধ ক্লিনিক সিলগালা

ছবি

কিশোরী সংঘের ছোঁয়ায় রোধ হচ্ছে বাল্যবিবাহ, স্কুল থেকে ঝরে পড়া

রংপুরে ২৪ ঘণ্টায় দুই হত্যাকান্ড

ছবি

নতুন বিষয় ও গবেষণার কাজে আরও মনোযোগী হতে হবে: উপাচার্য

ছবি

বাঁশ দিয়ে ঘিরে দখল সরকারি পুকুর

আসামিদের হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে পরিবার

সেতু সংস্কারের অভাবে বাড়ছে ভোগান্তি

কৃষি আবহাওয়ার পূর্বাভাস বঞ্চিত শেরপুরে প্রায় ৬০ হাজার কৃষক

ধর্ষণের শিকার শিশু মামলার পরও গ্রেপ্তার হয়নি অভিযুক্ত

ছাত্রীর পর এবার এমসি কলেজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

২২ বছর ধরে পারাপারের ভরসা নড়বড়ে সাঁকো

ছবি

চুয়াডাঙ্গায় ৩ ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা

ছবি

নরসিংদীতে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২

ছবি

নরসিংদীতে নির্বাচনী সংঘাতে আহত ১৫

ছবি

উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে ট্রেন চলাচল শুরু

অহিংস অগ্নিযাত্রা : তরুণীকে হেনস্থার প্রতিবাদ

ছবি

ভরা মৌসুমে ধান সরবরাহ কম, বাড়ছে দাম

ছবি

তারেককে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

‘যারা দেশের টাকা পাচার করেছে তাদের নামের তালিকা করা হচ্ছে’

ছবি

শহরের মুদি দোকানগুলো বাকিতে পণ্য বিক্রি বন্ধ করায় দুর্দশায় ক্রেতারা

ছবি

খুলনা-কলকাতা রুটে রোববার থেকে চলবে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’

ছবি

‘জাতীয়ভাবে এমন উদ্যোগ নিতে হবে যেন আমাদের সন্তানেরা থাকে নিরাপদে’

ছবি

আজ আসছে খিরসাপাত, আমের বাজার চড়া

ছবি

আশ্রয়ণ প্রকল্প নিয়ে দুর্নীতি করলেই ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

ছবি

ফরিদপুরের নগরকান্দায় রাতের আঁধারে সরকারি পুকুর দখল

ছবি

প্রধান শিক্ষকের ‘স্বেচ্ছাচারিতা’, বিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত

ছবি

প্রশিক্ষণে নেদারল্যান্ডস গিয়ে ‘নিখোঁজ’ ২ পুলিশ

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ স্মরণে সভা

শটসার্কিটের আগুনে দগ্ধ শিশুসহ দুজন

২ জেলায় হামলা-সংঘর্ষে নিহত দুই, গ্রেপ্তার সাত

ছবি

হাতির ভয় দেখিয়ে মাহুতের চাঁদাবাজি

বগুড়ায় জাল টাকা ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার চারজন

তিন দিন পর উল্টো লুটপাটের মামলা

বান্দরবানে পর্যটকবাহী মাইক্রো খাদে : নিহত ৩

হাতিয়ায় ১৭ জেলেকে অর্থদন্ড

ছবি

পদ্মায় বিলীন কয়েকশ’ একর ফসলি জমি

tab

সারাদেশ

শাবির ঘটনায় পুলিশের দায় থাকলে ব্যবস্থা

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

ব্রিফিংয়ে কথা বলছেন পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি মো. হায়দার আলী খান । ছবি: সংগৃহীত

বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষ। পুলিশ সদর দফতর এ বিষয়ে তদন্ত করছে। তদন্তে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার সত্যতা পাওয়া গেলে দায়ীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পুলিশ সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে চতুর্থ দিনের অধিবেশন সম্পর্কে মিডিয়া ব্রিফিংয়ে এসে এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন পুলিশ সদর দফতরের ডিআইজি (অপারেশন্স মিডিয়া অ্যান্ড প্লানিং) মো. হায়দার আলী খান।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামের মিডিয়া সেন্টারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

শাবিপ্রবির আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অর্থ দিয়ে সহায়তার অভিযোগে সাবেক কয়েকজন শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ সেখানে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙিয়ে অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমিও ১০ হাজার টাকা দিলাম, পারলে পুলিশ আমাকে গ্রেফতার করুক।’ এখন পুলিশ তাকেও গ্রেফতার করবে কি না- জানতে চাইলে ডিআইজি হায়দার আলী খান বলেন, ‘এটি অবশ্যই তদন্তের বিষয়। তদন্তে যদি অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তাহলে কি শাবিপ্রবির পরিস্থিতি সম্পর্কে পুলিশ সদর দফতর অবগত নয়? জবাবে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বতন্ত্র কিছু নিয়ম-কানুন আছে। তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনা বিভাগ রয়েছে। পুলিশ শুধু ল’ অ্যান্ড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট, আইনশৃঙ্খলার বিষয়টি দেখে। তাও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনের আমন্ত্রণেই পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত হয়।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, পুলিশ তাদের ওপর হামলা ও হয়রানি করেছে। সেটি পুলিশ সদরদপ্তর তদন্ত করছে কি-না বা কারো দায় দেখছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই পুলিশ সদরদপ্তর দেখছে, বিভাগীয় তদন্ত করছে। তদন্তসাপেক্ষে যদি কোনো অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাহলে দায়ীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

গত ১৩ জানুয়ারি রাতে বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রী হলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নামেন ওই হলের শিক্ষার্থীরা। পরদিন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আইসিটি ভবনে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে। ১৫ জানুয়ারি বিকালে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েনের প্রতিবাদে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিপেটা করে, কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ও সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাসহ অন্তত অর্ধশত আহত হন। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয় শাবি কর্তৃপক্ষ।

তবে তা উপেক্ষা করে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কিলোতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অনশন শুরু করেন। প্রায় ২৮ জন শিক্ষার্থী অনশনে যোগ দেন। বুধবার সকালে তাদের অনশন ভাঙান অধ্যাপক জাফর ইকবাল।

back to top