alt

সারাদেশ

পদ্মা সেতু নিয়ে টিকটকে অপপ্রচার এক তরুণ গ্রেপ্তার

মো. পলাশ খান, শরীয়তপুর(জাজিরা) : বুধবার, ২৫ মে ২০২২

পদ্মা সেতু নিয়ে টিকটক ভিডিও বানিয়ে অপপ্রচারের করার সময় পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্ত থেকে এক তরুণকে আটক করেছে সেনাবাহিনী।

জানা যায়, প্রদ্মা সেতু নিয়ে টিকটকে অপপ্রচারমূলক ভিডিও তৈরী করার সময় হেলাল উদ্দিন ঢালী (২৩) নামে এক তরুণকে আটক করেছে পদ্মা সেতুর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা শেখ রাসেল সেনানিবাসের সেনা সদস্যরা। পরে তাকে জাজিরা থানায় হস্তান্তর করা হয়। আটক তরুণ শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বিকেনগর পূর্ব কাজী কান্দি গ্রামের সিরাজ ঢালীর ছেলে। তিনি পদ্মা সেতুর নদীশাসন প্রকল্পের স্থানীয় শ্রমিক ছিলেন।

হেলালের বিরুদ্ধে জাজিরা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। পরে এ মামলায় তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, হেলাল উদ্দিন পদ্মা সেতুর নদীশাসন প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রোতে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। সোমবার(২৩ মে) বিকেলে সেতুর নিরাপত্তায় নিয়োজিত শেখ রাসেল সেনানিবাসের সেনা সদস্যরা নাওডোবা এলাকায় টহল দিচ্ছিলেন। এসময় তাঁরা সেতুর ৪২ নন্বর পিলারের কাছে হেলাল উদ্দিনকে টিকটক ভিডিও বানাতে দেখেন। তখনই তাঁকে আটক করা হয়। সাথে জব্দ করা হয় দুটি স্মার্ট মুঠোফোন। ঐ মুঠোফোনগুলোতে পদ্মা সেতু নিয়ে বিভিন্ন নেতিবাচক প্রচারণার টিকটক ভিডিও পাওয়া যায়। পরে সেনাসদস্যরা আটক হেলালকে জাজিরা থানায় নিয়ে যান। সেখানে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার(২৪ মে) হেলাল উদ্দিনকে জাজিরা থানায় হস্তান্তর করেন সেনা সদস্যরা। এরপর জাজিরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে হেলালের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় মঙ্গলবার(২৪ মে) সন্ধ্যায় তাঁকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শরীয়তপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে হাজির করা হয়। পরে বিচারক আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার(২৪ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময় হেলাল উদ্দিনকে জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এবিষয়ে এসআই জসিম উদ্দিন এসকল তথ্য নিশ্চিত করে সংবাদকে বলেন, হেলাল উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে পদ্মা সেতুর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অপপ্রচারমূলক ভিডিও বানাচ্ছিলেন। সেই ভিডিও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সুষ্টি করছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এসব অভিযোগ স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত হেলাল।

ছবি

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রান হারালেন দুই বন্ধু

ছবি

১০০ মিনিটের নদীপথ পদ্মা সেতু পার ৬ মিনিটে

ছবি

টাঙ্গাইলে শিশু হত্যা: ময়নাতদন্তে মিললো শ্বাসরোধে হত্যার আলামত

ছবি

উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই

ছবি

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ

ছবি

অচেনা পাটুরিয়া ঘাট: কোলাহল নেই, যানবাহনের সারিও নেই

ছবি

পদ্মা সেতু জাদুঘর: বৈচিত্র্যময় প্রাণীর এক বিরল সংগ্রহশালা

সংক্রমণ, চতুর্থ ঢেউয়ের পথে

হজ প্রতিনিধি দল সৌদি যাচ্ছেন ৩ জুলাই

ছবি

পদ্মা সেতুর প্রথম লেডি বাইকার রুবায়াত রুবা

ছবি

পদ্মা সেতুতে ৮ ঘন্টায় ১৫ হাজার ২০০ গাড়ি পারাপার

ছবি

শহর পর্যায়ে বিশুদ্ধ ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে সেমিনার

ছবি

ছাত্রীদের সাথে অনৈতিক আচরণের অভিযোগ ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে

ছবি

গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: ১৫ বছর পর ৩ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

আম সংকটে বন্ধ রাজশাহী-ঢাকা ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন

ছবি

তালার সরকারি ৪টি গুরুত্বপূর্ন দপ্তর বিভিন্ন স্থানে: ভোগান্তীতে মানুষ

ছবি

চার মাস পর সিলেটে করোনা শনাক্ত ছাড়াল ৯ শতাংশ

ছবি

৮ ঘণ্টায় পদ্মা সেতুতে টোল আদায় ৮২ লাখ টাকা

ছবি

চরভদ্রাসনে বাঁধ ভাঙ্গন: হুমকিতে বিদ্যালয়সহ ৪০ পরিবার

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু

ঘের মালিকের হামলায় ৩ আহত

ছবি

হাত দিয়ে পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা যুবক বায়েজিদ আটক

কৃষক পরিবারকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা

ছবি

বরিশাল-ঢাকা সাড়ে ৩ ঘণ্টা, ৫ মিনিটে সেতু পার

ছবি

‘সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে’ কিশোর খুন, গ্রেফতার ২

জমি নিয়ে বিরোধে মসজিদে তালা

সড়কে ঝরল দুই চালক

পাকুন্দিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একযুগ পর অস্ত্রোপচার

বন্যা : আট দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই হবিগঞ্জের ২০০ গ্রামে

ছবি

ক্রস বাঁধে ভাঙন : বিলীন দুই শতাধিক ঘরবাড়ি

ছবি

দুই নবজাতকের নাম রাখা হলো পদ্মা-সেতু

ছবি

পাসপোর্ট অফিসে ২০০ দালাল ! অতিষ্ঠ গ্রাহক

বন্যা : হতাশ নবীনগরের পশু খামারিরা

ছবি

কাল থেকে পদ্মা সেতুতে নেমে ছবি তুললেই জরিমানা

ছবি

রংপুরের চাহিদা মিটিয়েও অতিরিক্ত ১ লাখ ৩২ হাজার কোরবানির পশু

ছবি

পদ্মা সেতু: সাক্ষী হতে এসে নিজেরাই ইতিহাসের অংশ হলেন তারা

tab

সারাদেশ

পদ্মা সেতু নিয়ে টিকটকে অপপ্রচার এক তরুণ গ্রেপ্তার

মো. পলাশ খান, শরীয়তপুর(জাজিরা)

বুধবার, ২৫ মে ২০২২

পদ্মা সেতু নিয়ে টিকটক ভিডিও বানিয়ে অপপ্রচারের করার সময় পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্ত থেকে এক তরুণকে আটক করেছে সেনাবাহিনী।

জানা যায়, প্রদ্মা সেতু নিয়ে টিকটকে অপপ্রচারমূলক ভিডিও তৈরী করার সময় হেলাল উদ্দিন ঢালী (২৩) নামে এক তরুণকে আটক করেছে পদ্মা সেতুর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা শেখ রাসেল সেনানিবাসের সেনা সদস্যরা। পরে তাকে জাজিরা থানায় হস্তান্তর করা হয়। আটক তরুণ শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বিকেনগর পূর্ব কাজী কান্দি গ্রামের সিরাজ ঢালীর ছেলে। তিনি পদ্মা সেতুর নদীশাসন প্রকল্পের স্থানীয় শ্রমিক ছিলেন।

হেলালের বিরুদ্ধে জাজিরা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। পরে এ মামলায় তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, হেলাল উদ্দিন পদ্মা সেতুর নদীশাসন প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রোতে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। সোমবার(২৩ মে) বিকেলে সেতুর নিরাপত্তায় নিয়োজিত শেখ রাসেল সেনানিবাসের সেনা সদস্যরা নাওডোবা এলাকায় টহল দিচ্ছিলেন। এসময় তাঁরা সেতুর ৪২ নন্বর পিলারের কাছে হেলাল উদ্দিনকে টিকটক ভিডিও বানাতে দেখেন। তখনই তাঁকে আটক করা হয়। সাথে জব্দ করা হয় দুটি স্মার্ট মুঠোফোন। ঐ মুঠোফোনগুলোতে পদ্মা সেতু নিয়ে বিভিন্ন নেতিবাচক প্রচারণার টিকটক ভিডিও পাওয়া যায়। পরে সেনাসদস্যরা আটক হেলালকে জাজিরা থানায় নিয়ে যান। সেখানে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার(২৪ মে) হেলাল উদ্দিনকে জাজিরা থানায় হস্তান্তর করেন সেনা সদস্যরা। এরপর জাজিরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে হেলালের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় মঙ্গলবার(২৪ মে) সন্ধ্যায় তাঁকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শরীয়তপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে হাজির করা হয়। পরে বিচারক আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার(২৪ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময় হেলাল উদ্দিনকে জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এবিষয়ে এসআই জসিম উদ্দিন এসকল তথ্য নিশ্চিত করে সংবাদকে বলেন, হেলাল উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে পদ্মা সেতুর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অপপ্রচারমূলক ভিডিও বানাচ্ছিলেন। সেই ভিডিও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সুষ্টি করছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এসব অভিযোগ স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত হেলাল।

back to top