alt

নগর-মহানগর

বাবার কাছেই থাকতে চাইছে ওই তিন বোন : পুলিশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : শনিবার, ২০ নভেম্বর ২০২১

মায়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর বাবার সঙ্গছাড়া ছিল তিন-বোন; মায়ের মৃত্যুর পর খালাদের কাছে থেকে সন্তুষ্ট ছিল না তারা, তাই চলে গিয়েছিল বাবার কাছে।

ঢাকা থেকে নিরুদ্দেশ তিন কিশোরী-তরুণীকে যশোর থেকে উদ্ধারের পর পুলিশ জানিয়েছে, খালাদের কাছে ‘প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ায়’ তারা এই কাজ করেছিল।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খালার বাসা থেকে কাউকে কিছু না জানিয়ে বেরিয়ে যায় তিন বোন। তাদের একজন উচ্চ মাধ্যমিকে পড়েন। অন্য দুজন এবার এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন।

২০১৩ সালে তাদের মা মারা গেলে বাবা আরেকটি বিয়ে করে যশোরে থাকেন। তখন থেকে খালাদের কাছেই থাকছিল তিন বোন।

রাজধানীর আদাবরের শেখেরটেকে বড় খালার বাসা থেকে বেরিয়ে গেলে খোঁজ না পাওয়ায় আদাবর থানায় জিডি করেন তাদের খালা।

পরে পুলিশ তাদের হদিস পায় যশোরে। সেখানে মেয়েটির বাবা থাকেন। মেয়ে তিনটির দাদির মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে তাদের খোঁজ মেলে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

তিন বোনকে ঢাকায় আনার পর শনিবার ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার সাংবাদিকদের বলেন, “খালাদের কাছ থেকে তারা যতটুকু প্রত্যাশা করেছিল, সেটা না পাওয়ায় এবং বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে না দেওয়ার ক্ষোভ থেকেই তিন বোন একসঙ্গে কাউকে না বলে বেরিয়ে যায়।”

২০১২ ওই তিন বোনের বাবা-মায়ের মধ্যে বিচ্ছেদ হলে তারা মায়ের সঙ্গে থাকা শুরু করে। মা ২০১৩ সালে ক্যান্সারে মারা যান। এরপর এক খালার কাছে দুই বোন, আরেক খালার কাছে এক বোন থাকত।

একজন খালার সঙ্গে খিলগাঁওতে থাকতেন। দুই বোনের এসএসসি পরীক্ষার জন্য তিনি শেখেরটেকে এলে তিন বোন একত্রে বাড়ি ছাড়ার পরিকল্পনা করেন।

তিন বোনের সঙ্গে তাদের দাদির যোগাযোগ ছিল জানিয়ে বিপ্লব জানান, দাদি তাদের দুই হাজার টাকা পাঠায়। সেই টাকায় তারা যশোর চলে যায়।

এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ কর্মকর্তা বিপ্লব বলেন, “মেয়েদের এক খালা তাদের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করলেও অনুসন্ধানে জানা গেছে, তিন বোন কোনো টাকা নেয়নি। এমনকি কোনো মোবাইল ফোনও তাদের কাছে নেই।”

তিনি বলেন, ওই তিন বোন আর খালার বাসায় আর যেতে চাইছে না। বাবার কাছে থাকতে চাচ্ছে। এখন আদালতই তাদের বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেবে।

ছবি

বাসভাড়া নিয়ে বাগবিতন্ডা যাত্রীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে হত্যা

মোটরসাইকেল আরোহীকে পিটিয়ে হত্যা বাসযাত্রীদের

ছবি

বইমেলা পিছিয়ে যাচ্ছে ২ সপ্তাহ!

ছবি

ঢাকায় বায়ু দূষনের ৬০ শতাংশ হয় রাতে, দূষণের শীর্ষে আবদুল্লাহপুর

ছবি

মিরপুর বাঙলা কলেজের নির্মাণাধীন ভবনে মিলল লাশ

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭৯

রাজধানীতে অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক ছিল না

ছবি

ঐতিহ্যবাহী সাকরাইন উৎসব

‘বিশৃঙ্খলায় ঢাকায় বাসে যাত্রী পরিবহন কম’

ছবি

যাত্রী ছাউনি : অযত্ন অবহেলায় বেহাল অবস্থা

অর্ধেক আসনে যাত্রী বহনের নামে বাসভাড়া বৃদ্ধির পায়ঁতারা বন্ধ করুন ------------ যাত্রী কল্যান সমিতি

ছবি

ম্যারাথনে হাতিরঝিল বন্ধ, যানজটে নাকাল নগরবাসী

ঘুম থেকে দেরি করে উঠায় বকা : অভিমানে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

ছবি

উত্তরায় মহাসড়ক অবরোধ করে হকারদের বিক্ষোভ

ছবি

আইভীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তৈমুরের

ছবি

রাজধানীর কাপ্তান বাজারে আগুন, নিহত ১

ছবি

রাজধানীতে বাসচাপায় দুই পথচারী নিহত

ছবি

রাজধানী বাংলামোটরের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছবি

বাংলামোটরে বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন

ছবি

তুরাগে বসতবাড়িতে আগুন, ভাই-বোনসহ ৩ লাশ উদ্ধার

উত্তরায় প্রেমিককে বেঁধে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৫

ছবি

বনানীর রাস্তায় মালিকবিহীন পোরশে

ছবি

আজ রাজধানীর যেসব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ

ঢাবি প্রকৌশলীর দুর্নীতি : ট্রাইব্যুনাল গঠনের সিন্ধান্ত

জোন্তা ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিক্ট ২৫ লেফটেন্যান্ট গভর্নর হলেন ডা: জেরিন

ছবি

অনন্যা শীর্ষদশ ২০২০ সম্মাননা পেলেন অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল

মতিঝিলে কিশোরী ধর্ষণ, এপিবিএন সদস্য গ্রেপ্তার

ছবি

রাজধানীতে বেপরোয়া এনা উঠে গেল মাইক্রোবাসের ওপর

নবাবগঞ্জে মৃত স্বজনকে দেখতে গিয়ে সড়কে ঝরল চার নারী

ছবি

টিকিট কেটে বাসে চড়লেন দুই মেয়র

কামরাঙ্গীর চরে উচ্ছেদ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

ছবি

এবার ওয়ারীতে দক্ষিণ সিটির ময়লার গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

ছবি

রাজধানীতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ছবি

ডিএনসিসি খাল থেকে ৭৯ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য অপসারণ

ছবি

গণপরিবহনে অভিযান শুরু হলে বাস বন্ধ করে দেয় চালকরা

ছবি

ডিএমপির মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৪৬

tab

নগর-মহানগর

বাবার কাছেই থাকতে চাইছে ওই তিন বোন : পুলিশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শনিবার, ২০ নভেম্বর ২০২১

মায়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর বাবার সঙ্গছাড়া ছিল তিন-বোন; মায়ের মৃত্যুর পর খালাদের কাছে থেকে সন্তুষ্ট ছিল না তারা, তাই চলে গিয়েছিল বাবার কাছে।

ঢাকা থেকে নিরুদ্দেশ তিন কিশোরী-তরুণীকে যশোর থেকে উদ্ধারের পর পুলিশ জানিয়েছে, খালাদের কাছে ‘প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ায়’ তারা এই কাজ করেছিল।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খালার বাসা থেকে কাউকে কিছু না জানিয়ে বেরিয়ে যায় তিন বোন। তাদের একজন উচ্চ মাধ্যমিকে পড়েন। অন্য দুজন এবার এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন।

২০১৩ সালে তাদের মা মারা গেলে বাবা আরেকটি বিয়ে করে যশোরে থাকেন। তখন থেকে খালাদের কাছেই থাকছিল তিন বোন।

রাজধানীর আদাবরের শেখেরটেকে বড় খালার বাসা থেকে বেরিয়ে গেলে খোঁজ না পাওয়ায় আদাবর থানায় জিডি করেন তাদের খালা।

পরে পুলিশ তাদের হদিস পায় যশোরে। সেখানে মেয়েটির বাবা থাকেন। মেয়ে তিনটির দাদির মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে তাদের খোঁজ মেলে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

তিন বোনকে ঢাকায় আনার পর শনিবার ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার সাংবাদিকদের বলেন, “খালাদের কাছ থেকে তারা যতটুকু প্রত্যাশা করেছিল, সেটা না পাওয়ায় এবং বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে না দেওয়ার ক্ষোভ থেকেই তিন বোন একসঙ্গে কাউকে না বলে বেরিয়ে যায়।”

২০১২ ওই তিন বোনের বাবা-মায়ের মধ্যে বিচ্ছেদ হলে তারা মায়ের সঙ্গে থাকা শুরু করে। মা ২০১৩ সালে ক্যান্সারে মারা যান। এরপর এক খালার কাছে দুই বোন, আরেক খালার কাছে এক বোন থাকত।

একজন খালার সঙ্গে খিলগাঁওতে থাকতেন। দুই বোনের এসএসসি পরীক্ষার জন্য তিনি শেখেরটেকে এলে তিন বোন একত্রে বাড়ি ছাড়ার পরিকল্পনা করেন।

তিন বোনের সঙ্গে তাদের দাদির যোগাযোগ ছিল জানিয়ে বিপ্লব জানান, দাদি তাদের দুই হাজার টাকা পাঠায়। সেই টাকায় তারা যশোর চলে যায়।

এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ কর্মকর্তা বিপ্লব বলেন, “মেয়েদের এক খালা তাদের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করলেও অনুসন্ধানে জানা গেছে, তিন বোন কোনো টাকা নেয়নি। এমনকি কোনো মোবাইল ফোনও তাদের কাছে নেই।”

তিনি বলেন, ওই তিন বোন আর খালার বাসায় আর যেতে চাইছে না। বাবার কাছে থাকতে চাচ্ছে। এখন আদালতই তাদের বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেবে।

back to top