alt

আন্তর্জাতিক

রোহিঙ্গা গণহত্যা বিষয়ে আইসিজেতে শুনানি ফেব্রুয়ারিতে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসে (আইসিজে) গাম্বিয়ার করা রোহিঙ্গা গণহত্যার মামলায় মায়ানমারের সামরিক জান্তার তোলা আপত্তির ওপর গণশুনানি শুরু হচ্ছে ২১ ফেব্রুয়ারি। মোট চার দিন হবে শুনানি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বুধবার আইসিজে জানিয়েছে, নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগের পিস প্যালেসে ২১, ২৩, ২৫ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি এই শুনানির তারিখ রাখা হয়েছে।

আইসিজে’তে ২০১৯ সালে রোহিঙ্গাদের গ্রামে নির্বিচারে গণহত্যার অভিযোগ আনে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। এ মামলায় আদালতের এখতিয়ার চ্যালেঞ্জ করে মায়ানমারের জান্তা। মূলত সেই আপত্তির ওপর গণশুনানি হবে।

হেগের পিস প্যালেসে ২০১৯ সালের ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর এ মামলার ওপর প্রাথমিক শুনানি হয়। তাতে গাম্বিয়ার পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির বিচার বিষয়ক মন্ত্রী আবুবকর তামবাদু। অন্যদিকে মায়ানমারের পক্ষে শুনানি করেন বর্তমানে সেনা অভ্যুত্থানে বন্দী নোবেলজয়ী নেত্রী অং সান সু চি।

এরপর ২০২০ সালের ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে গাম্বিয়াকে তাদের অভিযোগের বিষয়ে আইনি যুক্তি উপস্থাপন করতে বলে আইসিজে। মিয়ানমারকে তাদের নির্দোষিতার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ২০২১ সালের ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়।

২০১৭ সালে নতুন করে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের গ্রামে মায়ানমারের সেনাবাহিনীর অভিযান চালায়। এর মধ্য দিয়ে দেশটি ১৯৮৪ সালের আন্তর্জাতিক গণহত্যা কনভেনশন ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে এ মামলায়।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে শুনানির ভিত্তিতে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে জরুরি ভিত্তিতে চার দফা অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছিল আইসিজে।

সেখানে বলা হয়েছিল, মায়ানমারের সামরিক বাহিনী বা কোনো পক্ষ এমন কিছু করতে পারবে না, যা গণহত্যা হিসেবে পরিগণিত হতে পারে। গণহত্যার অভিযোগের সমস্ত আলামত তাদের সংরক্ষণ করতে হবে।

কিন্তু এর পরের দুই বছরে অঞ্চলটির পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। রাখাইন থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে থাকা সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে মিয়ানমার ফিরিয়ে নেয়নি। বরং বিভিন্ন এলাকায় জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপর নিপীড়ন চলমান থাকে।

জানা গেছে, মহামারির কারণে ফেব্রুয়ারিতে মিশ্র পদ্ধতির গণশুনানিতে আদালতের কিছু সদস্য গ্রেট হল অব জাস্টিসে উপস্থিত থাকবেন এবং বাকিরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিচারিক কার্যক্রমে অংশ নেবেন।

মামলার দুই পক্ষের প্রতিনিধিরা সরাসরি অথবা ভিডিও লিংক ব্যবহার করে শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন এবং এ বিষয়ে নির্দেশনা আদালতের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। এ ছাড়া আদালতের ওয়েবসাইট ও ইউএন ওয়েব টিভির মাধ্যমে সরাসরি এই শুনানি দেখা যাবে।

ছবি

যুদ্ধাপরাধ: ইউক্রেনে রুশ সৈন্যের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ছবি

ফিলিপাইনে যাত্রীবাহী ফেরিতে অগ্নিকাণ্ডে ৭ জনের মৃত্যু

ছবি

মাঙ্কিপক্স: বেলজিয়ামে ২১ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন

ছবি

ইউক্রেইন কোনো ছাড় বা যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মানবে না

ছবি

বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৬৩ লাখ ছাড়াল

ছবি

কানাডায় ঝড়ে ৮ জনের মৃত্যু, লাখো মানুষ বিদ্যুৎহীন

ছবি

ডব্লিউএইচওর সতর্কতা : দ্রুত বিশ্বজুড়ে ছড়াচ্ছে মাঙ্কিপক্স

ছবি

মুখ ঢাকলেন আফগান টিভির নারী উপস্থাপকরা

ছবি

করোনা: ভারতসহ ১৬ দেশে সৌদির ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

ছবি

সব নারী ক্রু নিয়ে সৌদি আরবে উড়ল প্রথম ফ্লাইট

ছবি

মালদ্বীপে বৈধ হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা

ছবি

ভারতে তরুণীকে গণধর্ষণের মামলায় ১১ বাংলাদেশির কারাদণ্ড

ছবি

ফিনল্যান্ডে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করল রাশিয়া

ছবি

রাশিয়ার ‘সস্তার তেল’ চুপিসারে বেশি করে কিনছে চীন

ছবি

মাঙ্কিপক্স নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বসছে জরুরি বৈঠকে

ছবি

মারিউপোলে পূর্ণ বিজয় ঘোষণা রাশিয়ার

ছবি

তরুণীকে যৌন হেনস্থার অভিযোগ অস্বীকার করলেন মাস্ক

ছবি

লবণ পানি, আদা দিয়ে করোনা মোকাবেলা করছে উত্তর কোরিয়া

ছবি

জর্ডানে প্রিন্স হামজার গতিবিধি সীমিত করছেন বাদশা

ছবি

দেশের ক্ষতি করে খাদ্যপণ্য রপ্তানি করবে না রাশিয়া

ছবি

রাশিয়ার হামলায় ‘নরকে’ পরিণত হয়েছে ডনবাস: জেলেনস্কি

ছবি

শ্রীলঙ্কায় আরও ৯ মন্ত্রী নিয়োগ

ছবি

দীর্ঘদিন ধরে তীব্র ব্যথা, কিডনি থেকে বের হলো ২০৬টি পাথর

ছবি

২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু কানাডায়, শনাক্ত উত্তর কোরিয়ায়

ছবি

যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও ইউরোপে ছড়িয়ে পড়ছে ‘মাঙ্কিপক্স’

ছবি

পাম তেল রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করছে ইন্দোনেশিয়া

ছবি

এক জাহাজ পেট্রল কেনার টাকাও নেই শ্রীলঙ্কার

ছবি

‘বিশ্বজুড়ে আসছে দুর্ভিক্ষ, চলতে পারে বছরের পর বছর’

ছবি

তদন্ত ও বিচারের আগে পিকে হালদারকে বাংলাদেশে পাঠানো সম্ভব হবেনা, সিবিআই আইনজীবী

ছবি

ভারতের আসামে বন্যা : ঘরবাড়ি ছেড়েছে ৫ লাখ মানুষ, ৭ মত্যু

ছবি

শান্তি আলোচনা স্থবির, পরস্পরকে দুষছে রাশিয়া-ইউক্রেন

ছবি

করোনা মোকাবিলায় কর্মকর্তাদের অপরিপক্কতার তীব্র সমালোচনা কিমের

ছবি

দৈনিক সংক্রমণের শীর্ষে উ. কোরিয়া, বিশ্বে মৃত্যু আরও দেড় হাজার

ছবি

রুশভীতিতে সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছে ফিনল্যান্ডের মানুষ

ছবি

পি কে হালদার ও ৩ জনের আরও ১০দিনের রিমান্ড

ছবি

পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ বিলুপ্ত করল তালেবান

tab

আন্তর্জাতিক

রোহিঙ্গা গণহত্যা বিষয়ে আইসিজেতে শুনানি ফেব্রুয়ারিতে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসে (আইসিজে) গাম্বিয়ার করা রোহিঙ্গা গণহত্যার মামলায় মায়ানমারের সামরিক জান্তার তোলা আপত্তির ওপর গণশুনানি শুরু হচ্ছে ২১ ফেব্রুয়ারি। মোট চার দিন হবে শুনানি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বুধবার আইসিজে জানিয়েছে, নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগের পিস প্যালেসে ২১, ২৩, ২৫ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি এই শুনানির তারিখ রাখা হয়েছে।

আইসিজে’তে ২০১৯ সালে রোহিঙ্গাদের গ্রামে নির্বিচারে গণহত্যার অভিযোগ আনে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। এ মামলায় আদালতের এখতিয়ার চ্যালেঞ্জ করে মায়ানমারের জান্তা। মূলত সেই আপত্তির ওপর গণশুনানি হবে।

হেগের পিস প্যালেসে ২০১৯ সালের ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর এ মামলার ওপর প্রাথমিক শুনানি হয়। তাতে গাম্বিয়ার পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির বিচার বিষয়ক মন্ত্রী আবুবকর তামবাদু। অন্যদিকে মায়ানমারের পক্ষে শুনানি করেন বর্তমানে সেনা অভ্যুত্থানে বন্দী নোবেলজয়ী নেত্রী অং সান সু চি।

এরপর ২০২০ সালের ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে গাম্বিয়াকে তাদের অভিযোগের বিষয়ে আইনি যুক্তি উপস্থাপন করতে বলে আইসিজে। মিয়ানমারকে তাদের নির্দোষিতার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ২০২১ সালের ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়।

২০১৭ সালে নতুন করে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের গ্রামে মায়ানমারের সেনাবাহিনীর অভিযান চালায়। এর মধ্য দিয়ে দেশটি ১৯৮৪ সালের আন্তর্জাতিক গণহত্যা কনভেনশন ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে এ মামলায়।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে শুনানির ভিত্তিতে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে জরুরি ভিত্তিতে চার দফা অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছিল আইসিজে।

সেখানে বলা হয়েছিল, মায়ানমারের সামরিক বাহিনী বা কোনো পক্ষ এমন কিছু করতে পারবে না, যা গণহত্যা হিসেবে পরিগণিত হতে পারে। গণহত্যার অভিযোগের সমস্ত আলামত তাদের সংরক্ষণ করতে হবে।

কিন্তু এর পরের দুই বছরে অঞ্চলটির পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। রাখাইন থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে থাকা সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে মিয়ানমার ফিরিয়ে নেয়নি। বরং বিভিন্ন এলাকায় জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপর নিপীড়ন চলমান থাকে।

জানা গেছে, মহামারির কারণে ফেব্রুয়ারিতে মিশ্র পদ্ধতির গণশুনানিতে আদালতের কিছু সদস্য গ্রেট হল অব জাস্টিসে উপস্থিত থাকবেন এবং বাকিরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিচারিক কার্যক্রমে অংশ নেবেন।

মামলার দুই পক্ষের প্রতিনিধিরা সরাসরি অথবা ভিডিও লিংক ব্যবহার করে শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন এবং এ বিষয়ে নির্দেশনা আদালতের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। এ ছাড়া আদালতের ওয়েবসাইট ও ইউএন ওয়েব টিভির মাধ্যমে সরাসরি এই শুনানি দেখা যাবে।

back to top