alt

আন্তর্জাতিক

পিকে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে ফের ১৪ দিনের জেল হাজত, ৫ জুলাই হাজিরের নির্দেশ

দীপক মুখার্জী, কলকাতা : মঙ্গলবার, ২১ জুন ২০২২

পিকে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে ফের ১৪দিনের জেল হেফাজাতের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা নগর দায়রা বিশেষ সিবিআই আদালত। এর আগে ১৪ দিনের জেল হেফাজত শেষে আজ মঙ্গলবার সকালে পি কে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে কলকাতা নগর দায়রা আদলতে তোলা হয়।

তাদের আদালতে তোলার পর পশ্চিমবঙ্গে হাওলাকান্ডে জড়িত অভিযুক্তদের ফের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের আবেদন জানায় ভারতের তদন্তকারী সংস্থা ‘এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট’ (ইডি)। দুপক্ষের সওয়াল জবাবের পর বিশেষ আদলতের বিচারক জীবন কুমার সাধু আবার জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। একই সাথে আদালত আগামী ৫ জুলাই অভিযুক্ত সবাইকে ফের আদলতে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছে।

ইডি’র আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী জানান, পশ্চিমবঙ্গে গ্রেফতার হওয়া বাংলাদেশের এনআরবি গ্লোবাল ব্যাঙ্কের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারসহ এই মামলায় অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও কিছু নতুন তথ্য জানার জন্য ইডির তদন্তকারী কর্মকর্তারা আরও ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানালে আদালত রিমান্ড না দিয়ে তাদের ১৪ দিনের জেল হাজতের নির্দেশ দেয়।

গত ১৪ মে অশোকনগর, কলকাতাসহ একাধিক জায়গায় অভিযান চালিয়ে পি কে হালদারসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করেন ইডির কর্মকর্তারা। এরপর কয়েক দফায় রিমান্ড ও জেল হেফাজতে নিয়ে অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে আসে ইডির হাতে। বাংলাদেশ থেকে পি কে হালদারের মাধ্যমে দেশের বাইরে অর্থ পাচার কিংবা ভারতে এসে আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, ভারতীয় পাসপোর্ট, রেশন কার্ড তৈরি করার পেছনে একটি প্রভাবশালী মহলের মদদ দেওয়ার বিষয়টিও জানতে পেরেছে ইডি।

ইতোমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের একাধিক জায়গায় আবাসন খাতে বিপুল পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগের সন্ধান পাওয়া গেছে পি কে হালদারের। পাশাপাশি একাধিক ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টেরও হদিস পাওয়া গেছে।

ইডির তদন্তকারী কর্মকর্তারা জেনেছেন, পি কে হালদার ওরফে প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে শিবশঙ্কর হালদার আদতে একই ব্যক্তি। ভারতে তিনি শিবশঙ্কর হালদার নামেই পরিচিত এবং এই নামে রয়েছে তার জমি, ফ্ল্যাট, ব্যঙ্ক অ্যাকাউন্টসহ বিভিন্ন সম্পত্তি।

এদিকে সিনিয়র আইনজীবীদের দিয়ে আদালতে তার হয়ে মামলা লড়ার জন্য জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন পি কে হালদার। যদিও এখন পর্যন্ত কোনো আইনজীবীকেই তার হয়ে মামলা লড়ার জন্য খুঁজে পাননি বলে জানা গেছে।

ইডির হাতে গ্রেফতার হওয়া এই ছয় অভিযুক্তের মধ্যে পাঁচ পুরুষ অভিযুক্ত বন্দী থাকবে কলকাতার প্রেসিডেন্সি জেলে। আর নারী অভিযুক্ত আলিপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের নারী সেলে থাকবেন।

ছবি

দক্ষিণ আফ্রিকার নাইটক্লাবে মিললো ১৭ তরুণের মরদেহ

ছবি

কঙ্গোতে সরকারি বাহিনী ও বিদ্রোহীদের সংঘর্ষ : ৮০০ শিশু পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন

ছবি

শ্রীলঙ্কায় জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি : এক লিটার ডিজেল ৪৬০, পেট্রোল ৫৫০ রুপি

ছবি

গর্ভপাত: যুক্তরাষ্ট্রের আদালতের আদেশে বিশ্বজুড়ে ক্ষোভ, উদ্বেগ

ছবি

স্পেনের মেলিলা ছিটমহলে অনুপ্রবেশকালে ২৩ জন অভিবাসীর মৃত্যু

ছবি

বেলারুশকে ‘ইস্কান্দার-এম’ পারমাণবিক সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র দেবে রাশিয়া

ছবি

আবারও পরমাণু আলোচনা শুরু করতে সম্মত ইরান–ইইউ

ছবি

ঘরভর্তি ঘুষের টাকা, গুনতে নাজেহাল কর্মকর্তারা

ছবি

অবশেষে বন্দুক নিয়ন্ত্রণ বিলে বাইডেনের স্বাক্ষর

ছবি

মদ্যপ অবস্থয় স্ত্রীর বদলে শ্যালিকার গলায় মালা!

ছবি

শেখ হাসিনা বাপের বেটি পদ্মা ব্রীজ করে দেখিয়ে দিয়েছেন, পবিত্র সরকার

ছবি

ইউক্রেনের সামরিক ঘাঁটিতে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

ছবি

বিনা বিচারে ১৫ বছর গুয়ানতানামো কারাগারে, অবশেষে মুক্ত আফগান বন্দী

ছবি

চীনকে ঠেকাতে প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে নতুন জোট যুক্তরাষ্ট্রের

ছবি

ডিউটিরত পুলিশের ফোন নিয়ে পালালো চোর!

ছবি

পদ্মা সেতু উদ্বোধন: শেখ হাসিনার প্রশংসায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

ছবি

বাংলাদেশের উন্নয়ন যাত্রায় পদ্মা সেতু দৃষ্টান্ত : পা‌কিস্তান

ছবি

রাশিয়ায় কার্গো বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ৩

ছবি

আফগানিস্তানে ভূমিকম্প: বেঁচে যাওয়াদের মধ্যে কলেরা ছড়ানোর শঙ্কা

ছবি

মার্কিন সিনেটে বন্দুক নিয়ন্ত্রণ বিল পাস

ছবি

পাকিস্তানে কাগজ সংকট চরমে, শিক্ষার্থীদের নতুন বই পাওয়া নিয়ে শঙ্কা

ছবি

আসামে বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১০৭

ছবি

এই প্রথম কারাগারে সু চি

ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

ছবি

একদিনে ৬৫০ ইউক্রেনীয় সেনা নিহত, দাবি রাশিয়ার

ছবি

নির্জন কারাগারে রাখা হয়েছে সু চিকে

ছবি

টিকল না চতুর্থ বিয়েও, বিচ্ছেদ মিডিয়া ব্যারন রুপার্ট মার্ডক

ছবি

মারাত্মক বন্যার কবলে চীন

ছবি

ব্রিকস সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আজ, বিশ্বব্যাপী দাপটের জন্য চাপ দেবে সদস্যরা

ছবি

আরব আমিরাতে ঈদুল আজহা হতে পারে ৯ জুলাই

ছবি

খারকিভে রাশিয়ার গোলাবর্ষণে নিহত ২৫

ছবি

ইউরোপে গ্রীষ্ম শুরু করোনার নতুন ঢেউয়ে

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ৬

ছবি

পাকিস্তানকে বাঁচাতে অর্থসাহায্য চীনের

ছবি

আফগানিস্তানে ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ১০০ কোটি আফস বরাদ্দ

ছবি

চীন-ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য পুনর্বিন্যাস করছে রাশিয়া

tab

আন্তর্জাতিক

পিকে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে ফের ১৪ দিনের জেল হাজত, ৫ জুলাই হাজিরের নির্দেশ

দীপক মুখার্জী, কলকাতা

মঙ্গলবার, ২১ জুন ২০২২

পিকে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে ফের ১৪দিনের জেল হেফাজাতের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা নগর দায়রা বিশেষ সিবিআই আদালত। এর আগে ১৪ দিনের জেল হেফাজত শেষে আজ মঙ্গলবার সকালে পি কে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে কলকাতা নগর দায়রা আদলতে তোলা হয়।

তাদের আদালতে তোলার পর পশ্চিমবঙ্গে হাওলাকান্ডে জড়িত অভিযুক্তদের ফের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের আবেদন জানায় ভারতের তদন্তকারী সংস্থা ‘এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট’ (ইডি)। দুপক্ষের সওয়াল জবাবের পর বিশেষ আদলতের বিচারক জীবন কুমার সাধু আবার জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। একই সাথে আদালত আগামী ৫ জুলাই অভিযুক্ত সবাইকে ফের আদলতে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছে।

ইডি’র আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী জানান, পশ্চিমবঙ্গে গ্রেফতার হওয়া বাংলাদেশের এনআরবি গ্লোবাল ব্যাঙ্কের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারসহ এই মামলায় অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও কিছু নতুন তথ্য জানার জন্য ইডির তদন্তকারী কর্মকর্তারা আরও ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানালে আদালত রিমান্ড না দিয়ে তাদের ১৪ দিনের জেল হাজতের নির্দেশ দেয়।

গত ১৪ মে অশোকনগর, কলকাতাসহ একাধিক জায়গায় অভিযান চালিয়ে পি কে হালদারসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করেন ইডির কর্মকর্তারা। এরপর কয়েক দফায় রিমান্ড ও জেল হেফাজতে নিয়ে অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে আসে ইডির হাতে। বাংলাদেশ থেকে পি কে হালদারের মাধ্যমে দেশের বাইরে অর্থ পাচার কিংবা ভারতে এসে আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, ভারতীয় পাসপোর্ট, রেশন কার্ড তৈরি করার পেছনে একটি প্রভাবশালী মহলের মদদ দেওয়ার বিষয়টিও জানতে পেরেছে ইডি।

ইতোমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের একাধিক জায়গায় আবাসন খাতে বিপুল পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগের সন্ধান পাওয়া গেছে পি কে হালদারের। পাশাপাশি একাধিক ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টেরও হদিস পাওয়া গেছে।

ইডির তদন্তকারী কর্মকর্তারা জেনেছেন, পি কে হালদার ওরফে প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে শিবশঙ্কর হালদার আদতে একই ব্যক্তি। ভারতে তিনি শিবশঙ্কর হালদার নামেই পরিচিত এবং এই নামে রয়েছে তার জমি, ফ্ল্যাট, ব্যঙ্ক অ্যাকাউন্টসহ বিভিন্ন সম্পত্তি।

এদিকে সিনিয়র আইনজীবীদের দিয়ে আদালতে তার হয়ে মামলা লড়ার জন্য জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন পি কে হালদার। যদিও এখন পর্যন্ত কোনো আইনজীবীকেই তার হয়ে মামলা লড়ার জন্য খুঁজে পাননি বলে জানা গেছে।

ইডির হাতে গ্রেফতার হওয়া এই ছয় অভিযুক্তের মধ্যে পাঁচ পুরুষ অভিযুক্ত বন্দী থাকবে কলকাতার প্রেসিডেন্সি জেলে। আর নারী অভিযুক্ত আলিপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের নারী সেলে থাকবেন।

back to top