alt

জাতীয়

বাংলাদেশে বোরো: হাওরে উৎপাদন কেমন বড়?

: বৃহস্পতিবার, ০৭ এপ্রিল ২০২২

ডেটাফুল
পাহাড়ি ঢলে ঝুঁকির মুখে বাংলাদেশের হাওর-প্রধান তিন জেলা সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জের বোরো ধান। জেলাগুলো দেশে বোরো উৎপাদনে শীর্ষ ১০ জেলার প্রথম চারটির দুইটি।

সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যাচ্ছে, বড় ক্ষতির আশঙ্কার কথা জানাচ্ছেন কৃষি অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

তলিয়ে গেলে ক্ষতি কেমন
কৃষি বিভাগের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর সুনামগঞ্জের ছোট-বড় ১৫৪টি হাওরে এবার ২ লাখ ২২ হাজার ৮০৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে।

তবে ঢলের পানিতে সুনামগঞ্জের আবাদি জমি তলিয়ে গেলে কত পরিমাণ বোরো ধান ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য এখনো নেই।

সর্বশেষ প্রকাশিত ডেটার হিসেবে, হাওর-প্রধান তিন জেলার ধান পাহাড়ি ঢলে নষ্ট হলে মোট ৫ লাখ ৬৩ হাজার ৯১৬ হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হবার সম্ভাবনা থাকে। যা দেশের মোট বোরো ধান চাষাবাদি জমির প্রায় ১১.৮ শতাংশ।

https://sangbad.net.bd/images/2022/April/07Apr22/news/Image-01.jpg

তিন জেলায় ১২%
আসুন ডেটার ভিত্তিতে দেখে নেয়া যাক, হাওর-প্রধান তিন জেলার বোরো চাষ ও উৎপাদনের অবস্থা। দেশে উৎপাদিত মোট বোরো ধানের প্রায় ১২% হয় হাওর-প্রধান তিন জেলায়।

কৃষি পরিসংখ্যান বর্ষগ্রন্থের সর্বশেষ প্রকাশিত ডেটায় দেখা যায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে সুনামগঞ্জে বোরো ধান উৎপাদন হয় প্রায় ৮ লাখ মেট্রিক টন। যা দেশের মোট বোরো ধান উৎপাদনের ৪ শতাংশ।

এছাড়াও নেত্রকোনায় বোরো ধানের উৎপাদন হয় ৮.১ লাখ মেট্রিক টন। হাওরের জেলা কিশোরগঞ্জে উৎপাদিত হয় প্রায় ৭ লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান।

সেই বছর হাওরের এই তিন জেলা মিলিয়ে মোট বোরো ধান উৎপাদিত হয় প্রায় ২৩ লাখ মেট্রিক টন। যা দেশের মোট বোরো উৎপাদনের ১১.৭ শতাংশ।

চাষ ও উৎপাদনে শীর্ষে ময়মনসিংহ
কৃষি পরিসংখ্যান বর্ষগ্রন্থের ডেটা অনুযায়ী, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বোরো চাষের জমি ও উৎপাদনে শীর্ষে ছিল ময়মনসিংহ জেলা। ময়মনসিংহে ২ লাখ ৬০ হাজার হেক্টর (৫.৪%) জমিতে বোরো ধান উৎপাদিত হয় ১০ লাখ মেট্রিক টন। যা মোট উৎপাদনের ৫ শতাংশ।

https://sangbad.net.bd/images/2022/April/07Apr22/news/Image-02.jpg

বাংলাদেশে সেবার বোরো ধান চাষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জেলা ছিল সুনামগঞ্জ (২১৫৯১১ হেক্টর)। যা দেশের মোট বোরো আবাদি জমির ৪.৫ শতাংশ।

২০২০ সালে নেত্রকোনায় বোরো ফসলের আবাদ হয় ১ লাখ ৮২ হাজার ৮৯১ হেক্টর জমিতে (৩.৮%)। সেবছর কিশোরগঞ্জ জেলায় বোরো ফসল হয় ১ লাখ ৬৫ হাজার ১১৪ হেক্টরে, যা দেশের মোট বোরো জমির ৩.৫ শতাংশ।

২০১৯-২০ অর্থবছরে সারাদেশে বোরো ধানের চাষ হয় ৪৭ লাখ ৬২ হাজার ১৩০ হেক্টর জমিতে। এই আবাদি জমির বিপরীতে বোরো উৎপাদন হয় ১ কোটি ৯৬ লাখ ৪৫ হাজার ৩৩৪ মেট্রিক টন।

ছবি

শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধায় সিক্ত গাফ্‌ফার চৌধুরী

ছবি

বাংলাদেশ-ভারত জেসিসি পিছিয়েছে

ছবি

বাংলাদেশি দুই শান্তিরক্ষী পেলেন দ্যাগ হ্যামারশোল্ড পদক

ছবি

ঢাকায় পৌঁছেছে আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ

ছবি

হজের নিবন্ধন শেষ হচ্ছে আজ, খোলা থাকবে ব্যাংক

ছবি

আজ দুপুরে শহীদ মিনারে গাফফার চৌধুরীকে শেষ শ্রদ্ধা

আউয়াল কমিশনের প্রথম নির্বাচন : মাঠ পর্যায়ে যাচ্ছেন কমিশনাররা

ছবি

পদ্মা সেতু চালু হলেও বন্ধ হবে না ফেরি সার্ভিস

ছবি

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে এশীয় নেতাদের সহযোগিতা চান প্রধানমন্ত্রী

ছবি

গাফ্‌ফার চৌধুরীর মরদেহ আসছে শনিবার, দুপুরে রাখা হবে শহীদ মিনারে

ছবি

করোনা: টানা ৪ দিন মৃত্যু নেই, শনাক্ত ২৩

ছবি

৪৪তম বিসিএস প্রিলি: আসনপ্রতি লড়ছেন ২০৫ জন

ছবি

ভারত-বাংলাদেশের নতুন দরজা ‘স্বাধীনতা সড়ক’ শীঘ্রই খোলছে

সারাদেশে ৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা চলছে

ছবি

নতুন দল নিবন্ধনের জন্য আবেদন আহ্বান ইসির

ছবি

করোনা: শনাক্ত ২৮ রোগীর ১৭ জন ঢাকার

শিক্ষাক্ষেত্রে লক্ষ্য অর্জনে সমন্বিত উদ্যোগ জরুরি : শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

‘টাকা পাচারকারীরা সাধারণ ক্ষমার আওতায় আসছে’

ছবি

হজের খরচ বাড়লো আরও ৫৯ হাজার টাকা

ছবি

৭২ ঘণ্টার মধ্যে অনিবন্ধিত ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধের নির্দেশ

ছবি

‘বাংলাদেশের সভাপতিত্বে ‘সিভিএফ’ ন্যায্য কণ্ঠস্বর হিসেবে আবির্ভূত হয়’

ছবি

বাংলাদেশ থেকে দক্ষ কর্মী নিতে আগ্রহী সার্বিয়া

ছবি

‘ইভিএমে কারচুপির সুযোগ নেই, তবে শতভাগ বিশ্বাস করা যাবে না’

ছবি

গাফফার চৌধুরীর মরদেহ দেশে আসছে শনিবার

ছবি

বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

ছবি

সরকারি টাকায় শিক্ষাসফর, দেশে ফিরেই গেলেন অবসরে

ছবি

উন্নয়ন প্রকল্পে পরিবেশ রক্ষার ওপর গুরুত্ব দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

৫ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন হাদিসুরের পরিবার

ছবি

করোনা: শনাক্ত কমে ৩০, ঢাকায় ১৯

ছবি

ইভিএম ভার্চুয়ালি ম্যানুপুলেট করা অসম্ভব: জাফর ইকবাল

ছবি

জাতীয় কবির সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন

ছবি

ইভিএম বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠকে ইসি

ছবি

জাতীয় কবির জন্মদিন আজ

জাতিসংঘ বাংলাদেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম অ্যাসেসমেন্ট রিপোর্ট প্রকাশ করেছে

ছবি

ইভিএম নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়নি ইসি

ছবি

পদ্মা সেতু : আলো জ্বলবে জুনের প্রথম সপ্তাহে

tab

জাতীয়

বাংলাদেশে বোরো: হাওরে উৎপাদন কেমন বড়?

বৃহস্পতিবার, ০৭ এপ্রিল ২০২২

ডেটাফুল
পাহাড়ি ঢলে ঝুঁকির মুখে বাংলাদেশের হাওর-প্রধান তিন জেলা সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জের বোরো ধান। জেলাগুলো দেশে বোরো উৎপাদনে শীর্ষ ১০ জেলার প্রথম চারটির দুইটি।

সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যাচ্ছে, বড় ক্ষতির আশঙ্কার কথা জানাচ্ছেন কৃষি অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

তলিয়ে গেলে ক্ষতি কেমন
কৃষি বিভাগের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর সুনামগঞ্জের ছোট-বড় ১৫৪টি হাওরে এবার ২ লাখ ২২ হাজার ৮০৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে।

তবে ঢলের পানিতে সুনামগঞ্জের আবাদি জমি তলিয়ে গেলে কত পরিমাণ বোরো ধান ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য এখনো নেই।

সর্বশেষ প্রকাশিত ডেটার হিসেবে, হাওর-প্রধান তিন জেলার ধান পাহাড়ি ঢলে নষ্ট হলে মোট ৫ লাখ ৬৩ হাজার ৯১৬ হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হবার সম্ভাবনা থাকে। যা দেশের মোট বোরো ধান চাষাবাদি জমির প্রায় ১১.৮ শতাংশ।

https://sangbad.net.bd/images/2022/April/07Apr22/news/Image-01.jpg

তিন জেলায় ১২%
আসুন ডেটার ভিত্তিতে দেখে নেয়া যাক, হাওর-প্রধান তিন জেলার বোরো চাষ ও উৎপাদনের অবস্থা। দেশে উৎপাদিত মোট বোরো ধানের প্রায় ১২% হয় হাওর-প্রধান তিন জেলায়।

কৃষি পরিসংখ্যান বর্ষগ্রন্থের সর্বশেষ প্রকাশিত ডেটায় দেখা যায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে সুনামগঞ্জে বোরো ধান উৎপাদন হয় প্রায় ৮ লাখ মেট্রিক টন। যা দেশের মোট বোরো ধান উৎপাদনের ৪ শতাংশ।

এছাড়াও নেত্রকোনায় বোরো ধানের উৎপাদন হয় ৮.১ লাখ মেট্রিক টন। হাওরের জেলা কিশোরগঞ্জে উৎপাদিত হয় প্রায় ৭ লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান।

সেই বছর হাওরের এই তিন জেলা মিলিয়ে মোট বোরো ধান উৎপাদিত হয় প্রায় ২৩ লাখ মেট্রিক টন। যা দেশের মোট বোরো উৎপাদনের ১১.৭ শতাংশ।

চাষ ও উৎপাদনে শীর্ষে ময়মনসিংহ
কৃষি পরিসংখ্যান বর্ষগ্রন্থের ডেটা অনুযায়ী, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বোরো চাষের জমি ও উৎপাদনে শীর্ষে ছিল ময়মনসিংহ জেলা। ময়মনসিংহে ২ লাখ ৬০ হাজার হেক্টর (৫.৪%) জমিতে বোরো ধান উৎপাদিত হয় ১০ লাখ মেট্রিক টন। যা মোট উৎপাদনের ৫ শতাংশ।

https://sangbad.net.bd/images/2022/April/07Apr22/news/Image-02.jpg

বাংলাদেশে সেবার বোরো ধান চাষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জেলা ছিল সুনামগঞ্জ (২১৫৯১১ হেক্টর)। যা দেশের মোট বোরো আবাদি জমির ৪.৫ শতাংশ।

২০২০ সালে নেত্রকোনায় বোরো ফসলের আবাদ হয় ১ লাখ ৮২ হাজার ৮৯১ হেক্টর জমিতে (৩.৮%)। সেবছর কিশোরগঞ্জ জেলায় বোরো ফসল হয় ১ লাখ ৬৫ হাজার ১১৪ হেক্টরে, যা দেশের মোট বোরো জমির ৩.৫ শতাংশ।

২০১৯-২০ অর্থবছরে সারাদেশে বোরো ধানের চাষ হয় ৪৭ লাখ ৬২ হাজার ১৩০ হেক্টর জমিতে। এই আবাদি জমির বিপরীতে বোরো উৎপাদন হয় ১ কোটি ৯৬ লাখ ৪৫ হাজার ৩৩৪ মেট্রিক টন।

back to top