alt

জাতীয়

২০৩০ সাল নাগাদ বিমানযাত্রী ‘দ্বিগুণ’ করার লক্ষ্যে কাজ চলছে: প্রতিমন্ত্রী

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩

বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেছেন, সরকার ২০৩০ সাল নাগাদ বিমানযাত্রী সংখ্যা দ্বিগুণ করার লক্ষ্যে বেসামরিক বিমান পরিবহনের জন্য বেশ কয়েকটি নীতি প্রবর্তন ও নিয়ন্ত্রণমূলক সংস্কার করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা ২০৩০ সাল নাগাদ বিমানযাত্রী পরিবহন দ্বিগুণ করতে চাচ্ছি। এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলটি বৃহত্তম বিমান পরিবহন বাজারে পরিণত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।’

প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর একটি হোটেলে কো-অপারেটিভ ডেভেলপমেন্ট অব অপারেশনাল সেফটি অ্যান্ড কন্টিনিউইং এয়ারওয়ার্র্দিনেস প্রোগ্রাম, সাউথ এশিয়ার (সিওএসসিএপি-এসএ) ৩০তম স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের উদ্বোধনী অধিবেশনে এ কথা বলেন।

তিন দিনের এই সম্মেলনে দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশ ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, মালদ্বীপ, ভুটান, আফগানিস্তান ও আয়োজক বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষ এবং ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশনের (আইসিএও) উচ্চপদস্থ আঞ্চলিক প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সমন্বিত ও টেকসই উন্নয়ন কর্মকা-ের ফলে বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান পরিবহন খাতে বিনিয়োগ এখন ‘ব্যয় সাশ্রয়ী’।”

তিনি বলেন, বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও পশ্চিমা বিশ্বের প্রধান গন্তব্যগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের বিমান রুটের একটি বৃহৎ নেটওয়ার্ক তৈরি করেছে যা বাংলাদেশে ও বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহনের উন্নয়নে সহায়ক হয়েছে।

দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির কারণেই বিমান যোগাযোগ বৃদ্ধির এই সুযোগ এসেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০২১-২২ অর্থবছরে জিডিপির প্রায় ০.০৮ শতাংশ এই বেসামরিক বিমান পরিবহন খাত থেকে এসেছে। এই ধারা অব্যাহত থাকলে ২০৩৮ সাল নাগাদ বিমান পরিবহনে বাংলাদেশ আরও ১২.১ মিলিয়ন যাত্রী বহনে সক্ষম হবে। যার ফলে মোট যাত্রীর সংখ্যা দাঁড়াবে ২২ মিলিয়নের বেশি।

মাহবুব বলেন, কোভিড-১৯ মহামারীর সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের বিমান খাত থমকে গেলেও বর্তমানে বাংলাদেশের স্থিতিশীল অর্থনীতি, ক্রমবর্ধমান জিডিপি ও ব্যবস্থাপনা এ খাতের বিনিয়োগে উৎসাহ যোগাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘সরকারের দূরদর্শী পদক্ষেপ ও আইসিএও’র দিকনির্দেশনায় আমরা এভিয়েশন কমিউনিটির বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের আস্থা অর্জন করেছি। আমরা বিশ্বাস করি অগ্রগতি অর্জনের জন্য বৈশ্বিক সহযোগিতাই মুখ্য।’

তিনি আরও বলেন, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির মধ্য দিয়ে দেশের বিমান যোগাযোগের পরিধি বাড়ছে। সারাদেশে বিমান পরিকাঠামোর সময়োপযোগী সম্প্রসারণ, যাত্রীসেবা বৃদ্ধি, প্রযুক্তিগত ও জন দক্ষতা উন্নয়ন এবং নিরাপদ ও সুষ্ঠু বিমান চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে। আর এসব কার্যক্রমেরই লক্ষ্য হলো দেশকে একটি প্রধান এভিয়েশন হাব এবং আকর্ষণীয় পর্যটন গন্তব্যে রূপান্তর করা।

অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ-এর (সিএএবি) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মাফিদুর রহমান ও আইসিএওর আঞ্চলিক পরিচালক তাও মা স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

ছবি

বেলজিয়ামের রানি বাংলাদেশে আসছেন সোমবার

ছবি

শব্দ দূষণ: এক তৃতীয়াংশ ট্রাফিক পুলিশের শুনতে কষ্ট হয়

ছবি

হিরো আলমের অভিযোগ ভিত্তিহীন: ইসি রাশেদা

ছবি

জি-২০ সম্মেলন: সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

বেসরকারিভাবে হজের খরচ দেড় লাখ টাকা বাড়ল

ছবি

দেশের প্রথম পাতালরেল নির্মাণকাজের উদ্বোধন

ছবি

পাতাল রেলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন আজ

আগামী অধিবেশনে ওষুধ আইন পাশ হবে - স্বাস্থমন্ত্রী

ছবি

সেনাবাহিনীতে যুক্ত মাঝারি পাল্লার টাইগার মিসাইলের সফল নিক্ষেপ পরীক্ষা

ছবি

জনপ্রতি ৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা নির্ধারণ করে হজ প্যাকেজ ঘোষণা

ছবি

বায়ুদূষণ: ঢাকায় বিশেষ অভিযান শুরু

কাতার বিশ্বকাপ: মৃত বাংলাদেশি শ্রমিকদের তালিকা প্রস্তুতের আদেশ স্থগিত

ছবি

উপ-নির্বাচনে ভোট পড়ার হার ১৫-৩০% হতে পারে: সিইসি

ছবি

সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটের ‘বাংলা সংস্করণ’ উদ্বোধন

ছবি

কয়েকদিনের মধ্যে শুরু হচ্ছে শৈত্যপ্রবাহ

ছবি

২৪ ঘন্টায় ১২ জন কোভিডে আক্রান্ত

ছবি

রূপপুর নিয়ে প্রশ্ন করায় ক্ষেপে গেলেন মন্ত্রী

ছবি

অমর একুশে বইমেলা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন জাপানের রাষ্ট্রদূত

ছবি

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের খরচ ৬ লাখ ৮৩ হাজার

ছবি

মননশীল লেখকদের বিকাশে বইমেলার বিকল্প নেই: রাষ্ট্রপতি

ছবি

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে ঢাকা জগদীশ

ছবি

ভাষার মাস শুরু আজ থেকে

ছবি

ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মানে বাংলায় রায় দিলো হাইকোর্ট

ছবি

অমর একুশে বইমেলা শুরু আজ থেকে

ছবি

আপিল বিভাগে প্রবেশে ডিজিটাল পাস আজ থেকে

ছবি

আবার বাড়লো বিদ্যুতের দাম

শিশু হাসপাতালের বনভোজন, ওষুধ কোম্পানির কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ

ছবি

দেশে অবৈধ ইটভাটা ৪ হাজার ৬৩৩: সংসদে পরিবেশ মন্ত্রী

ছবি

দুর্নীতি কমাতে রাজনৈতিক অঙ্গনে দরকার বৈপ্লবিক পরিবর্তন : টিআইবি

ছবি

সেব্রিনা ফ্লোরাসহ স্বাস্থ্যের চার পরিচালক বদলি

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বতন্ত্র প্রার্থী আসিফ ‘আত্মগোপনে’ আছেন ধারণা ইসির

ছবি

বায়ুদূষণ রোধে কাল থেকে বিশেষ অভিযান

ছবি

দেশে কোভিডে আরও ১৩ জন আক্রান্ত

ছবি

দেশ দলমত নির্বিশেষে সবার জন্যই কাজ করেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

তাপমাত্রা বাড়তে পারে, সাগরে নিম্নচাপ

tab

জাতীয়

২০৩০ সাল নাগাদ বিমানযাত্রী ‘দ্বিগুণ’ করার লক্ষ্যে কাজ চলছে: প্রতিমন্ত্রী

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩

বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেছেন, সরকার ২০৩০ সাল নাগাদ বিমানযাত্রী সংখ্যা দ্বিগুণ করার লক্ষ্যে বেসামরিক বিমান পরিবহনের জন্য বেশ কয়েকটি নীতি প্রবর্তন ও নিয়ন্ত্রণমূলক সংস্কার করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা ২০৩০ সাল নাগাদ বিমানযাত্রী পরিবহন দ্বিগুণ করতে চাচ্ছি। এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলটি বৃহত্তম বিমান পরিবহন বাজারে পরিণত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।’

প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর একটি হোটেলে কো-অপারেটিভ ডেভেলপমেন্ট অব অপারেশনাল সেফটি অ্যান্ড কন্টিনিউইং এয়ারওয়ার্র্দিনেস প্রোগ্রাম, সাউথ এশিয়ার (সিওএসসিএপি-এসএ) ৩০তম স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের উদ্বোধনী অধিবেশনে এ কথা বলেন।

তিন দিনের এই সম্মেলনে দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশ ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, মালদ্বীপ, ভুটান, আফগানিস্তান ও আয়োজক বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষ এবং ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশনের (আইসিএও) উচ্চপদস্থ আঞ্চলিক প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সমন্বিত ও টেকসই উন্নয়ন কর্মকা-ের ফলে বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান পরিবহন খাতে বিনিয়োগ এখন ‘ব্যয় সাশ্রয়ী’।”

তিনি বলেন, বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও পশ্চিমা বিশ্বের প্রধান গন্তব্যগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের বিমান রুটের একটি বৃহৎ নেটওয়ার্ক তৈরি করেছে যা বাংলাদেশে ও বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহনের উন্নয়নে সহায়ক হয়েছে।

দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির কারণেই বিমান যোগাযোগ বৃদ্ধির এই সুযোগ এসেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০২১-২২ অর্থবছরে জিডিপির প্রায় ০.০৮ শতাংশ এই বেসামরিক বিমান পরিবহন খাত থেকে এসেছে। এই ধারা অব্যাহত থাকলে ২০৩৮ সাল নাগাদ বিমান পরিবহনে বাংলাদেশ আরও ১২.১ মিলিয়ন যাত্রী বহনে সক্ষম হবে। যার ফলে মোট যাত্রীর সংখ্যা দাঁড়াবে ২২ মিলিয়নের বেশি।

মাহবুব বলেন, কোভিড-১৯ মহামারীর সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের বিমান খাত থমকে গেলেও বর্তমানে বাংলাদেশের স্থিতিশীল অর্থনীতি, ক্রমবর্ধমান জিডিপি ও ব্যবস্থাপনা এ খাতের বিনিয়োগে উৎসাহ যোগাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘সরকারের দূরদর্শী পদক্ষেপ ও আইসিএও’র দিকনির্দেশনায় আমরা এভিয়েশন কমিউনিটির বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের আস্থা অর্জন করেছি। আমরা বিশ্বাস করি অগ্রগতি অর্জনের জন্য বৈশ্বিক সহযোগিতাই মুখ্য।’

তিনি আরও বলেন, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির মধ্য দিয়ে দেশের বিমান যোগাযোগের পরিধি বাড়ছে। সারাদেশে বিমান পরিকাঠামোর সময়োপযোগী সম্প্রসারণ, যাত্রীসেবা বৃদ্ধি, প্রযুক্তিগত ও জন দক্ষতা উন্নয়ন এবং নিরাপদ ও সুষ্ঠু বিমান চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে। আর এসব কার্যক্রমেরই লক্ষ্য হলো দেশকে একটি প্রধান এভিয়েশন হাব এবং আকর্ষণীয় পর্যটন গন্তব্যে রূপান্তর করা।

অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ-এর (সিএএবি) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মাফিদুর রহমান ও আইসিএওর আঞ্চলিক পরিচালক তাও মা স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

back to top