alt

সম্পাদকীয়

মহান মে দিবস

: শনিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২২

আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস হিসেবে ১ মে পালন করা শুরু হয় ১৮৯০ সাল থেকে। ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ১৮৮৬ সালের ৪ মে শিকাগোর হে মার্কেটে ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতে একটি শ্রমিক সমাবেশে সংঘটিত রক্তাক্ত ঘটনাবলি। পুলিশ সেদিন গুলি চালিয়ে ৫ শ্রমিককে হত্যা এবং শ্রমিক নেতাদের গ্রেপ্তার করে। সেদিন শ্রমিকরা শুধু ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতেই সমাবেশ আহ্বান করেননি, তার আগের দিন অর্থাৎ ৩ মে ধর্মঘটী শ্রমিকদের ওপর গুলি চালিয়ে পুলিশ এক শ্রমিককে হত্যা করেছিল, সেই শ্রমিক হত্যার প্রতিবাদ জানাতেও শ্রমিকরা এসেছিলেন ওই সমাবেশে।

শিকাগো শহরে ১৮৮৬ সালের ৪ মে’র শ্রমিক হত্যা ও শ্রমিকদের মৃত্যুদন্ড শ্রমিক আন্দোলনকে স্তব্ধ করতে পারেনি। ইউরোপে শ্রমিকদের সংগঠন দ্বিতীয় ইন্টারন্যাশনাল ১৮৮৯ সালে এক সম্মেলনে সিদ্ধান্ত নেয় যে, পরবর্তী বছর অর্থাৎ ১৮৯০ সাল থেকে শিকাগোর শ্রমিকদের আন্দোলনের দিনটি স্মরণীয় করে রাখার জন্য প্রতি বছর ১ মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস হিসেবে পালন করা হবে। এভাবেই প্রতি বছর পৃথিবীর দেশে দেশে শ্রমিক শ্রেণী তথা মেহনতি মানুষ মহান মে দিবস পালন করে আসছেন।

কালক্রমে শ্রমিকদের ৮ ঘণ্টা কাজের দাবি পৃথিবীব্যাপী স্বীকৃতি পায়। আইএলও সনদের শ্রমিকদের ৮ ঘণ্টা কাজের দাবি স্বীকৃতি পেয়েছে। এখন সেটা সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনেও ছড়িয়ে পড়েছে।

আমাদের দেশে রাজনীতি দীর্ঘকাল ধরে সামরিক ও অস্বাভাবিক শাসনের দ্বারা রাহুগ্রস্ত হওয়ার ফলে সামাজিক মূল্যবোধগুলো ধীরে ধীরে অবক্ষয়ের শিকার হয়েছে। তারই প্রভাবে আমাদের দেশের ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলনও স্বধর্মচ্যুত হয়ে পড়ছে ক্রমান্বয়ে। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের পরও সুস্থ রাজনীতির পরিবর্তে চলছে ক্ষমতা ও প্রভুত্বকে কেন্দ্র করে দলাদলি এবং তার পরিণতিতে সংঘবদ্ধ পীড়ন ও সুড়ঙ্গ পথে অর্থাগমের পথ ধরেছে এক শ্রেণীর অসৎ ট্রেড ইউনিয়ন নেতৃত্ব। চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, রাজনৈতিক পক্ষ-প্রতিপক্ষের আড়ালে প্রশাসনের ওপর অশুভ প্রভাব বিস্তার করে চলেছে। ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলনের এসব অশুভ শক্তির প্রভাবের কারণে একদিকে ক্ষতি হচ্ছে শ্রমিক স্বার্থ, অন্যদিকে শ্রমিক আন্দোলন সম্পর্কে, ট্রেড ইউনিয়নের কর্মকান্ড সম্পর্কে সাধারণের মধ্যে বিরূপ ধারণার সৃষ্টি হচ্ছে।

আজ স্বদেশে ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন অতীতের গৌরবময় ঐতিহ্য থেকে ক্রমান্বয়ে সরে গিয়ে এমন এক আত্মঘাতী পথে চলতে শুরু করেছে, যা আমাদের দুর্ভাবনাকে তীব্র করে। এই বিকৃত ধারা বর্জন করে সুস্থ ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন গড়ে তোলার অঙ্গীকার এ বছরের মে দিবসে শ্রমিক শ্রেণী তথা মেহনতি মানুষকে নিতে হবে।

নির্মাণের তিন মাসের মধ্যে সেতু ভাঙার কারণ কী

শিক্ষা খাতে প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতি

পরিবেশ দূষণ বন্ধে চাই সমন্বিত পদক্ষেপ

নারীর পোশাক পরার স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ কেন

খাল দখলমুক্ত করুন

সিলেট নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে পরিকল্পিত পদক্ষেপ নিতে হবে

অবরুদ্ধ পরিবারটিকে মুক্ত করুন

নৌপথের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে

সড়ক থেকে তোরণ অপসারণ করুন

ইভটিজিং বন্ধে আইনের কঠোর প্রয়োগ চাই

খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ প্রসঙ্গে

সিলেটে বন্যা : দুর্গতদের পাশে দাঁড়ান

প্রান্তিক নারীদের ডিজিটাল সেবা প্রসঙ্গে

ভরা মৌসুমে কেন চালের দাম বাড়ছে

রংপুরের আবহাওয়া অফিসে রাডার বসানো হোক

রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে এখনই উদ্যোগ নিন

সুস্থ গণতন্ত্রের জন্য মুক্ত গণমাধ্যম

নির্বিচারে পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

ভোজ্যতেলের সংকট কেন কাটছে না

সমবায় সমিতির নামে প্রতারণা বন্ধ করুন

সরকারের সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত

সড়ক ধান মাড়াইয়ের স্থান হতে পারে না, বিকল্প খুঁজুন

পাসপোর্ট অফিসকে দালালমুক্ত করুন

খেলার মাঠেই কেন মেলার আয়োজন করতে হবে

যৌতুক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে

এমএলএম কোম্পানির নামে প্রতারণা

নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে সমন্বিতভাবে

টিলা কাটা বন্ধ করুন

করোনায় মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তি দূর করুন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মৌলিক পয়োনিষ্কাশনের পূর্ণাঙ্গ ব্যবস্থা করুন

বিনা টিকিটে রেল ভ্রমণের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত নিশ্চিত করুন

ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনা

ভোজ্যতেলের বাজার ব্যবস্থাপনায় ছাড় নয়

ফল পাকাতে রাসায়নিকের ব্যবহার প্রসঙ্গে

এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে এখনই ব্যবস্থা নিন

ঈদযাত্রায় স্বস্তি

tab

সম্পাদকীয়

মহান মে দিবস

শনিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২২

আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস হিসেবে ১ মে পালন করা শুরু হয় ১৮৯০ সাল থেকে। ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ১৮৮৬ সালের ৪ মে শিকাগোর হে মার্কেটে ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতে একটি শ্রমিক সমাবেশে সংঘটিত রক্তাক্ত ঘটনাবলি। পুলিশ সেদিন গুলি চালিয়ে ৫ শ্রমিককে হত্যা এবং শ্রমিক নেতাদের গ্রেপ্তার করে। সেদিন শ্রমিকরা শুধু ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতেই সমাবেশ আহ্বান করেননি, তার আগের দিন অর্থাৎ ৩ মে ধর্মঘটী শ্রমিকদের ওপর গুলি চালিয়ে পুলিশ এক শ্রমিককে হত্যা করেছিল, সেই শ্রমিক হত্যার প্রতিবাদ জানাতেও শ্রমিকরা এসেছিলেন ওই সমাবেশে।

শিকাগো শহরে ১৮৮৬ সালের ৪ মে’র শ্রমিক হত্যা ও শ্রমিকদের মৃত্যুদন্ড শ্রমিক আন্দোলনকে স্তব্ধ করতে পারেনি। ইউরোপে শ্রমিকদের সংগঠন দ্বিতীয় ইন্টারন্যাশনাল ১৮৮৯ সালে এক সম্মেলনে সিদ্ধান্ত নেয় যে, পরবর্তী বছর অর্থাৎ ১৮৯০ সাল থেকে শিকাগোর শ্রমিকদের আন্দোলনের দিনটি স্মরণীয় করে রাখার জন্য প্রতি বছর ১ মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস হিসেবে পালন করা হবে। এভাবেই প্রতি বছর পৃথিবীর দেশে দেশে শ্রমিক শ্রেণী তথা মেহনতি মানুষ মহান মে দিবস পালন করে আসছেন।

কালক্রমে শ্রমিকদের ৮ ঘণ্টা কাজের দাবি পৃথিবীব্যাপী স্বীকৃতি পায়। আইএলও সনদের শ্রমিকদের ৮ ঘণ্টা কাজের দাবি স্বীকৃতি পেয়েছে। এখন সেটা সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনেও ছড়িয়ে পড়েছে।

আমাদের দেশে রাজনীতি দীর্ঘকাল ধরে সামরিক ও অস্বাভাবিক শাসনের দ্বারা রাহুগ্রস্ত হওয়ার ফলে সামাজিক মূল্যবোধগুলো ধীরে ধীরে অবক্ষয়ের শিকার হয়েছে। তারই প্রভাবে আমাদের দেশের ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলনও স্বধর্মচ্যুত হয়ে পড়ছে ক্রমান্বয়ে। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের পরও সুস্থ রাজনীতির পরিবর্তে চলছে ক্ষমতা ও প্রভুত্বকে কেন্দ্র করে দলাদলি এবং তার পরিণতিতে সংঘবদ্ধ পীড়ন ও সুড়ঙ্গ পথে অর্থাগমের পথ ধরেছে এক শ্রেণীর অসৎ ট্রেড ইউনিয়ন নেতৃত্ব। চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, রাজনৈতিক পক্ষ-প্রতিপক্ষের আড়ালে প্রশাসনের ওপর অশুভ প্রভাব বিস্তার করে চলেছে। ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলনের এসব অশুভ শক্তির প্রভাবের কারণে একদিকে ক্ষতি হচ্ছে শ্রমিক স্বার্থ, অন্যদিকে শ্রমিক আন্দোলন সম্পর্কে, ট্রেড ইউনিয়নের কর্মকান্ড সম্পর্কে সাধারণের মধ্যে বিরূপ ধারণার সৃষ্টি হচ্ছে।

আজ স্বদেশে ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন অতীতের গৌরবময় ঐতিহ্য থেকে ক্রমান্বয়ে সরে গিয়ে এমন এক আত্মঘাতী পথে চলতে শুরু করেছে, যা আমাদের দুর্ভাবনাকে তীব্র করে। এই বিকৃত ধারা বর্জন করে সুস্থ ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন গড়ে তোলার অঙ্গীকার এ বছরের মে দিবসে শ্রমিক শ্রেণী তথা মেহনতি মানুষকে নিতে হবে।

back to top