alt

বাংলাদেশ

সর্বত্রই শুধু নাই আর নাই

সংবাদ :
  • মানবেন্দ্র বটব্যাল, বরিশাল
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১

বরিশাল বিভাগের ছয় জেলা ও পার্শ্ববর্তী মাদারীপুর ও শরীয়তপুরের প্রায় দেড় কোটি মানুষ গুরুতর অসুস্থ হলে চিকিৎসার জন্য ছুটে আসেন বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। গত বছর সেই হাসপাতালে নির্মাণাধীন একটি পাঁচতলা ভবন করোনা চিকিৎসার ওয়ার্ড হিসেবে কার্যক্রম শুরু হয়। সরকারিভাবে এটিকে ‘ডেডিকেটেড’ করোনা চিকৎসার হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

প্রথমে শয্যা সংখ্যা কম থাকলেও এখন একশ’ পঞ্চাশ জন করোনা রোগীর চিকিৎসাসেবা দেয়ার জন্য শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রথমে এখানে কোন আইসিইউ শয্যা ছিল না। প্রয়োজনে অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে অক্সিজেন দেয়া হতো। এমনকি ছিল না হাই-ফ্লো নেজাল ক্যানোলা সেট। পরবর্তীতে গত বছর স্থানীয় ধনাঢ্য ব্যক্তি ও নবীন চিকিৎসকদের দয়ায় পাওয়া যায় ১০টি হাই-ফ্লো নেজাল ক্যানোলা সেট। এরপর এখন পর্যন্ত আর সংখ্যা বাড়েনি। অবশ্য জানা যায়, স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে কয়েকটি সেট পাঠানো হয়েছে।

কিন্তু এখন পর্যন্ত তা ব্যবহৃত হয়নি। পরবর্তীতে এখানে মাত্র ১২টি আইসিইউ বেড তৈরি করা হয়। সরকার এখন এই হাসপাতালে আইসিইউ বেডের সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে। তবে তা কবে স্থাপিত হবে তা কেউ জানেন না। আবার আইসিইউ শয্যার জন্য বিশেষজ্ঞ কোন চিকিৎসক আগেও ছিল না এখনও নেই।

উল্লিখিত প্রতিটি জেলাতে রয়েছে একটি করে জেনারেল হাসপাতাল। প্রতিটি উপজেলায় রয়েছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। কিন্তু কোনটিতেই করোনা রোগীর চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। তবে সাম্প্রতিককালে সরকার জেনারেল হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক না দিয়েই আইসিইউ বেড স্থাপন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। কবে নাগাদ ওই বেডগুলো কার্যকর হবে তাও কেউ জানেন না। অবশ্য মেডিকেল কলেজের সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই সিস্টেম দিয়ে ৮১টি লাইন থাকলেও ব্যবহার করা হচ্ছে ৫০টি লাইন। অন্যদিকে বড় সংকট হচ্ছে করোনা রোগীদের জন্য শয্যা। দেড়শ’ বেডের বিপরীতে সব সময়েই থাকছে বেশি সংখ্যক রোগী। কিন্তু করোনার চলমান দ্বিতীয় ঢেউয়ে যেভাবে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা বাড়ছে তাতে এখানে ভবিষ্যতে আর রোগী ভর্তি করা হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

অন্যদিকে এমনিতেই করোনা রোগীদের সমন্বিত চিকিৎসা এখন পর্যন্ত নেই। রোগীর বিভিন্ন লক্ষণ (সিমটম) দেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তারপরও রয়েছে অনুমোদিত দেড়শ’ বেডের রোগীদের জন্য প্রতি শিফটে মাত্র তিনজন চিকিৎসক। অর্থাৎ একজন চিকিৎসককে দেখতে হচ্ছে ৫০ জন রোগী। ঠিক একইভাবে নার্স ও পরিচ্ছন্নতা কর্মী নেই।

ছবি

উপাচার্যদের দুর্নীতির তদন্ত, কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না

ছবি

বিজিবি দিয়েও ঠেকানো যাচ্ছে না জনস্রোত

ছবি

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট : সতর্ক বার্তা জনস্বাস্থ্যবিদদের

ছবি

কক্সবাজার শহরে অস্ত্র-গুলিসহ ৩ সন্ত্রাসী আটক

ছবি

ভাড়াটিয়া কর্তৃক অবরুদ্ধ হোটেল কল্লোল’র মালিক!

ছবি

ময়মনসিংহে সিটি কর্পোরেশনের ঈদ উপহার বিতরণ

ছবি

এনার্জিপ্যাকের ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক উদ্বোধন

ছবি

অর্ধেক দামে মোটরসাইকেল দিচ্ছে থলে ডট এক্সওয়াইজেড

ছবি

করোনাকালে অসহায় মানুষের জন্য তাসাউফ ফাউন্ডেশনের “পাশেই আছি” কর্মসূচী পালন

ছবি

অব্যবহৃতই থাকছে আবু নাসের হাসপাতালের পরিচালক, উপ-পরিচালকের বাসভবন

ছবি

বিয়ানীবাজারে ঈদ শপিংয়ে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

ছবি

চেয়ারম্যানের অত্যাচার নির্যাতন থেকে বাচঁতে প্রধানমন্ত্রীর সহানুভূতি কামনা

ছবি

নওগাঁয় বিভিন্ন রোগিদের সরকারী সহায়তা প্রদান

ছবি

নারায়ণগঞ্জে করোনা হাসপাতালে বসেছে অক্সিজেন ট্যাংক

ছবি

মামুনুলের রিমান্ড শুনানি পেছাল

ছবি

সিলেটে মাজারে রক্তের ছােপ

ছবি

জাফলংয়ে সিরাত প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন

ছবি

পত্নীতলায় গোল্ডেন তরমুজ চাষে সফল মিজানুর

ছবি

করোনা: গ্রামের মানুষের রঙ্গরস

ছবি

মির্জাপুরে মাটি ব্যবসায়ীর তিনদিনের জেল

ছবি

মির্জাপুরে ঈমামদের সম্মানি প্রদান

বিশেষ মহলের চাপে বন্ধ বাসদের মানবতার বাজার

কিশোরগঞ্জে মনি সিংহ ফরহাদ ট্রাস্টের ত্রাণ

ছবি

করতোয়ার বালু তুলে তীর ভরাট, হুমকিতে সড়ক : ভাঙন আশঙ্কা

সোনাইমুড়িতে যুবককে পিটিয়ে হত্যা : আটক ২

ছবি

অনাবৃষ্টিতে সেচ সংকট বীজতলা ফেটে চৌচির

বাইক হাতে বেপরোয়া কিশোররা : নিত্য দুর্ঘটনা

ফেসবুক স্ট্যাটাসে ধর্ম অবমাননা, আটক : এক

ছবি

শিল্পে ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার টিউবওয়েলে উঠছে না পানি

পঞ্চগড় সড়কে মৃত্যু ১

ঈশ্বরদীতে হেরোইনসহ যুবক গ্রেফতার

মির্জাগঞ্জে মাস্ক না পড়ায় ৮ জনকে জরিমানা

কলাপাড়ায় যুবকের মরদেহ উদ্ধার

রামেক হাসপাতালে করোনায় মৃত্যু ২

ছবি

আলফাডাঙ্গায় ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গেপ্তার

ছবি

সখীপুরে ডেসকো বোর্ডের পরিচালকের বই মোড়ক উন্মোচন

tab

বাংলাদেশ

সর্বত্রই শুধু নাই আর নাই

সংবাদ :
  • মানবেন্দ্র বটব্যাল, বরিশাল
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১

বরিশাল বিভাগের ছয় জেলা ও পার্শ্ববর্তী মাদারীপুর ও শরীয়তপুরের প্রায় দেড় কোটি মানুষ গুরুতর অসুস্থ হলে চিকিৎসার জন্য ছুটে আসেন বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। গত বছর সেই হাসপাতালে নির্মাণাধীন একটি পাঁচতলা ভবন করোনা চিকিৎসার ওয়ার্ড হিসেবে কার্যক্রম শুরু হয়। সরকারিভাবে এটিকে ‘ডেডিকেটেড’ করোনা চিকৎসার হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

প্রথমে শয্যা সংখ্যা কম থাকলেও এখন একশ’ পঞ্চাশ জন করোনা রোগীর চিকিৎসাসেবা দেয়ার জন্য শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রথমে এখানে কোন আইসিইউ শয্যা ছিল না। প্রয়োজনে অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে অক্সিজেন দেয়া হতো। এমনকি ছিল না হাই-ফ্লো নেজাল ক্যানোলা সেট। পরবর্তীতে গত বছর স্থানীয় ধনাঢ্য ব্যক্তি ও নবীন চিকিৎসকদের দয়ায় পাওয়া যায় ১০টি হাই-ফ্লো নেজাল ক্যানোলা সেট। এরপর এখন পর্যন্ত আর সংখ্যা বাড়েনি। অবশ্য জানা যায়, স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে কয়েকটি সেট পাঠানো হয়েছে।

কিন্তু এখন পর্যন্ত তা ব্যবহৃত হয়নি। পরবর্তীতে এখানে মাত্র ১২টি আইসিইউ বেড তৈরি করা হয়। সরকার এখন এই হাসপাতালে আইসিইউ বেডের সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে। তবে তা কবে স্থাপিত হবে তা কেউ জানেন না। আবার আইসিইউ শয্যার জন্য বিশেষজ্ঞ কোন চিকিৎসক আগেও ছিল না এখনও নেই।

উল্লিখিত প্রতিটি জেলাতে রয়েছে একটি করে জেনারেল হাসপাতাল। প্রতিটি উপজেলায় রয়েছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। কিন্তু কোনটিতেই করোনা রোগীর চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। তবে সাম্প্রতিককালে সরকার জেনারেল হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক না দিয়েই আইসিইউ বেড স্থাপন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। কবে নাগাদ ওই বেডগুলো কার্যকর হবে তাও কেউ জানেন না। অবশ্য মেডিকেল কলেজের সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই সিস্টেম দিয়ে ৮১টি লাইন থাকলেও ব্যবহার করা হচ্ছে ৫০টি লাইন। অন্যদিকে বড় সংকট হচ্ছে করোনা রোগীদের জন্য শয্যা। দেড়শ’ বেডের বিপরীতে সব সময়েই থাকছে বেশি সংখ্যক রোগী। কিন্তু করোনার চলমান দ্বিতীয় ঢেউয়ে যেভাবে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা বাড়ছে তাতে এখানে ভবিষ্যতে আর রোগী ভর্তি করা হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

অন্যদিকে এমনিতেই করোনা রোগীদের সমন্বিত চিকিৎসা এখন পর্যন্ত নেই। রোগীর বিভিন্ন লক্ষণ (সিমটম) দেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তারপরও রয়েছে অনুমোদিত দেড়শ’ বেডের রোগীদের জন্য প্রতি শিফটে মাত্র তিনজন চিকিৎসক। অর্থাৎ একজন চিকিৎসককে দেখতে হচ্ছে ৫০ জন রোগী। ঠিক একইভাবে নার্স ও পরিচ্ছন্নতা কর্মী নেই।

back to top