alt

বাংলাদেশ

বৃষ্টি ও পাহাড় ধসে কক্সবাজারে ২ দিনে ২০ জনের প্রাণহানি

৪১৩ গ্রাম প্লাবিত পানিবন্দী আড়াই লক্ষাধিক মানুষ

প্রতিনিধি, কক্সবাজার : বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১

কক্সবাজারে পাহাড় ধস ও ঢলের পানিতে ভেসে বুধবার (২৮ জুলাই) ১২ জন ও আগের দিন মঙ্গলবার ৬ রোহিঙ্গাসহ ৮ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ নিয়ে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত কক্সবাজারে ২ দিনে ২০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

এদিকে বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ী ঢলে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে ৫৫ হাজার ১৫০ পরিবারের আড়াই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট শাখা এমন তথ্য নিশ্চিত করলে এটা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে।

কক্সবাজারে দুই দিন ধরে থেমে থেমে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে। একই সঙ্গে ৩ নম্বর সর্তক সংকেতও রয়েছে। জেলা প্রশাসনের দেয়া তথ্য মতে, কক্সবাজার জেলা ৭১ ইউনিয়ন ও ৪ পৌরসভার মধ্যে ৪১ ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। যেখানে গ্রামের সংখ্যা ৪১৩টি। যেখানে ৫৫ হাজার ১৫০ পরিবারের আড়াই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। প্রাথমিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ ৩ কোটি টাকা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসব প্লাবিত এলাকায় ৩০টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৬ হাজারের বেশি মানুষ আশ্রয়গ্রহণ করেছে।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, কক্সবাজার সদর উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৫৮ গ্রাম, রামু উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৩৫ গ্রাম, চকরিয়া উপজেলার ১৫ ইউনিয়নের ১০০ গ্রাম, পেকুয়া উপজেলার ২ ইউনিয়নের ৬ গ্রাম, মহেশখালী উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৩৮ গ্রাম, উখিয়া উপজেলার ২ ইউনিয়নের ১২০ গ্রাম, টেকনাফ উপজেলার ৪ ইউনিয়নের ৫৬ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের এই তথ্যে কুতুবদিয়া উপজেলার প্লাবিত এলাকার সংখ্যা পাওয়া যায়নি। তবে কুতুবদিয়া উপজেলায় অন্তত ২০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আমিন আল পারভেজ জানান, প্লাবিত এলাকার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের বিশেষ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ১৩৫ মেট্টিক টন চাল ও ৫ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে। প্রয়োজনের আরও জরুরি বরাদ্দ প্রদান করা হবে।

কিশোরগঞ্জে নিকলীর হাওরে দুই পর্যটক নিখোঁজ

বেগমগঞ্জে ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন কার্যক্রম উদ্বোধন

ছবি

বিচিত্র রূপে তিস্তা, সকালে পানি বিকেলে বালুচর

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ি ছড়া থেকে মৃত বন্যহাতি উদ্ধার

মাদারীপুরে দশ বছরেও শেষ হয়নি দুটি ব্রিজ নির্মাণ

ছবি

মমেকে ফের বেড়েছে মৃত্যু

গাজীপুরে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি আ.লীগের দুই গ্রুপের, গাড়ি ভাঙচুর

বসুর হাটে কারখানা গুঁড়িয়ে দিলেন কাদের মির্জা

ছবি

কিন্ডারগার্টেন স্কুল চালানো এখন বড় চ্যালেঞ্জ

ছবি

মাতব্বররা আমাকে নিয়ে মিথ্যাচার করেছেন, নাস্তিক বানাচ্ছেন

ছবি

মুক্তির পর নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত ঝুমন দাসের মা

মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণে প্রভাবশালী ও ধনাঢ্যরা

ছবি

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে বাঁচাবে: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

ট্রলারডুবিতে বঙ্গোপসাগরে ২ জেলে নিহত

ছবি

সিআরবির বিষয়ে সিন্ধান্ত দেবেন প্রধানমন্ত্রী: রেলমন্ত্রী

ছবি

মানসিক ভারসাম্যহীন ভাইয়ের হাতে বোন খুন

ছবি

পোরশায় আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী কারাম উৎসব উদযাপন

চুয়াডাঙ্গায় ট্রাক চাপায় হত ১

ছবি

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল: পরিকল্পনামন্ত্রী

ছবি

ধর্মীয় বিদ্বেষ-সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

ছবি

আরও ২৫ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র

ঝিনাইদহে সড়কে ঝরল বৃদ্ধা

নান্দাইলে স্কুল ছাত্রীর মরদেহ

ছবি

ধোধরাই নদীর ভাঙা সেতু ২ বছরেও সংস্কার হয়নি!

ছবি

অভিজাত এলাকায় বিল-কর ‘বেশি’ চান এলজিআরডিমন্ত্রী

ছবি

চাঁদপুরে ৩ কলেজ শিক্ষার্থীর শরীরে করোনা!

ছবি

নোয়াখালীতে বরযাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনায় এক নারীর মৃত্যু, আহত ১২

ছবি

জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে অপরিকল্পিত শিল্পায়ন বন্ধের দাবি

ছবি

বালুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজির ৪ যাত্রী নিহত

ছবি

বিপ্লবীদের স্মৃতি স্থায়ীভাবে সংরক্ষণে রেলমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী

ছবি

হিন্দু আইন সংস্কারের দাবির বিরোধিতায় পাল্টা সংবাদ সম্মেলন

ঘিওরের বড়টিয়া স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ৪ পদ শূন্য : বেহাল স্বাস্থ্যসেবা

অবহেলা-অব্যবস্থাপনায় ৩৩ কমিউনিটি ক্লিনিকের সেবা বঞ্চিত জনগণ!

২ জেলায় করোনায় নতুন শনাক্ত ১৪

ছবি

টাঙ্গাইলে তিন গাড়ির সংঘর্ষে নিহত ৩

ছবি

ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

tab

বাংলাদেশ

বৃষ্টি ও পাহাড় ধসে কক্সবাজারে ২ দিনে ২০ জনের প্রাণহানি

৪১৩ গ্রাম প্লাবিত পানিবন্দী আড়াই লক্ষাধিক মানুষ

প্রতিনিধি, কক্সবাজার

বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১

কক্সবাজারে পাহাড় ধস ও ঢলের পানিতে ভেসে বুধবার (২৮ জুলাই) ১২ জন ও আগের দিন মঙ্গলবার ৬ রোহিঙ্গাসহ ৮ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ নিয়ে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত কক্সবাজারে ২ দিনে ২০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

এদিকে বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ী ঢলে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে ৫৫ হাজার ১৫০ পরিবারের আড়াই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট শাখা এমন তথ্য নিশ্চিত করলে এটা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে।

কক্সবাজারে দুই দিন ধরে থেমে থেমে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে। একই সঙ্গে ৩ নম্বর সর্তক সংকেতও রয়েছে। জেলা প্রশাসনের দেয়া তথ্য মতে, কক্সবাজার জেলা ৭১ ইউনিয়ন ও ৪ পৌরসভার মধ্যে ৪১ ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। যেখানে গ্রামের সংখ্যা ৪১৩টি। যেখানে ৫৫ হাজার ১৫০ পরিবারের আড়াই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। প্রাথমিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ ৩ কোটি টাকা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসব প্লাবিত এলাকায় ৩০টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৬ হাজারের বেশি মানুষ আশ্রয়গ্রহণ করেছে।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, কক্সবাজার সদর উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৫৮ গ্রাম, রামু উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৩৫ গ্রাম, চকরিয়া উপজেলার ১৫ ইউনিয়নের ১০০ গ্রাম, পেকুয়া উপজেলার ২ ইউনিয়নের ৬ গ্রাম, মহেশখালী উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৩৮ গ্রাম, উখিয়া উপজেলার ২ ইউনিয়নের ১২০ গ্রাম, টেকনাফ উপজেলার ৪ ইউনিয়নের ৫৬ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের এই তথ্যে কুতুবদিয়া উপজেলার প্লাবিত এলাকার সংখ্যা পাওয়া যায়নি। তবে কুতুবদিয়া উপজেলায় অন্তত ২০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আমিন আল পারভেজ জানান, প্লাবিত এলাকার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের বিশেষ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ১৩৫ মেট্টিক টন চাল ও ৫ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে। প্রয়োজনের আরও জরুরি বরাদ্দ প্রদান করা হবে।

back to top