alt

বাংলাদেশ

ফেইসবুকের মাধ্যমে ৭০ বছর পর শতবর্ষী মা ফিরে পেলেন সন্তানকে

মাধবী কুজুর, ঢাকা ও সাদেকুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

হারিয়ে যাওয়ার ৭০ বছর পর শতবর্ষী মা ফেইসবুকের মাধ্যমে ফিরে পেলেন তার সন্তানকে। এক বৃদ্ধ দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে তার মাকে খুজছেন-এমন একটি কথা পোষ্ট করেন নওগাঁর আত্রাইয়ের এমকে আইয়ূব নামের এক ব্যক্তি। বৃদ্ধের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে বলে পোষ্টে উল্লেখ করেন তিনি। তার সেই পোষ্ট দেখে উত্তর দেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আরেক ব্যক্তি। এভাবেই শুরু। তারপরই ঘটে এক অবিস্মরনীয় সেই ঘটনা- ৭০ বছর পর মা-ছেলের মিলন। এ ঘটনা ইতিমধ্যে ফেইসবুকে ভাইরাল হয়েছে। আলোচনা হচ্ছে সারাদেশে। এসব ঘটনা গত কয়েকদিনে ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর এবং নওয়ার আত্রাই-এ।

জানা গেছে, ৭ বছর বয়সে কুদ্দুছ মুন্সি বাবা কালু মুন্সি মারা যান। এরপর মা মঙ্গলের নেছা ১০ বছর বয়সী ছেলেকে লেখাপড়া করাতে পাশের বাড়ি নিকট আত্নীয় নবীনগর উপজেলার দীর্ঘশাইল গ্রামের পুলিশ সদস্য আব্দুল আউয়ালের সঙ্গে রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলায় পাঠায়। সেখানে আব্দুল আউয়ালের স্ত্রীর বকুনিতে অভিমান করে বাড়ি থেকে বের যায় কুদ্দুছ মুন্সি।অনেক খোঁজাখুজি করেও তাকে আর খুঁজে পায়নি আউয়াল মিয়া।

এদিকে ঘুরতে ঘুরতে কুদ্দুছ মুন্সি পৌঁছায় নওগাঁর আত্রাইয়ের সিংহগ্রামে। সেখানে নিঃসন্তান সাদেক মিয়ার স্ত্রী তাকে লালন পালন করেন।

৩০ বছরে বয়সে আত্রাইয়ের চৌবাড়ি গ্রামের সবেদ মিয়ার মেয়ে শুরুজ্জাহানকে বিয়ে করে শ্বশুরবাড়িতেই বসবাস করতে থাকেন। একসময় প্রথম স্ত্রী মারা যান। এরপর দ্বিতীয় বিয়ে করেন বাগমারা উপজেলার বারুইপাড়া গ্রামে। এখন সেখানেই থিতু হয়েছেন।

তার পরিবারে ৩ ছেলে ও ৫ মেয়ে রয়েছে। বড় ছেলে রাজ্জাক মুন্সি ইরাকে ও দ্বিতীয় ছেলে জান্নান মুন্সি সৌদি আরব থাকেন। ছোট ছেলে হাফেজ সোহেল মুন্সি বাড়িতেই থাকেন। ৫ মেয়ের সবার বিয়ে হয়ে গেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে আত্রাইয়ের এমকে আইয়ূব নামের এক ব্যক্তির তার ফেসবুক আইডিতে কুদ্দুছ মিয়ার হারিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে একটি ভিডিও আপলোড করেন গত ১২ এপ্রিল। আর ফেসবুকের ওই পোস্টের ওপরে লিখে ছিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার এক বৃদ্ধ আজ থেকে প্রায় ৭০ বছর আগে হারিয়ে গিয়ে পরিবার থেকে এতগুলো বছর বিচ্ছিন্ন হয়ে আছেন। কেউ যদি তার কথা শুনে চিনতে পারেন তাহলে যোগাযোগ করুন।

ভিডিওটি দেশে ও বিদেশে ভাইরাল হয়। এই ভিডিওর সূত্র ধরে গত ৫ সেপ্টেম্বর কুদ্দুছ মিয়ার নিজ গ্রাম নবীনগর উপজেলার কয়েকজন যোগাযোগ করেন আইয়ূবের সঙ্গে। তারা সেখানে যান এবং মায়ের সঙ্গে কথা বলিয়ে দেন ভিডিও কলে। ছেলের হাতে কাটা চিহ্ন দেখে মা শনাক্ত করেন। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুদ্দুছ মিয়া, ছেলে এবং ছেলের স্ত্রীরা মায়ের সঙ্গে দেখা করতে বোনের বাড়ি জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার আশ্রাফবাদ গ্রামে আসেন।

কুদ্দুছ মুন্সি জানান, হারিয়ে যাওয়ার পর নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার সিংহগ্রামে গ্রামের সাদিক মিয়ার স্ত্রী আমাকে ছেলের মত লালন পালন করেন। পরবর্তীতে বিয়ের পর আমার শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করে আসছি। কিন্তু মনে মনে আমার মা ও বোনদের খোঁজার চেষ্টা করেছি। আমার বিশ্বাস ছিল একদিন আমার মায়ের সন্ধান আমি পাবো। মায়ের বুকে ফিরতে পেরে পৃথিবীর সবচেয়ে সুখী মানুষ আমি আমার মনে হচ্ছে। বাকি জীবনটা মার সঙ্গেই থাকবো।

বাড্ডা গ্রামের শফিকুল ইসলাম জানান, ফেসবুকে একটি পোস্ট দেখে আমরা কয়েকজন রাজশাহীর বাঘমারায় যোগাযোগ করি ও সেখানে যাই। মা ছেলের মধ্যে ভিডিও কলে কথা বলাই। ছেলের হাতের কাটা দাগ আছে মা এমন কথা বলার পর আমরা মিলিয়ে দেখি। পরে আমরা তাকে মায়ের কাছে নিয়ে এসেছি।

ফেসবুকে পোষ্ট দেন যিনি, নওগা জেলার আত্রাই উপজেলার সেই ব্যবসায়ি এমকে আইয়ূব জানান, কুদ্দুছ মুন্সি হারিয়ে যাওয়ার গল্প শুনে আমি আমার ফেসবুকে একটি ভিডিও আপলোড করি। সে ভিডিও সূত্র ধরে কুদ্দুছ মিয়ার বাড়ির কিছু লোকজন আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে এবং হাতের কাটা দাগ দেখে তাকে শনাক্ত করেন তার মায়ের কথামত। আমার একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসের কারণে ৭০ বছর পর মা তার ছেলেকে ফিরে পেয়েছে, তাতে আমার অনেক আনন্দ লাগছে।

কুদ্দুছ মিয়ার ছেলে হাফেজ সোহেল মুন্সি জানান, কোনোদিন ভাবিনি আমার বাবা তার মাকে ফিরে পাবে। আল্লাহ আমাদের সহায় হয়েছে, আল্লার কাছে শুকরিয়া।

কুদ্দুছ মুন্সির বোন ঝরনা বেগম জানান, আমার মা সবসময় বলতেন একদিন আমার ছেলে ফিরে আসবে। আল্লাহ আমার মার ডাক কবুল করেছেন। আমরা আমার ভাইকে ফিরে পেয়েছি।

১০ বছর বয়সে হারিয়ে যাওয়া কুদ্দুছ মুন্সি ৮০ বছর বয়সে ফিরলেন মা মঙ্গলের নেছা কাছে। হারানো সন্তানকে ফিরে পেয়ে ‘আমার মানিক আমার বুকে আয়’বলে আদরে জড়িয়ে ধরলেন মা।

গত শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার আশ্রাফবাদ গ্রামের বোন ঝড়না (ঝর্ণা) বেগমের বাড়িতে মা ছেলের এই মিলন হয়। নাড়ী ছেড়াধন সেই ছেলেকে পেয়ে ১১০ বছর বয়সী মা মঙ্গলের নেছা আবেগে আপ্লুত হয়ে ছেলেকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। আনন্দঅশ্রুতে ভাসল মা ছেলের আবেগঘন মুর্হূত। এই দৃশ্য দেখে অশ্রুকাতর হয়েছিল উপস্থিত সকলে।

মা বিলাপ করে বলতে থাকেন, ‘কুদ্দুছ তুই একদিন ফিরে আসবি এটা আমি বিশ্বাস করতাম, আল্লার কাছে এই দোয়াই করেছি। আল্লাহ আমার দোয়া কবুল করেছেন। স্বপ্নে দেখতাম তুই ফিরে আসছিস । আমার সেই স্বপ্ন আজ পূরণ হলো। হারিয়ে যাওয়া ১০ বছরের শিশু আজ দীর্ঘ ৭০ বছর পর ৮০ বছর বয়সী একমাত্র ছেলে কুদ্দুছ মুন্সিকে ফিরে পেয়ে দিশেহারা মা এসব বলতে থাকে।

ছবি

অর্থ পাচার: শুনানিতে বিবাদীদের শিথিলতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট

ছবি

জাতিসংঘের ৫ ‘মাতব্বরে’ জন্যই রোহিঙ্গা সঙ্কট ঝুলে আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

করোনা মহামারী সত্ত্বেও দেশে খাদ্য সংকট হয়নি: কৃষিমন্ত্রী

ছবি

পরমাণু প্রযুক্তিতে স্বল্প খরচে ক্যান্সার নির্ণয় করা যাবে: স্থপতি ইয়াফেস ওসমান

ছবি

১শ’কোটি মানুষকে টিকা দেয়ায় মোদীকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

ছবি

নোয়াখালীতে যাত্রীবাহী বাস খালে পড়ে আহত ৩০

২৫ আসামির মৃত্যুদন্ড চায় রাষ্ট্রপক্ষ

ছবি

মন্দির ও পূজামণ্ডপের নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশ

ছবি

ধৈর্য ধরুন, টিকার মেসেজ আসবে: স্বাস্থ্য অধিদফতর

ছবি

ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় প্রতিটি ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করা হবে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

ছবি

সহিংসতার দায় এড়াতে পারে না সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করতে হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

ছবি

যথাযথ মান বজায় রেখে ‘বীর নিবাস’ নির্মাণ নিশ্চিত করতে হবে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী

ছবি

অধ্যাপক সিরাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন প্রত্যাহার

ছবি

কলকাতা প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধন ২৮ অক্টোবর

ছবি

ফের সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আপস চলছে: মেনন

লালপুরে নিখোঁজ শিশুর বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার

ছবি

নবীনগরে ফসলি জমির বালু উত্তোলন করায় ড্রেজার ধংস

শব্দ দূষণে শিশুদের শারীরিক মানসিক ব্যাপক ক্ষতি

ছবি

এক কর্মকর্তাকে একাধিক প্রকল্পের পরিচালক না করার সুপারিশ

দক্ষিণাঞ্চলে বোরোর আবাদ বাড়াতে সেচ ও উন্নত বীজে গুরুত্বারোপ

ছবি

এমপিওভূক্তি না হওয়ায় মানবেতর জীবনে শিক্ষক : চিন্তিত অভিভাবকরা

ছবি

বিএনপির দৃষ্টিসীমা এখন কুয়াশাচ্ছন্ন: ওবায়দুল কাদের

সুন্দরগঞ্জে অপহৃত শিশু উদ্ধার : ধৃত ১

ছবি

সম্রাটসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল

ছবি

কক্সবাজার বিমানবন্দরে যাত্রীদের ভোগান্তি

ছবি

অন্তরঙ্গ মুহূর্তে প্রেমিকের জিহ্বা কেটে নিলো প্রেমিকা

ছবি

সিরাজগঞ্জে ট্রাকচাপায় নিহত ২

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১০

চট্টগ্রামে মণ্ডপে হামলা, দুদিন আগেই হয়েছিল পরিকল্পনা

ছবি

পীরগঞ্জে হামলার মূল হোতা ছাত্রলীগ নেতা সৈকত ও ইমাম রবিউল

ছবি

লালমনিরহাটে তিস্তার পানি নামছে, জনভোগান্তি চরমে

৩৫ জেলায় একদিনে কোন রোগী শনাক্ত হয়নি

বিদ্যুৎ উৎপাদন খরচ বাড়ছে

ছবি

গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা আটক

ছবি

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী

tab

বাংলাদেশ

ফেইসবুকের মাধ্যমে ৭০ বছর পর শতবর্ষী মা ফিরে পেলেন সন্তানকে

মাধবী কুজুর, ঢাকা ও সাদেকুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

হারিয়ে যাওয়ার ৭০ বছর পর শতবর্ষী মা ফেইসবুকের মাধ্যমে ফিরে পেলেন তার সন্তানকে। এক বৃদ্ধ দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে তার মাকে খুজছেন-এমন একটি কথা পোষ্ট করেন নওগাঁর আত্রাইয়ের এমকে আইয়ূব নামের এক ব্যক্তি। বৃদ্ধের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে বলে পোষ্টে উল্লেখ করেন তিনি। তার সেই পোষ্ট দেখে উত্তর দেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আরেক ব্যক্তি। এভাবেই শুরু। তারপরই ঘটে এক অবিস্মরনীয় সেই ঘটনা- ৭০ বছর পর মা-ছেলের মিলন। এ ঘটনা ইতিমধ্যে ফেইসবুকে ভাইরাল হয়েছে। আলোচনা হচ্ছে সারাদেশে। এসব ঘটনা গত কয়েকদিনে ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর এবং নওয়ার আত্রাই-এ।

জানা গেছে, ৭ বছর বয়সে কুদ্দুছ মুন্সি বাবা কালু মুন্সি মারা যান। এরপর মা মঙ্গলের নেছা ১০ বছর বয়সী ছেলেকে লেখাপড়া করাতে পাশের বাড়ি নিকট আত্নীয় নবীনগর উপজেলার দীর্ঘশাইল গ্রামের পুলিশ সদস্য আব্দুল আউয়ালের সঙ্গে রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলায় পাঠায়। সেখানে আব্দুল আউয়ালের স্ত্রীর বকুনিতে অভিমান করে বাড়ি থেকে বের যায় কুদ্দুছ মুন্সি।অনেক খোঁজাখুজি করেও তাকে আর খুঁজে পায়নি আউয়াল মিয়া।

এদিকে ঘুরতে ঘুরতে কুদ্দুছ মুন্সি পৌঁছায় নওগাঁর আত্রাইয়ের সিংহগ্রামে। সেখানে নিঃসন্তান সাদেক মিয়ার স্ত্রী তাকে লালন পালন করেন।

৩০ বছরে বয়সে আত্রাইয়ের চৌবাড়ি গ্রামের সবেদ মিয়ার মেয়ে শুরুজ্জাহানকে বিয়ে করে শ্বশুরবাড়িতেই বসবাস করতে থাকেন। একসময় প্রথম স্ত্রী মারা যান। এরপর দ্বিতীয় বিয়ে করেন বাগমারা উপজেলার বারুইপাড়া গ্রামে। এখন সেখানেই থিতু হয়েছেন।

তার পরিবারে ৩ ছেলে ও ৫ মেয়ে রয়েছে। বড় ছেলে রাজ্জাক মুন্সি ইরাকে ও দ্বিতীয় ছেলে জান্নান মুন্সি সৌদি আরব থাকেন। ছোট ছেলে হাফেজ সোহেল মুন্সি বাড়িতেই থাকেন। ৫ মেয়ের সবার বিয়ে হয়ে গেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে আত্রাইয়ের এমকে আইয়ূব নামের এক ব্যক্তির তার ফেসবুক আইডিতে কুদ্দুছ মিয়ার হারিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে একটি ভিডিও আপলোড করেন গত ১২ এপ্রিল। আর ফেসবুকের ওই পোস্টের ওপরে লিখে ছিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার এক বৃদ্ধ আজ থেকে প্রায় ৭০ বছর আগে হারিয়ে গিয়ে পরিবার থেকে এতগুলো বছর বিচ্ছিন্ন হয়ে আছেন। কেউ যদি তার কথা শুনে চিনতে পারেন তাহলে যোগাযোগ করুন।

ভিডিওটি দেশে ও বিদেশে ভাইরাল হয়। এই ভিডিওর সূত্র ধরে গত ৫ সেপ্টেম্বর কুদ্দুছ মিয়ার নিজ গ্রাম নবীনগর উপজেলার কয়েকজন যোগাযোগ করেন আইয়ূবের সঙ্গে। তারা সেখানে যান এবং মায়ের সঙ্গে কথা বলিয়ে দেন ভিডিও কলে। ছেলের হাতে কাটা চিহ্ন দেখে মা শনাক্ত করেন। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুদ্দুছ মিয়া, ছেলে এবং ছেলের স্ত্রীরা মায়ের সঙ্গে দেখা করতে বোনের বাড়ি জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার আশ্রাফবাদ গ্রামে আসেন।

কুদ্দুছ মুন্সি জানান, হারিয়ে যাওয়ার পর নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার সিংহগ্রামে গ্রামের সাদিক মিয়ার স্ত্রী আমাকে ছেলের মত লালন পালন করেন। পরবর্তীতে বিয়ের পর আমার শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করে আসছি। কিন্তু মনে মনে আমার মা ও বোনদের খোঁজার চেষ্টা করেছি। আমার বিশ্বাস ছিল একদিন আমার মায়ের সন্ধান আমি পাবো। মায়ের বুকে ফিরতে পেরে পৃথিবীর সবচেয়ে সুখী মানুষ আমি আমার মনে হচ্ছে। বাকি জীবনটা মার সঙ্গেই থাকবো।

বাড্ডা গ্রামের শফিকুল ইসলাম জানান, ফেসবুকে একটি পোস্ট দেখে আমরা কয়েকজন রাজশাহীর বাঘমারায় যোগাযোগ করি ও সেখানে যাই। মা ছেলের মধ্যে ভিডিও কলে কথা বলাই। ছেলের হাতের কাটা দাগ আছে মা এমন কথা বলার পর আমরা মিলিয়ে দেখি। পরে আমরা তাকে মায়ের কাছে নিয়ে এসেছি।

ফেসবুকে পোষ্ট দেন যিনি, নওগা জেলার আত্রাই উপজেলার সেই ব্যবসায়ি এমকে আইয়ূব জানান, কুদ্দুছ মুন্সি হারিয়ে যাওয়ার গল্প শুনে আমি আমার ফেসবুকে একটি ভিডিও আপলোড করি। সে ভিডিও সূত্র ধরে কুদ্দুছ মিয়ার বাড়ির কিছু লোকজন আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে এবং হাতের কাটা দাগ দেখে তাকে শনাক্ত করেন তার মায়ের কথামত। আমার একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসের কারণে ৭০ বছর পর মা তার ছেলেকে ফিরে পেয়েছে, তাতে আমার অনেক আনন্দ লাগছে।

কুদ্দুছ মিয়ার ছেলে হাফেজ সোহেল মুন্সি জানান, কোনোদিন ভাবিনি আমার বাবা তার মাকে ফিরে পাবে। আল্লাহ আমাদের সহায় হয়েছে, আল্লার কাছে শুকরিয়া।

কুদ্দুছ মুন্সির বোন ঝরনা বেগম জানান, আমার মা সবসময় বলতেন একদিন আমার ছেলে ফিরে আসবে। আল্লাহ আমার মার ডাক কবুল করেছেন। আমরা আমার ভাইকে ফিরে পেয়েছি।

১০ বছর বয়সে হারিয়ে যাওয়া কুদ্দুছ মুন্সি ৮০ বছর বয়সে ফিরলেন মা মঙ্গলের নেছা কাছে। হারানো সন্তানকে ফিরে পেয়ে ‘আমার মানিক আমার বুকে আয়’বলে আদরে জড়িয়ে ধরলেন মা।

গত শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার আশ্রাফবাদ গ্রামের বোন ঝড়না (ঝর্ণা) বেগমের বাড়িতে মা ছেলের এই মিলন হয়। নাড়ী ছেড়াধন সেই ছেলেকে পেয়ে ১১০ বছর বয়সী মা মঙ্গলের নেছা আবেগে আপ্লুত হয়ে ছেলেকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। আনন্দঅশ্রুতে ভাসল মা ছেলের আবেগঘন মুর্হূত। এই দৃশ্য দেখে অশ্রুকাতর হয়েছিল উপস্থিত সকলে।

মা বিলাপ করে বলতে থাকেন, ‘কুদ্দুছ তুই একদিন ফিরে আসবি এটা আমি বিশ্বাস করতাম, আল্লার কাছে এই দোয়াই করেছি। আল্লাহ আমার দোয়া কবুল করেছেন। স্বপ্নে দেখতাম তুই ফিরে আসছিস । আমার সেই স্বপ্ন আজ পূরণ হলো। হারিয়ে যাওয়া ১০ বছরের শিশু আজ দীর্ঘ ৭০ বছর পর ৮০ বছর বয়সী একমাত্র ছেলে কুদ্দুছ মুন্সিকে ফিরে পেয়ে দিশেহারা মা এসব বলতে থাকে।

back to top