alt

অর্থ-বাণিজ্য

টিফা চুক্তিতে স্বাক্ষর বাংলাদেশে-অষ্ট্রেলিয়ার

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগের পথ সুগম করতে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বিষয়ক কাঠামো চুক্তি হয়েছে।

আজ (১৫ সেপ্টেম্বর) বুধবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও অষ্ট্রেলিয়ার মধ্যে এই ‘ট্রেড অ্যান্ড ইনভেষ্টমেন্ট ফ্রেমওয়ার্ক অ্যারেঞ্জমেন্ট’ বা টিফা স্বাক্ষরিত হয়।

বাংলাদেশের পক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি সরাসরি এবং অষ্ট্রেলিয়ার পক্ষে সেদেশের বাণিজ্য, পর্যটন ও বিনিয়োগ বিষয়ক মন্ত্রী ডান টিহান চুক্তিতে সই করেন।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বিনিয়োগকারীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ স্থান। টিফা স্বাক্ষরের ফলে বাংলাদেশে অষ্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বাড়বে।

বাংলাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার প্রসঙ্গ ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সরকার দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিশেষ সুযোগ-সুবিধার প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। বিনিয়োগের ক্ষেত্রে পদ্ধতিগত সেবা দেওয়া সহজ করা হয়েছে।

“বাংলাদেশ প্রায় ১৭ কোটি মানুষের একটি বড় বাজার। অস্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন।”

২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ায় ৮০৪ দশমিক ৬৩ মিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছিল, একই সময়ে আমদানি করেছিল ৫৯৬ দশমিক ৭০ মিলিয়ন ডলারের পণ্য। তবে কোভিড মহামারীর কারণে গত দুই বছরে দুই দেশের বাণিজ্য কিছুটা কমে এসেছে।

অস্ট্রেলিয়ার মন্ত্রী ডান টিহান বলেন, টিফা স্বাক্ষরের মাধ্যমে উভয় দেশের বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বাড়বে।

বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের পাশাপাশি আইসিটি, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, প্লাস্টিকসহ বেশকিছু খাতকে ‘সম্ভাবনাময়’ হিসেবে বর্ণনা করেন তিনি।

ভার্চুয়াল বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছাও জানান টিহান।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, অস্ট্রেলিয়া গত ২০০৩ সালে থেকে বাংলাদেশকে ডিউটি ফ্রি এবং কোটা ফ্রি বাণিজ্য সুবিধা দিয়ে আসছে। আগামী ২০২৬ সালে এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের পরও অস্ট্রেলিয়া এসব বাণিজ্য সুবিধা অব্যাহত রাখবে।

ঢাকায় অষ্ট্রেলিয়ার হাই কমিশনার জেরেমি ব্রুয়ার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের হাই কমিশনার মোহাম্মদ শফিউর রহমান ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত ছিলেন।

এছাড়া বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ, অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) হাফিজুর রহমান, অষ্ট্রেলিয়ার ডেপুটি হাই কমিশনার নার্ডিয়া সিম্পসন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ছবি

খেলাপি ঋণের বন্ধকি সম্পদ দ্রুত বিক্রি করতে হবে

লোকসানি প্রতিষ্ঠানসমূহকে লাভজনক করতে তাগিদ শিল্পমন্ত্রীর

বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি বাস্তবায়নে প্রথম স্থানে সোনালী ব্যাংক

৫২ প্রতিষ্ঠানকে ভারতে ইলিশ রপ্তানির অনুমতি

ছবি

বাজারে ভয়েস কন্ট্রোল স্মার্ট অ্যান্ড্রয়েড টিভি নিয়ে এলো মিনিস্টার

ছবি

বেক্সিমকো এলপিজির নতুন প্রধান বিপণন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান

ছবি

স্যামসাংয়ের আর্লি বার্ড অফার ক্যাম্পেইনে আকর্ষণীয় অফারে অত্যাধুনিক টেলিভিশন

ছবি

সঞ্চয়পত্রে বেশি বিনিয়োগে মুনাফার হার কমিয়েছে সরকার

ছবি

অন্য দেশের মাধ্যমে রাশিয়ায় পণ্য রপ্তানি করতে হয়: বাণিজ্যমন্ত্রী

৬৪ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের দর বেড়ে লেনদেন চলছে পুঁজিবাজারে

ছবি

দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ২০০০ টন ইলিশ রপ্তানির অনুমোদন

ছবি

বাংলালিংক ইনোভেটর্স এর পঞ্চম পর্বের রেজিস্ট্রেশন শুরু

ছবি

সৌদি বাজারে ১৩৭ পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশ চায় বাংলাদেশ

বড় পতন শেয়ারবাজারে কমেছে সূচক, লেনদেন ও দর

টিসিবির ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

ছবি

রেমিট্যান্সের ৫৬ শতাংশ এসেছে মধ্যপ্রাচ্য থেকে

বাংলাদেশকে তুলে ধরতে সুইজারল্যান্ডে রোড শো

পরিবেশ সুরক্ষায় ওয়ালটন কারখানায় এইচএফসি ফেজ আউট প্রকল্প বাস্তবায়ন

জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রে এফবিসিসিআই প্রতিনিধিদল

ছবি

অনিয়মের কারণে বন্ধ হলো বিশ্বব্যাংকের ইজ অব ডুয়িং বিজনেস প্রতিবেদন

ছবি

অবশেষে অর্ডার নেয়া বন্ধ করলো ইভ্যালি

ছবি

ধামাকার কাছে ২০০ কোটি টাকা আটকে আছে সেলারদের

বিক্রয় চাপে লেনদেন মন্দা চলছে পুঁজিবাজারে

ছবি

জয়েন্ট স্টক ও বিএসইসি কর্মকর্তাদের সহযোগিতা ছিল

ছবি

ইভ্যালি বিষয়ে ২৬ অক্টোবর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে ই-ক্যাব

ছবি

ধামাকার কাছে ২০০ কোটি টাকা আটকে আছে সেলারদের

অবশেষে অর্ডার নেয়া বন্ধ করলো ইভ্যালি

ছবি

চিনির দাম নির্র্ধারণ হয়েছে তবে মিলছে না সেই দামে

সাপ্তাহিক লেনদেনের ২৩ শতাংশ ১০ কোম্পানির শেয়ারে

ছবি

অনিয়মের কারণে বন্ধ হলো বিশ্বব্যাংকের ইজ অব ডুয়িং বিজনেস প্রতিবেদন

সোনালী পেপারের ৪০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা

ছবি

চাল রপ্তানিতে ৪৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ভারতের

ছবি

ধামাকার কাছে ২০০ কোটি টাকা ফেরত চান সেলাররা

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবারের ৪জনের মৃত্যু

ছবি

বিনিয়োগবান্ধব নীতির কারণেই রপ্তানিতে বিস্ময়কর সাফল্য অর্জন করেছে ভিয়েতনাম

ছবি

করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতায় ব্যয় কমেছে ৫৬ কোটি টাকা

tab

অর্থ-বাণিজ্য

টিফা চুক্তিতে স্বাক্ষর বাংলাদেশে-অষ্ট্রেলিয়ার

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগের পথ সুগম করতে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বিষয়ক কাঠামো চুক্তি হয়েছে।

আজ (১৫ সেপ্টেম্বর) বুধবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও অষ্ট্রেলিয়ার মধ্যে এই ‘ট্রেড অ্যান্ড ইনভেষ্টমেন্ট ফ্রেমওয়ার্ক অ্যারেঞ্জমেন্ট’ বা টিফা স্বাক্ষরিত হয়।

বাংলাদেশের পক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি সরাসরি এবং অষ্ট্রেলিয়ার পক্ষে সেদেশের বাণিজ্য, পর্যটন ও বিনিয়োগ বিষয়ক মন্ত্রী ডান টিহান চুক্তিতে সই করেন।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বিনিয়োগকারীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ স্থান। টিফা স্বাক্ষরের ফলে বাংলাদেশে অষ্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বাড়বে।

বাংলাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার প্রসঙ্গ ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সরকার দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিশেষ সুযোগ-সুবিধার প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। বিনিয়োগের ক্ষেত্রে পদ্ধতিগত সেবা দেওয়া সহজ করা হয়েছে।

“বাংলাদেশ প্রায় ১৭ কোটি মানুষের একটি বড় বাজার। অস্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন।”

২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ায় ৮০৪ দশমিক ৬৩ মিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছিল, একই সময়ে আমদানি করেছিল ৫৯৬ দশমিক ৭০ মিলিয়ন ডলারের পণ্য। তবে কোভিড মহামারীর কারণে গত দুই বছরে দুই দেশের বাণিজ্য কিছুটা কমে এসেছে।

অস্ট্রেলিয়ার মন্ত্রী ডান টিহান বলেন, টিফা স্বাক্ষরের মাধ্যমে উভয় দেশের বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বাড়বে।

বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের পাশাপাশি আইসিটি, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, প্লাস্টিকসহ বেশকিছু খাতকে ‘সম্ভাবনাময়’ হিসেবে বর্ণনা করেন তিনি।

ভার্চুয়াল বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছাও জানান টিহান।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, অস্ট্রেলিয়া গত ২০০৩ সালে থেকে বাংলাদেশকে ডিউটি ফ্রি এবং কোটা ফ্রি বাণিজ্য সুবিধা দিয়ে আসছে। আগামী ২০২৬ সালে এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের পরও অস্ট্রেলিয়া এসব বাণিজ্য সুবিধা অব্যাহত রাখবে।

ঢাকায় অষ্ট্রেলিয়ার হাই কমিশনার জেরেমি ব্রুয়ার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের হাই কমিশনার মোহাম্মদ শফিউর রহমান ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত ছিলেন।

এছাড়া বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ, অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) হাফিজুর রহমান, অষ্ট্রেলিয়ার ডেপুটি হাই কমিশনার নার্ডিয়া সিম্পসন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

back to top