alt

অর্থ-বাণিজ্য

সিলেটে গরুর চামড়া ২০ টাকা, ছাগলের চামড়া ফ্রি

প্রতিনিধি, সিলেট : রোববার, ০২ আগস্ট ২০২০
image

সিলেটে কােরবানিতে জবাইকৃত একটি গরুর চামড়া ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে! আর ছাগলের চামড়াতাে কেউ নিচ্ছেই না। ফলে তা ফ্রি দিয়েই চলে যাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। ফলে এ খাতে বিনিয়ােগ করে এখন চরম ক্ষতির মুখে চামড়া ব্যবসায়ীরা।

এ বছর বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ঢাকার বাইরে লবণযুক্ত গরুর চামড়ার দাম প্রতি বর্গফুট ২৮ থেকে ৩২ টাকা নির্ধারণ করেছে। সারা দেশে প্রতি বর্গফুট ছাগলের কাঁচা চামড়া ১৩ থেকে ১৫ টাকা এবং বকরির চামড়া ১০ থেকে ১২ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

তবে শনিবার ঈদের দিনে নগরীর রেজাস্টারি মাঠ ও ঝালোপাড়া চামড়ার আড়ৎ ঘুরে দেখা যায়, বিক্রেতারা চামড়া নিয়ে বসে আছেন কিন্তু কোনো ক্রেতা নেই। কিছু ক্রেতা এলেও সরকার নির্ধারিত দামে চামড়া কিনছেন না কেউই।

বড় আকারের গরুর চামড়া প্রতি পিস ৭০ টাকা থেকে ১০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। কিন্তু ছোট আকারের গরুর চামড়া প্রতি পিস ২০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সরকার যে দর নির্ধারণ করে দিয়েছে, সে দরে চামড়া বিক্রি হতে দেখা যায়নি।

খুচরো পর্যায়ের চামড়া ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, তারা বেশি দাম দিয়ে প্রতি পিস চামড়া সংগ্রহ করেছেন। কিন্তু পাইকারি ব্যবসায়ীরা, যারা ট্যানারিতে নিয়ে চামড়া বিক্রি করেন, তারা নানা কারণ দেখিয়ে দাম বেশি দিতে নারাজ।

সিলেট জালালাবাদ বহুমুখী চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শামীম আহমদ জানান, এবার কোরবানির ঈদে লক্ষ্যমাত্রার অর্ধেক চামড়াও সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া চামড়ার দামও মিলছে না। তিনি জানান, একদিকে ব্যবসায়ীদের হাতে টাকা নেই। অন্যদিকে চার বছর ধরে আড়তদার আর ট্যানারি মালিকদের কাছে বকেয়া পাওনা রয়েছে। এবার মাত্র ২৫ শতাংশ পাওনা আদায় করা সম্ভব হয়েছে।

ব্যবসায়ীদের কথার সাথে মিল রেখে দয়ামীর দারুল কোরআন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোশাহিদ আলী বলেন, সিলেটে এ বছর পানির দামে চামড়া বিক্রি করতে হচ্ছে। গত বছরও যে চামড়া ৮০০ থেকে এক হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে, এ বছর তার অর্ধেকেরও কম দামে বিক্রি হচ্ছে।

তিনি বলেন, মাদ্রাসায় অনুদান হিসেবে পাওয়া চার শতাধিক চামড়া প্রতিটি দুই থেকে আড়াশ টাকায় বিক্রি করেছি। সর্বোচ্চ ৩০০ টাকায় কয়েকটা চামড়া বিক্রি করতে পেরেছি। গত ১৫-২০ বছরের মধ্যে এত কম দাম দেখিনি।

নগরীর কয়েকটি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ফুট হিসেবে নয়, মৌসুমি ক্রেতারা চামড়া কিনছেন আকার ভেদে। প্রতিটি গরুর চামড়া ১৫০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকায় কিনেছেন তারা।

সিলেট চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি শাহিন আহমদ বলেন, সিলেটের তিন শতাধিক চামড়া ব্যবসায়ীর মধ্যে বেশির ভাগই এ বছর ক্ষতির আশঙ্কায় চামড়া কেনেননি। এই সুযোগে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা কম দামে চামড়া কিনে নিয়েছেন। কম দামে কিনলেও তারা লাভ করতে পারবেন তা এখনও নিশ্চিত করা যাচ্ছে না।

ছবি

সিনজেনটা বাংলাদেশ লিমিটেডের ২০% লভ্যাংশ ঘোষণা

ছবি

আমরা সংসদে আছি শুধু ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ বলার জন্য: সাবের হোসেন

শেয়ারবাজারে ১২ হাজার ৭০০ কোটি টাকার লেনদেন

ছবি

ব্যাংক হিসাবে চার্জমুক্ত থাকবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত

ছবি

বাজেটের সুফল বাস্তবায়নের ওপর নির্ভরশীল

ছবি

উন্নত জাতের ‘সুবর্ণ রুই’ উদ্ভাবন

ইগলু আইসক্রিম ফ্যাক্টরিতে জরিমানা

২৫ হাজার কৃষকের থেকে সরাসরি পণ্য কিনছে আরিফ গ্রুপ

ছবি

এবি ব্যাংকের ৩৯তম বার্ষিক সাধারণ সভা

প্রধানমন্ত্রীর করোনা তহবিলে ২ কোটি টাকা দিয়েছে সাইফ পাওয়ারটেক

ছবি

ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্সের ১০ শতাংশ লভ্যাংশ অনুমোদন

ছবি

বোরো ধানের বাম্পার ফলনের পরও চালের বাজার অস্থির

ছবি

ইউনিলিভার বাংলাদেশের নতুন সিইও এবং এমডি জাভেদ আখতার

ছবি

ব্লুঅরচার্ড মাইক্রোফাইন্যান্স ফান্ড থেকে ১৫ মিলিয়ন ডলার বৈদেশিক ঋণ নিলো লংকাবাংলা ফাইন্যান্স

ছবি

শিল্পের কাঁচামাল আমদানিতে উৎসে কর না রাখার সুপারিশ বিসিআই’র

ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা পর্যটন স্পটগুলোর

ছবি

ইউনিলিভার বাংলাদেশের নতুন এমডি জাভেদ আখতার

ছবি

টাইলস-স্যানিটারি পণ্যে আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি

ছবি

স্বর্ণের ভ্যাট কমানোর দাবি বাজুসের

স্টার্টাপে ৫ কোটি পর্যন্ত বিনিয়োগ করবে ইভ্যালি

গতবছর ১০ কোটি ৬১ লাখ টাকা মুনাফা করেছে জনতা ক্যাপিটাল

প্রথম ঘন্টায় ডিএসইতে হাজার কোটি টাকা লেনদেন

ছবি

এক বছরে একটি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৮৯১ শতাংশ

ছবি

মাইক্রোবাস আমদানিতে সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি বারভিডার

ডিএসইতে রেকর্ড লেনদেন সূচকও বেড়েছে

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি কমানোর চেষ্টা চলছে : বাণিজ্যমন্ত্রী

সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে নতুন দরিদ্রদের কোন স্বীকৃতি নেই

বই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম দারাজে ‘ইলেকট্রনিক্স উইক’ ক্যাম্পেইন

তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার কৃষি অর্থনীতিকে গতিশীল করবে

প্রথম দুই ঘন্টায় ডিএসইতে ১৪’শ কোটি টাকা লেনদেন

ছবি

সূচকের বড় উত্থানে চলছে লেনদেন

ছবি

নন-কটন পোশাক রপ্তানিতে ১০ শতাংশ প্রণোদনা চান ব্যবসায়ীরা

ব্যাংক-বীমায় বড় উত্থান শেয়ারবাজারে

বাজেটকে দুঃসাহসী বলল শিপার্স কাউন্সিল

পুঁজিবাজারে অর্ধেক মুনাফা দেবে এমবি ফার্মা

শেয়ারবাজারের সবকিছুই ডিজিটালাইজড করতে চাই : বিএসইসি কমিশনার

tab

অর্থ-বাণিজ্য

সিলেটে গরুর চামড়া ২০ টাকা, ছাগলের চামড়া ফ্রি

প্রতিনিধি, সিলেট
image

রোববার, ০২ আগস্ট ২০২০

সিলেটে কােরবানিতে জবাইকৃত একটি গরুর চামড়া ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে! আর ছাগলের চামড়াতাে কেউ নিচ্ছেই না। ফলে তা ফ্রি দিয়েই চলে যাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। ফলে এ খাতে বিনিয়ােগ করে এখন চরম ক্ষতির মুখে চামড়া ব্যবসায়ীরা।

এ বছর বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ঢাকার বাইরে লবণযুক্ত গরুর চামড়ার দাম প্রতি বর্গফুট ২৮ থেকে ৩২ টাকা নির্ধারণ করেছে। সারা দেশে প্রতি বর্গফুট ছাগলের কাঁচা চামড়া ১৩ থেকে ১৫ টাকা এবং বকরির চামড়া ১০ থেকে ১২ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

তবে শনিবার ঈদের দিনে নগরীর রেজাস্টারি মাঠ ও ঝালোপাড়া চামড়ার আড়ৎ ঘুরে দেখা যায়, বিক্রেতারা চামড়া নিয়ে বসে আছেন কিন্তু কোনো ক্রেতা নেই। কিছু ক্রেতা এলেও সরকার নির্ধারিত দামে চামড়া কিনছেন না কেউই।

বড় আকারের গরুর চামড়া প্রতি পিস ৭০ টাকা থেকে ১০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। কিন্তু ছোট আকারের গরুর চামড়া প্রতি পিস ২০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সরকার যে দর নির্ধারণ করে দিয়েছে, সে দরে চামড়া বিক্রি হতে দেখা যায়নি।

খুচরো পর্যায়ের চামড়া ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, তারা বেশি দাম দিয়ে প্রতি পিস চামড়া সংগ্রহ করেছেন। কিন্তু পাইকারি ব্যবসায়ীরা, যারা ট্যানারিতে নিয়ে চামড়া বিক্রি করেন, তারা নানা কারণ দেখিয়ে দাম বেশি দিতে নারাজ।

সিলেট জালালাবাদ বহুমুখী চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শামীম আহমদ জানান, এবার কোরবানির ঈদে লক্ষ্যমাত্রার অর্ধেক চামড়াও সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া চামড়ার দামও মিলছে না। তিনি জানান, একদিকে ব্যবসায়ীদের হাতে টাকা নেই। অন্যদিকে চার বছর ধরে আড়তদার আর ট্যানারি মালিকদের কাছে বকেয়া পাওনা রয়েছে। এবার মাত্র ২৫ শতাংশ পাওনা আদায় করা সম্ভব হয়েছে।

ব্যবসায়ীদের কথার সাথে মিল রেখে দয়ামীর দারুল কোরআন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোশাহিদ আলী বলেন, সিলেটে এ বছর পানির দামে চামড়া বিক্রি করতে হচ্ছে। গত বছরও যে চামড়া ৮০০ থেকে এক হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে, এ বছর তার অর্ধেকেরও কম দামে বিক্রি হচ্ছে।

তিনি বলেন, মাদ্রাসায় অনুদান হিসেবে পাওয়া চার শতাধিক চামড়া প্রতিটি দুই থেকে আড়াশ টাকায় বিক্রি করেছি। সর্বোচ্চ ৩০০ টাকায় কয়েকটা চামড়া বিক্রি করতে পেরেছি। গত ১৫-২০ বছরের মধ্যে এত কম দাম দেখিনি।

নগরীর কয়েকটি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ফুট হিসেবে নয়, মৌসুমি ক্রেতারা চামড়া কিনছেন আকার ভেদে। প্রতিটি গরুর চামড়া ১৫০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকায় কিনেছেন তারা।

সিলেট চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি শাহিন আহমদ বলেন, সিলেটের তিন শতাধিক চামড়া ব্যবসায়ীর মধ্যে বেশির ভাগই এ বছর ক্ষতির আশঙ্কায় চামড়া কেনেননি। এই সুযোগে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা কম দামে চামড়া কিনে নিয়েছেন। কম দামে কিনলেও তারা লাভ করতে পারবেন তা এখনও নিশ্চিত করা যাচ্ছে না।

back to top