alt

বিনোদন

১০ বছর পেরিয়েও মুক্তি পায়নি অনুদানের সিনেমা ‘কাকতাড়ুয়া’

সংবাদ :
  • বিনোদন প্রতিবেদক
image
রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১

বাংলাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের গল্প অবলম্বনে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক শিশুতোষ গল্পের সিনেমা ‘কাকতাড়ুয়া’ সিনেমা হিসেবে নির্মাণের জন্য অনুদান পায় ২০১২ সালে। কিন্তু প্রায় ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও এই সিনেমা’টি আজও মুক্তি পায়নি। সিনেমাটিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন দেশের বিশিষ্ট আলোকচিত্রী মাজেদ চৌধুরীর ছেলে মুহিত চৌধুরী। এই সিনেমাতে আরও অভিনয় করেছিলেন জামিলুর রহমান শাখা, শাহনূর, ইলোরা গহর, রেবেকা, নাজমুল, আহমেদ শরীফসহ আরও অনেকে। ‘কাকতাড়–য়া’ সিনেমার পরিচালক ফারুক হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,‘ কাকতাড়–য়া সিনেমাটি আরও তিন বছর আগে শেষ হয়েছে। তবে মুক্তি না দিতে পারার কারণ হলো সিনেমাটি শেষ করার পরপর আমার স্ত্রী মারা যায়।

তার কিছুদিন পর আমার মা মারা যান। তারপর আবার আমার হার্টের সমস্যা দেখা দেয়। আমি সেন্সরের জন্য প্রিন্ট করে রেখেছি, সাবটাইটেলও করা। কিন্তু এফডিসি একটি মোটা অঙ্কের টাকা বিল পায় বিধায় এফডিসি থেকে আমাকে সার্টিফিকেট দেয়া হচ্ছে না। আমি তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব বা মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে অনুরোধ করব আমাকে যেন এফডিসির বিল মাফ করে দেয়া হয়। তাহলে সিনেমাটি আমি মুক্তি দিতে পারব।’

কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এটি নবম দশম শ্রেণীর জন্য পাঠ্যগল্প। এটি একটি শিশুতোষ চলচ্চিত্র হিসেবে নির্মাণের জন্য এর আগে অনুদানের জন্য জমা দেয়া হয়। পরবর্তী খবর আর জানি না। তবে কিছুদিন আগে একই গল্প নিয়ে ২০২১-২২ সালের সরকারি অনুদানের জন্য ড. মুহাম্মদ হারুনুর রশীদ আবার জমা দিয়েছেন, এটা জানি।’

তবে ঘটনা যাই হোক না কেন, তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুদান দেবার পর মন্ত্রণালয়েরই নজরদারিতে থাকা উচিত যাদের অনুদান দেয়া হলো তারা সঠিকভাবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সিনেমাগুলো নির্মাণ করছে কী না।

ছবি

বাংলাদেশি দর্শকদের জন্য জিফাইভ গ্লোবাল এর বিশেষ কম্বো অফার

ছবি

ঈদে উজ্জ্বল উপস্থিতি ক্যাটস আইয়ের পোশাকে

ছবি

ঈদে সোহেলের দশ পর্বের ধারাবাহিক ‘দৌড়ের উপর’

ছবি

একক নাটক ‘ব্লাড’

ছবি

ঈদের পর রবি চৌধুরীর নতুন গান প্রকাশিত হবে

ছবি

ঈদে নেই মমর নতুন নাটক

ছবি

ঈদে টিভি চ্যানেলে উপস্থাপনায় তিশা

ছবি

ঈদে নতুন ওয়েব সিরিজ ‘বরফকলের গল্প’ আনছে বিন্জ

ছবি

মনির খানের গানে মডেল হলেন সুহাসিনী

ছবি

এবারের ঈদে তৌসিফের অভিনীত সাতটি নাটক

ছবি

ঈদে ‘বীর’ ও ‘হালদা’ দেখা যাবে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে

ছবি

বিটিভির ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘আনন্দমেলা’

ছবি

‘সিক্স এক্স’ ধারাবাহিকে তারা

ছবি

জোভান-সাফার ‘সন্ধ্যা নামতে দেরী’

ছবি

জাহিদ হাসান এখন ‘ব্যাচেলর বাড়িওয়ালা’

ছবি

ঈদের নাটক ‘পিলিয়ার’

ছবি

একক নাটক ‘মেরুন’

ছবি

ঈদের একক নাটক ‘ছায়া’

ছবি

ঈদে সায়েরা রেজার ‘ইতরপনা’

ছবি

‘বৃষ্টির রেলগাড়ি’তে লুৎফর হাসান ও পুষ্পিতা

ছবি

ঈদে আসছে পাঁচ খন্ডের ওয়েব সিরিজ ‘বিলাপ’

ছবি

আসছে সালমার নতুন গান

ছবি

সোনালিকা ট্রাক্টরের বিজ্ঞাপনে সানি-দোলন

ছবি

কুমার শানুর সঙ্গে গাইলেন তারান্নুম আফরীন

ছবি

‘৩০০ সেকেন্ড’-এ আজ জয়ের প্রশ্নে জয়ের উত্তর

ছবি

আসিফ-সাবরিনার ‘অভিমান’

ছবি

ঈদের নাটক ‘হঠাৎ বাদশাহ’

ছবি

একক নাটক ‘মায়া’

ছবি

ঈদে ডিএমএস প্রকাশ করছে ‘মন জানালা’

ছবি

মাইক্রো ওয়েব সিরিজ ‘মিডলক্লাস দিনরাত্রি’

ছবি

প্রজেক্ট ইউসুফিয়ানা’র দ্বিতীয় গান

ছবি

‘কৃষকের ঈদ আনন্দ’

ছবি

আনন্দমেলা উপস্থাপনায় ফেরদৌস-পূর্নিমা

ছবি

তিন মাস পর শুটিংয়ে ফিরবেন আবুল হায়াত

ছবি

সজল-হিমির টেলিছবি ‘জাদুঘরের নাম কষ্ট’

ছবি

ঈদের নাটক ‘বিশু পাগলা গাছের আগায়’

tab

বিনোদন

১০ বছর পেরিয়েও মুক্তি পায়নি অনুদানের সিনেমা ‘কাকতাড়ুয়া’

সংবাদ :
  • বিনোদন প্রতিবেদক
image
রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১

বাংলাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের গল্প অবলম্বনে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক শিশুতোষ গল্পের সিনেমা ‘কাকতাড়ুয়া’ সিনেমা হিসেবে নির্মাণের জন্য অনুদান পায় ২০১২ সালে। কিন্তু প্রায় ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও এই সিনেমা’টি আজও মুক্তি পায়নি। সিনেমাটিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন দেশের বিশিষ্ট আলোকচিত্রী মাজেদ চৌধুরীর ছেলে মুহিত চৌধুরী। এই সিনেমাতে আরও অভিনয় করেছিলেন জামিলুর রহমান শাখা, শাহনূর, ইলোরা গহর, রেবেকা, নাজমুল, আহমেদ শরীফসহ আরও অনেকে। ‘কাকতাড়–য়া’ সিনেমার পরিচালক ফারুক হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,‘ কাকতাড়–য়া সিনেমাটি আরও তিন বছর আগে শেষ হয়েছে। তবে মুক্তি না দিতে পারার কারণ হলো সিনেমাটি শেষ করার পরপর আমার স্ত্রী মারা যায়।

তার কিছুদিন পর আমার মা মারা যান। তারপর আবার আমার হার্টের সমস্যা দেখা দেয়। আমি সেন্সরের জন্য প্রিন্ট করে রেখেছি, সাবটাইটেলও করা। কিন্তু এফডিসি একটি মোটা অঙ্কের টাকা বিল পায় বিধায় এফডিসি থেকে আমাকে সার্টিফিকেট দেয়া হচ্ছে না। আমি তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব বা মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে অনুরোধ করব আমাকে যেন এফডিসির বিল মাফ করে দেয়া হয়। তাহলে সিনেমাটি আমি মুক্তি দিতে পারব।’

কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এটি নবম দশম শ্রেণীর জন্য পাঠ্যগল্প। এটি একটি শিশুতোষ চলচ্চিত্র হিসেবে নির্মাণের জন্য এর আগে অনুদানের জন্য জমা দেয়া হয়। পরবর্তী খবর আর জানি না। তবে কিছুদিন আগে একই গল্প নিয়ে ২০২১-২২ সালের সরকারি অনুদানের জন্য ড. মুহাম্মদ হারুনুর রশীদ আবার জমা দিয়েছেন, এটা জানি।’

তবে ঘটনা যাই হোক না কেন, তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুদান দেবার পর মন্ত্রণালয়েরই নজরদারিতে থাকা উচিত যাদের অনুদান দেয়া হলো তারা সঠিকভাবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সিনেমাগুলো নির্মাণ করছে কী না।

back to top