alt

আন্তর্জাতিক

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ‘লড়তে চান’ গাদ্দাফির ছেলে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১

আগামীতে লিবিয়ার নেতৃত্ব দিতে চান দেশটির সাবেক স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির একমাত্র জীবিত ছেলে সাইফ আল ইসলাম।

সম্প্রতি নিউইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লিবিয়া এবং নিজের বিষয়ে নানা পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন তিনি।

২০১১ সালের নভেম্বরে লিবিয়ার সাবেক বিদ্রোহী গোষ্ঠী আজমি আল-আতিরি সাইফ গাদ্দাফিকে আটক করে এবং তখন থেকে সাইফ এ গোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রিত কারাগারে আটক ছিলেন।

সাংবাদিক সাইফকে জিজ্ঞেস করেন, তিনি বন্দী কি না। জবাবে সাইফ বলেন, তিনি এখন মুক্ত এবং রাজনৈতিক ক্ষমতা ফিরে পেতে কাজ করছেন। এক দশক আগে যারা তাকে গ্রেফতার করেছিল, পরে তারা হতাশ হয়ে পড়ে। একসময় সেই বিপ্লবীরা উপলব্ধি করে, সাইফ তাদের শক্তিশালী মিত্র হতে পারে।

সাইফ বলেন, আপনি কল্পনা করতে পারেন? যারা আমাকে বন্দী হিসেবে পাহারা দিয়ে রাখার কথা ছিল, তাঁরা এখন আমার ভালো বন্ধু।

লিবিয়া সরকার অবশ্য দাবি করেছিল সাইফ গাদ্দাফি তাদের নিয়ন্ত্রিত কারাগারে রয়েছেন। ২০১৩ সালে ত্রিপোলির একটি আদালত সাইফসহ গাদ্দাফির শাসনামলের প্রায় ৩০ জন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাকে ২০১১ সালের অভ্যুত্থানের সময়কার অপরাধের জন্য অভিযুক্ত করেছে।

ওই অভুত্থানে গাদ্দাফি ক্ষমতাচ্যুত ও নিহত হন। পরে ২০১৫ সালে সাইফসহ আটজনের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত।

নিউইয়র্ক টাইমসকে সাইফ জানিয়েছেন লিবিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়তে চান। তিনি বলেন, আমি দশ বছর ধরে লিবিয়ার জনগণ থেকে দূরে রয়েছি। ধীরে ধীরে ফিরে আসতে হবে। জনগণের মন জয় করতে হবে।

বাবা গাদ্দাফি হত্যার পর তাকেই লিবিয়ার পরবর্তী উত্তরসূরি ভেবেছিলেন অনেকে। কিন্তু তা হয়ে উঠেনি। গাদ্দাফির সাত সন্তানের মধ্যে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন তিনজন।

২০১১ সালে বিদ্রোহীদের হাতে প্রদানমন্ত্রী গাদ্দাফি খুন হওয়ার একদিন পর সাইফও ধরে পড়েন। ২০১৭ সালে বিদ্রোহীদের কবল থেকে মুক্তি পাওয়ার পর সাইফকে আর জনসমক্ষে তেমন দেখা যায়নি।

ছবি

মুন্সীগঞ্জে মধুপূর্নিমায় ‘সহজমানুষ’ সংগঠনের লালনসন্ধ্যা

ছবি

মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ করলো আফগানিস্তানের তালেবান

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস আজ

ছবি

তৃতীয়বারের মতো কানাডার ক্ষমতায় জাস্টিন ট্রুডো

ছবি

আফগানিস্তান থেকে আসা ২৭০ কোটি ডলারের মাদক আটক করেছে ভারত

ছবি

যুক্তরাজ্যের ভুল ই–মেইলে আফগান দোভাষীরা বিপদে

ছবি

‘জয়ের পথে’ জাস্টিন ট্রুডোর লিবারেল পার্টি

ছবি

রুশ জনগণকে পুনরায় ‘আস্থা’ রাখার জন্য ধন্যবাদ দিলেন পুতিন

ছবি

রাশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলি, নিহত ৮

ছবি

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে নারী জন্ম দিলেন ‘ই-বেবি’

ছবি

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, ৮ জন নিহত

ছবি

রাশিয়ায় নির্বাচন : পুতিনের দল এগিয়ে, ২য় স্থানে কমিউনিস্ট পার্টি

ছবি

যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা বৈঠক বাতিল

ছবি

মেয়েদের সমর্থনে স্কুলে যাচ্ছে না অনেক আফগান ছেলে

ছবি

জাতিসংঘে বিশ্ব নেতারা, মনোযোগ করোনা মহামারী ও জলবায়ুতে

অতিরিক্ত কাজের চাপে বছরে মৃত্যু ১৯ লাখ: ডব্লিউএইচও-আইএলও’র গবেষণা

ছবি

তালেবানের সঙ্গে সংলাপ শুরু করেছে পাকিস্তান

ছবি

জেল থেকে পালানো ২ ফিলিস্তিনি আটক

ছবি

কাবুলে মার্কিন ড্রোন হামলা : নিহতদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ দাবি

ছবি

শুধু ছেলেদের জন্য স্কুল খোলার অনুমতি দিয়েছে তালেবান

ছবি

ফ্রান্সের অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া মিথ্যা বলছে

ছবি

আফগানিস্তানে তিনটি শক্তিশালী বিস্ফোরণ, নিহত ২

ছবি

আফগানিস্তানে নারী মন্ত্রণালয়ের নামফলক মুছে ফেলে বসানো হচ্ছে নৈতিকতা মন্ত্রণালয়

ছবি

কাবুলে মার্কিন বাহিনীর ‘ড্রোন হামলার সিদ্ধান্ত ছিল ভুল’

ছবি

চলে গেলেন আলজেরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দেল আজিজ

ছবি

আফগানিস্তানে শুধু ছেলেদের জন্য স্কুল খুলছে

ছবি

ইতালিতে টিকা না নেওয়ায় বহিষ্কার ৭২৮ ডাক্তার!

ছবি

করোনায় বিশ্বে মৃত্যুতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র-ব্রাজিল

ছবি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য নতুন জোট, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তীব্র সমালোচনা

ছবি

তালেবানের ভয়ে আফগান সঙ্গীতশিল্পীরা পালিয়ে গেছেন পাকিস্তানে

ছবি

আফগানিস্তানের কালোবাজারে ভিসা বাণিজ্য রমরমা

ছবি

শিশুদের ক্ষেত্রে মিশ্র টিকার কার্যকারিতা পরখ করবে যুক্তরাজ্য

ছবি

ট্রাম্পের মতো আচরণ করছেন বাইডেন

ছবি

টিকাবিহীন হওয়ায় ফ্রান্সে তিন হাজার স্বাস্থ্যকর্মী বরখাস্ত!

ছবি

রাশিয়া: এবারের নির্বাচনে জনপ্রিয়তা কমলেও বড় জয়ের প্রত্যাশা ক্ষমতাসীন দলের

ছবি

আফগানিস্তানে মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

tab

আন্তর্জাতিক

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ‘লড়তে চান’ গাদ্দাফির ছেলে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১

আগামীতে লিবিয়ার নেতৃত্ব দিতে চান দেশটির সাবেক স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির একমাত্র জীবিত ছেলে সাইফ আল ইসলাম।

সম্প্রতি নিউইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লিবিয়া এবং নিজের বিষয়ে নানা পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন তিনি।

২০১১ সালের নভেম্বরে লিবিয়ার সাবেক বিদ্রোহী গোষ্ঠী আজমি আল-আতিরি সাইফ গাদ্দাফিকে আটক করে এবং তখন থেকে সাইফ এ গোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রিত কারাগারে আটক ছিলেন।

সাংবাদিক সাইফকে জিজ্ঞেস করেন, তিনি বন্দী কি না। জবাবে সাইফ বলেন, তিনি এখন মুক্ত এবং রাজনৈতিক ক্ষমতা ফিরে পেতে কাজ করছেন। এক দশক আগে যারা তাকে গ্রেফতার করেছিল, পরে তারা হতাশ হয়ে পড়ে। একসময় সেই বিপ্লবীরা উপলব্ধি করে, সাইফ তাদের শক্তিশালী মিত্র হতে পারে।

সাইফ বলেন, আপনি কল্পনা করতে পারেন? যারা আমাকে বন্দী হিসেবে পাহারা দিয়ে রাখার কথা ছিল, তাঁরা এখন আমার ভালো বন্ধু।

লিবিয়া সরকার অবশ্য দাবি করেছিল সাইফ গাদ্দাফি তাদের নিয়ন্ত্রিত কারাগারে রয়েছেন। ২০১৩ সালে ত্রিপোলির একটি আদালত সাইফসহ গাদ্দাফির শাসনামলের প্রায় ৩০ জন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাকে ২০১১ সালের অভ্যুত্থানের সময়কার অপরাধের জন্য অভিযুক্ত করেছে।

ওই অভুত্থানে গাদ্দাফি ক্ষমতাচ্যুত ও নিহত হন। পরে ২০১৫ সালে সাইফসহ আটজনের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত।

নিউইয়র্ক টাইমসকে সাইফ জানিয়েছেন লিবিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়তে চান। তিনি বলেন, আমি দশ বছর ধরে লিবিয়ার জনগণ থেকে দূরে রয়েছি। ধীরে ধীরে ফিরে আসতে হবে। জনগণের মন জয় করতে হবে।

বাবা গাদ্দাফি হত্যার পর তাকেই লিবিয়ার পরবর্তী উত্তরসূরি ভেবেছিলেন অনেকে। কিন্তু তা হয়ে উঠেনি। গাদ্দাফির সাত সন্তানের মধ্যে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন তিনজন।

২০১১ সালে বিদ্রোহীদের হাতে প্রদানমন্ত্রী গাদ্দাফি খুন হওয়ার একদিন পর সাইফও ধরে পড়েন। ২০১৭ সালে বিদ্রোহীদের কবল থেকে মুক্তি পাওয়ার পর সাইফকে আর জনসমক্ষে তেমন দেখা যায়নি।

back to top