alt

আন্তর্জাতিক

পুরুষের পাশাপাশি আফগান নারীদের কাজ করা উচিত নয়: তালেবান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

নারী ও পুরুষের একসঙ্গে কাজ করা উচিত নয় বলে আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবানের এক জ্যেষ্ঠ সদস্য জানিয়েছেন।

তালেবানের জ্যেষ্ঠ নেতা ওয়াহেদউদ্দিন হাশিমি বলেছেন, আফগান নারীদের পুরুষের পাশাপাশি কাজ করার অনুমতি দেওয়া ‘উচিত হবে না’। খবর রয়টার্সের

আনুষ্ঠানিকভাবে এই নিয়ম চালু করা হলে সরকারি অফিস, ব্যাংক কিংবা মিডিয়া কোম্পানিসহ অনেক ক্ষেত্রেই আফগান নারীদের কাজের সুযোগ বন্ধ হয়ে যাবে।

হাশিমি বলেন, নারীদের যেখানে খুশি সেখানে কাজ করার অধিকার দেওয়ার বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপ সত্ত্বেও তালেবান তাদের সংস্করণের শরিয়াহ বা ইসলামি আইন সম্পূর্ণরূপে বাস্তবায়ন করবে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত তালেবান শাসনামলে পুরুষের লিখিত অনুমতি ছাড়া নারীদের ঘরের বাইরে যাওয়া ছিল নিষিদ্ধ। সেই অনুমতি থাকলেও তাদের বের হতে হত সর্বাঙ্গ ঢাকা বোরখা পরে। বয়ঃপ্রাপ্ত হলেই মেয়েদের স্কুলে যাওয়া ছিল নিষিদ্ধ, নারীদের চাকরি করারও সুযোগ ছিল না।

তালেবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর থেকেই তাদের অধীনে নারীদের ভবিষ্যত নিয়ে তৈরি হয় উদ্বেগ, আতঙ্ক।

দুই দশক পর আবারও আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তালেবান বলেছে, তাদের শাসনে নারীরা অধিকার পাবে ‘শরিয়া আইন অনুযায়ী’। নারীরা কীভাবে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবে, সে বিষয়ে সম্প্রতি নতুন নিয়ম জারি করেছে তারা।

ওয়াহেদউদ্দিন হাশিমি বলেন, আফগানিস্তানে শরিয়া আইন প্রতিষ্ঠায় প্রায় ৪০ বছর ধরে আমরা লড়াই করে চলেছি। আর পরিবারের বাইরে নারী পুরুষ একসঙ্গে থাকা, এক ছাদের নিচে বসা, এসব তো শরিয়তে নেই।

তিনি বলেন, নারী আর পুরুষ একসঙ্গে কাজ করতে পারে না, এটা স্পষ্ট। তারা আমাদের অফিসগুলোতে আসতে পারবে না, আমাদের মন্ত্রণালয়গুলোতে কাজ করতে পারবে না।

গত ১৫ আগস্ট কাবুল পতনের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে চলে যায়। চলতি মাসের শুরুর দিকে তালেবান নতুন সরকার গঠনের ঘোষণা দেয়। তালেবানের এই সরকারের মন্ত্রিসভায় কোনো নারী সদস্য নেই।

তালেবানের সরকার গঠনের দিন থেকেই আফগানিস্তানের নারীরা প্রকাশ্যে বিক্ষোভের চেষ্টা চালিয়ে আসছেন। গত ২০ বছরে যে অধিকার তারা পেয়েছেন, যে অগ্রগতি আফগান নারীদের জীবনে এসেছে, তা নষ্ট না করার দাবি জানাচ্ছেন তারা।

নারীদের কোনো কোনো জমায়েত ফাঁকা গুলি ছুড়ে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে তালেবান।

ছবি

রাশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলি, নিহত ৮

ছবি

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে নারী জন্ম দিলেন ‘ই-বেবি’

ছবি

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, ৮ জন নিহত

ছবি

রাশিয়ায় নির্বাচন : পুতিনের দল এগিয়ে, ২য় স্থানে কমিউনিস্ট পার্টি

ছবি

যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা বৈঠক বাতিল

ছবি

মেয়েদের সমর্থনে স্কুলে যাচ্ছে না অনেক আফগান ছেলে

ছবি

জাতিসংঘে বিশ্ব নেতারা, মনোযোগ করোনা মহামারী ও জলবায়ুতে

অতিরিক্ত কাজের চাপে বছরে মৃত্যু ১৯ লাখ: ডব্লিউএইচও-আইএলও’র গবেষণা

ছবি

তালেবানের সঙ্গে সংলাপ শুরু করেছে পাকিস্তান

ছবি

জেল থেকে পালানো ২ ফিলিস্তিনি আটক

ছবি

কাবুলে মার্কিন ড্রোন হামলা : নিহতদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ দাবি

ছবি

শুধু ছেলেদের জন্য স্কুল খোলার অনুমতি দিয়েছে তালেবান

ছবি

ফ্রান্সের অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া মিথ্যা বলছে

ছবি

আফগানিস্তানে তিনটি শক্তিশালী বিস্ফোরণ, নিহত ২

ছবি

আফগানিস্তানে নারী মন্ত্রণালয়ের নামফলক মুছে ফেলে বসানো হচ্ছে নৈতিকতা মন্ত্রণালয়

ছবি

কাবুলে মার্কিন বাহিনীর ‘ড্রোন হামলার সিদ্ধান্ত ছিল ভুল’

ছবি

চলে গেলেন আলজেরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দেল আজিজ

ছবি

আফগানিস্তানে শুধু ছেলেদের জন্য স্কুল খুলছে

ছবি

ইতালিতে টিকা না নেওয়ায় বহিষ্কার ৭২৮ ডাক্তার!

ছবি

করোনায় বিশ্বে মৃত্যুতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র-ব্রাজিল

ছবি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য নতুন জোট, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তীব্র সমালোচনা

ছবি

তালেবানের ভয়ে আফগান সঙ্গীতশিল্পীরা পালিয়ে গেছেন পাকিস্তানে

ছবি

আফগানিস্তানের কালোবাজারে ভিসা বাণিজ্য রমরমা

ছবি

শিশুদের ক্ষেত্রে মিশ্র টিকার কার্যকারিতা পরখ করবে যুক্তরাজ্য

ছবি

ট্রাম্পের মতো আচরণ করছেন বাইডেন

ছবি

টিকাবিহীন হওয়ায় ফ্রান্সে তিন হাজার স্বাস্থ্যকর্মী বরখাস্ত!

ছবি

রাশিয়া: এবারের নির্বাচনে জনপ্রিয়তা কমলেও বড় জয়ের প্রত্যাশা ক্ষমতাসীন দলের

ছবি

আফগানিস্তানে মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

ছবি

চীনের ৭১ শতাংশ জনগণ পেয়েছে টিকার পূর্ণ ডোজ

ছবি

অনিশ্চতার মধ্যে বিদেশেই আশ্রয় খুঁজছে আফগান কূটনীতিকরা

ছবি

আজ মোদির জন্মদিন, ভারতজুড়ে বিজেপির ২০ দিনের কর্মসূচি

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

ছবি

করোনা টিকা না নেওয়ায় ফ্রান্সে ৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী বরখাস্ত

ছবি

আইএস প্রধান সাহারা অঞ্চলের নিহত হয়েছেন: ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট

ছবি

তালেবানের ক্ষমতা গ্রহণের একমাসে আফগানদের জন জীবন

ছবি

টাইমে বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় মমতাসহ আছেন মোদি-পুনাওয়ালা

tab

আন্তর্জাতিক

পুরুষের পাশাপাশি আফগান নারীদের কাজ করা উচিত নয়: তালেবান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

নারী ও পুরুষের একসঙ্গে কাজ করা উচিত নয় বলে আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবানের এক জ্যেষ্ঠ সদস্য জানিয়েছেন।

তালেবানের জ্যেষ্ঠ নেতা ওয়াহেদউদ্দিন হাশিমি বলেছেন, আফগান নারীদের পুরুষের পাশাপাশি কাজ করার অনুমতি দেওয়া ‘উচিত হবে না’। খবর রয়টার্সের

আনুষ্ঠানিকভাবে এই নিয়ম চালু করা হলে সরকারি অফিস, ব্যাংক কিংবা মিডিয়া কোম্পানিসহ অনেক ক্ষেত্রেই আফগান নারীদের কাজের সুযোগ বন্ধ হয়ে যাবে।

হাশিমি বলেন, নারীদের যেখানে খুশি সেখানে কাজ করার অধিকার দেওয়ার বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপ সত্ত্বেও তালেবান তাদের সংস্করণের শরিয়াহ বা ইসলামি আইন সম্পূর্ণরূপে বাস্তবায়ন করবে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত তালেবান শাসনামলে পুরুষের লিখিত অনুমতি ছাড়া নারীদের ঘরের বাইরে যাওয়া ছিল নিষিদ্ধ। সেই অনুমতি থাকলেও তাদের বের হতে হত সর্বাঙ্গ ঢাকা বোরখা পরে। বয়ঃপ্রাপ্ত হলেই মেয়েদের স্কুলে যাওয়া ছিল নিষিদ্ধ, নারীদের চাকরি করারও সুযোগ ছিল না।

তালেবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর থেকেই তাদের অধীনে নারীদের ভবিষ্যত নিয়ে তৈরি হয় উদ্বেগ, আতঙ্ক।

দুই দশক পর আবারও আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তালেবান বলেছে, তাদের শাসনে নারীরা অধিকার পাবে ‘শরিয়া আইন অনুযায়ী’। নারীরা কীভাবে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবে, সে বিষয়ে সম্প্রতি নতুন নিয়ম জারি করেছে তারা।

ওয়াহেদউদ্দিন হাশিমি বলেন, আফগানিস্তানে শরিয়া আইন প্রতিষ্ঠায় প্রায় ৪০ বছর ধরে আমরা লড়াই করে চলেছি। আর পরিবারের বাইরে নারী পুরুষ একসঙ্গে থাকা, এক ছাদের নিচে বসা, এসব তো শরিয়তে নেই।

তিনি বলেন, নারী আর পুরুষ একসঙ্গে কাজ করতে পারে না, এটা স্পষ্ট। তারা আমাদের অফিসগুলোতে আসতে পারবে না, আমাদের মন্ত্রণালয়গুলোতে কাজ করতে পারবে না।

গত ১৫ আগস্ট কাবুল পতনের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে চলে যায়। চলতি মাসের শুরুর দিকে তালেবান নতুন সরকার গঠনের ঘোষণা দেয়। তালেবানের এই সরকারের মন্ত্রিসভায় কোনো নারী সদস্য নেই।

তালেবানের সরকার গঠনের দিন থেকেই আফগানিস্তানের নারীরা প্রকাশ্যে বিক্ষোভের চেষ্টা চালিয়ে আসছেন। গত ২০ বছরে যে অধিকার তারা পেয়েছেন, যে অগ্রগতি আফগান নারীদের জীবনে এসেছে, তা নষ্ট না করার দাবি জানাচ্ছেন তারা।

নারীদের কোনো কোনো জমায়েত ফাঁকা গুলি ছুড়ে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে তালেবান।

back to top