alt

আন্তর্জাতিক

বাইডেনের জীবন বাঁচানো আফগান দোভাষী উদ্ধার

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১

তালেবান ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তান থেকে আমান খালিলি নামের এক দোভাষীকে সরিয়ে নিতে সহায়তা করেছিল পাকিস্তান। ওই দোভাষী ১৩ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও তৎকালীন সিনেটর জো বাইডেন ও আরও দুজন মার্কিন সিনেটরকে তুষারঝড় থেকে উদ্ধার করেছিলেন। স্থানীয় সময় গত মঙ্গলবার কূটনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ডন।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা দ্য হিউম্যান ফার্স্ট কোয়ালিশন আফগান বংশোদ্ভূত দুজন মার্কিনের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। এই বেসরকারি সংস্থা আফগানিস্তান থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়ার তত্ত্বাবধানে ছিল।

দ্য হিউম্যান ফার্স্ট কোয়ালিশন যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমকে জানায়, তারা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রতি কৃতজ্ঞ। আফগানিস্তান থেকে আমান খালিলি ও তাঁর পরিবারকে সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়ায় ইমরান খান অব্যাহতভাবে সহযোগিতা করেছেন।

কোয়ালিশন ওই বিবৃতিতে আরও জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন, কংগ্রেসম্যান জেফ ফোর্টেনবেরি, সিনেটর ক্রিস কুন, টাস্কফোর্স ইসলামাবাদের পরিচালক মার্ক টেরকোয়েস্কি ও অন্যরা আমান খালিলি নামের ওই দোভাষী ও তাঁর পরিবারকে আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিতে কোয়ালিশনকে সহায়তা করেছিলেন।

২০০৮ সালে তুষারঝড়ের কবলে পড়ে তৎকালীন সিনেটর জো বাইডেনকে বহনকারী একটি হেলিকপ্টার আফগানিস্তানের প্রত্যন্ত অঞ্চলে জরুরি অবতরণ করে। ওই হেলিকপ্টারে নেব্রাস্কার সিনেটর চাক হ্যাগেল ও ম্যাসাচুসেটসের সিনেটর জন কেরিও ছিলেন। সে সময় বাইডেন ও তাঁর সঙ্গীদের উদ্ধারে সহায়তা করেন খালিলি।

গত ৩১ আগস্ট খালিলি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের মাধ্যমে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে একটি বার্তা দেন। তিনি বাইডেনকে বলেন, ‘হ্যালো মি. প্রেসিডেন্ট, আমাকে ও আমার পরিবারকে বাঁচান।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাকে ভুলে আফগানিস্তানে রেখে যাবেন না।’ ওই দিনই চূড়ান্ত পর্যায়ে মার্কিন সেনাদের আফগানিস্তান ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা ছিল।

সে সময় পাকিস্তানের বেসরকারি সংস্থা দ্য হিউম্যান ফার্স্ট কোয়ালিশন খালিলি ও তাঁর পরিবারকে মাজার–ই–শরিফ থেকে কাবুলে নিয়ে যায়। এরপর তাঁদের আফগানিস্তানের হেলমান্দ প্রদেশে নেওয়া হয়। সেখান থেকে পাকিস্তানের সহযোগিতায় খালিলি ও তাঁর পরিবারকে সীমান্ত পার করে ইসলামাবাদে নেওয়া হয়। কাতার থেকে আসা যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক উড়োজাহাজ তাঁদের ইসলামাবাদ থেকে নিয়ে আরেকটি নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যায়।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, মার্কিন কর্মকর্তারা খালিলিকে প্রাথমিক পর্যায়ে উদ্ধারের জন্য পাকিস্তানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পাকিস্তানের সহযোগিতায় মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যে খালিলিকে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব হয়।

ছবি

উইঘুর ইস্যুতে চীনের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়ছে

ছবি

বিদেশি শ্রমিক ও পর্যটকদের প্রবেশে অনুমতি দেবে মালয়েশিয়া

ছবি

দলীয় নেতাদের সামনেই বিজেপি কর্মীদের মারপিট

ছবি

চীন ও রাশিয়ার সঙ্গে হাইপারসোনিক অস্ত্র নির্মাণের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

প্রায় দুই বছর পর তেহরানে ফের জুমার নামাজ শুরু

রাশিয়ায় রাসায়নিক কারখানায় বিস্ফোরণে নিহত ১৬

ছবি

চার মাস ধরে বেতন পান না আফগান শিক্ষকরা

ছবি

সিরিয়ায় ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

ছবি

চীনে ফের সংক্রমণ, ফ্লাইট বাতিল-স্কুল বন্ধ

ছবি

প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সঙ্গে সেলফি তুলে বিপদে নারী পুলিশ

ছবি

ফের সাংবাদিকদের মারলো তালেবান

ছবি

প্রথমবারের মতো মহাকাশ রকেট উৎক্ষেপণ দ. কোরিয়ার

ছবি

ফের পুলিশের হাতে আটক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী,পরে মুক্তি

ছবি

ভারত ও নেপালে বন্যা-ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা ১৫০ ছাড়িয়েছে

ছবি

২০২২ সালেও চলতে পারে করোনা মহামারি: ডব্লিউএইচও

ছবি

উত্তর কোরিয়ার সাথে বৈঠকে বসতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

সিরিয়া সেনাবহরে বোমা হামলা, নিহত ১৪

ছবি

ভারত ও নেপালে বন্যা, ভূমিধসে মৃত্যু শতাধিক

ছবি

মানবদেহে প্রথমবার শূকরের কিডনির সফল প্রতিস্থাপন

ছবি

নেপালে বন্যা-ভূমিধসে নিহত ৪৩

ছবি

হাইতিতে মিশনারি অপহরণ : প্রতিজন ১০ লাখ ডলারে মুক্তিপণ দাবি

ছবি

ভারতের উত্তরাখাণ্ডে দুর্যোগে মৃত্যু বেড়ে ৪৬

ছবি

মুসলিম প্রেমিকের সঙ্গে বিল গেটসের মেয়ের জমকালো বিয়ে

ছবি

বন্দুকধারীদের হামলায় নাইজেরিয়ায় নিহত ৪৩

ছবি

ফের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া

ছবি

প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী কলিন পাওয়েল আর নেই

ছবি

এ সপ্তাহেই জার্মানিতে নতুন সরকার গঠনের প্রক্রিয়া শুরু

ছবি

সাড়ে ৫ হাজার রাজবন্দিকে মুক্তি দিচ্ছে মিয়ানমার

ছবি

ভারতের কেরালায় বন্যা : ২৭ জনের মৃত্যু

ছবি

ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে বেলারুশ ত্যাগের নির্দেশ

ছবি

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন বিল ক্লিন্টন

ছবি

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত

ছবি

চীনের নতুন ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষায় উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

ভারী বৃষ্টি, বন্যা ও ভূমিধসে বিপর্যস্ত কেরালা, নিহত ১৮

ছবি

হাইতিতে ১৭ জন মার্কিন মিশনারিকে অপহরণ

ছবি

যৌন হয়রানির প্রতিবাদে চাকরি খোয়ালেন অ্যাপলের নারী কর্মী

tab

আন্তর্জাতিক

বাইডেনের জীবন বাঁচানো আফগান দোভাষী উদ্ধার

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১

তালেবান ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তান থেকে আমান খালিলি নামের এক দোভাষীকে সরিয়ে নিতে সহায়তা করেছিল পাকিস্তান। ওই দোভাষী ১৩ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও তৎকালীন সিনেটর জো বাইডেন ও আরও দুজন মার্কিন সিনেটরকে তুষারঝড় থেকে উদ্ধার করেছিলেন। স্থানীয় সময় গত মঙ্গলবার কূটনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ডন।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা দ্য হিউম্যান ফার্স্ট কোয়ালিশন আফগান বংশোদ্ভূত দুজন মার্কিনের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। এই বেসরকারি সংস্থা আফগানিস্তান থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়ার তত্ত্বাবধানে ছিল।

দ্য হিউম্যান ফার্স্ট কোয়ালিশন যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমকে জানায়, তারা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রতি কৃতজ্ঞ। আফগানিস্তান থেকে আমান খালিলি ও তাঁর পরিবারকে সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়ায় ইমরান খান অব্যাহতভাবে সহযোগিতা করেছেন।

কোয়ালিশন ওই বিবৃতিতে আরও জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন, কংগ্রেসম্যান জেফ ফোর্টেনবেরি, সিনেটর ক্রিস কুন, টাস্কফোর্স ইসলামাবাদের পরিচালক মার্ক টেরকোয়েস্কি ও অন্যরা আমান খালিলি নামের ওই দোভাষী ও তাঁর পরিবারকে আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিতে কোয়ালিশনকে সহায়তা করেছিলেন।

২০০৮ সালে তুষারঝড়ের কবলে পড়ে তৎকালীন সিনেটর জো বাইডেনকে বহনকারী একটি হেলিকপ্টার আফগানিস্তানের প্রত্যন্ত অঞ্চলে জরুরি অবতরণ করে। ওই হেলিকপ্টারে নেব্রাস্কার সিনেটর চাক হ্যাগেল ও ম্যাসাচুসেটসের সিনেটর জন কেরিও ছিলেন। সে সময় বাইডেন ও তাঁর সঙ্গীদের উদ্ধারে সহায়তা করেন খালিলি।

গত ৩১ আগস্ট খালিলি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের মাধ্যমে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে একটি বার্তা দেন। তিনি বাইডেনকে বলেন, ‘হ্যালো মি. প্রেসিডেন্ট, আমাকে ও আমার পরিবারকে বাঁচান।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাকে ভুলে আফগানিস্তানে রেখে যাবেন না।’ ওই দিনই চূড়ান্ত পর্যায়ে মার্কিন সেনাদের আফগানিস্তান ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা ছিল।

সে সময় পাকিস্তানের বেসরকারি সংস্থা দ্য হিউম্যান ফার্স্ট কোয়ালিশন খালিলি ও তাঁর পরিবারকে মাজার–ই–শরিফ থেকে কাবুলে নিয়ে যায়। এরপর তাঁদের আফগানিস্তানের হেলমান্দ প্রদেশে নেওয়া হয়। সেখান থেকে পাকিস্তানের সহযোগিতায় খালিলি ও তাঁর পরিবারকে সীমান্ত পার করে ইসলামাবাদে নেওয়া হয়। কাতার থেকে আসা যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক উড়োজাহাজ তাঁদের ইসলামাবাদ থেকে নিয়ে আরেকটি নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যায়।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, মার্কিন কর্মকর্তারা খালিলিকে প্রাথমিক পর্যায়ে উদ্ধারের জন্য পাকিস্তানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পাকিস্তানের সহযোগিতায় মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যে খালিলিকে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব হয়।

back to top