alt

জাতীয়

তিন বছর পার হয়ে গেছে, অথচ একজন রোহিঙ্গাও ফেরত যায়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সংবাদ :
  • সংবাদ অনলাইন ডেস্ক
image
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

তিন বছর পার হয়ে গেছে, অথচ একজনও ফেরত যায়নি এমন অভিযোগ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্পর্কে অনেক বক্তব্য শুনি কিন্তু কাজের সময় উল্টো পরিস্থিতি হয়। বিশেষ করে চীন যাদের ওপর বাংলাদেশ অনেক আশা করেছিল তারা এ বিষয়ে উদ্যোগ নেবে। সবাই বলে কিন্তু একজন রোহিঙ্গাও তো নিজ দেশে ফেরত যায় না।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) নিজ মন্ত্রণালয় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা জানান।

ড. মোমেন বলেন, কিছুদিন আগে জাপানের রাষ্ট্রদূত আমার সঙ্গে দেখা করে বলেছিলেন তারা এক পায়ে দাঁড়িয়ে আছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সাহায্য করতে। জাপানের সঙ্গে মিয়ানমারের খুব ভালো সম্পর্ক। সুতরাং আমরা মনে করেছি-জাপানের কথা মিয়ানমার শুনবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পাঠাতে বাংলাদেশ সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে। জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য সংস্থার মহাপরিচালক আমাকে বলেছেন, ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের খাওয়াতে কুতুপালং ক্যাম্পের চেয়ে বেশি খরচের তফাৎ হবে না।

রোহিঙ্গারা যারা ভাসানচরে যাবেন তারা সেখানে মাছধরা, মুরগিপালা, গরুপালার মতো অর্থনৈতিক কর্মকা-ে যুক্ত হতে পারবেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রী জানান।

জানা গেছে, কক্সবাজার থেকে এক লক্ষ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে সরিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে এই প্রকল্প গ্রহণ করে বাংলাদেশ সরকার।এই প্রকল্পের নাম দেয়া হয়েছে আশ্রয়ণ-৩ প্রকল্প, আর এটি বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয়া হয় বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে। এই চরে এক লক্ষ রোহিঙ্গার জন্য ১২০টি ক্লাস্টার বা গুচ্ছগ্রাম নির্মাণ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে ১,৪৪০টি ঘর নির্মাণ করা হয়ে। প্রতিটি ঘরে রয়েছে ১৬টি কক্ষ - সামনে ৮টি এবং পেছনের দিকে আরও ৮টি। রান্নার জন্য প্রতিটি পরিবারের জন্য একটি করে চুলার জায়গা বরাদ্দ করা আছে। আর প্রতি ৮টি কক্ষের জন্য তিনটি টয়লেট এবং দুটি গোসলখানা রয়েছে।

প্রতিটি কক্ষে দুটো ডাবল বাঙ্কার বা দোতলা খাট রয়েছে। অর্থাৎ একটি কক্ষে চারজন থাকতে পারবেন। যদি একটি পরিবারে সদস্য সংখ্যা চারজনের বেশি হয়, তাহলে তাদের জন্য দুটো কক্ষ বরাদ্দ করা হবে। রান্নাঘর, গোসলখানা এবং টয়লেটে পানির সরবরাহ রয়েছে।এর পাশাপাশি প্রতিটি ক্লাস্টারে একটি করে পুকুর রয়েছে। এসব পুকুরের গভীরতা ১০ ফুট। এসব পুকুরে পানি গৃহস্থালির কাজে ব্যবহার করা যাবে।

ছবি

চীনের উপহার দেয়া পাঁচ লাখ ডোজ টিকা ঢাকায় পৌঁছেছে

ছবি

আজও গ্রামের পথে ছুটছে মানুষ

ছবি

স্কুলগামী শিশু শিক্ষণ ঘাটতির ঝুঁকিতে: পিপিআরসি এবং বিআইজিডি’র গবেষণা

ছবি

চীন আগাম মন্তব্য করেছে, বললেন মোমেন

ছবি

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ১০ কি.মি যানজট

ছবি

৫ কোটি ডোজ টিকা চেয়ে চীনকে চিঠি

ছবি

প্রথমবারের মতো চললো মেট্রোরেল

ছবি

বাংলাদেশের ফ্লাইটে এবার কুয়েতের নিষেধাজ্ঞা

ছবি

করোনায় শিক্ষা ঝুঁকিতে ৫৯ লাখ শিক্ষার্থী 

ছবি

সক্রিয় রোগী কমেছে, ঈদের পর সংক্রমণ নিয়ে শঙ্কা

ছবি

টিকা : দ্বিতীয় ডোজের ঘাটতি কীভাবে পূরণ হবে?

ছবি

কষ্টের যাত্রা চারগুণ ভাড়া : তারপরও ভিড়

ছবি

দেশে করোনায় প্রাণ গেল আরও ৩৮ জনের, শনাক্ত ১৫১৪

ছবি

চীন থেকে টিকা কিনে পেতে ‘অপেক্ষা’ করতে হবে

ছবি

বাংলাদেশ কোয়াডে যুক্ত হলে সম্পর্ক ‘খারাপ’ হবে: চীনের রাষ্ট্রদূত

ছবি

মোদিকে শেখ হাসিনার চিঠি

ছবি

৮ বিভাগে বজ্রবৃষ্টির সম্ভাবনা, নৌবন্দরে সতর্ক সংকেত

ছবি

বুধবার আসছে চীনের উপহারের ৫ লাখ ডোজ টিকা

ছবি

ড. ওয়াজেদ মিয়া রাজনীতি থেকে দূরে থেকে বিজ্ঞানের উন্নয়নে কাজ করে গেছেন: স্থপতি ইয়াফেস ওসমান

ছবি

করোনা টিকা: সেরামের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার পরামর্শ সংসদীয় কমিটির

ছবি

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট: সতর্কতার বার্তা জনস্বাস্থ্যবিদদের

ছবি

দেশে করোনায় আরও ৫৬ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১৩৮৬

ছবি

খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি দেয়নি সরকার

ছবি

একটা ঈদ বাড়িতে না করলে কী হয়

ছবি

অনির্দিষ্টকালের জন্য নেপালের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ

ছবি

আজ বিশ্ব মা দিবস

ছবি

আজ লাইলাতুল কদর

ছবি

শিমুলিয়া ঘাটে আজো ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

ছবি

আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ অভিবাসীর ৭৭ শতাংশই চাকরি খুঁজছেন

ছবি

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন দেশের ৩৪ লক্ষাধিক মানুষ

ছবি

দেশে করোনায় সাত সপ্তাহে সর্বনিম্ন শনাক্ত

ছবি

দেশে করোনায় আরও ৪৫ মৃত্যু, শনাক্ত ১২৮৫

দেশে করোনার ভারতীয় ধরন শনাক্ত

ছবি

ফেরি বন্ধ, ঘাটে তবুও ভিড়

ছবি

ঈদের আগে দূরপাল্লার গণপরিবহন চালুর দাবি, বিক্ষোভের হুঁশিয়ারি

ছবি

লকডাউনের ১৮ কর্মদিবসে জামিন পেলেন ৩১,২০৮ হাজতি

tab

জাতীয়

তিন বছর পার হয়ে গেছে, অথচ একজন রোহিঙ্গাও ফেরত যায়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সংবাদ :
  • সংবাদ অনলাইন ডেস্ক
image
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

তিন বছর পার হয়ে গেছে, অথচ একজনও ফেরত যায়নি এমন অভিযোগ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্পর্কে অনেক বক্তব্য শুনি কিন্তু কাজের সময় উল্টো পরিস্থিতি হয়। বিশেষ করে চীন যাদের ওপর বাংলাদেশ অনেক আশা করেছিল তারা এ বিষয়ে উদ্যোগ নেবে। সবাই বলে কিন্তু একজন রোহিঙ্গাও তো নিজ দেশে ফেরত যায় না।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) নিজ মন্ত্রণালয় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা জানান।

ড. মোমেন বলেন, কিছুদিন আগে জাপানের রাষ্ট্রদূত আমার সঙ্গে দেখা করে বলেছিলেন তারা এক পায়ে দাঁড়িয়ে আছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সাহায্য করতে। জাপানের সঙ্গে মিয়ানমারের খুব ভালো সম্পর্ক। সুতরাং আমরা মনে করেছি-জাপানের কথা মিয়ানমার শুনবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পাঠাতে বাংলাদেশ সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে। জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য সংস্থার মহাপরিচালক আমাকে বলেছেন, ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের খাওয়াতে কুতুপালং ক্যাম্পের চেয়ে বেশি খরচের তফাৎ হবে না।

রোহিঙ্গারা যারা ভাসানচরে যাবেন তারা সেখানে মাছধরা, মুরগিপালা, গরুপালার মতো অর্থনৈতিক কর্মকা-ে যুক্ত হতে পারবেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রী জানান।

জানা গেছে, কক্সবাজার থেকে এক লক্ষ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে সরিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে এই প্রকল্প গ্রহণ করে বাংলাদেশ সরকার।এই প্রকল্পের নাম দেয়া হয়েছে আশ্রয়ণ-৩ প্রকল্প, আর এটি বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয়া হয় বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে। এই চরে এক লক্ষ রোহিঙ্গার জন্য ১২০টি ক্লাস্টার বা গুচ্ছগ্রাম নির্মাণ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে ১,৪৪০টি ঘর নির্মাণ করা হয়ে। প্রতিটি ঘরে রয়েছে ১৬টি কক্ষ - সামনে ৮টি এবং পেছনের দিকে আরও ৮টি। রান্নার জন্য প্রতিটি পরিবারের জন্য একটি করে চুলার জায়গা বরাদ্দ করা আছে। আর প্রতি ৮টি কক্ষের জন্য তিনটি টয়লেট এবং দুটি গোসলখানা রয়েছে।

প্রতিটি কক্ষে দুটো ডাবল বাঙ্কার বা দোতলা খাট রয়েছে। অর্থাৎ একটি কক্ষে চারজন থাকতে পারবেন। যদি একটি পরিবারে সদস্য সংখ্যা চারজনের বেশি হয়, তাহলে তাদের জন্য দুটো কক্ষ বরাদ্দ করা হবে। রান্নাঘর, গোসলখানা এবং টয়লেটে পানির সরবরাহ রয়েছে।এর পাশাপাশি প্রতিটি ক্লাস্টারে একটি করে পুকুর রয়েছে। এসব পুকুরের গভীরতা ১০ ফুট। এসব পুকুরে পানি গৃহস্থালির কাজে ব্যবহার করা যাবে।

back to top