alt

রাজনীতি

সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডার

বাবুনগরী-মামুনুলকে গ্রেপ্তারের দাবি ইনুর

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image
রোববার, ০৪ এপ্রিল ২০২১

সম্প্রতি দেশব্যাপী হেফাজতে ইসলামের তান্ডব ও সহিংসতার ঘটনায় উসকানিদাতা হিসেবে সংগঠনের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ও যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করার দাবি জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু। রোববার একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশনের সমাপনী (৩য় কার্যদিবস) দিবসে ‘পয়েন্ট অব অর্ডারে (অনির্ধারিত আলোচনায়)’ দাঁড়িয়ে তিনি এ দাবি জানান। এর আগে সকালে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনের মুলতবি বৈঠক শুরু হয়।

২৬ মার্চের ঘটনায় বাবুনগরী ও মামুনুল হক উসকানি দিয়েছে উল্লেখ করে জাদস সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘হুকুম ও উসকানিদাতা হিসেবে মামুনুল হক ও বাবুনগরীকে প্রধান আসামি হিসেবে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলবো রাখ-ঢাক না করে মামুনুল হক, বাবুনগরীদেরর নাম উচ্চারণ করুন। উসকানিদাতাদের কারাগারে নিক্ষেপ করুন।’

২৬ থেকে ২৮ মার্চ দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতার ঘটনা উল্লেখ করে জাসদ সভাপতি বলেন, ‘হেফাজত আর বিএনপি-জামায়াত একই চক্র, তারা একই গোষ্ঠী। অপশক্তিকে বিএনপি সমর্থন করছে। এটা রাষ্ট্রের জন্য হুমকিস্বরূপ, বিপদস্বরূপ। শক্তভাবে দমন করা ছাড়া কোনো পথ নেই। তিনি আরও বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছিলেন উপলক্ষ্য মাত্র। কার্যত হেফাজত একাত্তরের পাকিস্তান সমর্থক রাজাকারের উত্তরসূরি হিসেবে রাষ্ট্র ও সংবিধানকে অস্বীকার করছে। দেশ ও গণতান্ত্রিক পদ্ধতিকে অস্বীকার করছে।’

জাসদ সভাপতি বলেন, ‘হেফাজতে ইসলাম যেটা করেছে তা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার শামিল। ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙা, বুড়িগঙ্গায় ফেলে দেওয়ার হুমকি।’ তিনি আরও বলেন, ‘কুষ্টিয়ায় ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার ঘটনা সবই নজরে নেওয়া উচিত। বঙ্গবন্ধু রাষ্ট্রের প্রতীক। বঙ্গবন্ধুর ওপর আক্রমণ হচ্ছে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা। রাষ্ট্রকে অস্বীকার করা। তারা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপরও আক্রমণ করেছে।’

পুলিশের ভূমিকার প্রসঙ্গ টেনে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘হামলার ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত। তাদের তাণ্ডবে পুলিশ প্রশাসনের অসহায়ত্ব দেখা গেছে। এই দুর্বলতা কেন? পুলিশের গাড়িতে আগুন, আসামি ছিনতাই। পুলিশ কি তার নৈতিক বল হারিয়ে ফেলেছে, নাকি তাদের জনবল কমে গেছে? পুলিশ কেন অসহায়?’

ছবি

রাজনৈতিক ব্লেম গেম থেকে বিরত থাকা সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য: কাদের

ছবি

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ফটোসেশনেও অনুপস্থিত বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

ইলিয়াস আলীকে ফিরিয়ে দেওয়া এ সরকারের দায়িত্ব : মির্জা ফখরুল

ছবি

‘বিএনপির আন্দোলনে নয়, খালেদা জিয়াকে মানবিক কারণে মুক্তি দিয়েছেন’

ছবি

খালেদা জিয়া প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির শিকার : মির্জা ফখরুল

ছবি

খালেদা জিয়ার আবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে

ছবি

খালেদা জিয়ার বিষয়ে মতামত আজকের মধ্যেই

ছবি

শেখ হাসিনার দেশে ফেরার দিন

ছবি

‘মানবিক বিবেচনায় খালেদার বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা নিবে সরকার’

ছবি

খালেদার বিদেশে চিকিৎসার আবেদনে মতামত ‘আজ নয়’

ছবি

তৃতীয় ঢেউ আরও ভয়াবহ হতে পারে,সতর্ক থাকতে হবে: কাদের

ছবি

অবশেষে করোনামুক্ত খালেদা জিয়া

ছবি

খালেদাকে বিদেশে নেয়ার আবেদন, যা বললেন আইনমন্ত্রী

ছবি

করোনা সংকটকালেও সহিংসতার উস্কানি দিচ্ছে বিএনপি: কাদের

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজতের বৈঠক, ৪ দাবি

ছবি

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল: মির্জা ফখরুল

ছবি

আমাকে ৬ তারিখের মধ্যে হত্যা করা হবে: কাদের মির্জার স্ট্যাটাস

ছবি

শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে স্থানান্তর

ছবি

খালেদা-তারেক-ফখরুলের নেতৃত্বে সুবর্ণজয়ন্তীর দিন হামলা: নৌ প্রতিমন্ত্রী

ছবি

মহামারিতে শ্রমিকদের জন্য রেশনিং চালুর দাবি নজরুল ইসলামের

ছবি

খালেদা জিয়ার বাসভবন ‘ফিরোজা’র সব কর্মী করোনামুক্ত

ছবি

টিভির পর্দায় বিএনপিকে দেখা গেলেও জনগণের পাশে তারা নেই : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

খুন-গুমের জবাব সরকারকে দিতে হবে : ফখরুল

ছবি

রওশন এরশাদ সিএমএইচে ভর্তি

আলেম-ওলামাদের নয়, আগুন সন্ত্রাসে জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে : কাদের

ছবি

হেফাজত নেতা হারুন ইজাহার ‘আটক’

ছবি

হেফাজত মাঠে থাকলেও নিষ্ক্রিয় নেতাকর্মীরা গা-ঢাকা দিয়েছেন

ছবি

করোনায় আক্রান্ত খালেদা জিয়া হাসপাতালে

ছবি

ব্যর্থতার দায়ে বিএনপির টপ টু বটম পদত্যাগ করা উচিত : কাদের

ছবি

খালেদা জিয়াকে আবারও সিটি স্ক্যানের জন্য হাসপাতালে নেওয়া হবে

ছবি

হেফাজতের নতুন কমিটিতে পুরাতন নেতারাই

ছবি

জুনায়েদ বাবুনগরীর বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা

ছবি

ভোররাতে হেফাজতের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা

ছবি

হেফাজত নেতার পদত্যাগ, নাশকতায় জড়িতদের বিচার দাবী

ছবি

সাবেক সংসদ সদস্য খসরুর আসন শূন্য ঘোষণা

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজতের বৈঠক, কি কথা হলো!

tab

রাজনীতি

সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডার

বাবুনগরী-মামুনুলকে গ্রেপ্তারের দাবি ইনুর

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image
রোববার, ০৪ এপ্রিল ২০২১

সম্প্রতি দেশব্যাপী হেফাজতে ইসলামের তান্ডব ও সহিংসতার ঘটনায় উসকানিদাতা হিসেবে সংগঠনের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ও যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করার দাবি জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু। রোববার একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশনের সমাপনী (৩য় কার্যদিবস) দিবসে ‘পয়েন্ট অব অর্ডারে (অনির্ধারিত আলোচনায়)’ দাঁড়িয়ে তিনি এ দাবি জানান। এর আগে সকালে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনের মুলতবি বৈঠক শুরু হয়।

২৬ মার্চের ঘটনায় বাবুনগরী ও মামুনুল হক উসকানি দিয়েছে উল্লেখ করে জাদস সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘হুকুম ও উসকানিদাতা হিসেবে মামুনুল হক ও বাবুনগরীকে প্রধান আসামি হিসেবে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলবো রাখ-ঢাক না করে মামুনুল হক, বাবুনগরীদেরর নাম উচ্চারণ করুন। উসকানিদাতাদের কারাগারে নিক্ষেপ করুন।’

২৬ থেকে ২৮ মার্চ দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতার ঘটনা উল্লেখ করে জাসদ সভাপতি বলেন, ‘হেফাজত আর বিএনপি-জামায়াত একই চক্র, তারা একই গোষ্ঠী। অপশক্তিকে বিএনপি সমর্থন করছে। এটা রাষ্ট্রের জন্য হুমকিস্বরূপ, বিপদস্বরূপ। শক্তভাবে দমন করা ছাড়া কোনো পথ নেই। তিনি আরও বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছিলেন উপলক্ষ্য মাত্র। কার্যত হেফাজত একাত্তরের পাকিস্তান সমর্থক রাজাকারের উত্তরসূরি হিসেবে রাষ্ট্র ও সংবিধানকে অস্বীকার করছে। দেশ ও গণতান্ত্রিক পদ্ধতিকে অস্বীকার করছে।’

জাসদ সভাপতি বলেন, ‘হেফাজতে ইসলাম যেটা করেছে তা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার শামিল। ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙা, বুড়িগঙ্গায় ফেলে দেওয়ার হুমকি।’ তিনি আরও বলেন, ‘কুষ্টিয়ায় ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার ঘটনা সবই নজরে নেওয়া উচিত। বঙ্গবন্ধু রাষ্ট্রের প্রতীক। বঙ্গবন্ধুর ওপর আক্রমণ হচ্ছে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা। রাষ্ট্রকে অস্বীকার করা। তারা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপরও আক্রমণ করেছে।’

পুলিশের ভূমিকার প্রসঙ্গ টেনে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘হামলার ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত। তাদের তাণ্ডবে পুলিশ প্রশাসনের অসহায়ত্ব দেখা গেছে। এই দুর্বলতা কেন? পুলিশের গাড়িতে আগুন, আসামি ছিনতাই। পুলিশ কি তার নৈতিক বল হারিয়ে ফেলেছে, নাকি তাদের জনবল কমে গেছে? পুলিশ কেন অসহায়?’

back to top