alt

সারাদেশ

দিনাজপুরে মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা

প্রতিনিধি, দিনাজপুর : রোববার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩

উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা দিনাজপুর। চলিত সপ্তাহে দুইদিনের গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির পরে তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় বাড়ছে শীতের প্রকোপ। সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয় হিমেল বাতাস। আর তার সঙ্গে যোগ দেয় ঘন কুয়াশা। এতে করে দিনের বেলায়ও যানবাহনকে লাইট জ্বালিয়ে চলতে হচ্ছে।

রোববার (১০ ডিসেম্বর) আবহাওয়া অফিসের তথ্য মতে, সকাল ৬টায় দিনাজপুরে ১৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৯৭ ভাগ। চলতি বছরে এটি জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। চলতি সপ্তাহে জেলায় স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত সম্ভাবনা নাই। এছাড়া এই মাসে জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

এদিকে তাপমাত্রা কমায় ব্যস্ততা বেড়েছে জেলার লেপ-তোশকের দোকানে। পাশাপাশি বিভিন্ন গরম কাপড়ের দোকানেও বিক্রি বেড়েছে। শীতের পিঠাপুলি তৈরির ধুম পড়েছে। সড়কের পাশের দোকানগুলোতে ভিড় করে মানুষ পিঠার স্বাদ উপভাগ করছেন।

জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার বড় গ্রামের ইটভাটার শ্রমিক সবুজ ইসলাম বলেন, তিন দিন ধরি ভাটায় যাইনি। দুই দিন বৃষ্টি। গতকাল থেকে সূর্যের দেখা মেলেনি। ঘন কুয়াশার কারণে বাসায় বসে আছি।

ভ্যানচালক রাব্বি ইসলাম বলেন, দুই দিন বৃষ্টির পরে শীত বেশি হওয়ায় সকাল ও সন্ধ্যায় রাস্তায় মানুষের চলাচল কমে গেছে। ঠিকমতো ভাড়া হচ্ছে না। বাজারে সবকিছুর দাম বেশি। এভাবে চলতে থাকলে তো না খেয়ে থাকতে হবে। এদিকে ঠান্ডা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শীতজনিত রোগে আক্রান্তের হার বেড়েছে। বিশেষ করে শিশু ও বয়স্করা বেশি পরিমাণে আক্রান্ত হচ্ছেন। হাসপাতালগুলোতে রোগীর চাপও বেড়েছে।

জেলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, রোববার দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৯৭ ভাগ। চলিত সপ্তাহে টানা দুই দিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাত হওয়ায় তাপমাত্রা কমেছে। চলিত সপ্তাহে বৃষ্টির সম্ভাবনা নাই। তবে ডিসেম্বর মাস শেষে জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

ছবি

মায়ের জানাজায় ইতালি থেকে এসে নিজেই লাশ হলেন শাহ আলম

ছবি

নরসিংদীতে কলেজ ছাত্র নিহত

ছবি

অবসরের ৬ মাসের মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে ভাতা দেওয়ার নির্দেশ

৯ রোহিঙ্গাকে অনুপ্রবেশের সময় মায়ানমারে ফেরত পাঠাল বিজিবি

ছবি

নোয়াখালীতে খৎনায় ভুল, অতিরিক্ত রক্তপাতে সংকটে শিশুর স্বাস্থ্য

ছবি

রাজধানীর আকাশ মেঘলা আকাশ, কয়েকটি স্থানে বৃষ্টির পূর্বাভাস

ছবি

রাজবাড়ীর শহীদ মিনারে বেদির ফুল নি‌য়ে যাওয়ার ভি‌ডিও ধারণ, সাংবাদিককে মারধর

ছবি

রাজবাড়ীর শহীদ মিনারে বেদির ফুল নি‌য়ে যাওয়ার ভি‌ডিও ধারণ, সাংবাদিককে মারধর

ছবি

গাজীপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

ছবি

বারি’তে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপিত হয়েছে

ছবি

শহীদ মিনার থেকে ফুল দিয়ে ফেরার পথে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

ছবি

১ কোটি ৬০ লাখ টাকা মূল্যের সোনাসহ এক যাত্রী আটক

ছবি

গাজীপুরে নদী থেকে নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

ছবি

বরিশালে নিজের ফাঁদে প্রাণ গেল কৃষকের

দুই মেয়েকে বিষ পান করিয়ে মায়েরও বিষ পান, মায়ের মৃত্যু

ছবি

পর্যটকবাহী বাস-পিকআপ সংঘর্ষে দুই নারী নিহত, আহত ১৫

ছবি

টেকনাফ সীমান্তে ফের গোলাগুলির শব্দ, আতঙ্কে সাধারণ মানুষ

ছবি

ফুল দেয়া নিয়ে মৌলভীবাজারে শহীদ মিনারে বাক-বিতন্ডা

ছবি

বারি ও মদিনা টেক এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

ছবি

গাজীপু‌রে সোয়া লাখ পিস ইয়াব উদ্ধার, আটক ৪ মাদক কারবারী

ছবি

গাজীপুরে কারখানা শ্রমিকদের মাঝে নিত্যপণ্য সামগ্রী বিতরণ

ছবি

নওগাঁয় ভয়াবহ ‘প্রক্সিকাণ্ড’ ৫৯ দাখিল পরীক্ষার্থীই ভুয়া

ছবি

অস্ত্রসহ পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে : পুলিশ

ছবি

উপজেলা নির্বাচনে জামানত ‘বহুগুণ’ বাড়াতে চায় ইসি

ছবি

নগরীর সমস্যা নিয়ে পোস্টার: কবি ও গ্রাফিক ডিজাইনার শামীম কারাগারে

ছবি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্কুলছাত্র হত্যায় দুজনের যাবজ্জীবন

ছবি

দাখিল পরীক্ষা দিচ্ছিল অন্যের হয়ে, নওগাঁয় ৫৯ জন আটক

ছবি

কক্সবাজারের সুগন্ধ্যা বীচের নতুন নাম ‘বঙ্গবন্ধু বীচ’

ছবি

গাইবান্ধার ডিসিকে প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন, না মানলে বৃহত্তর কর্মসুচি

ছবি

হত্যার ১৪ বছর পর ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

ঢাকা-কক্সবাজার রুটে ‘বিশেষ ট্রেন’

মোল্লাহাটে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, নিহত ১, পুলিশসহ আহত ২৮

শরীয়তপুরে ধুতুরাপাতা খেয়ে নারী ও শিশুসহ একই পরিবারের ৬ জন অসুস্থ, দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

ছবি

মিরপুরে ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৮ ইউনিট

ছবি

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় মা-ছেলেসহ পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

ঢাকা-কক্সবাজার পথে পাঁচ দিনে ৫ ‘বিশেষ ট্রেন’

tab

সারাদেশ

দিনাজপুরে মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা

প্রতিনিধি, দিনাজপুর

রোববার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩

উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা দিনাজপুর। চলিত সপ্তাহে দুইদিনের গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির পরে তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় বাড়ছে শীতের প্রকোপ। সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয় হিমেল বাতাস। আর তার সঙ্গে যোগ দেয় ঘন কুয়াশা। এতে করে দিনের বেলায়ও যানবাহনকে লাইট জ্বালিয়ে চলতে হচ্ছে।

রোববার (১০ ডিসেম্বর) আবহাওয়া অফিসের তথ্য মতে, সকাল ৬টায় দিনাজপুরে ১৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৯৭ ভাগ। চলতি বছরে এটি জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। চলতি সপ্তাহে জেলায় স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত সম্ভাবনা নাই। এছাড়া এই মাসে জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

এদিকে তাপমাত্রা কমায় ব্যস্ততা বেড়েছে জেলার লেপ-তোশকের দোকানে। পাশাপাশি বিভিন্ন গরম কাপড়ের দোকানেও বিক্রি বেড়েছে। শীতের পিঠাপুলি তৈরির ধুম পড়েছে। সড়কের পাশের দোকানগুলোতে ভিড় করে মানুষ পিঠার স্বাদ উপভাগ করছেন।

জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার বড় গ্রামের ইটভাটার শ্রমিক সবুজ ইসলাম বলেন, তিন দিন ধরি ভাটায় যাইনি। দুই দিন বৃষ্টি। গতকাল থেকে সূর্যের দেখা মেলেনি। ঘন কুয়াশার কারণে বাসায় বসে আছি।

ভ্যানচালক রাব্বি ইসলাম বলেন, দুই দিন বৃষ্টির পরে শীত বেশি হওয়ায় সকাল ও সন্ধ্যায় রাস্তায় মানুষের চলাচল কমে গেছে। ঠিকমতো ভাড়া হচ্ছে না। বাজারে সবকিছুর দাম বেশি। এভাবে চলতে থাকলে তো না খেয়ে থাকতে হবে। এদিকে ঠান্ডা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শীতজনিত রোগে আক্রান্তের হার বেড়েছে। বিশেষ করে শিশু ও বয়স্করা বেশি পরিমাণে আক্রান্ত হচ্ছেন। হাসপাতালগুলোতে রোগীর চাপও বেড়েছে।

জেলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, রোববার দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৯৭ ভাগ। চলিত সপ্তাহে টানা দুই দিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাত হওয়ায় তাপমাত্রা কমেছে। চলিত সপ্তাহে বৃষ্টির সম্ভাবনা নাই। তবে ডিসেম্বর মাস শেষে জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

back to top