alt

সারাদেশ

শরীয়তপুরে গাছের ঝুলছিলো যুবকের মরদেহ, পরিবারের দাবী হত্যা

মো. পলাশ খান, শরীয়তপুর : শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

শরীয়তপুরের জাজিরায় একটি আম বাগান থেকে লতিফ মোড়ল(৩৪) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের অভিযোগ, হত্যার পর তার মরদেহ গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

আজ শনিবার মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান। এর আগে গতকাল শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাত ১১ টার দিকে উপজেলার পালেরচর ইউনিয়নের দড়ি কান্দি এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

লতিফ মোড়ল(৩৪) জাজিরা উপজেলার ইয়াসিন আকন কান্দি এলাকার সামসুল মোড়লের ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লতিফ মোড়ল নামের ওই যুবকের সাথে একই এলাকার একটি মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। কিন্ত প্রায় আট বছর আগে মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়। তবে মেয়েটির সাথে তার যোগাযোগ ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়েটির সাথে দেখা করতে মাঝিরঘাট এলাকায় গেলে স্থানীয়রা লতিফ মোড়লকে মারধর করে ও আটকে রাখে। বিষয়টি লতিফ মোড়লের পরিবারকে জানালে তারা যাওয়ার আগেই লতিফ মোড়লকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। এরপর থেকেই লতিফ মোড়লের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরে রাত ১০ টার দিকে পালেরচর ইউনিয়নের দড়ি কান্দি এলাকার একটি আম বাগানে লতিফ মোড়লের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেলে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ছুটে যায় পরিবারের সদস্যরাও।

লতিফ মোড়লের ভাই সজিব মোড়ল অভিযোগ করে বলেন, ওই মেয়ে বিয়ের পরেও আমার ভাইকে ফোন দিতো। তাছাড়া মেয়ের স্বামী সালামও ভাইয়ার সাথে কথা বলতো। কাল সালাম ফোন দিয়ে আমার ভাইকে ডেকে নিয়েছে। ওরা মিলেই আমার ভাইকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। আমরা এর বিচার চাই।

নিহতের স্বজন রাসেল সংবাদকে বলেন, আমরা লতিফকে ছাড়িয়ে আনতে যাচ্ছিলাম। এরপর আমাদের কাছে খবর আসে লতিফ নাকি গলায় দড়ি দিয়েছে। আমরা গেলে দেখতে পাই লতিফের পা মাটির সাথে লেগে আছে। এছাড়া ওর শরীরের অনেক জায়গায় রক্তের দাগ ছিলো। ওর উরুর দুপাশে দেখলে মনে হয় কারেন্টের শক দিয়েছে, চামড়া উঠে গেছে। এটা দেখে আমাদের সন্দেহ হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে নিহত লতিফ মোড়লের কথিত প্রেমিকা সালমা বেগমের স্বামী সালাম ফরাজীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি সংবাদকে বলেন, "আমার স্ত্রীর সাথে দেখা করতে আসলে আমরা তাকে আটক করে কিছুটা মারধর করি। পরে তার পরিবারকে জানিয়ে ছেড়ে দিয়েছি। এরপর কি হয়েছে তা আমার জানা নেই।"

পৌনে ৩ কোটি গ্রাহকের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

ছবি

ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি, অন্তত ১২ জন নিহত

ছবি

লালমনিরহাটে স্ত্রীকে হত্যার , স্বামী আটক

ছবি

কক্সবাজারে বজ্রবৃষ্টি, উত্তাল সমুদ্রে বড় বড় ঢেউ

ছবি

উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিবেদন প্রচার: সেনা প্রধান

ছবি

প্রবাসীর সঙ্গে নারীর বন্ধুত্ব, দেশে এলে সর্বস্ব কেড়ে নিতেন তারা

ছবি

এক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত, হাসপাতাল নেওয়ার পথে আরেক দুর্ঘটনায় নিহত

ছবি

শাহ আমানত বিমানবন্দরের নিয়মিত কার্যক্রম শুরু

ছবি

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ

ছবি

গাজীপুরে গর্ভবতী নারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, একজন আটক

পীরগাছায় একজনকে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ১

রাজশাহীতে রাস্তার পাশে মানবদেহের কাটা পা উদ্ধার

বাগেরহাটের মোংলা সমুদ্রবন্দরসহ সুন্দরবন উপকুলে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত, জলোচ্ছাসের তীব্রতা বৃদ্ধি

ছবি

এমপি সুমনের বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

ছবি

বাগেরহাটে নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে

ছবি

ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় বরগুনায় প্রস্তুত ৬৭৩টি আশ্রয়কেন্দ্র ও ৩টি মুজিব কিল্লা

ছবি

গাজীপুরের কোরবানির পশুর হাট কাঁপাবে ভাওয়াল রাজা

ছবি

রেমালের প্রভাবে উত্তাল সাগর, দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

নারায়ণগঞ্জে সড়কে প্রাণ গেল অন্তঃসত্ত্বা নারীর

ছবি

৬০ জন যাত্রী নিয়ে মোংলায় নৌকাডুবি

ছবি

ঘূর্ণিঝড় রেমাল : কক্সবাজার ছাড়ছেন পর্যটকরা, বিমান উঠা নামা বন্ধ

ছবি

রিমালের প্রভাবে চাঁদপুর থেকে সবধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ

ছবি

ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ আঘাত হানতে পারে রোববার সন্ধ্যায়

সব সাম্যের বেলায় বারবার নজরুল ফিরে আসেন আমাদের মাঝে: সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

ঘূণিঝড় রেমালের প্রভাব,বরগুনায় বেড়েছে জোয়ারের পানি, প্লাবিত হচ্ছে নিম্নাঞ্চল,প্রশাসনের প্রস্ততি সভা

ছবি

নওগাঁ হামলার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর, গ্রেপ্তার ৮

ছবি

রুয়েট শিক্ষার্থীর ‘ঝুলন্ত’ লাশ উদ্ধার

ছবি

বান্দরবানে গুলি, পাল্টা গুলিতে পাহাড়ে বসবাসরতরা নিরাপত্তা হুমকিতে

ছবি

শরীয়তপুরে অস্ত্রও উদ্ধার, নারী আটক

বশেমুরকৃবি ফিশারিজ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের ১ম পুনর্মিলন উদযাপিত

ছবি

ভোলায় উপকূলের বাসিন্দাদের সচেতনতায় মাইকিং

ছবি

জামালপুরে রিকশাচালকের লাশ উদ্ধার

ছবি

রাণীশংকৈলে স্বর্ণের খোঁজে মাটি খুঁড়ছেন কয়েক হাজার মানুষ

ছবি

সামান্য উত্তর দিকে এগিয়েছে বঙ্গোপসাগরের গভীর নিম্নচাপ

ছবি

সিলেটে আরেকটি কূপের সন্ধান

শার্শায় শালিসি বৈঠকে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

tab

সারাদেশ

শরীয়তপুরে গাছের ঝুলছিলো যুবকের মরদেহ, পরিবারের দাবী হত্যা

মো. পলাশ খান, শরীয়তপুর

শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

শরীয়তপুরের জাজিরায় একটি আম বাগান থেকে লতিফ মোড়ল(৩৪) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের অভিযোগ, হত্যার পর তার মরদেহ গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

আজ শনিবার মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান। এর আগে গতকাল শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাত ১১ টার দিকে উপজেলার পালেরচর ইউনিয়নের দড়ি কান্দি এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

লতিফ মোড়ল(৩৪) জাজিরা উপজেলার ইয়াসিন আকন কান্দি এলাকার সামসুল মোড়লের ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লতিফ মোড়ল নামের ওই যুবকের সাথে একই এলাকার একটি মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। কিন্ত প্রায় আট বছর আগে মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়। তবে মেয়েটির সাথে তার যোগাযোগ ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়েটির সাথে দেখা করতে মাঝিরঘাট এলাকায় গেলে স্থানীয়রা লতিফ মোড়লকে মারধর করে ও আটকে রাখে। বিষয়টি লতিফ মোড়লের পরিবারকে জানালে তারা যাওয়ার আগেই লতিফ মোড়লকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। এরপর থেকেই লতিফ মোড়লের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরে রাত ১০ টার দিকে পালেরচর ইউনিয়নের দড়ি কান্দি এলাকার একটি আম বাগানে লতিফ মোড়লের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেলে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ছুটে যায় পরিবারের সদস্যরাও।

লতিফ মোড়লের ভাই সজিব মোড়ল অভিযোগ করে বলেন, ওই মেয়ে বিয়ের পরেও আমার ভাইকে ফোন দিতো। তাছাড়া মেয়ের স্বামী সালামও ভাইয়ার সাথে কথা বলতো। কাল সালাম ফোন দিয়ে আমার ভাইকে ডেকে নিয়েছে। ওরা মিলেই আমার ভাইকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। আমরা এর বিচার চাই।

নিহতের স্বজন রাসেল সংবাদকে বলেন, আমরা লতিফকে ছাড়িয়ে আনতে যাচ্ছিলাম। এরপর আমাদের কাছে খবর আসে লতিফ নাকি গলায় দড়ি দিয়েছে। আমরা গেলে দেখতে পাই লতিফের পা মাটির সাথে লেগে আছে। এছাড়া ওর শরীরের অনেক জায়গায় রক্তের দাগ ছিলো। ওর উরুর দুপাশে দেখলে মনে হয় কারেন্টের শক দিয়েছে, চামড়া উঠে গেছে। এটা দেখে আমাদের সন্দেহ হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে নিহত লতিফ মোড়লের কথিত প্রেমিকা সালমা বেগমের স্বামী সালাম ফরাজীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি সংবাদকে বলেন, "আমার স্ত্রীর সাথে দেখা করতে আসলে আমরা তাকে আটক করে কিছুটা মারধর করি। পরে তার পরিবারকে জানিয়ে ছেড়ে দিয়েছি। এরপর কি হয়েছে তা আমার জানা নেই।"

back to top