alt

সারাদেশ

মীরসরাইয়ে শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি, ঘরের চাল ছিদ্র হয়ে গেছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো : বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ঘণ্টাব্যাপী শিলাবৃষ্টিতে ফসল ও ঘরবাড়ির ক্ষয়ক্ষতি খবর পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা থেকে ৬টা পর্যন্ত শিলাবৃষ্টি হয়েছে। এতে ঝরে পড়েছে গাছে ছোট ছোট কাচা আম। পাশাপাশি বোরো ধান, মিষ্টিকুমড়া, টমেটোসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষতি হয়েছে। অনেক ঘরবাড়ির চালের টিন ফুটো হয়ে গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনেকের ঘরের টিনের চাল উড়ে গেছে। জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি স্থানে বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। পাশাপাশি বোরো ধান ও শাকসবজি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অনেকের।

স্থানীয়রা জানায়, খুঁটি ভেঙে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ১৭ ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বজ্রাঘাতে কৃষকের তিনটি গরু মারা গেছে। বোরো ধান, তরমুজ, ডাল ও টমোটোসহ শাকসবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

রহমতাবাদ এলাকার বাসিন্দা নুরুল হুদা জানান, শিলাবৃষ্টির সময় বজ্রাঘাতে আমার এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য মফিজুর রহমান, রেজাউল করিম ও আবুল হাসেমের তিনটি গরু মারা গেছে। গরুগুলো বাড়ির পাশে বাঁধা ছিল। আজ বড় আকৃতির শিলা ঝরেছে। এসব শিলার কোনও কোনোটির ওজন ২০০ থেকে ২৫০ গ্রাম পর্যন্ত। শিলার আঘাতে বসতঘরের চালা ফুটো হয়ে গেছে অনেক পরিবারের।

মঘাদিয়া ইউনিয়নের হাসিমনগর এলাকার কৃষক শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘বাজারে বিক্রির উপযোগী ২০ মণের মতো পাকা টমেটো ক্ষেতে ছিল। শিলাবৃষ্টিতে বেশিরভাগ নষ্ট হয়ে গেছে।’

ওয়াহেদপুর এলাকার বাসিন্দা কাঠমিস্ত্রি লিটন চন্দ্র নাথ বলেন, ‘শিলাবৃষ্টিতে অনেকের ঘরের টিনের চাল ফুটো হয়ে গেছে। সকাল থেকে ১০ জনের ঘরের টিন বদলানোর কাজ করেছি। আরও অনেকে ডাকছেন।’

উপজেলা কৃষি অফিস জানায়, শিলাবৃষ্টিতে বোরো ধান, গ্রীষ্মকালীন শাকসবজি ও ডালের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ৯৫০ হেক্টর জমির বোরো আক্রান্ত হয়েছে। তার মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪৫ হেক্টর জমির ধান। ৪০ হেক্টর জমির সবজি আক্রান্ত হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৮ হেক্টর জমির। ৭৫০ হেক্টর জমির ডালক্ষেত আক্রান্ত হয়েছে, ক্ষতি হয়েছে ৩৮ হেক্টর জমির ডাল।

মীরসরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা প্রতাপ চন্দ্র রায় বলেন, ‘শুধু বৃষ্টি হলে ফসলের তেমন ক্ষতি হতো না। কিন্তু শিলাবৃষ্টির কারণে ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়েছে। বৃষ্টি যদি আর না হয়, তাহলে আক্রান্ত জমির ধান ও ফসলের তেমন ক্ষতি হবে না। আবারও যদি বৃষ্টি হয় তাহলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে যাবে।’

ছবি

গাজীপুরে গর্ভবতী নারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, একজন আটক

পীরগাছায় একজনকে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ১

রাজশাহীতে রাস্তার পাশে মানবদেহের কাটা পা উদ্ধার

বাগেরহাটের মোংলা সমুদ্রবন্দরসহ সুন্দরবন উপকুলে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত, জলোচ্ছাসের তীব্রতা বৃদ্ধি

ছবি

এমপি সুমনের বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

ছবি

বাগেরহাটে নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে

ছবি

ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় বরগুনায় প্রস্তুত ৬৭৩টি আশ্রয়কেন্দ্র ও ৩টি মুজিব কিল্লা

ছবি

গাজীপুরের কোরবানির পশুর হাট কাঁপাবে ভাওয়াল রাজা

ছবি

রেমালের প্রভাবে উত্তাল সাগর, দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

নারায়ণগঞ্জে সড়কে প্রাণ গেল অন্তঃসত্ত্বা নারীর

ছবি

৬০ জন যাত্রী নিয়ে মোংলায় নৌকাডুবি

ছবি

ঘূর্ণিঝড় রেমাল : কক্সবাজার ছাড়ছেন পর্যটকরা, বিমান উঠা নামা বন্ধ

ছবি

রিমালের প্রভাবে চাঁদপুর থেকে সবধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ

ছবি

ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ আঘাত হানতে পারে রোববার সন্ধ্যায়

সব সাম্যের বেলায় বারবার নজরুল ফিরে আসেন আমাদের মাঝে: সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

ঘূণিঝড় রেমালের প্রভাব,বরগুনায় বেড়েছে জোয়ারের পানি, প্লাবিত হচ্ছে নিম্নাঞ্চল,প্রশাসনের প্রস্ততি সভা

ছবি

নওগাঁ হামলার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর, গ্রেপ্তার ৮

ছবি

রুয়েট শিক্ষার্থীর ‘ঝুলন্ত’ লাশ উদ্ধার

ছবি

বান্দরবানে গুলি, পাল্টা গুলিতে পাহাড়ে বসবাসরতরা নিরাপত্তা হুমকিতে

ছবি

শরীয়তপুরে অস্ত্রও উদ্ধার, নারী আটক

বশেমুরকৃবি ফিশারিজ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের ১ম পুনর্মিলন উদযাপিত

ছবি

ভোলায় উপকূলের বাসিন্দাদের সচেতনতায় মাইকিং

ছবি

জামালপুরে রিকশাচালকের লাশ উদ্ধার

ছবি

রাণীশংকৈলে স্বর্ণের খোঁজে মাটি খুঁড়ছেন কয়েক হাজার মানুষ

ছবি

সামান্য উত্তর দিকে এগিয়েছে বঙ্গোপসাগরের গভীর নিম্নচাপ

ছবি

সিলেটে আরেকটি কূপের সন্ধান

শার্শায় শালিসি বৈঠকে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

সখীপুরে আগুনে পুড়ল ১১ দোকান, তিন কোটি টাকার ক্ষতি

ঘুমধুম সীমান্তে মাইন বিস্ফোরণে আহত ২ একজনের অবস্থা আশংকা জনক

সৌদি আরবে আরেক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

ছবি

গাজীপুরে আগুন পুড়লো কলোনির ৭০টি ঘর

ছবি

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, পুড়েছে ৩ শতাধিক বসতি

ছবি

ঝিনাইদহে প্রবাসীর স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা

ছবি

বাঁশখালী ছনুয়া-কুতুবদিয়া জেটিঘাট এখন মরণ ফাঁদ

আখতারুজ্জামান, শিমুল-এরা কারা

ছবি

টানা তাপপ্রাবাহে ফলন তলানিতে, বাজারে চড়া দাম লিচুর

tab

সারাদেশ

মীরসরাইয়ে শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি, ঘরের চাল ছিদ্র হয়ে গেছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো

বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ঘণ্টাব্যাপী শিলাবৃষ্টিতে ফসল ও ঘরবাড়ির ক্ষয়ক্ষতি খবর পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা থেকে ৬টা পর্যন্ত শিলাবৃষ্টি হয়েছে। এতে ঝরে পড়েছে গাছে ছোট ছোট কাচা আম। পাশাপাশি বোরো ধান, মিষ্টিকুমড়া, টমেটোসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষতি হয়েছে। অনেক ঘরবাড়ির চালের টিন ফুটো হয়ে গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনেকের ঘরের টিনের চাল উড়ে গেছে। জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি স্থানে বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। পাশাপাশি বোরো ধান ও শাকসবজি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অনেকের।

স্থানীয়রা জানায়, খুঁটি ভেঙে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ১৭ ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বজ্রাঘাতে কৃষকের তিনটি গরু মারা গেছে। বোরো ধান, তরমুজ, ডাল ও টমোটোসহ শাকসবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

রহমতাবাদ এলাকার বাসিন্দা নুরুল হুদা জানান, শিলাবৃষ্টির সময় বজ্রাঘাতে আমার এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য মফিজুর রহমান, রেজাউল করিম ও আবুল হাসেমের তিনটি গরু মারা গেছে। গরুগুলো বাড়ির পাশে বাঁধা ছিল। আজ বড় আকৃতির শিলা ঝরেছে। এসব শিলার কোনও কোনোটির ওজন ২০০ থেকে ২৫০ গ্রাম পর্যন্ত। শিলার আঘাতে বসতঘরের চালা ফুটো হয়ে গেছে অনেক পরিবারের।

মঘাদিয়া ইউনিয়নের হাসিমনগর এলাকার কৃষক শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘বাজারে বিক্রির উপযোগী ২০ মণের মতো পাকা টমেটো ক্ষেতে ছিল। শিলাবৃষ্টিতে বেশিরভাগ নষ্ট হয়ে গেছে।’

ওয়াহেদপুর এলাকার বাসিন্দা কাঠমিস্ত্রি লিটন চন্দ্র নাথ বলেন, ‘শিলাবৃষ্টিতে অনেকের ঘরের টিনের চাল ফুটো হয়ে গেছে। সকাল থেকে ১০ জনের ঘরের টিন বদলানোর কাজ করেছি। আরও অনেকে ডাকছেন।’

উপজেলা কৃষি অফিস জানায়, শিলাবৃষ্টিতে বোরো ধান, গ্রীষ্মকালীন শাকসবজি ও ডালের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ৯৫০ হেক্টর জমির বোরো আক্রান্ত হয়েছে। তার মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪৫ হেক্টর জমির ধান। ৪০ হেক্টর জমির সবজি আক্রান্ত হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৮ হেক্টর জমির। ৭৫০ হেক্টর জমির ডালক্ষেত আক্রান্ত হয়েছে, ক্ষতি হয়েছে ৩৮ হেক্টর জমির ডাল।

মীরসরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা প্রতাপ চন্দ্র রায় বলেন, ‘শুধু বৃষ্টি হলে ফসলের তেমন ক্ষতি হতো না। কিন্তু শিলাবৃষ্টির কারণে ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়েছে। বৃষ্টি যদি আর না হয়, তাহলে আক্রান্ত জমির ধান ও ফসলের তেমন ক্ষতি হবে না। আবারও যদি বৃষ্টি হয় তাহলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে যাবে।’

back to top