alt

সারাদেশ

গাইবান্ধায় কোরবানির জন্য প্রস্তুত দেড় লাখ পশু, দাম নিয়ে চিন্তিত খামারিরা

প্রতিনিধি, গাইবান্ধা : বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে গাইবান্ধা জেলায় এবার ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮১টি পশু প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে গরু ৬৩ হাজার ২৪৬, মহিষ ১৪৭ ও ছাগল-ভেড়া ৮১ হাজার ৯৮৮টি।

গাইবান্ধা জেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এবার গাইবান্ধা জেলার ৭টি উপজেলায় কোরবানির পশুর চাহিদা রয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৫১টি পশু। তবে চাহিদার তুলনায় ২২ হাজার ৩৩০টি পশু বেশি রয়েছে।

জানা যায়, কোরবানিযোগ্য এসব গবাদিপশুর মধ্যে গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া কোরবানির জন্য প্রস্তÍত রয়েছে। স্থানীয়ভাবে এসব পশু বিক্রয়ের জন্য বিভিন্ন এলাকায় হাটবাজারের পাশাপাশি অনলাইন ও ওয়েবসাইটেও বিক্রির ব্যবস্থা রয়েছে।

ইতোমধ্যে এসব কোরবানির পশু কেনাবেচা শুরু হয়েছে। এদিকে গো-খাদ্যের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন জেলার খামারি ও কৃষকরা। বেশি দামে খাদ্য খাওয়ায়ে বাজারে পশুর ভালো দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছেন তারা।

গাইবান্ধা সদর উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা তরুণ কুমার দত্ত জানান, এবার সদর উপজেলায় ২৫ হাজার ৩৫০টি পশু প্রস্তÍত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ষাড় গরু ৭ হাজার ২১০টি, বলদ ৪১৫টি, গাভী ৫৩৩০টি, মহিষ ২৫টি, ছাগল ১০ হাজার ৮৫০টি, ভেড়া ১৫২০টি। খামারিদের সতর্ক করা হয়েছে তারা যেন কোনো পশুকে মোটাতাজা করার জন্য স্ট্রয়েড জাতীয় ওষুধ প্রয়োগ না করে।

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার দিঘলকান্দি চরের বারেক সরকার জানান, কোরবানির জন্য ১০টি গরু বিক্রির পরিকল্পনা রয়েছে। তবে বাড়িতে খরচ হওয়ায় নায্যমূল্য পাবেন কি না এ নিয়ে চিন্তিত।

যেহেতু তাপদাহ চলমান রয়েছে এই প্রচণ্ড গরমে এসব পশুদের হিটস্ট্রোকসহ বিভিন্ন রোগ দেখা দিতে পারে১। সেজন্য আমরা সেবা দেয়ার জন্য সার্বক্ষণিক প্রস্তুত আছি এবং সেসব চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছি।

গাইবান্ধা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মাহফুজার রহমান জানান, এবার জেলার সাতটি উপজেলায় কোরবানির পশুর চাহিদা রয়েছে চাহিদা রয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৫১টি। জেলার ১৬ হাজার ৭৫৯টি খামারির মধ্যে থেকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮১টি পশু।

খামারিরা যাতে ভালো দাম পায়, সে বিষয়ে তাদের সর্বাত্নক চেষ্টা করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে পশুর স্বাস্থ্যের পরীক্ষার-নিরীক্ষার জন্য আমাদের মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক প্রস্তÍত রয়েছে।

ছবি

বরিশালে অটোরিকশা-ইজিবাইক মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী নিহত

শেষ সময়ে ঈদে বাড়ি যেতে ঘরমুখো মানুষের ভিড় বেড়েছে সড়ক মহাসড়কে

ছবি

বনানীতে বাসের ধাক্কায় বাইকচালক নিহত

ছবি

কাভার্ডভ্যানের পেছনে লিচুবাহী ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ২

ছবি

সামিট-ওরিয়নের দুটিসহ রেন্টাল ৬ বিদ্যুৎকেন্দ্রের মেয়াদ ফের বাড়ছে

ছবি

ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি: র‌্যাবের অভিযানে ১০ জনকে গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে পুকুর থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

ছবি

নিত্যপণ্য নিয়ে কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন যাচ্ছে জাহাজ

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার

ছবি

গাজীপুরে পুকুরে ডুবে দুই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

বেতন-বোনাসের দাবিতে কুমিল্লায় শ্রমিক বিক্ষোভ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ধীরগতি

ছবি

টাঙ্গাইলে মহাসড়‌কে ট্রাক উল্টে ১৫ কিলোমিটার যানজট

ছবি

মাদকের টাকার জন্য ছোট ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়া, নিজের বুকে ছুরি চালাল কিশোর

ছবি

দুম্বা পালন করে স্বাবলম্বী ভৈরবের সবুজ

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে প্রথমবার জিরা আমদানি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বজ্রপাতে ২ জন নিহত

ছবি

সিলেটে আবারও বন্যার পদধ্বনি, প্রস্তুত আশ্রয়কেন্দ্র

সিলেটে ছাত্রলীগের নাম ভাঙিয়ে প্রবাসীর কাছে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি

ছবি

সিলেটে ড্রেনে পড়ে শিশুর মৃত্যু

ছবি

তিন দিন ভারি বৃষ্টির সতর্কতা

ছবি

বাবাকে ডাকাতের গুলি, দেখে হৃদ্‌রোগে ছেলের মৃত্যু

ছবি

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে সীমিত নৌযান চলাচল শুরু

ছবি

ঈদযাত্রায় গাজীপুরের দুই মহাসড়কে বেড়েছে ঘরমুখো মানুষের চাপ

ছবি

ময়মনসিংহে পুকুরে ডুবে ভাই-বোনসহ ৩ শিশুর মৃত্যু

ছবি

সেন্টমার্টিন যেতে মুন্ডার ডেইল ঘাটে মানুষের ভিড়

ছবি

রামগড় কৃষি গবেষণার জঙ্গল থেকে শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

ছবি

ফুলবাড়ীতে ট্রাক চাপায় নিহত ২ আহত ২ মহাসড়ক অবরোধ

নড়াইলে কিশোরের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

এনডিসি প্রতিনিধি দলের বারি পরিদর্শন

ছবি

সেন্টমার্টিন থেকে ৩ ট্রলারে ফিরছে দুই শতাধিক মানুষ

ছবি

বগুড়ায় ব্যাংকের সিন্দুক কেটে ২৯ লাখ টাকা লুট

ছবি

গাজীপুরে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে নারী শ্রমিকের মৃত্যু

ছবি

ঈদযাত্রায় চাপ নেই, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌ক ফাঁকা

ছবি

টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় কৃষি কর্মকর্তাসহ নিহত ২

ছবি

এখন গরিবেরা তিনবেলা ভাত খায় আর ধনীরা খায় আটা:খাদ্যমন্ত্রী

ছবি

পুলিশ পিটিয়ে দন্ডপ্রাপ্ত আসামী ছিনিয়ে নেয়ার মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

tab

সারাদেশ

গাইবান্ধায় কোরবানির জন্য প্রস্তুত দেড় লাখ পশু, দাম নিয়ে চিন্তিত খামারিরা

প্রতিনিধি, গাইবান্ধা

বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে গাইবান্ধা জেলায় এবার ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮১টি পশু প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে গরু ৬৩ হাজার ২৪৬, মহিষ ১৪৭ ও ছাগল-ভেড়া ৮১ হাজার ৯৮৮টি।

গাইবান্ধা জেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এবার গাইবান্ধা জেলার ৭টি উপজেলায় কোরবানির পশুর চাহিদা রয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৫১টি পশু। তবে চাহিদার তুলনায় ২২ হাজার ৩৩০টি পশু বেশি রয়েছে।

জানা যায়, কোরবানিযোগ্য এসব গবাদিপশুর মধ্যে গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া কোরবানির জন্য প্রস্তÍত রয়েছে। স্থানীয়ভাবে এসব পশু বিক্রয়ের জন্য বিভিন্ন এলাকায় হাটবাজারের পাশাপাশি অনলাইন ও ওয়েবসাইটেও বিক্রির ব্যবস্থা রয়েছে।

ইতোমধ্যে এসব কোরবানির পশু কেনাবেচা শুরু হয়েছে। এদিকে গো-খাদ্যের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন জেলার খামারি ও কৃষকরা। বেশি দামে খাদ্য খাওয়ায়ে বাজারে পশুর ভালো দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছেন তারা।

গাইবান্ধা সদর উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা তরুণ কুমার দত্ত জানান, এবার সদর উপজেলায় ২৫ হাজার ৩৫০টি পশু প্রস্তÍত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ষাড় গরু ৭ হাজার ২১০টি, বলদ ৪১৫টি, গাভী ৫৩৩০টি, মহিষ ২৫টি, ছাগল ১০ হাজার ৮৫০টি, ভেড়া ১৫২০টি। খামারিদের সতর্ক করা হয়েছে তারা যেন কোনো পশুকে মোটাতাজা করার জন্য স্ট্রয়েড জাতীয় ওষুধ প্রয়োগ না করে।

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার দিঘলকান্দি চরের বারেক সরকার জানান, কোরবানির জন্য ১০টি গরু বিক্রির পরিকল্পনা রয়েছে। তবে বাড়িতে খরচ হওয়ায় নায্যমূল্য পাবেন কি না এ নিয়ে চিন্তিত।

যেহেতু তাপদাহ চলমান রয়েছে এই প্রচণ্ড গরমে এসব পশুদের হিটস্ট্রোকসহ বিভিন্ন রোগ দেখা দিতে পারে১। সেজন্য আমরা সেবা দেয়ার জন্য সার্বক্ষণিক প্রস্তুত আছি এবং সেসব চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছি।

গাইবান্ধা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মাহফুজার রহমান জানান, এবার জেলার সাতটি উপজেলায় কোরবানির পশুর চাহিদা রয়েছে চাহিদা রয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৫১টি। জেলার ১৬ হাজার ৭৫৯টি খামারির মধ্যে থেকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮১টি পশু।

খামারিরা যাতে ভালো দাম পায়, সে বিষয়ে তাদের সর্বাত্নক চেষ্টা করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে পশুর স্বাস্থ্যের পরীক্ষার-নিরীক্ষার জন্য আমাদের মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক প্রস্তÍত রয়েছে।

back to top