alt

সারাদেশ

কক্সবাজারে ‘আশানুরূপ’ পর্যটক সমাগম

জেলা বার্তা পরিবেশক, কক্সবাজার : বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

ঈদুল আজহার ছুটির শেষ দিকে আশানুরূপ পর্যটক সমাগম ঘটেছে কক্সবাজারে। ঈদের চতুর্থ দিনে প্রায় আবাসিক হোটেলে শতভাগ বুকিং রয়েছে। সমুদ্র সৈকতেও উপচেপড়া ভীড়। অথচ, ঈদের প্রথম দিন থেকে পর্যটক খরায় ভুগছিল হোটেলগুলো। রেললাইন যাতায়াতের সুব্যবস্থার কারণে পর্যটকরা আগের তুলনায় বেশি আসছেন বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। পর্যটক সমাগম হওয়ায় সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের মাঝেও চাঙ্গাভাব লক্ষ্য করা গেছে। এবারের ঈদুল আজহাতে টানা পাঁচ দিনের ছুটি ছিল। ঈদের প্রথম দিন থেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের চেয়ে স্থানীয়দের উপস্থিতি বেশি লক্ষ্য করা গেছে। তবে, বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ঈদের চতুর্থ দিন ছিল এর সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। এইদিন সৈকতের মূল তিনটি পয়েন্ট কলাতলী, সুগন্ধা ও লাবণী পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে। ঢাকার মোহাম্মদপুর থেকে আসা পর্যটক আহসান হাবিব জানান, এবারের ঈদুল আজহার ছুটিতে পরিবারসহ কক্সবাজার ঘুরতে এসে ভালই লাগছে। নির্মল পরিবেশে সমুদ্র সৈকতে কাটা মুহূর্তগুলো সত্যিই আনন্দদায়ক। রাজশাহী থেকে আসা আরেক পর্যটক ইফতেখার উদ্দিন জানান, এখানকার পরিবেশ খুবই চমৎকার। কোনো বিশৃংখলা নেই।

কক্সবাজার হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম সিকদার জানান, এবারের ঈদুল আজহার ছুটির প্রথম দিক থেকেই কক্সবাজারের তারকা মানের হোটেল গুলোতে আশানুরূপ পর্যটক এসেছে। নিম্ন ও মাঝারি মানের হোটেলে ছুটির শেষদিকে পর্যটক উপস্থিতি বেড়েছে। অথচ, প্রথমদিকে পর্যটকদের উপস্থিতি কম থাকায় আমরা হতাশ ছিলাম।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, পর্যটন শহর কক্সবাজারে ছোট বড় মিলে ৫ শতাধিক হোটেল—মোটেল, গেষ্ট হাউজ ও কটেজে প্রতি ঈদের ছুটিতে প্রায় শতভাগ বুকিং থাকে। কিন্তু এবারের ঈদুল আজহার প্রথম দিকে মাত্র ৪০/৫০ ভাগ বুকিং ছিল। অবশেষে ছুটির শেষদিকে আশানুরূপ বুকিং হয়েছে। কিন্তু এইবার ছক্কা মেরেছে তারকা মানের হোটেলগুলো। ঈদের পুরো ছুটিতেই শতভাগ বুকিং আছে তারকামানের হোটেলগুলোতে।

তারকামানের হোটেল সি প্রিন্সেসের জেনারেল ম্যানেজার বদরুল ইসলাম জানান, এবারে অন্য হোটেলের কথা বলতে পারব না, তবে আমাদের হোটেলে তিন—চার দিন শতভাগ বুকিং রয়েছে। তবুও বলব, অতীতের মতো ভালো ব্যবসা হচ্ছে না।

হোটেল সায়মন বিচ রিসোর্টের ফ্রন্ট ডেস্ক অফিসার সারোয়ার আলম বলেন, আমাদের হোটেলে বুকিং শতভাগ। কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ছাড় ঘোষণা করা হয়েছে। রয়েছে বুফে লাঞ্চ ও ডিনারের ব্যবস্থাও।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) সাধারণ সম্পাদক নুরুল কবির পাশা বলেন, রেললাইন হওয়ায় আগের তুলানায় পর্যটক সমাগম বেশি হয়েছে। সত্যি আমরা আশান্বিত। এটা কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসার ক্ষেত্রে একটা ভালো দিক। আবাসিক হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম নেওয়াজ বলেন, কোরবানির ঈদের শেষের দিকে পর্যটক সমাগম বেশি হওয়ায় আগের লোকসান পুষিয়ে নেয়া যাবে।

এদিকে পর্যটকদের নিরাপত্তা জোরদারে বিষয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়ন প্রধান অতিরিক্ত ডিআইজি আপেল মাহমুদ বলেন, ছুটির দিনগুলোতে সমুদ্র সৈকতসহ পর্যটন জোনে তিন স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সিসিটিভি ক্যামরায় সার্বক্ষণিক নজরদারী অব্যাহত আছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেন বলেন, পর্যটকদের সুযোগসুবিধার বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসন কাজ করছে। আবাসিক হোটেল ও রেস্টোরেন্টগুলো যাতে অতিরিক্ত টাকা আদায় না করে সেদিকে নজর দেয়া হয়েছে। এসব বিষয় বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের টিম।

ঢাকাসহ চার জেলায় আজ ও কাল ৭ ঘণ্টার জন্য কারফিউ শিথিল

ছবি

টাঙ্গাইলে কোটা সংস্কার আন্দোলনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলনে কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, আহত ২০

ছবি

আবারও বেপরোয়া সার্ভেয়ার বাকের ও হাসান সিন্ডিকেট ঘুষ ছাড়া ফাইল নড়ে না কক্সবাজার এলএ শাখায়

ছবি

রামু থেকে অস্ত্র ও গুলি নিয়ে সন্ত্রাসী আটক

ছবি

কক্সবাজারে ক্ষমতাসীনদের হামলায় ৫ সংবাদকর্মী আহত

ছবি

নিখোঁজের দুই দিন পর পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

টেকনাফ সমুদ্র উপকূলে পালিয়ে এলো ৫ রোহিঙ্গা

ছবি

টেকনাফগামী ট্রলারে মায়ানমারের গুলি

ছবি

কোটা আন্দোলন: রংপুরে সংঘর্ষ ও মৃত্যুর তদন্তে ৪ সদস্যের কমিটি গঠন

ছবি

শেখ হাসিনা ও মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্বে কুরুচিপূর্ন বক্তব্য দেওয়ায় গজারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ সভা

ছবি

নারীর প্রতি সকল প্রকার সহিংসতার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের না’গঞ্জে মানববন্ধন

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের দাফন সম্পন্ন

ছবি

রামুতে মাদকসেবী ভাইয়ের হাতে ভাই খুন

সারাদেশে স্কুল, কলেজ অনিদিষ্টকাল বন্ধ ঘোষণা

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন : কক্সবাজারে সংঘর্ষ, পাল্টাপাল্টি ধাওয়া

ছবি

চীন বা ভারত নয়, নিজস্ব অর্থায়নে তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের দাবী

ছবি

মায়ানমারে চলছে বোমা হামলা সীমান্তে এতো কড়াকড়িতেও রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ

ছবি

"গাইবান্ধায় বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে ২ বাইক আরোহী নিহত"

ছবি

বরিশালে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

ছবি

গুলি আর মর্টারশেলের শব্দে ফের কেঁপে উঠল টেকনাফ সীমান্ত

ছবি

কক্সবাজার পৌরসভার উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলেন জাইকার প্রতিনিধি দল

ছবি

রাখাইনে সংঘর্ষের তীব্রতা বেড়েছে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ২ ট্রলার

ছবি

রাত হলেই বাঁশখালীর ৫ স্পট থেকে পাচার হয় কোটি টাকার মাছ

সিলেট সীমান্তে খাসিয়াদের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত

ছবি

লাফার্জ হোলসিমের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা পরিদর্শণ করেছে নারায়নগঞ্জ সিটি করপোরেশন কর্মকর্তারা

ছবি

হামলার শিকার কোন কোন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও প্রেসিডেন্ট প্রার্থী

ছবি

জামালপুরে ডোবায় ডুবে চার নারীর মৃত্যু

ছবি

সাটুরিয়া ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন আছে, চিকিৎসক নেই সরঞ্জাম আছে টেকনিশিয়ান নেই

ছবি

মাদকের আগ্রাসন রোধে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে

ছবি

চট্টগ্রামে ৭ টন মাছ জব্দ, গ্রেপ্তার ১৫

ছবি

টেকনাফে ৮০ হাজার ইয়াবাসহ দুই মাদক কারবারি আটক

ছবি

মুন্সীগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ২৫ ঘরবাড়ি ভাঙচুর

ছবি

লালমনিরহাটে বিসিএস প্রশ্নফাঁসে জড়িত আ’লীগ নেতা বহিষ্কার

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোলাগুলি, পুলিশ সদস্য গুলিবিদ্ধ

ছবি

মায়ানমার থেকে যুদ্ধফেরত আরসা সদস্য গ্রেপ্তার, দুটি রাইফেল ও ৫০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার

tab

সারাদেশ

কক্সবাজারে ‘আশানুরূপ’ পর্যটক সমাগম

জেলা বার্তা পরিবেশক, কক্সবাজার

বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

ঈদুল আজহার ছুটির শেষ দিকে আশানুরূপ পর্যটক সমাগম ঘটেছে কক্সবাজারে। ঈদের চতুর্থ দিনে প্রায় আবাসিক হোটেলে শতভাগ বুকিং রয়েছে। সমুদ্র সৈকতেও উপচেপড়া ভীড়। অথচ, ঈদের প্রথম দিন থেকে পর্যটক খরায় ভুগছিল হোটেলগুলো। রেললাইন যাতায়াতের সুব্যবস্থার কারণে পর্যটকরা আগের তুলনায় বেশি আসছেন বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। পর্যটক সমাগম হওয়ায় সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের মাঝেও চাঙ্গাভাব লক্ষ্য করা গেছে। এবারের ঈদুল আজহাতে টানা পাঁচ দিনের ছুটি ছিল। ঈদের প্রথম দিন থেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের চেয়ে স্থানীয়দের উপস্থিতি বেশি লক্ষ্য করা গেছে। তবে, বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ঈদের চতুর্থ দিন ছিল এর সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। এইদিন সৈকতের মূল তিনটি পয়েন্ট কলাতলী, সুগন্ধা ও লাবণী পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে। ঢাকার মোহাম্মদপুর থেকে আসা পর্যটক আহসান হাবিব জানান, এবারের ঈদুল আজহার ছুটিতে পরিবারসহ কক্সবাজার ঘুরতে এসে ভালই লাগছে। নির্মল পরিবেশে সমুদ্র সৈকতে কাটা মুহূর্তগুলো সত্যিই আনন্দদায়ক। রাজশাহী থেকে আসা আরেক পর্যটক ইফতেখার উদ্দিন জানান, এখানকার পরিবেশ খুবই চমৎকার। কোনো বিশৃংখলা নেই।

কক্সবাজার হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম সিকদার জানান, এবারের ঈদুল আজহার ছুটির প্রথম দিক থেকেই কক্সবাজারের তারকা মানের হোটেল গুলোতে আশানুরূপ পর্যটক এসেছে। নিম্ন ও মাঝারি মানের হোটেলে ছুটির শেষদিকে পর্যটক উপস্থিতি বেড়েছে। অথচ, প্রথমদিকে পর্যটকদের উপস্থিতি কম থাকায় আমরা হতাশ ছিলাম।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, পর্যটন শহর কক্সবাজারে ছোট বড় মিলে ৫ শতাধিক হোটেল—মোটেল, গেষ্ট হাউজ ও কটেজে প্রতি ঈদের ছুটিতে প্রায় শতভাগ বুকিং থাকে। কিন্তু এবারের ঈদুল আজহার প্রথম দিকে মাত্র ৪০/৫০ ভাগ বুকিং ছিল। অবশেষে ছুটির শেষদিকে আশানুরূপ বুকিং হয়েছে। কিন্তু এইবার ছক্কা মেরেছে তারকা মানের হোটেলগুলো। ঈদের পুরো ছুটিতেই শতভাগ বুকিং আছে তারকামানের হোটেলগুলোতে।

তারকামানের হোটেল সি প্রিন্সেসের জেনারেল ম্যানেজার বদরুল ইসলাম জানান, এবারে অন্য হোটেলের কথা বলতে পারব না, তবে আমাদের হোটেলে তিন—চার দিন শতভাগ বুকিং রয়েছে। তবুও বলব, অতীতের মতো ভালো ব্যবসা হচ্ছে না।

হোটেল সায়মন বিচ রিসোর্টের ফ্রন্ট ডেস্ক অফিসার সারোয়ার আলম বলেন, আমাদের হোটেলে বুকিং শতভাগ। কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ছাড় ঘোষণা করা হয়েছে। রয়েছে বুফে লাঞ্চ ও ডিনারের ব্যবস্থাও।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) সাধারণ সম্পাদক নুরুল কবির পাশা বলেন, রেললাইন হওয়ায় আগের তুলানায় পর্যটক সমাগম বেশি হয়েছে। সত্যি আমরা আশান্বিত। এটা কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসার ক্ষেত্রে একটা ভালো দিক। আবাসিক হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম নেওয়াজ বলেন, কোরবানির ঈদের শেষের দিকে পর্যটক সমাগম বেশি হওয়ায় আগের লোকসান পুষিয়ে নেয়া যাবে।

এদিকে পর্যটকদের নিরাপত্তা জোরদারে বিষয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়ন প্রধান অতিরিক্ত ডিআইজি আপেল মাহমুদ বলেন, ছুটির দিনগুলোতে সমুদ্র সৈকতসহ পর্যটন জোনে তিন স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সিসিটিভি ক্যামরায় সার্বক্ষণিক নজরদারী অব্যাহত আছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইয়ামিন হোসেন বলেন, পর্যটকদের সুযোগসুবিধার বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসন কাজ করছে। আবাসিক হোটেল ও রেস্টোরেন্টগুলো যাতে অতিরিক্ত টাকা আদায় না করে সেদিকে নজর দেয়া হয়েছে। এসব বিষয় বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের টিম।

back to top