alt

বাংলাদেশ

চাকরি বাঁচাতে ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় ফিরছেন মানুষ

জেলা বার্তা পরিবেশক,মানিকগঞ্জ : সোমবার, ১৭ মে ২০২১
image

মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি থাকলেও জীবিকার তাগিদে ঝুঁকি নিয়েই রাজধানীর পথে রওনা হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। ঢাকাসহ আশপাশের পোশাক কারখানাগুলোতে যোগ দিতে ঈদের পরদিন থেকেই পাটুরিয়া ঘাট হয়ে ঢাকায় ফিরছেন হাজারো শ্রমিক। ফিরছেন অন্যান্য সরকারি-বেসরকারি অফিসে কাজ করা লোকজনও। এর ফলে মানুষের চাপ বেড়েছে ফেরিঘাটে।

দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া ঘাটে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরিতেই যাত্রী ও যানবাহনের ভিড় দেখা গেছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পোশাক কারখানায় তিন দিনের বেশি ছুটি দেওয়া হয়নি। এই তিন তিন শিল্প কলকারখানা থেকে শুরু করে বিভিন্ন অফিস আদালত বন্ধ থাকে। কিন্তু এর মধ্যে করোনার ঝুঁকি সত্ত্বেও হাজার হাজার মানুষ পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে গ্রামের বাড়িতে ছুটে যান। ঈদ শেষে একই ঝুঁকি নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন তারা। ঈদের পরদিন থেকেই পাটুরিয়া ঘাটে ঢাকা ফেরত মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। গত দুই দিনের মতো আজও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ঢাকামুখী শ্রমজীবী মানুষের ঢল লক্ষ্য করা গেছে।

পাটুরিয়া থেকে রওনা হওয়া প্রতিটি ফেরিতে গাদাগাদি করে নদী পার হচ্ছে হাজারো মানুষ।

পাটুরিয়া ঘাট পার হয়েই ঢাকাগামী যাত্রীরা সুরক্ষা সামগ্রী ছাড়াই মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক, পিকআপ, হাইয়েজ, রিকশাভ্যান ও পায়ে হেঁটে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছেন। সরকারি নির্দেশে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ৩ থেকে ৪ গুণ বেশি ভাড়া দিয়ে এসব যানবাহন যোগে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে তাদের।

ফরিদপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হওয়া পোশাককর্মী রাহাত জানান, অফিস খোলায় আমরা ঢাকা যাচ্ছি। অনুপস্থিত থাকলে চাকরি থাকবে না। তাই বাধ্য হয়েই যেতে হচ্ছে। পেটের ক্ষুধার কাছে করোনাভাইরাস কিছুই না। জীবনের ঝুঁকি থাকলেও আমাকে কর্মস্থলে যেতে হবে।

ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ঘাটে এসেই ফেরি পাওয়ায় পার হতে কোনো তেমন কোনো সমস্যা হচ্ছে না। ফেরি চলাচলও স্বাভাবিক থাকলেও বন্ধ রয়েছে লঞ্চ চলাচল।

সড়ক-মহাসড়কে দূরপাল্লার বাস চলাচল না করায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ যাত্রীদের। জেলার অভ্যন্তরীণ গণপরিবহন, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলে যোগে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে ভেঙে ভেঙে যেতে হচ্ছে কর্মস্থলে।

পরিবহন সংকটের কারণে উপায় না থাকায় বাধ্য হয়েই বাড়তি ভাড়া দিয়ে কর্মস্থলে যাচ্ছে সাধারণ যাত্রীরা। একই অবস্থা ঢাকামুখী প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল চালকদের।

কুষ্টিয়া থেকে আগত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সুমন হাসান নামে একজন জানান, গতকাল আমার অফিস খোলা ছিল। একদিন ছুটি বাড়িয়ে বাড়িতে ছিলাম। আমি অফিস করবো বলে সাতসকালে রওনা হয়েছি। ভোরে কুষ্টিয়া থেকে ৭৫০ টাকা দিয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে এসেছি। যার ভাড়া ছিল মূলত ১৫০ টাকা। ফেরি চলাচল করায় ফেরি ঘাটে আসা মাত্রই পাটুরিয়ায় আসতে বেশি সময় লাগেনি। পাটুরিয়া থেকে মোটর সাইকেলে ১৫০ টাকা দিয়ে মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে আসলাম। এখন নবীনগর যাব তারপর ঢাকা। অথচ কুষ্টিয়া থেকে দূরপাল্লার বাসে ঢাকা যেতে খরচ হয় মাত্র ৫৫০/৬০০ টাকা।

বিআইডব্লিউটিসি’র আরিচা অঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. জিল্লুর রহমান জানান, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ফেরি চলাচল করছে। ছুটি শেষে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়লেও পারাপারে কোনো অসুবিধা হচ্ছে না।

ছবি

পরীমনিকে যেভাবে দেখা গেল বোট ক্লাবের সিসি ক্যামেরায়

ছবি

বেদখল হওয়া সরকারি জায়গা উদ্ধারে সরব গজারিয়া প্রশাসন

ছবি

চার লাখ টাকার জন্য পায়ের অপারেশন হচ্ছেনা বেরোবির মেধাবী শিক্ষার্থী লিমনের

ছবি

পরিচ্ছন্ন কর্মীদের জন্য দশতলা ভবন

ছবি

নরসিংদী’র বাতিঘর মনোহরদী শাখার বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

ছবি

ব্রীজ আছে রাস্তা নেই, দুভোর্গ চরমে

ছবি

আ’লীগ কার্যালয়ে নৃশংস বোমা হামলার ২০ বছর, বিচার হয়নি

ছবি

সিলেট নগরীর মােড়ে মােড়ে ট্রাফিক পুলিশের অভিযান

ছবি

৬৫ বছরের বৃদ্ধকে পিটিয়ে পা ভেঙে দেওয়ার ঘটনায় মামলা না নেওয়ার অভিযোগ

মোরেলগঞ্জে ১০ দোকান পুড়ে ছাই

সখীপুরে বিনা নোটিশে কৃষকের কলাবাগান কর্তন বনবিভাগের

বেনাপোল কাস্টম কর্তারাই চুরি করেন ২০ কেজি স্বর্ণ

তারাকান্দায় একযুগ পর সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

সাথিয়ায় চালক হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন নারীসহ গ্রেপ্তার ৫

খুলনায় গভীর রাতে ঘর থেকে ডেকে নারীকে হত্যা

ছবি

চাঁদপুরে মিনি পার্ক থেকে অজগরসহ বন্যপ্রাণী উদ্ধার

মেম্বারের বিরুদ্ধে সর. ঘর-ভাতা প্রদানে বাণিজ্যের অভিযোগ

ছবি

অপরিকল্পিত খাল খননে ধসে গেছে সড়ক, হুমকিতে শতাধিক বাড়ি

শরণখোলায় ছেলেকে বাঁচাতে ভ্যান চালক পিতার আকুতি

জাজিরায় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ৩ লঞ্চ মালিককে জরিমানা

কুড়িগ্রামে করোনা সচেতনতায় পৌরসভায় বিধি নিষেধ আরোপ

বাগেরহাটে করোনায় মৃত ৩ শনাক্ত ৭৬

রাজশাহীতে করোনার‘মৃত্যু মিছিলেযুক্ত’ আরও ১৩ প্রাণ

কী কারণে মা ও দুই সন্তানকে হত্যা ?

সিলেটে করােনাভাইরাসে ৭ জনের মৃত্যু

ছবি

শায়েস্তাগঞ্জে প্রাণ আরএফএল কোম্পানির এক শ্রমিকের করুণ মৃত্যু

ছবি

বদলগাছীতে নির্মাণ কাজের ৭ দিনের মধ্যে ভাঙতে শুরু করেছে সড়কের দুই পাড়

ছবি

২৪ ঘণ্টায় যশোরে ২০৪ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত ৫

ছবি

রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু

ছবি

সিলেটে একই পরিবারের তিনজনের গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার

ছবি

পাবনায় সেই নেতাদের অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল হচ্ছে

কিশোরগঞ্জে টিকার দ্বিতীয় ডোজ থেকে বঞ্চিত হবেন ১৭ হাজার মানুষ

ছবি

কক্সবাজারে ১৫ ফুট দৈর্ঘের অজগর অবমুক্ত

বগুড়ায় করোনা সংক্রমনের হার বাড়ছে

সীমান্ত জেলা থেকে আম কিনে লক্ষ্মীপুরে সংক্রমণ ধরা পড়ল ব্যবসায়ীর

ছবি

রাজধানীর আশপাশে, বিভিন্ন জেলায় বাড়ছে সংক্রমণ

tab

বাংলাদেশ

চাকরি বাঁচাতে ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় ফিরছেন মানুষ

জেলা বার্তা পরিবেশক,মানিকগঞ্জ
image

সোমবার, ১৭ মে ২০২১

মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি থাকলেও জীবিকার তাগিদে ঝুঁকি নিয়েই রাজধানীর পথে রওনা হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। ঢাকাসহ আশপাশের পোশাক কারখানাগুলোতে যোগ দিতে ঈদের পরদিন থেকেই পাটুরিয়া ঘাট হয়ে ঢাকায় ফিরছেন হাজারো শ্রমিক। ফিরছেন অন্যান্য সরকারি-বেসরকারি অফিসে কাজ করা লোকজনও। এর ফলে মানুষের চাপ বেড়েছে ফেরিঘাটে।

দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া ঘাটে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরিতেই যাত্রী ও যানবাহনের ভিড় দেখা গেছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পোশাক কারখানায় তিন দিনের বেশি ছুটি দেওয়া হয়নি। এই তিন তিন শিল্প কলকারখানা থেকে শুরু করে বিভিন্ন অফিস আদালত বন্ধ থাকে। কিন্তু এর মধ্যে করোনার ঝুঁকি সত্ত্বেও হাজার হাজার মানুষ পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে গ্রামের বাড়িতে ছুটে যান। ঈদ শেষে একই ঝুঁকি নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন তারা। ঈদের পরদিন থেকেই পাটুরিয়া ঘাটে ঢাকা ফেরত মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। গত দুই দিনের মতো আজও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ঢাকামুখী শ্রমজীবী মানুষের ঢল লক্ষ্য করা গেছে।

পাটুরিয়া থেকে রওনা হওয়া প্রতিটি ফেরিতে গাদাগাদি করে নদী পার হচ্ছে হাজারো মানুষ।

পাটুরিয়া ঘাট পার হয়েই ঢাকাগামী যাত্রীরা সুরক্ষা সামগ্রী ছাড়াই মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক, পিকআপ, হাইয়েজ, রিকশাভ্যান ও পায়ে হেঁটে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছেন। সরকারি নির্দেশে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ৩ থেকে ৪ গুণ বেশি ভাড়া দিয়ে এসব যানবাহন যোগে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে তাদের।

ফরিদপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হওয়া পোশাককর্মী রাহাত জানান, অফিস খোলায় আমরা ঢাকা যাচ্ছি। অনুপস্থিত থাকলে চাকরি থাকবে না। তাই বাধ্য হয়েই যেতে হচ্ছে। পেটের ক্ষুধার কাছে করোনাভাইরাস কিছুই না। জীবনের ঝুঁকি থাকলেও আমাকে কর্মস্থলে যেতে হবে।

ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ঘাটে এসেই ফেরি পাওয়ায় পার হতে কোনো তেমন কোনো সমস্যা হচ্ছে না। ফেরি চলাচলও স্বাভাবিক থাকলেও বন্ধ রয়েছে লঞ্চ চলাচল।

সড়ক-মহাসড়কে দূরপাল্লার বাস চলাচল না করায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ যাত্রীদের। জেলার অভ্যন্তরীণ গণপরিবহন, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলে যোগে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে ভেঙে ভেঙে যেতে হচ্ছে কর্মস্থলে।

পরিবহন সংকটের কারণে উপায় না থাকায় বাধ্য হয়েই বাড়তি ভাড়া দিয়ে কর্মস্থলে যাচ্ছে সাধারণ যাত্রীরা। একই অবস্থা ঢাকামুখী প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল চালকদের।

কুষ্টিয়া থেকে আগত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সুমন হাসান নামে একজন জানান, গতকাল আমার অফিস খোলা ছিল। একদিন ছুটি বাড়িয়ে বাড়িতে ছিলাম। আমি অফিস করবো বলে সাতসকালে রওনা হয়েছি। ভোরে কুষ্টিয়া থেকে ৭৫০ টাকা দিয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে এসেছি। যার ভাড়া ছিল মূলত ১৫০ টাকা। ফেরি চলাচল করায় ফেরি ঘাটে আসা মাত্রই পাটুরিয়ায় আসতে বেশি সময় লাগেনি। পাটুরিয়া থেকে মোটর সাইকেলে ১৫০ টাকা দিয়ে মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে আসলাম। এখন নবীনগর যাব তারপর ঢাকা। অথচ কুষ্টিয়া থেকে দূরপাল্লার বাসে ঢাকা যেতে খরচ হয় মাত্র ৫৫০/৬০০ টাকা।

বিআইডব্লিউটিসি’র আরিচা অঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. জিল্লুর রহমান জানান, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ফেরি চলাচল করছে। ছুটি শেষে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়লেও পারাপারে কোনো অসুবিধা হচ্ছে না।

back to top