alt

বাংলাদেশ

তদন্ত শেষে সিআইডির অভিযোগপত্র

বেনাপোল কাস্টম কর্তারাই চুরি করেন ২০ কেজি স্বর্ণ

যশোর অফিস : বুধবার, ১৬ জুন ২০২১

যশোরের বেনাপোল কাস্টমস হাউজের ভোল্ট ভেঙে ২০ কেজি স্বর্ণ চুরি মামলার চার্জশিট দিয়েছে সিআইডি পুলিশ। কাস্টমসের সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা এবং ভোল্ট ইনচার্জসহ ৭ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। আসামিরা বিভিন্ন সময় দায়িত্বে থাকা অবস্থায় পূর্বপরিকল্পিতভাবেই এসব স্বর্ণ চুরি করে। তদন্ত শেষে যশোর সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই চার্জশিট দাখিল করেন। সম্প্রতি এই চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম।

চার্জশিটে অভিযুক্তরা হলেন, রাজবাড়ির বালিয়াকান্দি উপজেলার বাঁধুলী খালপাড়া গ্রামের মৃত জালাল সরদারের ছেলে ও বেনাপোল কাস্টমসের সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শাহিবুল সরদার, খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার জয়পুর গ্রামের রনজিৎ কুন্ডর ছেলে এবং সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ বিশ্বনাথ কুন্ডু, বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার চেঙ্গুটিয়া গ্রামের মৃত আবদুর রবের ছেলে সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম মৃধা, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার চারুয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ মোহাম্মদ অলিউল্লাহ, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার অম্বিকাপুর গ্রামের মৃত আজিজুল হকের ছেলে সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ আরশাদ হোসাইন, খুলনার তেরখাদা উপজেলার বারাসাত গ্রামের মৃত আতিয়ার রহমান মল্লিকের ছেলে বেনাপোল কাস্টমসের বেসরকারি কর্মী আজিবার রহমান মল্লিক ও বেনাপোলের ভবেরবেড় পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবদুল জলিল শেখের ছেলে শাকিল শেখ।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৭ নভেম্বর রাত ৮টা থেকে ১১ নভেম্বর সকাল ৮টার মধ্যে যে কোন সময় বেনাপোল কাস্টমস হাউজের পুরাতন ভবনের ২য় তলার গোডাউনের তালা ভেঙে চোরেরা ভোল্টের তালা খুলে ১৯ কেজি ৩১৮ দশমিক ৩ গ্রাম স্বর্ণ চুরি করে নিয়ে যায়। যার মূল্য ১০ কোটি ৪৩ লাখ ১৭ হাজার ৩৬২ টাকা। এই ভোল্টের চাবি শাহিবুলের কাছেই থাকতো। এছাড়া গোডাউনের বিভিন্ন লকারে স্বর্ণসহ মূল্যবান জিনিসপত্র ছিল। সেগুলো অক্ষত ছিল। ঘটনার সময় সিসি ক্যামেরা বন্ধ ছিল।

বিষয়টি জানাজানি হলে কাস্টমস হাউজের রাজস্ব কর্মকর্তা এমদাদুল হক বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ গোডাউনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিবুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে। প্রথমে বেনাপোল পোর্ট থানা এবং পরে সিআইডি পুলিশ মামলাটি তদন্ত করে।

সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক জাকির হোসেন প্রথমে তদন্ত শুরু করেন। তার অন্যত্র বদলি হওয়ায় পরিদর্শক হাসান ইমাম মামলা তদন্ত করেন। সর্বশেষ পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম তদন্ত শেষে আদালতে এই মামলার চার্জশিট দাখিল করেছেন। আদালতে দেয়া চার্জশিটে তিনি উল্লেখ করেন, আসামিরা বিভিন্ন সময় দায়িত্বে থাকা অবস্থায় পূর্বপরিকল্পিতভাবেই এসব স্বর্ণ চুরি করেছে। অভিযুক্ত সব আসামিকে আটক দেখানো হয়েছে।

ছবি

বজ্রপাতে ১০ বছরে ২,১৬৪ জন মারা গেছেন

ডেঙ্গুর ভয়াবহতা বেড়েছে, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২৩৭ উপসর্গ নিয়ে

কঠোর লকডাউন এখন অনেকটা স্বাভাবিক

ছবি

রূপগঞ্জে কারখানার কেমিক্যালের গুদামে আগুন

ছবি

নায়িকা পরীমনির বাসায় র‌্যাবের অভিযান চলছে

ছবি

কক্সবাজারে বীর মুক্তিযোদ্ধা নবিউল হক চৌধুরীর ইন্তেকাল

ছবি

কিশোরগঞ্জে মৃত্যু ২,নতুন আক্রান্ত ১৫৮ জন

ছবি

রংপুরে আরো ১৪ জন মারা গেছে, আইসিইউ বেড খালি নেই

ছবি

বজ্রপাতে ১৭ জন নিহত

ছবি

লকডাউন বাড়ার ঘোষণার পরও ‘স্বাভাবিক ’ সব

ছবি

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে উভয়মুখী যাত্রীর চাপ

ছবি

নোয়াখালীতে ২৪ ঘন্টায় শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ২৯শতাংশ

সেন্টমার্টিনগামী ২টি ট্রলার মিয়ানমার সীমান্তে আটকা

রাজশাহীতে করোনায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু

ছবি

হোটেল ভাড়া করে রোগী সামাল দেয়ার চিন্তা

ছবি

৭ আগস্ট থেকে বড় আকারে টিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে

তরল অক্সিজেনের বরাদ্দ নেই পাবনায় অচল আইসিইউ

ছবি

বন্ধু দিবসে তপু ও রাফার সাথে গাইলো শত শিক্ষার্থী

নাসিরনগরের ইউএনও সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত

ছবি

পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট ও বিজ্ঞানীর আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ

ছবি

ময়মনসিংহ মেডিকেলে স্বেচ্ছাসেবকদের সঙ্গে ছাত্রলীগ নেতার দুর্ব্যবহার, টিকাপ্রদান আড়াই ঘন্টা বন্ধ

সাতক্ষীরায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে কম্পিউটার পুড়িয়ে দেওয়ায় অসহায় ৬ সদস্যের পরিবার

ওবায়দুল কাদেরের এলাকায় আ.লীগের কোন কার্যালয় নেই

সেনবাগে বিকাশ প্রতারক চক্র হাতিয়ে নিচ্ছে শিক্ষার্থীদের টাকা

ছবি

নোয়াখালীতে করোনা শনাক্তের হার ৩৩ শতাংশ

ছবি

দুই ডোজ টিকা নেয়ার পরও করোনার কাছে হেরে গেলেন ডা. জাকিয়া

ছবি

টেকনাফে বন্যহাতির বাচ্চা প্রসব

ছবি

কিশোরগঞ্জে মৃত্যু ২, নতুন আক্রান্ত ১৮৩

ছবি

বেগমগঞ্জে মাদ্রাসায় খাদ্যে বিষক্রিয়ায় এক ছাত্রের মৃত্যু, আহত ১৭

ডেঙ্গু আক্রান্ত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড

ছবি

টিকা গ্রহীতাদের ৯৮ শতাংশের শরীরে অ্যান্টিবডি

ছবি

মহামারিতে অসহায় মানুষের পাশে ডিপিএস এসটিএস কমিউনিটি ক্লাব

সিআরবিতে অনুমোদনহীন স্থাপনা নির্মাণে ব্যবস্থা: সিডিএ

ছবি

বন্ধু দিবসে প্যারাস্যুট অ্যাডভান্সড-এর বিশেষ ক্যাম্পেইন

ওবায়দুল কাদেরের বাড়ির সামনে ককটেলের বিস্ফোরণ, গুলি

ছবি

কিশোরগঞ্জে সৈয়দ আশরাফের ম্যুরালে হামলায় প্রতিবাদ

tab

বাংলাদেশ

তদন্ত শেষে সিআইডির অভিযোগপত্র

বেনাপোল কাস্টম কর্তারাই চুরি করেন ২০ কেজি স্বর্ণ

যশোর অফিস

বুধবার, ১৬ জুন ২০২১

যশোরের বেনাপোল কাস্টমস হাউজের ভোল্ট ভেঙে ২০ কেজি স্বর্ণ চুরি মামলার চার্জশিট দিয়েছে সিআইডি পুলিশ। কাস্টমসের সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা এবং ভোল্ট ইনচার্জসহ ৭ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। আসামিরা বিভিন্ন সময় দায়িত্বে থাকা অবস্থায় পূর্বপরিকল্পিতভাবেই এসব স্বর্ণ চুরি করে। তদন্ত শেষে যশোর সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই চার্জশিট দাখিল করেন। সম্প্রতি এই চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম।

চার্জশিটে অভিযুক্তরা হলেন, রাজবাড়ির বালিয়াকান্দি উপজেলার বাঁধুলী খালপাড়া গ্রামের মৃত জালাল সরদারের ছেলে ও বেনাপোল কাস্টমসের সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শাহিবুল সরদার, খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার জয়পুর গ্রামের রনজিৎ কুন্ডর ছেলে এবং সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ বিশ্বনাথ কুন্ডু, বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার চেঙ্গুটিয়া গ্রামের মৃত আবদুর রবের ছেলে সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম মৃধা, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার চারুয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ মোহাম্মদ অলিউল্লাহ, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার অম্বিকাপুর গ্রামের মৃত আজিজুল হকের ছেলে সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও ভোল্ট ইনচার্জ আরশাদ হোসাইন, খুলনার তেরখাদা উপজেলার বারাসাত গ্রামের মৃত আতিয়ার রহমান মল্লিকের ছেলে বেনাপোল কাস্টমসের বেসরকারি কর্মী আজিবার রহমান মল্লিক ও বেনাপোলের ভবেরবেড় পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবদুল জলিল শেখের ছেলে শাকিল শেখ।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৭ নভেম্বর রাত ৮টা থেকে ১১ নভেম্বর সকাল ৮টার মধ্যে যে কোন সময় বেনাপোল কাস্টমস হাউজের পুরাতন ভবনের ২য় তলার গোডাউনের তালা ভেঙে চোরেরা ভোল্টের তালা খুলে ১৯ কেজি ৩১৮ দশমিক ৩ গ্রাম স্বর্ণ চুরি করে নিয়ে যায়। যার মূল্য ১০ কোটি ৪৩ লাখ ১৭ হাজার ৩৬২ টাকা। এই ভোল্টের চাবি শাহিবুলের কাছেই থাকতো। এছাড়া গোডাউনের বিভিন্ন লকারে স্বর্ণসহ মূল্যবান জিনিসপত্র ছিল। সেগুলো অক্ষত ছিল। ঘটনার সময় সিসি ক্যামেরা বন্ধ ছিল।

বিষয়টি জানাজানি হলে কাস্টমস হাউজের রাজস্ব কর্মকর্তা এমদাদুল হক বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ গোডাউনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিবুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে। প্রথমে বেনাপোল পোর্ট থানা এবং পরে সিআইডি পুলিশ মামলাটি তদন্ত করে।

সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক জাকির হোসেন প্রথমে তদন্ত শুরু করেন। তার অন্যত্র বদলি হওয়ায় পরিদর্শক হাসান ইমাম মামলা তদন্ত করেন। সর্বশেষ পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম তদন্ত শেষে আদালতে এই মামলার চার্জশিট দাখিল করেছেন। আদালতে দেয়া চার্জশিটে তিনি উল্লেখ করেন, আসামিরা বিভিন্ন সময় দায়িত্বে থাকা অবস্থায় পূর্বপরিকল্পিতভাবেই এসব স্বর্ণ চুরি করেছে। অভিযুক্ত সব আসামিকে আটক দেখানো হয়েছে।

back to top