alt

বাংলাদেশ

কুয়াকাটায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

প্রতিনিধি, কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) : শনিবার, ১৯ জুন ২০২১

পর্যটন নগরী কুয়াকাটায় বেড়িবাঁধের বাহিরে থাকা অর্ধশতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) দুপুরে কলাপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জগতবন্ধু মন্ডল এ উচ্ছেদ অভিযান চালান।

এ সময় কুয়াকাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার, কাউন্সিলর শহিদ দেওয়ান, আবুল হোসেন ফরাজী, মনির শরীফ ও মহিপুর ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা আজিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এসময় ব্যবসায়ীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। উচ্ছেদ অভিযান না চালানোর জন্য অনুরোধ করেন পৌর মেয়র ও কাউন্সিলররা। অনুরোধ উপেক্ষা করে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করতে গিয়ে তোপের মুখে পরেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এনিয়ে কাউন্সিলর, পৌর মেয়রের সঙ্গে বাকবিতন্ডা হয় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের। উচ্ছেদের প্রতিবাদ জানিয়ে আগামীকাল এসব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা মানববন্ধন ও বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন।

ব্যবসায়ীদের অভিযোগ ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে সমুদ্র সৈকতের প্রায় শতাধিক শুঁটকি ও ঝিনুক ব্যবসায়ীরা তাদের দোকান ঘর সরিয়ে নিয়ে সী-কুইন হোটেলের পূর্ব পাশের মাঠে নিয়ে রাখেন। এসব দোকানের বেশিরভাগই ঢেউয়ের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত ঘরগুলো মেরামত করে তারা অন্যত্র সরিয়ে যাবেন। এসব ক্ষতিগ্রস্ত ঘর মেরামতকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভাংচুর ও উচ্ছেদ করা হয়। ব্যবসায়ীরা আরো বলেন, মঞ্জুরুল আলম নামে এক ব্যক্তি এই জায়গার মালিকানা দাবি করে ভোগদখল করে আসছিলেন। তার অনুমতি নিয়েই তারা এখানে ঘর এনে রেখেছেন।

মহিপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মো. আজিজুর রহমান জানান, সরকারি জমিতে প্রভাবশালী একটি গ্রুপ ব্যক্তিগত মার্কেট নির্মাণের উদ্যোগ নিলে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তা ভেঙ্গে দেয়া হয়। তিনি আরও জানান, বেড়িবাধেঁর বাইরে কোন স্থাপনা নির্মাণ করা সরকারিভাবে নিষিদ্ধ। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এসব ঘর নির্মাণ করা হচ্ছিলো।

কুয়াকাটা পৌর মেয়র বলেন, সৈকতের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা তাদের ভাঙ্গা দোকান মেরামত করছিল। মেরামত শেষে কিছুদিন পর এসব দোকানপাট অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যেত। অনুরোধ করার পরও এসব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জগতবন্ধু মন্ডল বলেন, যে জমিতে ঘর তোলা হয়েছিল ওই জমি সরকারি। সরকারের নামে বিএস জরিপ রয়েছে। তাই সরকারি জমি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এখানে কারও অনুরোধ রাখার সুযোগ নেই।

সাতক্ষীরায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে কম্পিউটার পুড়িয়ে দেওয়ায় অসহায় ৬ সদস্যের পরিবার

ওবায়দুল কাদেরের এলাকায় আ.লীগের কোন কার্যালয় নেই

সেনবাগে বিকাশ প্রতারক চক্র হাতিয়ে নিচ্ছে শিক্ষার্থীদের টাকা

ছবি

নোয়াখালীতে করোনা শনাক্তের হার ৩৩ শতাংশ

ছবি

দুই ডোজ টিকা নেয়ার পরও করোনার কাছে হেরে গেলেন ডা. জাকিয়া

ছবি

টেকনাফে বন্যহাতির বাচ্চা প্রসব

ছবি

কিশোরগঞ্জে মৃত্যু ২, নতুন আক্রান্ত ১৮৩

ছবি

বেগমগঞ্জে মাদ্রাসায় খাদ্যে বিষক্রিয়ায় এক ছাত্রের মৃত্যু, আহত ১৭

ডেঙ্গু আক্রান্ত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড

ছবি

টিকা গ্রহীতাদের ৯৮ শতাংশের শরীরে অ্যান্টিবডি

ছবি

মহামারিতে অসহায় মানুষের পাশে ডিপিএস এসটিএস কমিউনিটি ক্লাব

সিআরবিতে অনুমোদনহীন স্থাপনা নির্মাণে ব্যবস্থা: সিডিএ

ছবি

বন্ধু দিবসে প্যারাস্যুট অ্যাডভান্সড-এর বিশেষ ক্যাম্পেইন

ওবায়দুল কাদেরের বাড়ির সামনে ককটেলের বিস্ফোরণ, গুলি

ছবি

কিশোরগঞ্জে সৈয়দ আশরাফের ম্যুরালে হামলায় প্রতিবাদ

ছবি

কঠোর বিধিনিষেধেও নওগাঁর বদলগাছীতে সব খোলা

ছবি

মান্দায় ভাতা কার্ডের নামে টাকা নেওয়ার অভিযোগ: অস্বীকার ইউপি সদস্যের

ছবি

কিশোরগঞ্জের কারাগারে বড় ভাইকে খুনের আসামির মৃত্যু

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যবসায়ীর ওপর হামলা, ৬ লাখ টাকা ছিনতাই

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাসপাতালে অক্সিজেন নিয়ে ‘পাশে আছি আমরা’

ছবি

সাতক্ষীরার জলাবদ্ধতা নিরসনে নাগরিক কমিটির ১৩ দফা প্রস্তাব

বগুড়ায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ, কলেজছাত্র গ্রেফতার

ছবি

যাত্রীর চাপ কমেছে বাংলাবাজার-শিমুলীয়া ঘাটে, পারাপারের অপেক্ষায় ৩ শতাধিক পন্যবাহী ট্রাক

আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রীর চাপ কমেছে

ছবি

উখিয়ায় রোহিঙ্গা নেতাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার

ছবি

রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় করোনায় ৩৩ দিনে মৃতের সংখ্যা ৫শ ছাড়িয়েছে

ছবি

বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ে রেকর্ড

নোয়াখালীতে র্ধষণ, দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি

ছবি

মমেকে আরও ২৩ জনের মৃত্যু

ছবি

রাজশাহীতে করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু

ছবি

এহোন জীবনটাই লকডাউন হইয়া গেছে, হরমু কি?

ছবি

ঢাকামুখী মানুষের চাপ সংক্রমণ উচ্চ ঝুঁকিতে

ছবি

শ্রমিক পরিবহনের নামে হযবরল অবস্থা

ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩৭ জন আক্রান্ত

রাজশাহীতে করোনা চিকিৎসায় পিছিয়ে বেসরকারি হাসপাতাল রোগীদের ভিড় রামেকে

ছবি

ঘাটে ঘাটে পরিস্থিতি ভয়াবহ উপচেপড়া ভিড়, দুর্ভোগ চরমে

tab

বাংলাদেশ

কুয়াকাটায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

প্রতিনিধি, কুয়াকাটা (পটুয়াখালী)

শনিবার, ১৯ জুন ২০২১

পর্যটন নগরী কুয়াকাটায় বেড়িবাঁধের বাহিরে থাকা অর্ধশতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) দুপুরে কলাপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জগতবন্ধু মন্ডল এ উচ্ছেদ অভিযান চালান।

এ সময় কুয়াকাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার, কাউন্সিলর শহিদ দেওয়ান, আবুল হোসেন ফরাজী, মনির শরীফ ও মহিপুর ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা আজিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এসময় ব্যবসায়ীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। উচ্ছেদ অভিযান না চালানোর জন্য অনুরোধ করেন পৌর মেয়র ও কাউন্সিলররা। অনুরোধ উপেক্ষা করে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করতে গিয়ে তোপের মুখে পরেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এনিয়ে কাউন্সিলর, পৌর মেয়রের সঙ্গে বাকবিতন্ডা হয় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের। উচ্ছেদের প্রতিবাদ জানিয়ে আগামীকাল এসব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা মানববন্ধন ও বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন।

ব্যবসায়ীদের অভিযোগ ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে সমুদ্র সৈকতের প্রায় শতাধিক শুঁটকি ও ঝিনুক ব্যবসায়ীরা তাদের দোকান ঘর সরিয়ে নিয়ে সী-কুইন হোটেলের পূর্ব পাশের মাঠে নিয়ে রাখেন। এসব দোকানের বেশিরভাগই ঢেউয়ের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত ঘরগুলো মেরামত করে তারা অন্যত্র সরিয়ে যাবেন। এসব ক্ষতিগ্রস্ত ঘর মেরামতকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভাংচুর ও উচ্ছেদ করা হয়। ব্যবসায়ীরা আরো বলেন, মঞ্জুরুল আলম নামে এক ব্যক্তি এই জায়গার মালিকানা দাবি করে ভোগদখল করে আসছিলেন। তার অনুমতি নিয়েই তারা এখানে ঘর এনে রেখেছেন।

মহিপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মো. আজিজুর রহমান জানান, সরকারি জমিতে প্রভাবশালী একটি গ্রুপ ব্যক্তিগত মার্কেট নির্মাণের উদ্যোগ নিলে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তা ভেঙ্গে দেয়া হয়। তিনি আরও জানান, বেড়িবাধেঁর বাইরে কোন স্থাপনা নির্মাণ করা সরকারিভাবে নিষিদ্ধ। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এসব ঘর নির্মাণ করা হচ্ছিলো।

কুয়াকাটা পৌর মেয়র বলেন, সৈকতের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা তাদের ভাঙ্গা দোকান মেরামত করছিল। মেরামত শেষে কিছুদিন পর এসব দোকানপাট অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যেত। অনুরোধ করার পরও এসব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জগতবন্ধু মন্ডল বলেন, যে জমিতে ঘর তোলা হয়েছিল ওই জমি সরকারি। সরকারের নামে বিএস জরিপ রয়েছে। তাই সরকারি জমি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এখানে কারও অনুরোধ রাখার সুযোগ নেই।

back to top