alt

সারাদেশ

যুক্তরাষ্ট্র দুর্বল গণতন্ত্রের দেশগুলোকে ডেকেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাবি প্রতিনিধি : বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আহ্বানে ডিসেম্বরে হতে যাওয়া গণতন্ত্র সম্মেলন ‘সামিট ফর ডেমোক্র্যাসি’র অংশগ্রহণকারীদের আনুষ্ঠানিক তালিকায় নাম নেই বাংলাদেশের। নাম থাকার ব্যাখায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘হয়তো অপেক্ষাকৃত দুর্বল গণতন্ত্রের দেশগুলোকে ডাক দিয়েছে।’

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ক্লাইমেট জাস্টিস অ্যান্ড পিস ইন দ্য কনটেক্সট অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী- বলেন, ‘যেসব দেশ গণতন্ত্রের দিক থেকে দুর্বল হয়তো তাদের ডাক দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তারা দুই পর্বে করবে বলেছে। প্রথমে কয়েকটি দেশকে। যারা গণতান্ত্রিক দিক থেকে খুবই দুর্বল তাদের। আমাদের বাদ দিয়েছে সেটা আমি বলি না। হয়তো পরে তারা আমাদের বলবে। এটা নিয়ে আমাদের কিছু করার নেই, এটা তাদের দায়-দায়িত্ব।’

যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র সম্মেলন নিয়ে দেশটিতেই প্রশ্ন ওঠেছে অভিযোগ করেন মোমেন। তিনি বলেন, ‘আমেরিকা গণতন্ত্র নিয়ে যে ঝামেলায় পড়েছে। আড়াই’শ বছরের পুরোনো গণতন্ত্র কয়েকদিন আগে দেখলেন কি অবস্থা? তারা যে গণতন্ত্র সম্মেলন করছে এটা নিয়ে খোদ আমেরিকাতেও প্রশ্ন আসছে।’

বাংলাদেশের গণতন্ত্র স্বচ্ছ উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে আমাদের গণতন্ত্র স্টেবল। আমাদের দেশে অত্যন্ত স্বচ্ছ একটা গণতন্ত্র আছে। এখানে ভোটের মাধ্যমে প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়। ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার ভোটের মাধ্যমে। মানুষ ভোট দিচ্ছে। যে নির্বাচনে দাঁড়াতে চায় সে সুযোগ পাচ্ছে। আমাদের প্রতিবেশী মিয়ানমারে নির্বাচন হলো অনেকগুলো লোককে ভোট দিতে দিলো না। আফগানিস্তানেও একই ঘটনা হলো। আমাদের দেশের সব লোক ভোট দিতে পারে। ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। সেদিক থেকে আমরা অনেক অগ্রসর।’

বাংলাদেশের নাম না থাকা নিয়ে সাংবাদিকরা কেন দুশ্চিন্তায় প্রশ্ন রাখেন মোমেন। তিনি বলেন, ‘আপনাদের এত দুশ্চিন্তা কেন? একজন আমাকে উপদেশ দেবে সে অনুযায়ী আমি গণতন্ত্র হবো, নো। আমার গণতন্ত্র আমাদের লোকদের ওপর। অন্যের পরামর্শে আমরা কাজ করি না। আমরা মানুষের মঙ্গলের জন্য কাজ করি। সেটা যেন আরও উন্নত হয় তা নিয়ে আমরা কাজ করছি, আরও করে যাব। অনুষ্ঠানে গিয়ে বকবক করলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে না।’

দুর্গাপুরে ৭ দিনব্যাপী মনিসিংহ মেলা

ছবি

চার স্কুলছাত্রকে অপহরণ, ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী চক্রের

ছবি

চট্টগ্রামে অটোরিকশা-টেম্পোকে ধাক্কা দিয়ে রেললাইনে ফেলা বাসচালক গ্রেপ্তার

ছবি

বৈদ্যুতিক তার নিয়ে খেলা করতে গিয়ে ২ শিশু নিহত

ছবি

৪ ঘণ্টার চেষ্টায় চট্টগ্রামের ঝুট গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছবি

‘নৃশংসতার পুনরাবৃত্তি যাতে না ঘটে তাই সর্বোচ্চ শাস্তি’

ছবি

নিরাপদ সড়কের দাবিতে সাইকেল শোভাযাত্রা

ছবি

মুরাদের সংসদ সদস্য পদ : কী হতে পারে

রায়ে প্রমাণ হয়েছে দেশে আইনের শাসন আছে : আইনমন্ত্রী

সেই রাতে যা ঘটেছিল

ছবি

মেয়ের সামনে মাকে ধর্ষণ: ডিবির এসআই গ্রেপ্তার

ছবি

চরফ্যাসনে ট্রলার ডুবি: ৪ দিনেও হদিস মেলেনি ২০ জেলের

ছবি

বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের নির্বাচনে ৩৮জন প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

ছবি

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর সাথে বসনিয়ার রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ছবি

ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তৃতীয় লিঙ্গের অনিকা রানী

ছবি

ডা. মুরাদকে উপজেলা আ.লীগ থেকেও অব্যাহতি

ছবি

‘ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে’ অভিযোগ নৌকার প্রার্থী আইভীর

ছবি

বাঁকি ৫ আসামিরও ফাঁসি চান আবরারের মা

ছবি

জাওয়াদ’র বৃষ্টিতে কৃষকের সর্বনাশ

ঢাকা জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি সিরাজুল

যশোরে পদার্থবিজ্ঞানে ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা

ছবি

ঠাকুরগাঁওয়ে নৈশ কোচ ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১

ছবি

৮ ঘণ্টা পর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় ফেরি চলাচল শুরু

ছবি

রোদ পোহাতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে তিন শিশুসহ নিহত ৪

সখীপুরে নারী গ্রামপুলিশের শ্লীলতাহানি,ইউপি সচিবকে কারাদণ্ড

ছবি

দল থেকেও কি বাদ পড়ছেন মুরাদ ?

ছবি

যশোর শহরে ড্রেন নির্মাণের ১০০ কোটি টাকা ভেসে গেল

বেপরোয়া ট্রাক কেড়ে নিল নোবিপ্রবি শিক্ষার্থীর প্রাণ

ছবি

এডিস মশা গ্রাম-গঞ্জেও ছড়াচ্ছে, এ পর্যন্ত মৃত্যু ১০০

কী বলছেন ইমন, মাহি

নিরাপদ সড়কের দাবি মানতে সময় বেঁধে দিলেন ৭ কলেজের শিক্ষার্থীরা

তিতাস নদী দখলকারীদের তালিকা দাখিলে হাইকোর্টের নির্দেশ

‘ওমিক্রন’ দ্রুত ছড়ালেও ভয়ঙ্কর নয় : সংক্রমণ বিশেষজ্ঞ

চতুর্থ ধাপে বিনা ভোটে ৪৮ চেয়ারম্যানসহ নির্বাচিত ২৯৫ জন

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

সিএমএইচ-এ সফলভাবে কিডনী প্রতিস্থাপন

tab

সারাদেশ

যুক্তরাষ্ট্র দুর্বল গণতন্ত্রের দেশগুলোকে ডেকেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাবি প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আহ্বানে ডিসেম্বরে হতে যাওয়া গণতন্ত্র সম্মেলন ‘সামিট ফর ডেমোক্র্যাসি’র অংশগ্রহণকারীদের আনুষ্ঠানিক তালিকায় নাম নেই বাংলাদেশের। নাম থাকার ব্যাখায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘হয়তো অপেক্ষাকৃত দুর্বল গণতন্ত্রের দেশগুলোকে ডাক দিয়েছে।’

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ক্লাইমেট জাস্টিস অ্যান্ড পিস ইন দ্য কনটেক্সট অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী- বলেন, ‘যেসব দেশ গণতন্ত্রের দিক থেকে দুর্বল হয়তো তাদের ডাক দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তারা দুই পর্বে করবে বলেছে। প্রথমে কয়েকটি দেশকে। যারা গণতান্ত্রিক দিক থেকে খুবই দুর্বল তাদের। আমাদের বাদ দিয়েছে সেটা আমি বলি না। হয়তো পরে তারা আমাদের বলবে। এটা নিয়ে আমাদের কিছু করার নেই, এটা তাদের দায়-দায়িত্ব।’

যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র সম্মেলন নিয়ে দেশটিতেই প্রশ্ন ওঠেছে অভিযোগ করেন মোমেন। তিনি বলেন, ‘আমেরিকা গণতন্ত্র নিয়ে যে ঝামেলায় পড়েছে। আড়াই’শ বছরের পুরোনো গণতন্ত্র কয়েকদিন আগে দেখলেন কি অবস্থা? তারা যে গণতন্ত্র সম্মেলন করছে এটা নিয়ে খোদ আমেরিকাতেও প্রশ্ন আসছে।’

বাংলাদেশের গণতন্ত্র স্বচ্ছ উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে আমাদের গণতন্ত্র স্টেবল। আমাদের দেশে অত্যন্ত স্বচ্ছ একটা গণতন্ত্র আছে। এখানে ভোটের মাধ্যমে প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়। ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার ভোটের মাধ্যমে। মানুষ ভোট দিচ্ছে। যে নির্বাচনে দাঁড়াতে চায় সে সুযোগ পাচ্ছে। আমাদের প্রতিবেশী মিয়ানমারে নির্বাচন হলো অনেকগুলো লোককে ভোট দিতে দিলো না। আফগানিস্তানেও একই ঘটনা হলো। আমাদের দেশের সব লোক ভোট দিতে পারে। ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। সেদিক থেকে আমরা অনেক অগ্রসর।’

বাংলাদেশের নাম না থাকা নিয়ে সাংবাদিকরা কেন দুশ্চিন্তায় প্রশ্ন রাখেন মোমেন। তিনি বলেন, ‘আপনাদের এত দুশ্চিন্তা কেন? একজন আমাকে উপদেশ দেবে সে অনুযায়ী আমি গণতন্ত্র হবো, নো। আমার গণতন্ত্র আমাদের লোকদের ওপর। অন্যের পরামর্শে আমরা কাজ করি না। আমরা মানুষের মঙ্গলের জন্য কাজ করি। সেটা যেন আরও উন্নত হয় তা নিয়ে আমরা কাজ করছি, আরও করে যাব। অনুষ্ঠানে গিয়ে বকবক করলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে না।’

back to top