alt

সারাদেশ

মশার যন্ত্রণায় নগরবাসী অতিষ্ঠ : ঘুমিয়ে খুশিক!

জেলা বার্তা পরিবেশক, খুলনা : রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১

খুলনা : ডোবা-নালার কচুরিপানা পরিস্কার না করায় বেড়েছে মশা -সংবাদ

খুলনা নগরীতে নিয়মিত ওষুধ না ছিটানোয় ও ড্রেন-নালা পরিষ্কার না করায় মশার উপদ্রব বেড়েছে। ঘরে-বাইরে, অফিসে সবখানেই মশার যন্ত্রণা। নগরবাসী বলেছেন, ৪৫ দশমিক ৬৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের শহরটিতে সারাবছরই কমবেশি মশার উপদ্রব থাকে। তবে গত কয়েকমাসে সেই উপদ্রব কয়েকগুণ বেড়েছে।

নগরীর রেলওয়ে হাসপাতাল রোডের বাসিন্দা মিজানুর রহমান বলেন, দিনে-রাতে মশার উপদ্রব অসহনীয় পর্যায়ে পৌঁছেছে। মশার কারণে রাতে তার দুই ছেলেমেয়ের লেখাপড়া বিঘ্নিত হচ্ছে। তিনি বলেন, গত তিন মাসে মশা নিধনে সিটি করপোরেশনরের কার্যকর কোন পদক্ষেপ চোখে পড়েনি।

নগরীর বয়রা এলাকার বাসিন্দা সাদিয়া ইসলাম বলেন, দিনের বেলায় ঘরের জানালা-দরজা খোলা যায় না। খুললেই মশার আক্রমণ। মশার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য তিনি বিভিন্ন উপকরণ ব্যবহার করেন। কিন্তু এতে সাময়িকভাবে মশার হাত থেকে নিস্তার পাওয়া গেলেও একটু পরে আবার আক্রমণ শুরু হয়ে যায়।

তিনি বলেন, এ ব্যাপারে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের জানিয়ে কোন লাভ হয়নি। এখানে এখনও কোন ফগার মেশিন বা স্প্রে করতে দেখা যায়নি।

খুলনা নাগরিক সমাজের সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট বাবুল হাওলাদার বলেন, খুলনা সিটি করপোরেশন এলাকায় মশার উপদ্রব একটি সাধারণ বিষয়। নগরীতে প্রায় ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটার ড্রেন নিয়মিত পরিষ্কার হয় না। এছাড়া রাস্তা, ড্রেন নির্মাণ ও সংস্কারের কারণে পানি আটকে থাকে। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ভালো না, যে কারণে মশার উপদ্রব বৃদ্ধি পাচ্ছে। মশকনিধনে তারা ব্যর্থ।

এ ব্যাপারে খুলনা সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ বলেন, বর্ষা ও আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে এখন মশা প্রজননের সময়। যে করণে মূলত মশা কিছুটা বেড়েছে। মশকনিধনের জন্য ক্রাশ কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। ওই কর্মসূচির আওতায় সিটি করপোরেশনের ৫০০ পরিচ্ছন্নতাকর্মী কাজ করছেন। ড্রেন-নর্দমা পরিষ্কার করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, মশকনিধনের জন্য সকালে লার্বিসাইড বা কালো তেল মারা হয়। বিকেলে ফগার মেশিন দিয়ে ধোঁয়া দেওয়া হয়। মূলত লার্বিসাইডের কাজ হলো মশার লার্ভা মারা। মশা এ তেলের ওপর এসে বসলেও মারা যাবে। নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে এ নিয়ে ৩১ জন কাজ করছেন। সঙ্গে আরও অতিরিক্ত ৩১ জন রয়েছেন। অতি জরুরি প্রয়োজনে আরও তিনজন লোক বেশি রাখা হয়েছে।

ছবি

অটোরিক্সার জন্য হত্যা, গ্রেফতার ৫

ছবি

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে ৯ জেব্রার রহস্যজনক মৃত্যু

মাদ্রাসা ছাত্রকে ৪র্থ তলা থেকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে

ছবি

চট্টগ্রামে করোনা শনাক্তের হার ৩৬.৫৪, মৃত্যু ৩

ছবি

রাজশাহীতে শনাক্ত ৫৫ দশমিক ৭৮ শতাংশ

ছবি

সীমান্ত জেলাগুলো ফের সংক্রমণের হটস্পটে পরিণত হচ্ছে

নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্টের রোগী বাড়ছে

ছবি

কালীগঞ্জে খালের পাড়ে পড়েছিল দুই মামলার প্রধান সাক্ষী পীর আলীর মরদেহ

ছবি

বিএসএমএমইউর ইউরোলজি বিভাগে বন্ধ লেজার মেশিন সচল

চাটখিল-সোনাইমুড়িতে প্রধান শিক্ষক নেই ৪৪ প্রাথমিকে

ছবি

শীতে জবুথবু সিরাজগঞ্জ

কর্তাদের যোগসাজশে অবৈধ গ্যাস সংযোগের হিড়িক

চকরিয়ায় সালিশ বৈঠকে হতাহত ৪

ছবি

বরুড়ায় ১৫০ করোনাযোদ্ধাকে সম্মাননা

ছবি

কক্সবাজারে কচ্ছপগতিতে চলছে সড়কের কাজ

ছবি

আলুর দাম কম দিশেহারা কৃষক

শেরপুরে কষ্টি পাথরের বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার

ছবি

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছবি

মাধবপুরে আর চোখে পড়ে না বকের সারি

ছবি

চাঁদপুরে নৌপথে ডাকাতি, পুলিশ সুপারের রহস্য উদঘাটনের আশ্বাস!

ছবি

বিএসএমএমইউতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

ছবি

অপকর্মে লিপ্তদের পুলিশে ঠাঁই নেই: আইজিপি

‘সাংস্কৃতিক বিপ্লবে সাম্প্রদায়িকতা রুখতে হবে’

ছবি

সৈকতে ফের ভেসে এল ইরাবতি ডলফিন

৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত জাপানি মায়ের কাছে থাকবে দুই শিশু

সাংবাদিক হাবীবের মৃত্যুর তদন্ত চায় ডিআরইউ

ছবি

নারায়ণগঞ্জে সোয়েটার কারখানা লে-অফ ঘোষণায় শ্রমিক বিক্ষোভ

দুই জেলায় করোনা শনাক্ত ৬০ শতাংশ

লাফিয়ে বাড়ছে করোনা হলুদ থেকে লাল জোনে রাজশাহী

ভূমি অবৈধ দখলরোধে আইন হচ্ছে : চিহ্নিত বাইশ অপরাধ

নওগাঁয় ট্রাক চাপায় সিভিল সার্জন অফিসের হিসাবরক্ষক নিহত

হবিগঞ্জে নতুন করে আরো ৫৩ জনের করোনা শনাক্ত

ছবি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রেন-ভটভটি সংঘর্ষ, নিহত ৩

ধামইরহাটে ট্রাকরে ধাক্কায় ৪ মোটরসাইকলে আরোহীর মৃত্যু

ছবি

সাত বছরে সড়কে প্রাণ গেছে অর্ধলাখের বেশি

ছবি

প্রশ্নফাঁসের অভিযোগের পরও অডিট পরীক্ষার ফল প্রকাশ

tab

সারাদেশ

মশার যন্ত্রণায় নগরবাসী অতিষ্ঠ : ঘুমিয়ে খুশিক!

জেলা বার্তা পরিবেশক, খুলনা

খুলনা : ডোবা-নালার কচুরিপানা পরিস্কার না করায় বেড়েছে মশা -সংবাদ

রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১

খুলনা নগরীতে নিয়মিত ওষুধ না ছিটানোয় ও ড্রেন-নালা পরিষ্কার না করায় মশার উপদ্রব বেড়েছে। ঘরে-বাইরে, অফিসে সবখানেই মশার যন্ত্রণা। নগরবাসী বলেছেন, ৪৫ দশমিক ৬৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের শহরটিতে সারাবছরই কমবেশি মশার উপদ্রব থাকে। তবে গত কয়েকমাসে সেই উপদ্রব কয়েকগুণ বেড়েছে।

নগরীর রেলওয়ে হাসপাতাল রোডের বাসিন্দা মিজানুর রহমান বলেন, দিনে-রাতে মশার উপদ্রব অসহনীয় পর্যায়ে পৌঁছেছে। মশার কারণে রাতে তার দুই ছেলেমেয়ের লেখাপড়া বিঘ্নিত হচ্ছে। তিনি বলেন, গত তিন মাসে মশা নিধনে সিটি করপোরেশনরের কার্যকর কোন পদক্ষেপ চোখে পড়েনি।

নগরীর বয়রা এলাকার বাসিন্দা সাদিয়া ইসলাম বলেন, দিনের বেলায় ঘরের জানালা-দরজা খোলা যায় না। খুললেই মশার আক্রমণ। মশার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য তিনি বিভিন্ন উপকরণ ব্যবহার করেন। কিন্তু এতে সাময়িকভাবে মশার হাত থেকে নিস্তার পাওয়া গেলেও একটু পরে আবার আক্রমণ শুরু হয়ে যায়।

তিনি বলেন, এ ব্যাপারে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের জানিয়ে কোন লাভ হয়নি। এখানে এখনও কোন ফগার মেশিন বা স্প্রে করতে দেখা যায়নি।

খুলনা নাগরিক সমাজের সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট বাবুল হাওলাদার বলেন, খুলনা সিটি করপোরেশন এলাকায় মশার উপদ্রব একটি সাধারণ বিষয়। নগরীতে প্রায় ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটার ড্রেন নিয়মিত পরিষ্কার হয় না। এছাড়া রাস্তা, ড্রেন নির্মাণ ও সংস্কারের কারণে পানি আটকে থাকে। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ভালো না, যে কারণে মশার উপদ্রব বৃদ্ধি পাচ্ছে। মশকনিধনে তারা ব্যর্থ।

এ ব্যাপারে খুলনা সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ বলেন, বর্ষা ও আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে এখন মশা প্রজননের সময়। যে করণে মূলত মশা কিছুটা বেড়েছে। মশকনিধনের জন্য ক্রাশ কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। ওই কর্মসূচির আওতায় সিটি করপোরেশনের ৫০০ পরিচ্ছন্নতাকর্মী কাজ করছেন। ড্রেন-নর্দমা পরিষ্কার করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, মশকনিধনের জন্য সকালে লার্বিসাইড বা কালো তেল মারা হয়। বিকেলে ফগার মেশিন দিয়ে ধোঁয়া দেওয়া হয়। মূলত লার্বিসাইডের কাজ হলো মশার লার্ভা মারা। মশা এ তেলের ওপর এসে বসলেও মারা যাবে। নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে এ নিয়ে ৩১ জন কাজ করছেন। সঙ্গে আরও অতিরিক্ত ৩১ জন রয়েছেন। অতি জরুরি প্রয়োজনে আরও তিনজন লোক বেশি রাখা হয়েছে।

back to top