alt

সারাদেশ

প্রয়াত স্বামীর মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি দেখে যেতে চান সত্তরোর্ধ্ব স্ত্রী

গেজেটে নেই মুজিবনগর সরকারের ভাতাভোগীর নাম!

প্রতিনিধি, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) : শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১

গৌরিপুর (ময়মনসিংহ) : মুক্তিযোদ্ধা সুলতান উদ্দিনের পরিবার -সংবাদ

মুক্তিযুদ্ধের সময় যুদ্ধাহত মানুষের সেবায় নিয়োজিত ছিলেন সুলতান। যার পুরো নাম সুলতান উদ্দিন তালুকদার। মুক্তিযুদ্ধে রণাক্ষনের সাথী ছিলেন তিনি। ভারতের মেঘালয় রাজ্যের শিববাড়ি যুব অভ্যর্থনা ক্যাম্পে তিনি ছিলেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবক। সেই মুক্তিযোদ্ধার নাম আজও গেজেটভুক্ত হয়নি।

সুলতানের স্ত্রী আছিয়া সুলতানা বলেন, স্বামী চলে গেছে; আমিও চলে যাবো। অন্তত স্বামীর প্রাপ্য অধিকারটুকু নিয়ে মরতে চাই, মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে গেজেটভুক্ত হবে স্বামীর নাম, এটা কারো দয়া বা করুণা নয়, এটা হলো আমার স্বামীর কাজের স্বীকৃতি। এ স্বীকৃতি না পেলে পহেলা মার্চ থেকে আমিও আন্দোলনে নামবো। স্বামী সেবা করতো, আমি আমরণ অনশন করবো। ওকে গিয়ে বলতে পারবো, তোমার স্বীকৃতির জন্য আমিও লড়াই করে এসেছি। এ কথাগুলো বলতে গিয়ে বারবার আঁচলে মুখ মুছেন আছিয়া সুলতানা।

যুদ্ধে আহত মুক্তিযোদ্ধাদের জীবন বাঁচাতে সুলতান ছিলেন সর্দাপ্রস্তত। ক্যাম্পে সকল মুক্তিযোদ্ধাদের নিকট পরিচিত এক নাম ছিলো সুলতান। এ ক্যাম্পে দায়িত্ব পালনের জন্য মুজিবনগর সরকারের একজন ভাতা ভোগকারীও ছিলেন। সর্বশেষ ১৯৭১ সালের ১৫ নভেম্বর ৭৫ টাকা ভাতাও উত্তোলন করেন তিনি। ভাতাভোগীর ১১ জনের মধ্যে তাঁর ক্রমিক নং ৯। এ তালিকার ১০ জনই মুক্তিযোদ্ধা। শুধু গেজেটভুক্ত হয়নি সুলতান উদ্দিন তালুকাদারের নাম!

এছাড়া ৪০ জনের আরো একটি মুক্তিযোদ্ধা তালিকা (অর্ন্তভূক্তি) প্রস্তুত হয়, সেখানে সুলতান উদ্দিন তালুকদারের নাম ১৫ নং ক্রমিকে। এ তালিকার অনেকেই গেজেটভুক্ত হয়েছেন। হয়নি সুলতান উদ্দিন তালুকদারের নাম।

স্বামীর মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির জন্য ২০০৬ সালে প্রথম আবেদন করেন আছিয়া সুলতানা। সাক্ষাতকার ও যাছাই বাচাইয়ের আসরে যেতে যেতে তিনিও হাঁপিয়ে উঠেছেন। আছিয়া সুলতানের বয়সও ৭০-এর কোটা ছাড়িয়েছে। শরীরে বাসা বেঁধেছে বার্ধ্যকজনিত নানা রোগ।

স্বামীর নামটি গেজেটভুক্ত করতে সর্বশেষ ২০১৪ সালের ২২ মে অনলাইনে আবেদন করেন আছিয়া সুলতানা। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের ২৭ জুন যাছাই বাচাই হয়। সেই যাছাই-বাচাই কমিটিতে ছিলেন সাত জন সদস্য। এ কমিটি সাক্ষ্য, মুক্তিযোদ্ধার প্রামাণ্য দলিলের ভিত্তিতে ৬ জনকে তালিকাভুক্ত করার জন্য সুপারিশ করেন। এ তালিকার ১নং ক্রমিকে ছিলো সুলতান উদ্দিন তালুকাদারের নাম। অথচ অন্যদের হলেও এবারও বাদ পড়েছেন শুধু তিনি।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কদ্দুছ বলেন, যে তালিকার ৫ জন হলো সেই তালিকার এক নম্বর ক্রমিকের নাম বাদ পড়ে কিভাবে? মুক্তিযুদ্ধ করার পরেও তালিকায় নাম উঠানোর জন্য আরেকটা যুদ্ধ করতে হবে এটা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং লজ্জাজনকও।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রহিম জানান, যাছাই-বাচাই কমিটি কর্তৃক সর্বসম্মতিক্রমে তার স্বীকৃতির জন্য জোর সুপারিশ করা হয়েছে। বিষয়টি আপিল বিভাগে রয়েছে।

ছবি

ফরিদপুর ও বরিশালের ৩৭শ টেলিফোন নম্বর পরিবর্তন হচ্ছে

ছবি

নারায়ণগঞ্জে আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে পূর্ণ প্যানেলে এগিয়ে আ’লীগ

ছবি

আসামি নিয়ে গাড়ি পুকুরে, দুই পুলিশের মৃত্যু

ছবি

সেন্টমার্টিন থেকে সাব মেশিনগানসহ ১২ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

ছবি

ফের আগুনে পুড়লো ক্যাম্প, দিশেহারা কয়েক হাজার রোহিঙ্গা

ছবি

বিষমুক্ত সবজি চাষে ঝুঁকছেন বাহুবলের কৃষকরা

ফরিদপুরের সালথায় দুই পক্ষের সংঘর্ষ: আহত-১৫

ছবি

করোনায় আক্রান্ত সকল শিক্ষক, স্কুল বন্ধ ঘোষণা

ছবি

ফতুল্লায় স্কুলের সীমানা প্রচীর ধসে কিশোরসহ আহত ৩

ছবি

যশোরে ইজিবাইক চালকের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

আগামীকাল ১৯ জানুয়ারি নির্মূল কমিটির ৩০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

ছবি

ফেনীতে গাছ পড়ে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ছবি

সোনারগাঁয়ে ৪২ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারও আগুন

ছবি

আইনজীবী ইসমাইল বিয়ে করলেন ৮৭ বছরে

ছবি

শুধু নির্দেশনা দিয়েই শেষ, বিধি মানার কোন লক্ষণ নেই বাস-ট্রেনে

ধরন নিয়ে বিভ্রান্তি, বেড়েই চলেছে সংক্রমণ

নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কাল

ছবি

দশমিনায় বেড়েছে সরিষা আবাদ

জাটকা বাঁচলে ইলিশ হবে দুই লাখ টন

ছবি

কিশোরগঞ্জে বোরো রোপণের ধুম

কিশোরগঞ্জে নতুন করোনা শনাক্ত ১৬

চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত ডিসি সিভিল সার্জন

প্রতিবেশগত সঙ্কটাপন্ন ঘোষণার ২২ বছরেও পদক্ষেপ নেই

নবজাতকের কপাল কাটা : মামলা

চট্টগ্রামে হু হু করে বাড়ছে করোনা : স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই

ছবি

ডক্টরস প্লাটফরম ইন ফিনল্যান্ডের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন

নারায়ণগঞ্জের মতোই সংসদ নির্বাচন চমৎকার হবে : তথ্যমন্ত্রী

‘ক্লিন সেন্ট মার্টিন’ প্রকল্প উদ্বোধন

কুমিল্লায় সহিংসতা মামলায় চেয়ারম্যানসহ জেলে ৪

ছবি

নদী ভাঙনে একশ’ গজে দুই স্কুল : টানাটানি শিক্ষার্থীদের

ছবি

আরসা প্রধানের ভাই গ্রেফতারের পর যা তথ্য দিয়েছেন তা যাচাই-বাছাই চলছে

ছবি

আইভীর হ্যাটট্রিক, তবে কমেছে ভোটের ব্যবধান

ছবি

মালিক সমিতির সিদ্ধান্তই মানছে না পরিবহন মালিকরা

করোনা, সংক্রমণ ছড়াচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টই

ছবি

ভিটামিন ডি এর অভাবে করোনা আক্রান্তসহ নানা রোগের ঝুকি বেশী

tab

সারাদেশ

প্রয়াত স্বামীর মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি দেখে যেতে চান সত্তরোর্ধ্ব স্ত্রী

গেজেটে নেই মুজিবনগর সরকারের ভাতাভোগীর নাম!

প্রতিনিধি, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)

গৌরিপুর (ময়মনসিংহ) : মুক্তিযোদ্ধা সুলতান উদ্দিনের পরিবার -সংবাদ

শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১

মুক্তিযুদ্ধের সময় যুদ্ধাহত মানুষের সেবায় নিয়োজিত ছিলেন সুলতান। যার পুরো নাম সুলতান উদ্দিন তালুকদার। মুক্তিযুদ্ধে রণাক্ষনের সাথী ছিলেন তিনি। ভারতের মেঘালয় রাজ্যের শিববাড়ি যুব অভ্যর্থনা ক্যাম্পে তিনি ছিলেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবক। সেই মুক্তিযোদ্ধার নাম আজও গেজেটভুক্ত হয়নি।

সুলতানের স্ত্রী আছিয়া সুলতানা বলেন, স্বামী চলে গেছে; আমিও চলে যাবো। অন্তত স্বামীর প্রাপ্য অধিকারটুকু নিয়ে মরতে চাই, মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে গেজেটভুক্ত হবে স্বামীর নাম, এটা কারো দয়া বা করুণা নয়, এটা হলো আমার স্বামীর কাজের স্বীকৃতি। এ স্বীকৃতি না পেলে পহেলা মার্চ থেকে আমিও আন্দোলনে নামবো। স্বামী সেবা করতো, আমি আমরণ অনশন করবো। ওকে গিয়ে বলতে পারবো, তোমার স্বীকৃতির জন্য আমিও লড়াই করে এসেছি। এ কথাগুলো বলতে গিয়ে বারবার আঁচলে মুখ মুছেন আছিয়া সুলতানা।

যুদ্ধে আহত মুক্তিযোদ্ধাদের জীবন বাঁচাতে সুলতান ছিলেন সর্দাপ্রস্তত। ক্যাম্পে সকল মুক্তিযোদ্ধাদের নিকট পরিচিত এক নাম ছিলো সুলতান। এ ক্যাম্পে দায়িত্ব পালনের জন্য মুজিবনগর সরকারের একজন ভাতা ভোগকারীও ছিলেন। সর্বশেষ ১৯৭১ সালের ১৫ নভেম্বর ৭৫ টাকা ভাতাও উত্তোলন করেন তিনি। ভাতাভোগীর ১১ জনের মধ্যে তাঁর ক্রমিক নং ৯। এ তালিকার ১০ জনই মুক্তিযোদ্ধা। শুধু গেজেটভুক্ত হয়নি সুলতান উদ্দিন তালুকাদারের নাম!

এছাড়া ৪০ জনের আরো একটি মুক্তিযোদ্ধা তালিকা (অর্ন্তভূক্তি) প্রস্তুত হয়, সেখানে সুলতান উদ্দিন তালুকদারের নাম ১৫ নং ক্রমিকে। এ তালিকার অনেকেই গেজেটভুক্ত হয়েছেন। হয়নি সুলতান উদ্দিন তালুকদারের নাম।

স্বামীর মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির জন্য ২০০৬ সালে প্রথম আবেদন করেন আছিয়া সুলতানা। সাক্ষাতকার ও যাছাই বাচাইয়ের আসরে যেতে যেতে তিনিও হাঁপিয়ে উঠেছেন। আছিয়া সুলতানের বয়সও ৭০-এর কোটা ছাড়িয়েছে। শরীরে বাসা বেঁধেছে বার্ধ্যকজনিত নানা রোগ।

স্বামীর নামটি গেজেটভুক্ত করতে সর্বশেষ ২০১৪ সালের ২২ মে অনলাইনে আবেদন করেন আছিয়া সুলতানা। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের ২৭ জুন যাছাই বাচাই হয়। সেই যাছাই-বাচাই কমিটিতে ছিলেন সাত জন সদস্য। এ কমিটি সাক্ষ্য, মুক্তিযোদ্ধার প্রামাণ্য দলিলের ভিত্তিতে ৬ জনকে তালিকাভুক্ত করার জন্য সুপারিশ করেন। এ তালিকার ১নং ক্রমিকে ছিলো সুলতান উদ্দিন তালুকাদারের নাম। অথচ অন্যদের হলেও এবারও বাদ পড়েছেন শুধু তিনি।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কদ্দুছ বলেন, যে তালিকার ৫ জন হলো সেই তালিকার এক নম্বর ক্রমিকের নাম বাদ পড়ে কিভাবে? মুক্তিযুদ্ধ করার পরেও তালিকায় নাম উঠানোর জন্য আরেকটা যুদ্ধ করতে হবে এটা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং লজ্জাজনকও।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রহিম জানান, যাছাই-বাচাই কমিটি কর্তৃক সর্বসম্মতিক্রমে তার স্বীকৃতির জন্য জোর সুপারিশ করা হয়েছে। বিষয়টি আপিল বিভাগে রয়েছে।

back to top