alt

সারাদেশ

স্থায়ী ঠাঁই চায় মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী ও প্রতিবন্ধী মেয়ে

প্রতিনিধি, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) : বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

কটিয়াদি (কিশোরগঞ্জ) : প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা ওয়াহিদ খানের জরাজীর্ণ বাড়ি -সংবাদ

প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াহিদ খান। তিনি ছিলেন কটিয়াদী থানা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নির্বাচিত কমান্ডার। ৭১ এর রণাঙ্গনে এ অঞ্চলে একজন চৌকষ মুক্তিযোদ্ধা হিসেবেও পরিচিত ছিলেন তিনি। ২৭ বছর আগে স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে মারা যান। এরপর থেকেই অভাব-অনটনে দিন কাটে পরিবারটির। বর্তমানে তার বিধবা স্ত্রী মিনা আক্তার (৬৯) ও প্রতিবন্ধী মেয়ে কল্পনা আক্তার (৪৩) একটি জরাজীর্ণ টিনের ঘরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। মুজিববর্ষে সরকারের কাছ থেকে একটি ঘর পাওয়ার বুক ভরা আশা নিয়ে অপেক্ষায় আছে তারা।

জানা যায়, কটিয়াদী পৌর এলাকার পুরাতন শহীদ মিনার সংলগ্ন সরকারি মাঠের এককোনে অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে প্রায় ১৪-১৫টি পরিবার বসবাস করে। এরমধ্যে একটি জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস করছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াহিদ খানের বিধবা স্ত্রী ও প্রতিবন্ধী মেয়ে।

মিনা আক্তার বলেন, ২৭ বছর আগে আমার স্বামী মৃত্যুবরণ করে। দুই ছেলে কটিয়াদীর বাইরে থাকে, আর ছোট মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। বর্তমানে বড় মেয়ে কল্পনাকে নিয়ে সরকারি জায়গায় অস্থায়ীভাবে একটি ছোট ঘর তুলে বসবাস করছি। মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতার টাকা দিয়ে কোন রকমে সংসার চলছে। আমার ঘর নেই ও দূরাবস্থার কথা মুক্তিযোদ্ধাসহ সকলেই জানে। তারপরও আজ পর্যন্ত একটি সরকারি বরাদ্দের ঘর পাওয়া হলো না আমার। প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডারের কাছে একটি ঘরের জন্য আবেদন করেও ঘর না পাওয়ায় আক্ষেপ প্রকাশ করেন তিনি। মেয়ে কল্পনা বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধী হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে থাকার জন্য একটা ঘর চাই।

সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কামান্ডার তুলসী কান্তি রাউত ও সাবেক উপজেলা ডেপুটি কমান্ডার মো. ইসরাইল বলেন, নিজস্ব জায়গা না থাকায় ‘অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ’ প্রকল্পের আওতায় পরিবারটিকে ঘর বরাদ্দ দেয়া যাচ্ছে না। কিভাবে অতি দ্রুত তাদের একটি ঘর দেয়া যায় সে ব্যাপারে প্রশাসনের সহযোগিতায় আমরা চেষ্টা করছি।

এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান বলেন, প্রয়াত ওয়াহিদ খান একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তার পরিবার ঘরহীন অবস্থায় আছে এটা আমার জন্য বেদনাদায়ক।

ছবি

ফরিদপুর ও বরিশালের ৩৭শ টেলিফোন নম্বর পরিবর্তন হচ্ছে

ছবি

নারায়ণগঞ্জে আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে পূর্ণ প্যানেলে এগিয়ে আ’লীগ

ছবি

আসামি নিয়ে গাড়ি পুকুরে, দুই পুলিশের মৃত্যু

ছবি

সেন্টমার্টিন থেকে সাব মেশিনগানসহ ১২ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

ছবি

ফের আগুনে পুড়লো ক্যাম্প, দিশেহারা কয়েক হাজার রোহিঙ্গা

ছবি

বিষমুক্ত সবজি চাষে ঝুঁকছেন বাহুবলের কৃষকরা

ফরিদপুরের সালথায় দুই পক্ষের সংঘর্ষ: আহত-১৫

ছবি

করোনায় আক্রান্ত সকল শিক্ষক, স্কুল বন্ধ ঘোষণা

ছবি

ফতুল্লায় স্কুলের সীমানা প্রচীর ধসে কিশোরসহ আহত ৩

ছবি

যশোরে ইজিবাইক চালকের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

আগামীকাল ১৯ জানুয়ারি নির্মূল কমিটির ৩০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

ছবি

ফেনীতে গাছ পড়ে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ছবি

সোনারগাঁয়ে ৪২ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারও আগুন

ছবি

আইনজীবী ইসমাইল বিয়ে করলেন ৮৭ বছরে

ছবি

শুধু নির্দেশনা দিয়েই শেষ, বিধি মানার কোন লক্ষণ নেই বাস-ট্রেনে

ধরন নিয়ে বিভ্রান্তি, বেড়েই চলেছে সংক্রমণ

নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কাল

ছবি

দশমিনায় বেড়েছে সরিষা আবাদ

জাটকা বাঁচলে ইলিশ হবে দুই লাখ টন

ছবি

কিশোরগঞ্জে বোরো রোপণের ধুম

কিশোরগঞ্জে নতুন করোনা শনাক্ত ১৬

চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত ডিসি সিভিল সার্জন

প্রতিবেশগত সঙ্কটাপন্ন ঘোষণার ২২ বছরেও পদক্ষেপ নেই

নবজাতকের কপাল কাটা : মামলা

চট্টগ্রামে হু হু করে বাড়ছে করোনা : স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই

ছবি

ডক্টরস প্লাটফরম ইন ফিনল্যান্ডের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন

নারায়ণগঞ্জের মতোই সংসদ নির্বাচন চমৎকার হবে : তথ্যমন্ত্রী

‘ক্লিন সেন্ট মার্টিন’ প্রকল্প উদ্বোধন

কুমিল্লায় সহিংসতা মামলায় চেয়ারম্যানসহ জেলে ৪

ছবি

নদী ভাঙনে একশ’ গজে দুই স্কুল : টানাটানি শিক্ষার্থীদের

ছবি

আরসা প্রধানের ভাই গ্রেফতারের পর যা তথ্য দিয়েছেন তা যাচাই-বাছাই চলছে

ছবি

আইভীর হ্যাটট্রিক, তবে কমেছে ভোটের ব্যবধান

ছবি

মালিক সমিতির সিদ্ধান্তই মানছে না পরিবহন মালিকরা

করোনা, সংক্রমণ ছড়াচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টই

ছবি

ভিটামিন ডি এর অভাবে করোনা আক্রান্তসহ নানা রোগের ঝুকি বেশী

tab

সারাদেশ

স্থায়ী ঠাঁই চায় মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী ও প্রতিবন্ধী মেয়ে

প্রতিনিধি, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ)

কটিয়াদি (কিশোরগঞ্জ) : প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা ওয়াহিদ খানের জরাজীর্ণ বাড়ি -সংবাদ

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াহিদ খান। তিনি ছিলেন কটিয়াদী থানা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নির্বাচিত কমান্ডার। ৭১ এর রণাঙ্গনে এ অঞ্চলে একজন চৌকষ মুক্তিযোদ্ধা হিসেবেও পরিচিত ছিলেন তিনি। ২৭ বছর আগে স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে মারা যান। এরপর থেকেই অভাব-অনটনে দিন কাটে পরিবারটির। বর্তমানে তার বিধবা স্ত্রী মিনা আক্তার (৬৯) ও প্রতিবন্ধী মেয়ে কল্পনা আক্তার (৪৩) একটি জরাজীর্ণ টিনের ঘরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। মুজিববর্ষে সরকারের কাছ থেকে একটি ঘর পাওয়ার বুক ভরা আশা নিয়ে অপেক্ষায় আছে তারা।

জানা যায়, কটিয়াদী পৌর এলাকার পুরাতন শহীদ মিনার সংলগ্ন সরকারি মাঠের এককোনে অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে প্রায় ১৪-১৫টি পরিবার বসবাস করে। এরমধ্যে একটি জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস করছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াহিদ খানের বিধবা স্ত্রী ও প্রতিবন্ধী মেয়ে।

মিনা আক্তার বলেন, ২৭ বছর আগে আমার স্বামী মৃত্যুবরণ করে। দুই ছেলে কটিয়াদীর বাইরে থাকে, আর ছোট মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। বর্তমানে বড় মেয়ে কল্পনাকে নিয়ে সরকারি জায়গায় অস্থায়ীভাবে একটি ছোট ঘর তুলে বসবাস করছি। মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতার টাকা দিয়ে কোন রকমে সংসার চলছে। আমার ঘর নেই ও দূরাবস্থার কথা মুক্তিযোদ্ধাসহ সকলেই জানে। তারপরও আজ পর্যন্ত একটি সরকারি বরাদ্দের ঘর পাওয়া হলো না আমার। প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডারের কাছে একটি ঘরের জন্য আবেদন করেও ঘর না পাওয়ায় আক্ষেপ প্রকাশ করেন তিনি। মেয়ে কল্পনা বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধী হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে থাকার জন্য একটা ঘর চাই।

সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কামান্ডার তুলসী কান্তি রাউত ও সাবেক উপজেলা ডেপুটি কমান্ডার মো. ইসরাইল বলেন, নিজস্ব জায়গা না থাকায় ‘অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ’ প্রকল্পের আওতায় পরিবারটিকে ঘর বরাদ্দ দেয়া যাচ্ছে না। কিভাবে অতি দ্রুত তাদের একটি ঘর দেয়া যায় সে ব্যাপারে প্রশাসনের সহযোগিতায় আমরা চেষ্টা করছি।

এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান বলেন, প্রয়াত ওয়াহিদ খান একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তার পরিবার ঘরহীন অবস্থায় আছে এটা আমার জন্য বেদনাদায়ক।

back to top