alt

সারাদেশ

ভোটকেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মী প্রবেশ নিষেধ, সুষ্ঠুতা নিয়ে সংশয়ে দুই প্যানেল

নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কাল

সৌরভ হোসেন সিয়াম, নারায়ণগঞ্জ : সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির (বার) নির্বাচন আজ (মঙ্গলবার)। পেশাজীবী এই সংগঠনের নির্বাচন প্রতিবছর শহরে বেশ আলোচিত হয়। তবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কারণে এবারের নির্বাচন নিয়ে তেমন আলোচনা ছিল না। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দু’টি এবং বিএনপি সমর্থিত একটি প্যানেল অংশ নিয়েছে। এদিকে ভোটের দিন কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। এ নিয়ে সংশয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়া দুই প্যানেলের প্রার্থীরা। তারা বলছেন, এটি নির্বাচন কমিশনের হঠকারী সিদ্ধান্ত। ভোট চুরি যাতে বিনা বাধায় করতে পারে তারই অপপ্রয়াস।

সাধারণ আইনজীবী ও নির্বাচনে অংশ নেওয়া কয়েকজন প্রার্থীর সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ৩ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের তীব্র বিরোধীতার পরও নির্বাচন কমিশন ও ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। এরপর সাবেক সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল এবং রবিউল আমীন রনীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এবং মনিরুল ইসলাম চৌধুরী ও আনোয়ার প্রধানের নেতৃত্বে বিএনপি সমর্থিত প্যানেল ঘোষণা করা হয়। অন্যদিকে আনোয়ার হোসেন ও জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে আরেকটি পৃথক প্যানেল ঘোষণা করে আওয়ামী লীগের একটি অংশ। এই প্যানেল থেকে ছয়টি পদের জন্য প্রার্থী ঘোষণা করা হয়। এই প্যানেলটিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্যানেল বলেই পরিচিত পেয়েছে সাধারণ আইনজীবীদের কাছে।

বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের জেলা সভাপতি সরকার হুমায়ূন কবির সংবাদকে বলেন, আইনজীবীদের তীব্র বিরোধীতার পরও আগের সদস্যদের নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। এই নির্বাচন কমিশনের প্রতি ন্যূনতম ভরসা নেই। পূর্বেও এই কমিশনের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের সুবিধা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এই নির্বাচনেও তাদের দায়িত্ব দিয়ে পুনরায় কারচুপি করতে চায় ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা। যিনি এই নির্বাচন কমিশনের প্রধান তিনি নিজেই সরকারি দলের পদধারী নেতা।

উল্লেখ্য, গত আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী ঘোষিত হন। ওই নির্বাচনে কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগ তোলেন বিএনপিপন্থী প্যানেল। ভোটগ্রহণের শেষ মুহুর্তে কেন্দ্রে মারামারির ঘটনাও ঘটে। ওই সময় গণমাধ্যমকর্মীসহ সাধারণ আইনজীবীরাও আহত হয়।

জানা যায়, এইবারও নির্বাচন কমিশনের প্রধান অ্যাড. সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া। তিনি সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। কমিশনে আরও রয়েছেন আশরাফ হোসেন, জেলা আদালতের জিপি মেরিনা বেগম, আব্দুর রহিম, সুখচাঁদ সরকার। কমিশনের প্রধান সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত দু’টি জরুরি নোটিশ জেলা আইনজীবী সমিতির ভবনের সামনে দেখা যায়। সেখানে ভোটগ্রহণের দিনের কিছু বিধিনিষেধের কথা উল্লেখ রয়েছে। বিধিনিষেধে বলা হয়েছে, ভোটগ্রহণের দিন কেন্দ্রে সাংবাদিক, টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়ার কর্মী, যেকোনো এজেন্সির লোকজন প্রবেশ সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ।

কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার নোটিশে নির্বাচনের সুষ্ঠুতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন বিএনপি ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্যানেলের প্রার্থীরা। তারা বলছেন, প্রথমত নির্বাচনের কমিশনের উপর তাদের বিন্দুমাত্র বিশ্বাস নেই। কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রবেশ নিষেধ করা মানে ‘ভোট চুরি’ করার পথ সহজ করা ছাড়া আর কিছু না।

বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আনোয়ার প্রধান সংবাদকে বলেন, ‘শুরু থেকেই একক সিদ্ধান্তে কমিশন গঠন ও ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। আমরা আইনজীবী, মারামারি-লাঠালাঠি তো করতে পারি না। সুষ্ঠু ভোট হলে পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী হবো। কিন্তু ভোটের সুষ্ঠুতা নিয়ে সংশয়ে আছি। কেননা গত নির্বাচনে বাইরে থেকে ব্যালটে বাক্স ভরে কেন্দ্রের ভেতর রাখা হয়েছে। এইবারও তো একই কমিশন।’

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী জসিম উদ্দিন সংবাদকে বলেন, ‘এই কমিশনের প্রতি বিন্দুমাত্র বিশ্বাস নেই। তারা আবার সাংবাদিকদেরও কেন্দ্রে প্রবেশে নিষেধ করেছে। ভোট চুরি করার সব আয়োজনই তারা রেখেছে। এতকিছু পরও কেবলমাত্র সিলেকশন ঠেকাতে ইলেকশনে এসেছি।’

তবে নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য কমিশন আপোসহীন বলে দাবি করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া। তিনি সংবাদকে বলেন, ‘কারও কোনো চাপ নেই। আমরা নিরপেক্ষ নির্বাচন দেবো। কমিশন কারও পক্ষপাতিত্ব আগেও করেনি এইবারও করবে না।’

কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সাংবাদিকরা কেন্দ্রে ঢুকতে ভোটগ্রহণে ডিস্টার্ব হয়। এই কারণে নিষেধ করেছি। কাউকে কোনো সুবিধা দিতে কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞা নয়।’

আজ সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলবে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এবার মোট ভোটার ১ হাজার ৩৮ জন। জেলা আইনজীবী সমিতির ডিজিটাল বার ভবনে ১০টা বুথ করা হয়েছে। এসব বুথে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন সাধারণ ভোটাররা। নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন ৪০ জন প্রার্থী। তাদের মধ্য থেকে একজন সভাপতি, দুইজন সহসভাপতি, একজন করে সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, আপ্যায়ন সম্পাদক, লাইব্রেরি সম্পাদক, ক্রীড়া সম্পাদক, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক, সমাজ সেবা সম্পাদক, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এবং ৫ জন সাধারণ সদস্যকে নিয়ে ১৭ জনের একটি পরিষদ নির্বাচিত হবে।

##

ছবি

নরসিংদীতে নির্বাচনী সংঘাতে আহত ১৫

ছবি

উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে ট্রেন চলাচল শুরু

অহিংস অগ্নিযাত্রা : তরুণীকে হেনস্থার প্রতিবাদ

ছবি

ভরা মৌসুমে ধান সরবরাহ কম, বাড়ছে দাম

ছবি

তারেককে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

‘যারা দেশের টাকা পাচার করেছে তাদের নামের তালিকা করা হচ্ছে’

ছবি

শহরের মুদি দোকানগুলো বাকিতে পণ্য বিক্রি বন্ধ করায় দুর্দশায় ক্রেতারা

ছবি

খুলনা-কলকাতা রুটে রোববার থেকে চলবে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’

ছবি

‘জাতীয়ভাবে এমন উদ্যোগ নিতে হবে যেন আমাদের সন্তানেরা থাকে নিরাপদে’

ছবি

আজ আসছে খিরসাপাত, আমের বাজার চড়া

ছবি

আশ্রয়ণ প্রকল্প নিয়ে দুর্নীতি করলেই ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

ছবি

ফরিদপুরের নগরকান্দায় রাতের আঁধারে সরকারি পুকুর দখল

ছবি

প্রধান শিক্ষকের ‘স্বেচ্ছাচারিতা’, বিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত

ছবি

প্রশিক্ষণে নেদারল্যান্ডস গিয়ে ‘নিখোঁজ’ ২ পুলিশ

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ স্মরণে সভা

শটসার্কিটের আগুনে দগ্ধ শিশুসহ দুজন

২ জেলায় হামলা-সংঘর্ষে নিহত দুই, গ্রেপ্তার সাত

ছবি

হাতির ভয় দেখিয়ে মাহুতের চাঁদাবাজি

বগুড়ায় জাল টাকা ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার চারজন

তিন দিন পর উল্টো লুটপাটের মামলা

বান্দরবানে পর্যটকবাহী মাইক্রো খাদে : নিহত ৩

হাতিয়ায় ১৭ জেলেকে অর্থদন্ড

ছবি

পদ্মায় বিলীন কয়েকশ’ একর ফসলি জমি

ছবি

মিরসরাইয়ে র‍্যাবের ওপর হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৩

ছবি

হরিরামপুরে পদ্মায় বিলীন কাঞ্চনপুরের দুই তৃতীয়াংশ

সাভারে অনিবন্ধিত দুই হাসপাতাল সিলগালা

কুমিল্লায় রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে

কুমিল্লায় ট্রেন লাইনচ্যুত, সিলেট-চট্টগ্রামের ট্রেন বন্ধ

রংপুরে শিশু ধর্ষণ মামলায় ইমামের যাবজ্জীবন

ছবি

করোনা চিকিৎসায় বিবাহিত স্বাস্থ্যকর্মীরা বেশী মানসিক রোগে আক্রান্ত

ছবি

তেজগাঁও ট্রাকে পিষ্ট হয়ে শিশু নিহত

ছবি

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, খোয়ালেন টাকা-মোবাইল

ছবি

বিদ্যুৎপৃষ্টে প্রাণ গেল ছাত্রলীগ নেতার, আহত ২

বাঁশকালীতে জমি বিবাদে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শঙ্কা

পাকুন্দিয়ায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

ছবি

অবৈধ অটোরিকশার চোখ ধাঁধাঁনো এলইডির আলোতে বাড়ছে দুর্ঘটনা

tab

সারাদেশ

ভোটকেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মী প্রবেশ নিষেধ, সুষ্ঠুতা নিয়ে সংশয়ে দুই প্যানেল

নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কাল

সৌরভ হোসেন সিয়াম, নারায়ণগঞ্জ

সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির (বার) নির্বাচন আজ (মঙ্গলবার)। পেশাজীবী এই সংগঠনের নির্বাচন প্রতিবছর শহরে বেশ আলোচিত হয়। তবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কারণে এবারের নির্বাচন নিয়ে তেমন আলোচনা ছিল না। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দু’টি এবং বিএনপি সমর্থিত একটি প্যানেল অংশ নিয়েছে। এদিকে ভোটের দিন কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। এ নিয়ে সংশয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়া দুই প্যানেলের প্রার্থীরা। তারা বলছেন, এটি নির্বাচন কমিশনের হঠকারী সিদ্ধান্ত। ভোট চুরি যাতে বিনা বাধায় করতে পারে তারই অপপ্রয়াস।

সাধারণ আইনজীবী ও নির্বাচনে অংশ নেওয়া কয়েকজন প্রার্থীর সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ৩ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের তীব্র বিরোধীতার পরও নির্বাচন কমিশন ও ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। এরপর সাবেক সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল এবং রবিউল আমীন রনীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এবং মনিরুল ইসলাম চৌধুরী ও আনোয়ার প্রধানের নেতৃত্বে বিএনপি সমর্থিত প্যানেল ঘোষণা করা হয়। অন্যদিকে আনোয়ার হোসেন ও জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে আরেকটি পৃথক প্যানেল ঘোষণা করে আওয়ামী লীগের একটি অংশ। এই প্যানেল থেকে ছয়টি পদের জন্য প্রার্থী ঘোষণা করা হয়। এই প্যানেলটিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্যানেল বলেই পরিচিত পেয়েছে সাধারণ আইনজীবীদের কাছে।

বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের জেলা সভাপতি সরকার হুমায়ূন কবির সংবাদকে বলেন, আইনজীবীদের তীব্র বিরোধীতার পরও আগের সদস্যদের নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। এই নির্বাচন কমিশনের প্রতি ন্যূনতম ভরসা নেই। পূর্বেও এই কমিশনের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের সুবিধা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এই নির্বাচনেও তাদের দায়িত্ব দিয়ে পুনরায় কারচুপি করতে চায় ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা। যিনি এই নির্বাচন কমিশনের প্রধান তিনি নিজেই সরকারি দলের পদধারী নেতা।

উল্লেখ্য, গত আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী ঘোষিত হন। ওই নির্বাচনে কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগ তোলেন বিএনপিপন্থী প্যানেল। ভোটগ্রহণের শেষ মুহুর্তে কেন্দ্রে মারামারির ঘটনাও ঘটে। ওই সময় গণমাধ্যমকর্মীসহ সাধারণ আইনজীবীরাও আহত হয়।

জানা যায়, এইবারও নির্বাচন কমিশনের প্রধান অ্যাড. সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া। তিনি সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। কমিশনে আরও রয়েছেন আশরাফ হোসেন, জেলা আদালতের জিপি মেরিনা বেগম, আব্দুর রহিম, সুখচাঁদ সরকার। কমিশনের প্রধান সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত দু’টি জরুরি নোটিশ জেলা আইনজীবী সমিতির ভবনের সামনে দেখা যায়। সেখানে ভোটগ্রহণের দিনের কিছু বিধিনিষেধের কথা উল্লেখ রয়েছে। বিধিনিষেধে বলা হয়েছে, ভোটগ্রহণের দিন কেন্দ্রে সাংবাদিক, টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়ার কর্মী, যেকোনো এজেন্সির লোকজন প্রবেশ সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ।

কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার নোটিশে নির্বাচনের সুষ্ঠুতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন বিএনপি ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্যানেলের প্রার্থীরা। তারা বলছেন, প্রথমত নির্বাচনের কমিশনের উপর তাদের বিন্দুমাত্র বিশ্বাস নেই। কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রবেশ নিষেধ করা মানে ‘ভোট চুরি’ করার পথ সহজ করা ছাড়া আর কিছু না।

বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আনোয়ার প্রধান সংবাদকে বলেন, ‘শুরু থেকেই একক সিদ্ধান্তে কমিশন গঠন ও ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। আমরা আইনজীবী, মারামারি-লাঠালাঠি তো করতে পারি না। সুষ্ঠু ভোট হলে পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী হবো। কিন্তু ভোটের সুষ্ঠুতা নিয়ে সংশয়ে আছি। কেননা গত নির্বাচনে বাইরে থেকে ব্যালটে বাক্স ভরে কেন্দ্রের ভেতর রাখা হয়েছে। এইবারও তো একই কমিশন।’

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী জসিম উদ্দিন সংবাদকে বলেন, ‘এই কমিশনের প্রতি বিন্দুমাত্র বিশ্বাস নেই। তারা আবার সাংবাদিকদেরও কেন্দ্রে প্রবেশে নিষেধ করেছে। ভোট চুরি করার সব আয়োজনই তারা রেখেছে। এতকিছু পরও কেবলমাত্র সিলেকশন ঠেকাতে ইলেকশনে এসেছি।’

তবে নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য কমিশন আপোসহীন বলে দাবি করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া। তিনি সংবাদকে বলেন, ‘কারও কোনো চাপ নেই। আমরা নিরপেক্ষ নির্বাচন দেবো। কমিশন কারও পক্ষপাতিত্ব আগেও করেনি এইবারও করবে না।’

কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সাংবাদিকরা কেন্দ্রে ঢুকতে ভোটগ্রহণে ডিস্টার্ব হয়। এই কারণে নিষেধ করেছি। কাউকে কোনো সুবিধা দিতে কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞা নয়।’

আজ সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলবে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এবার মোট ভোটার ১ হাজার ৩৮ জন। জেলা আইনজীবী সমিতির ডিজিটাল বার ভবনে ১০টা বুথ করা হয়েছে। এসব বুথে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন সাধারণ ভোটাররা। নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন ৪০ জন প্রার্থী। তাদের মধ্য থেকে একজন সভাপতি, দুইজন সহসভাপতি, একজন করে সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, আপ্যায়ন সম্পাদক, লাইব্রেরি সম্পাদক, ক্রীড়া সম্পাদক, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক, সমাজ সেবা সম্পাদক, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এবং ৫ জন সাধারণ সদস্যকে নিয়ে ১৭ জনের একটি পরিষদ নির্বাচিত হবে।

##

back to top