alt

সারাদেশ

নাব্যতা সংকটে তিস্তা-ব্রহ্মপুত্র

৮০টি নৌপথই মৃতপ্রায় ঠেলে ঠেলে চলছে নৌযান

আফতাব হোসেন, গাইবান্ধা : মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২

গাইবান্ধা : ব্রহ্মপুত্র নদে নাব্যতা সংকটে নৌরুট বন্ধের পথে -সংবাদ

চরম নাব্য সংকটে পড়েছে গাইবান্ধার তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র নদের নৌপথগুলো। চলতি মৌসুমের নভেম্বর মাসের প্রথম থেকে নদ-নদীর পানি হ্রাস পেয়ে নদীগুলো হারিয়ে ফেলেছে স্বাভাবিক গতিপ্রকৃতি।

জেলার অভ্যন্তরীণ নাব্য সংকটে ৮০ টি নৌপথই মৃতপ্রায়। তবে, বিআইডব্লিউটিএ ড্রেজিং করে দু থেকে তিনটি চালু রাখার চেষ্টা করেও কোন কাজ হচ্ছে না।

নৌপথগুলো বন্ধ হওয়ায় পণ্য পরিবহনে সীমাহীন দুর্ভোগের সাথে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন চরাঞ্চল ও দুপাড়ের মানুষজন। বালাসী, ফুলছড়ি, সাঘাটা, কামারজানি, হরিপুর ঘাটে চালু থাকলেও গন্তব্যে পৌছেতে সময় লাগছে ৪ গুণেরও বেশি সময়।

গাইবান্ধা জেলা সদর, সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, তিস্তার নদীর দু’পাড়ে ছোট-বড় ৯০টি নৌঘাট থাকলেও বর্তমানে সচল আছে মাত্র ১২টি। ্এতে করে, গাইবান্ধার জেলার সাথে পুর্বপাড়ের জামালুপরের বাহাদুরাবাদ,ঘুঠাইল, কুড়িগ্রামের রাজিবপুর, রৌমারী, চিলমারী আর জেলার অভ্যন্তরনী এরেন্ডাবাড়ি, মোল্লারচর, ফজলুুপুর, কুন্দেরপাড়া, কাপাসিয়া, দিঘলকান্দিসহ বেশ কয়েকটি নৌঘাটের মানুষজনের সীমাহীন দুর্ভোগ বেড়েছে।

এদিকে,চলতি মৌসুমে নভেম্বর মাসের শেষের দিকেই নৌঘাটগুলো মেইনল্যান্ড থেকে কমপক্ষে ৫ কিলোমিটার দুরে সরে যাওয়ায় চরম ভোগান্তি পড়েছে জেলার চরাঞ্চলের প্রায় ৫ লক্ষাধিক মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে মানুষজন বিকল্প হিসাবে পায়ে হেটে, ঘোড়ার গাড়ি আবার কখনও অটো বাইকে, কাকড়া (ট্রাক্টর) চরে ৫ থেকে ১৫ কিলোমিটার অতিক্রম করে প্রয়োজনের তাগিদে নৌঘাটে পৌঁছাঁতে হচ্ছে। এতে গুণতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়াও।

পরিবর্তনজনিত জলবায়ুর প্রভাবে এমন অবস্থা বলে দাবী সচেতন মহলের। এজন্য চরাঞ্চলের মানুষের জীবনমানের উন্নয়নে নদীগুলো খনন করা প্রয়োজন বলে জানান তারা সদর উপজেলার কামারজানি ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাকির হোসেন। মোল্লারচর ইউনয়নের সাবেক ইউপি সদস্য হামিদা বেগম জানান, চরাঞ্চলের অন্যতম সমস্যা সুষ্ক মৌসুমে নদীতে পানি না থাকা। এজন্য তিনি জনগণকেই দায়ী করে বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনে আজ এই অবস্থা। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা গণ উন্নয়ন কেন্দ্রের প্রধান নির্বাহী ও নদী গবেষক এম. আবদুস সালাম জানান, নদী রক্ষায় জনগণের সাথে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকেই কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে। কেননা পরিকল্পিতভাবে নদী ড্রেজিং না করা হলে নদীগুলো ক্রমেই অস্তিত্ব হারিয়ে ফেলবে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

গাইবান্ধার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাদেকুর রহমান জানান, উত্তরাঞ্চলের মানুষের সাথে জামালপুর, ময়মিনসিংহ সহ ঢাকার সাথে নৌ যোগাযোগ সবসময় সচল রাখতে নদী খনন করে নাব্য সংকট দুর করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

গত দু’বছরে পরিকল্পনা ছাড়াই বিআইডব্লিউটিএ প্রায় আড়াইশ কোটি টাকা খরচ করে নদী খনন করলেও কোন দুশ্যত কোন কাজ হয়নি। এজন্য গবেষনার মাধ্যমে নদী খনন করে নাব্য সংকট দূরীকরণে সরকার পদক্ষেপ নিবে এমনটাই দাবী করেন এলাকার মানুষজন।

ছবি

নরসিংদীতে নির্বাচনী সংঘাতে আহত ১৫

ছবি

উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে ট্রেন চলাচল শুরু

অহিংস অগ্নিযাত্রা : তরুণীকে হেনস্থার প্রতিবাদ

ছবি

ভরা মৌসুমে ধান সরবরাহ কম, বাড়ছে দাম

ছবি

তারেককে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

‘যারা দেশের টাকা পাচার করেছে তাদের নামের তালিকা করা হচ্ছে’

ছবি

শহরের মুদি দোকানগুলো বাকিতে পণ্য বিক্রি বন্ধ করায় দুর্দশায় ক্রেতারা

ছবি

খুলনা-কলকাতা রুটে রোববার থেকে চলবে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’

ছবি

‘জাতীয়ভাবে এমন উদ্যোগ নিতে হবে যেন আমাদের সন্তানেরা থাকে নিরাপদে’

ছবি

আজ আসছে খিরসাপাত, আমের বাজার চড়া

ছবি

আশ্রয়ণ প্রকল্প নিয়ে দুর্নীতি করলেই ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

ছবি

ফরিদপুরের নগরকান্দায় রাতের আঁধারে সরকারি পুকুর দখল

ছবি

প্রধান শিক্ষকের ‘স্বেচ্ছাচারিতা’, বিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত

ছবি

প্রশিক্ষণে নেদারল্যান্ডস গিয়ে ‘নিখোঁজ’ ২ পুলিশ

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ স্মরণে সভা

শটসার্কিটের আগুনে দগ্ধ শিশুসহ দুজন

২ জেলায় হামলা-সংঘর্ষে নিহত দুই, গ্রেপ্তার সাত

ছবি

হাতির ভয় দেখিয়ে মাহুতের চাঁদাবাজি

বগুড়ায় জাল টাকা ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার চারজন

তিন দিন পর উল্টো লুটপাটের মামলা

বান্দরবানে পর্যটকবাহী মাইক্রো খাদে : নিহত ৩

হাতিয়ায় ১৭ জেলেকে অর্থদন্ড

ছবি

পদ্মায় বিলীন কয়েকশ’ একর ফসলি জমি

ছবি

মিরসরাইয়ে র‍্যাবের ওপর হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৩

ছবি

হরিরামপুরে পদ্মায় বিলীন কাঞ্চনপুরের দুই তৃতীয়াংশ

সাভারে অনিবন্ধিত দুই হাসপাতাল সিলগালা

কুমিল্লায় রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে

কুমিল্লায় ট্রেন লাইনচ্যুত, সিলেট-চট্টগ্রামের ট্রেন বন্ধ

রংপুরে শিশু ধর্ষণ মামলায় ইমামের যাবজ্জীবন

ছবি

করোনা চিকিৎসায় বিবাহিত স্বাস্থ্যকর্মীরা বেশী মানসিক রোগে আক্রান্ত

ছবি

তেজগাঁও ট্রাকে পিষ্ট হয়ে শিশু নিহত

ছবি

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, খোয়ালেন টাকা-মোবাইল

ছবি

বিদ্যুৎপৃষ্টে প্রাণ গেল ছাত্রলীগ নেতার, আহত ২

বাঁশকালীতে জমি বিবাদে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শঙ্কা

পাকুন্দিয়ায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

ছবি

অবৈধ অটোরিকশার চোখ ধাঁধাঁনো এলইডির আলোতে বাড়ছে দুর্ঘটনা

tab

সারাদেশ

নাব্যতা সংকটে তিস্তা-ব্রহ্মপুত্র

৮০টি নৌপথই মৃতপ্রায় ঠেলে ঠেলে চলছে নৌযান

আফতাব হোসেন, গাইবান্ধা

গাইবান্ধা : ব্রহ্মপুত্র নদে নাব্যতা সংকটে নৌরুট বন্ধের পথে -সংবাদ

মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২

চরম নাব্য সংকটে পড়েছে গাইবান্ধার তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র নদের নৌপথগুলো। চলতি মৌসুমের নভেম্বর মাসের প্রথম থেকে নদ-নদীর পানি হ্রাস পেয়ে নদীগুলো হারিয়ে ফেলেছে স্বাভাবিক গতিপ্রকৃতি।

জেলার অভ্যন্তরীণ নাব্য সংকটে ৮০ টি নৌপথই মৃতপ্রায়। তবে, বিআইডব্লিউটিএ ড্রেজিং করে দু থেকে তিনটি চালু রাখার চেষ্টা করেও কোন কাজ হচ্ছে না।

নৌপথগুলো বন্ধ হওয়ায় পণ্য পরিবহনে সীমাহীন দুর্ভোগের সাথে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন চরাঞ্চল ও দুপাড়ের মানুষজন। বালাসী, ফুলছড়ি, সাঘাটা, কামারজানি, হরিপুর ঘাটে চালু থাকলেও গন্তব্যে পৌছেতে সময় লাগছে ৪ গুণেরও বেশি সময়।

গাইবান্ধা জেলা সদর, সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, তিস্তার নদীর দু’পাড়ে ছোট-বড় ৯০টি নৌঘাট থাকলেও বর্তমানে সচল আছে মাত্র ১২টি। ্এতে করে, গাইবান্ধার জেলার সাথে পুর্বপাড়ের জামালুপরের বাহাদুরাবাদ,ঘুঠাইল, কুড়িগ্রামের রাজিবপুর, রৌমারী, চিলমারী আর জেলার অভ্যন্তরনী এরেন্ডাবাড়ি, মোল্লারচর, ফজলুুপুর, কুন্দেরপাড়া, কাপাসিয়া, দিঘলকান্দিসহ বেশ কয়েকটি নৌঘাটের মানুষজনের সীমাহীন দুর্ভোগ বেড়েছে।

এদিকে,চলতি মৌসুমে নভেম্বর মাসের শেষের দিকেই নৌঘাটগুলো মেইনল্যান্ড থেকে কমপক্ষে ৫ কিলোমিটার দুরে সরে যাওয়ায় চরম ভোগান্তি পড়েছে জেলার চরাঞ্চলের প্রায় ৫ লক্ষাধিক মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে মানুষজন বিকল্প হিসাবে পায়ে হেটে, ঘোড়ার গাড়ি আবার কখনও অটো বাইকে, কাকড়া (ট্রাক্টর) চরে ৫ থেকে ১৫ কিলোমিটার অতিক্রম করে প্রয়োজনের তাগিদে নৌঘাটে পৌঁছাঁতে হচ্ছে। এতে গুণতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়াও।

পরিবর্তনজনিত জলবায়ুর প্রভাবে এমন অবস্থা বলে দাবী সচেতন মহলের। এজন্য চরাঞ্চলের মানুষের জীবনমানের উন্নয়নে নদীগুলো খনন করা প্রয়োজন বলে জানান তারা সদর উপজেলার কামারজানি ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাকির হোসেন। মোল্লারচর ইউনয়নের সাবেক ইউপি সদস্য হামিদা বেগম জানান, চরাঞ্চলের অন্যতম সমস্যা সুষ্ক মৌসুমে নদীতে পানি না থাকা। এজন্য তিনি জনগণকেই দায়ী করে বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনে আজ এই অবস্থা। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা গণ উন্নয়ন কেন্দ্রের প্রধান নির্বাহী ও নদী গবেষক এম. আবদুস সালাম জানান, নদী রক্ষায় জনগণের সাথে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকেই কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে। কেননা পরিকল্পিতভাবে নদী ড্রেজিং না করা হলে নদীগুলো ক্রমেই অস্তিত্ব হারিয়ে ফেলবে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

গাইবান্ধার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাদেকুর রহমান জানান, উত্তরাঞ্চলের মানুষের সাথে জামালপুর, ময়মিনসিংহ সহ ঢাকার সাথে নৌ যোগাযোগ সবসময় সচল রাখতে নদী খনন করে নাব্য সংকট দুর করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

গত দু’বছরে পরিকল্পনা ছাড়াই বিআইডব্লিউটিএ প্রায় আড়াইশ কোটি টাকা খরচ করে নদী খনন করলেও কোন দুশ্যত কোন কাজ হয়নি। এজন্য গবেষনার মাধ্যমে নদী খনন করে নাব্য সংকট দূরীকরণে সরকার পদক্ষেপ নিবে এমনটাই দাবী করেন এলাকার মানুষজন।

back to top