alt

সারাদেশ

পদ্মায় বিলীন কয়েকশ’ একর ফসলি জমি

প্রতিনিধি, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) : শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/May/27May22/news/pic-1.jpg

হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) : পদ্মার ভাঙনে বিলীন হচ্ছে ফসলি জমি ও বিস্তীর্ণ জনপথ -সংবাদ

পদ্মার ভাঙনে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকার কয়েক’শ একর ফসলি জমি, ঘরসহ অনেক স্থাপনা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ঝিটকা-গোপীনাথপুর-বাল্লা-পাটুরিয়াসড়ক এবং হোগলাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে। ভাঙনে কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের ১৩ টি মৌজার ১২ টি মৌজা বিলীন হয়ে গেছে। হাজার হাজার মানুষ বাসস্থান হারা। অনেকে তিন চার ভাঙা শেষে কোর্টকান্দি, মুহম্মদপুর এলাকায় বাড়ি করেছেন সে বাড়িও ভাঙন আতঙ্কে।

https://sangbad.net.bd/images/2022/May/27May22/news/pic-2.jpg

উপজেলার কের্টকান্দি গ্রামের বৃদ্ধ হাশেম মল্লিক (৭০) বলেন, এর আগে আরও চারবার গাঙ্গের ভাঙনে ঘরবাড়ি হারায়ে এই গ্রামে আইসি। আর কয়দিনিই বাঁচপো? মরার আগে এই বাড়িডাও মনে হচ্ছে আর থাকবার পারুমনা।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার কাঞ্চন মেম্বার বলেন, আমার বর্ষার শুরুতে যদি দ্রুত কোনো পদক্ষেপ না নেওয়া হয়, তাহলে অনেকের বাপ-দাদার বসতভিটা নদীগর্ভে চলে যাবে। তাহলে ওই লোকগুলো কোথায় যাবে!

কোর্টকান্দি গ্রামের জবেদা বেগম (৫০) বলেন,আমরা গরীব মানুষ। কোন রকম খেয়ে না খেয়ে দিনপার করি। ছেলে রিকশা চালায়। এর আগে বাড়ি ভাঙছে এবার ভাঙলে যামু কই। সরকার যেন ভাঙা ফিরাইতে ব্যবস্থা নেয়।

ওমর ফকির স্ত্রী (৪৭) জানান, সরকার ভাঙা ফিরাইতে স্থায়ী বাঁধ না দিলে সব শ্যাষ হইয়া যাইবো। আমগো মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকু থাকপোনা।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজি বনি ইসলাম রুপক বলেন, আমার ইউনিয়নে কয়েক বছরে অব্যাহত ভাঙনে ১৩টি মৌজার ১২টি মৌজা পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। এখন শুধু গৌড়বোরদিয়া মৌজা অবশিষ্ট রয়েছে। গত দুই বছরে পদ্মার ভাঙনে শত শত বিঘা জমি ও কয়েকশ বাড়ি পদ্নায় বিলীন হয়ে গেছে। গতবছর কুশিয়ারচর ও মালুচি এলাকায় শতাধিক বাড়ি ভেঙে গেছে। এবার কোর্টকান্দি সবচেয়ে বেশি ভাঙছে, এছাড়া মুহম্মদপুর বৌদ্ধকানিও পদ্মায় পানি বৃদ্ধির সঙ্গে ভাঙন শুরু হয়েছে। গত এক সপ্তাহে কয়েকটি বাড়ি ও বিঘা বিঘা জমি পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। দুটি কলাবাগানের আংশিক পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আমাকে জানিয়েছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে ভাঙনরোধে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করবো।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাইনুদ্দিন বলেন, হরিরামপুরেরর কাঞ্চনপুর ও গোপীনাথপুরে ভাঙন দেখা দিয়েছে। বরাদ্দের জন্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। অনুমোদন পেলেই কাজ শুরু করতে পারবো।

ছবি

১০০ মিনিটের নদীপথ পদ্মা সেতু পার ৬ মিনিটে

ছবি

টাঙ্গাইলে শিশু হত্যা: ময়নাতদন্তে মিললো শ্বাসরোধে হত্যার আলামত

ছবি

উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই

ছবি

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ

ছবি

অচেনা পাটুরিয়া ঘাট: কোলাহল নেই, যানবাহনের সারিও নেই

ছবি

পদ্মা সেতু জাদুঘর: বৈচিত্র্যময় প্রাণীর এক বিরল সংগ্রহশালা

সংক্রমণ, চতুর্থ ঢেউয়ের পথে

হজ প্রতিনিধি দল সৌদি যাচ্ছেন ৩ জুলাই

ছবি

পদ্মা সেতুর প্রথম লেডি বাইকার রুবায়াত রুবা

ছবি

পদ্মা সেতুতে ৮ ঘন্টায় ১৫ হাজার ২০০ গাড়ি পারাপার

ছবি

শহর পর্যায়ে বিশুদ্ধ ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে সেমিনার

ছবি

ছাত্রীদের সাথে অনৈতিক আচরণের অভিযোগ ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে

ছবি

গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: ১৫ বছর পর ৩ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

আম সংকটে বন্ধ রাজশাহী-ঢাকা ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন

ছবি

তালার সরকারি ৪টি গুরুত্বপূর্ন দপ্তর বিভিন্ন স্থানে: ভোগান্তীতে মানুষ

ছবি

চার মাস পর সিলেটে করোনা শনাক্ত ছাড়াল ৯ শতাংশ

ছবি

৮ ঘণ্টায় পদ্মা সেতুতে টোল আদায় ৮২ লাখ টাকা

ছবি

চরভদ্রাসনে বাঁধ ভাঙ্গন: হুমকিতে বিদ্যালয়সহ ৪০ পরিবার

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু

ঘের মালিকের হামলায় ৩ আহত

ছবি

হাত দিয়ে পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা যুবক বায়েজিদ আটক

কৃষক পরিবারকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা

ছবি

বরিশাল-ঢাকা সাড়ে ৩ ঘণ্টা, ৫ মিনিটে সেতু পার

ছবি

‘সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে’ কিশোর খুন, গ্রেফতার ২

জমি নিয়ে বিরোধে মসজিদে তালা

সড়কে ঝরল দুই চালক

পাকুন্দিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একযুগ পর অস্ত্রোপচার

বন্যা : আট দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই হবিগঞ্জের ২০০ গ্রামে

ছবি

ক্রস বাঁধে ভাঙন : বিলীন দুই শতাধিক ঘরবাড়ি

ছবি

দুই নবজাতকের নাম রাখা হলো পদ্মা-সেতু

ছবি

পাসপোর্ট অফিসে ২০০ দালাল ! অতিষ্ঠ গ্রাহক

বন্যা : হতাশ নবীনগরের পশু খামারিরা

ছবি

কাল থেকে পদ্মা সেতুতে নেমে ছবি তুললেই জরিমানা

ছবি

রংপুরের চাহিদা মিটিয়েও অতিরিক্ত ১ লাখ ৩২ হাজার কোরবানির পশু

ছবি

পদ্মা সেতু: সাক্ষী হতে এসে নিজেরাই ইতিহাসের অংশ হলেন তারা

ছবি

সরকারের নির্দেশনা পেলে সুনামগঞ্জে কোস্টগার্ড জোন হবে : মহাপরিচালক

tab

সারাদেশ

পদ্মায় বিলীন কয়েকশ’ একর ফসলি জমি

প্রতিনিধি, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ)

শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/May/27May22/news/pic-1.jpg

হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) : পদ্মার ভাঙনে বিলীন হচ্ছে ফসলি জমি ও বিস্তীর্ণ জনপথ -সংবাদ

পদ্মার ভাঙনে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকার কয়েক’শ একর ফসলি জমি, ঘরসহ অনেক স্থাপনা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ঝিটকা-গোপীনাথপুর-বাল্লা-পাটুরিয়াসড়ক এবং হোগলাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে। ভাঙনে কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের ১৩ টি মৌজার ১২ টি মৌজা বিলীন হয়ে গেছে। হাজার হাজার মানুষ বাসস্থান হারা। অনেকে তিন চার ভাঙা শেষে কোর্টকান্দি, মুহম্মদপুর এলাকায় বাড়ি করেছেন সে বাড়িও ভাঙন আতঙ্কে।

https://sangbad.net.bd/images/2022/May/27May22/news/pic-2.jpg

উপজেলার কের্টকান্দি গ্রামের বৃদ্ধ হাশেম মল্লিক (৭০) বলেন, এর আগে আরও চারবার গাঙ্গের ভাঙনে ঘরবাড়ি হারায়ে এই গ্রামে আইসি। আর কয়দিনিই বাঁচপো? মরার আগে এই বাড়িডাও মনে হচ্ছে আর থাকবার পারুমনা।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার কাঞ্চন মেম্বার বলেন, আমার বর্ষার শুরুতে যদি দ্রুত কোনো পদক্ষেপ না নেওয়া হয়, তাহলে অনেকের বাপ-দাদার বসতভিটা নদীগর্ভে চলে যাবে। তাহলে ওই লোকগুলো কোথায় যাবে!

কোর্টকান্দি গ্রামের জবেদা বেগম (৫০) বলেন,আমরা গরীব মানুষ। কোন রকম খেয়ে না খেয়ে দিনপার করি। ছেলে রিকশা চালায়। এর আগে বাড়ি ভাঙছে এবার ভাঙলে যামু কই। সরকার যেন ভাঙা ফিরাইতে ব্যবস্থা নেয়।

ওমর ফকির স্ত্রী (৪৭) জানান, সরকার ভাঙা ফিরাইতে স্থায়ী বাঁধ না দিলে সব শ্যাষ হইয়া যাইবো। আমগো মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকু থাকপোনা।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজি বনি ইসলাম রুপক বলেন, আমার ইউনিয়নে কয়েক বছরে অব্যাহত ভাঙনে ১৩টি মৌজার ১২টি মৌজা পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। এখন শুধু গৌড়বোরদিয়া মৌজা অবশিষ্ট রয়েছে। গত দুই বছরে পদ্মার ভাঙনে শত শত বিঘা জমি ও কয়েকশ বাড়ি পদ্নায় বিলীন হয়ে গেছে। গতবছর কুশিয়ারচর ও মালুচি এলাকায় শতাধিক বাড়ি ভেঙে গেছে। এবার কোর্টকান্দি সবচেয়ে বেশি ভাঙছে, এছাড়া মুহম্মদপুর বৌদ্ধকানিও পদ্মায় পানি বৃদ্ধির সঙ্গে ভাঙন শুরু হয়েছে। গত এক সপ্তাহে কয়েকটি বাড়ি ও বিঘা বিঘা জমি পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। দুটি কলাবাগানের আংশিক পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আমাকে জানিয়েছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে ভাঙনরোধে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করবো।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাইনুদ্দিন বলেন, হরিরামপুরেরর কাঞ্চনপুর ও গোপীনাথপুরে ভাঙন দেখা দিয়েছে। বরাদ্দের জন্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। অনুমোদন পেলেই কাজ শুরু করতে পারবো।

back to top