alt

সারাদেশ

উজানের ঢলে রাজশাহীর পদ্মা, ভাঙন আতঙ্কে তীরের মানুষ

জেলা প্রতিনিধি, রাজশাহী: : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/June/23Jun22/news/%E0%A7%A7%E0%A7%AF.jpg

দেশের উজান থেকে নেমে আসা ঢলে দিন দিন রাজশাহী পয়েন্টে বাড়ছে পদ্মার পানি। পদ্মার পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবছরই কীর্তিনাশা পদ্মার দুই পাড়ের মানুষ শত শত ঘর-বাড়ি হারান। পদ্মার পানি বাড়তে শুরু করায় রাজশাহীর চারঘাট-বাঘা, পবা ও গোদাগাড়ী এলাকায় এরই মধ্যে ভাঙন আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্র জানায়, রাজশাহী পয়েন্টে বুধবার (২২ জুন) সন্ধ্যা ৬টায় পদ্মার পানির উচ্চতা মাপা হয়েছে ১২ দশমিক ৬৬ মিটার। আর রাজশাহীতে পদ্মার পানির বিপৎসীমা নির্ধারণ করা রয়েছে ১৮ দশমিক ৫০ মিটার। ফলে উচ্চতার এই গণিত বলছে, এখন বিপৎসীমার ৫ দশমিক ৮৪ মিটার নিচ দিয়ে বইছে রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মার পানি।

এখন রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর ও সদর ইউনিয়নের প্রায় চারটি গ্রামে ভাঙন শুরু হয়েছে। এছাড়া রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সর্ব দক্ষিণ পূর্বে থাকা সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন চকরাজাপুরেও ভাঙন দেখা দিয়েছে। বাঘা উপজেলার সীমান্তবর্তী পদ্মা নদীর চরাঞ্চল চকরাজাপুর এখন বর্ষায় পানিতে পরিপূর্ণ। তবে রাজশাহীর চারঘাট ও বাঘা উপজেলা এলাকায় পদ্মা নদীর ভাঙন রোধে ৭২২ কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ চলমান আছে। আগামী মৌসুমে এই প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। এ কাজ শেষ হলেই ভাঙন রোধ হবে বলছে, পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।

পাউবো বলছে, রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা ও বাঘা উপজেলায় পদ্মা নদীর বাম তীরের স্থাপনাগুলো প্রতি বছর বর্ষায় আরও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। তাই পদ্মা নদীর এই পয়েন্টগুলোয় থাকা বাঁধ ও স্থাপনাগুলোকে ভাঙন থেকে রক্ষায় ওই প্রকল্পের কাজ বছরজুড়েই চলমান থাকে।

https://sangbad.net.bd/images/2022/June/23Jun22/news/%E0%A7%A8%E0%A7%A6.jpg

এদিকে পদ্মার পানি হু-হু করে বাড়তে থাকায় ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে রাজশাহীর পবা ও গোদাগাড়ী উপজোর নদীর তীরবর্তী এলাকায়ও। বর্ষা মৌসুমের শুরু থেকেই এবার বৃষ্টিপাত হওয়ায় বিগত বছরের তুলনায় পদ্মার রাজশাহী পয়েন্টে আগেভাগেই পানি এসেছে। এতে বন্যার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। যদিও গেল ২০ বছরে রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে দুই বার। এর মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত টানা ৮ বছর রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেনি। কেবল ২০০৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মার সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল ১৮ দশমিক ৮৫ মিটার। এরপর ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মা বিপৎসীমা অতিক্রম করেছিল। ওই বছর পদ্মার পানির উচ্চতা দাঁড়িয়েছিল ১৮ দশমিক ৭০ মিটার। এরপর আর এই রেকর্ড ভাঙেনি।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) গেজ রিডার এনামুল হক জানান, মূলত গত ১৭ মে থেকে রাজশাহীতে পদ্মার পানি বাড়তে শুরু করেছে। ওইদিন সন্ধ্যা ৬টায় রাজশাহী পয়েন্ট পদ্মা নদীর পানির উচ্চতা মাপা হয়েছিল ৮ দশমিক ৭৫ মিটার। এরপর ২৯ মে পর্যন্ত পানির উচ্চতা ছিল ৯ মিটারের মধ্যে। ৩০ মে পানির উচ্চতা কিছুটা বেড়ে দাঁড়ায় ৯ দশমিক ৭৪ মিটারে।

এরপর গত ১ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ৯ দশমিক ৮০ মিটার। ওইদিন থেকে পানি আবার পানি কমে ৯ দশমিক ৭৪ মিটার হয়। এরপর ৬ জুন থেকে ২১ জুন পর্যন্ত পানি কেবল বাড়ছেই। এর মধ্যে ৬ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ৯ দশমিক ৮২ মিটার, ১০ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১০ দশমিক ২৫ মিটার, ১৫ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১১ দশমিক ২২ মিটার, ২০ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১২ দশমিক ৩৫ মিটার এবং সর্বশেষ ২২ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১২ দশমিক ৬৬ মিটার। অর্থাৎ বর্তমানে রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মার বিপৎসীমার (১৮ দশমিক ৫০) ৫ দশমিক ৮৪ মিটার নিচ দিয়ে প্র্রবাহিত হচ্ছে পদ্মার পানি।

তবে রাজশাহীতে বিপৎসীমা অতিক্রম না করলেও এর কাছাকাছি গেলেই শহর এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়। এতে তীরবর্তী মানুষগুলো চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন। এর আগে, ২০২১ সালের ২০ আগস্ট এই পয়েন্টে পদ্মার পানির উচ্চতা ছিল ১৭ দশমিক ৮৫ মিটার। যোগ করেন গেজ রিডার।

রাজশাহীর পাউবো বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম শেখ বলেন, পাউবোর পক্ষ থেকে গোটা দেশের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি ও বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এই সময় পানি বাড়াটা স্বাভাবিক। তবে সাধারণত হঠাৎ করে বেশি বেড়ে গেলে ভাঙন দেখা দেয়। তাই ভাঙন ঠেকাতে পাউবো ১০ হাজার জিও ব্যাগ মজুদ রেখেছে। প্রয়োজন হলে অবশ্যই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া যাবে।

অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

ছবি

বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত থাকবে : হানিফ

পৃথক অভিযানে মাদকসহ গ্রেপ্তার ৬

আবারও রাজশাহীতে করোনার দাপট

ইউপি চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা তাই ক্ষমতার দাপটে দুর্নীতি-লুটপাট

বন্যা কবলিত অঞ্চলে মানবিক সহায়তা র‌্যাব মহাপরিচালকের

ব্যাগ ভর্তি মানুষের হাড়সহ গ্রেপ্তার ৩

ছবি

সিলেটে স্বাস্থ্য বিপর্যয়ের আশঙ্কা বাড়ছে পানিবাহিত রোগ

ছবি

শিক্ষার্থী ঝরে পড়া রোধে সাইকেল বিতরণ

ইভিএম নিয়ে জনগণের মনোভাব খুবই নেতিবাচক : বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি

ছবি

পদ্মা সেতু দিয়ে বিআরটিসি বাস চলাচল : শর্ত বেঁধে দিলেন শরীয়তপুরের বাস মালিকেরা

ছবি

সিলেট থেকে প্রথমবার সরাসরি হজ ফ্লাইট গেলো জেদ্দায়

ছবি

আসামিকে গ্রেপ্তারসহ ৬ দফা দাবিতে বিক্ষোভ

ছবি

ফেরি পারাপারে ভোগান্তি নেই পাটুরিয়ায়

ছবি

বানভাসি এলাকায় বসেছে খড়ের হাট, কেজি ২০ টাকা

ছবি

সাভারে ছুরিকাঘাতে নিহত অজ্ঞাত তরুণীর লাশ উদ্ধার

ছবি

শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশী গ্রেপ্তার

ছবি

হজে গিয়ে কোটিপতি শীর্ষ সন্ত্রাসী মতিয়ার!

চট্টগ্রামে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেপ্তার

ছবি

কোরবানিঃ ৭০০ কোটি টাকার পশু বিক্রির আশা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খামারিদের

ছবি

পদ্মা সেতু হয়ে ফরিদপুর-ঢাকা রুটে বাস চলাচল শুরু

মোটরসাইকেল না কিনতে পেরে ফাঁস নিল কিশোর

নাট-বল্টু খোলা বায়েজিদের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর

সাদুল্লাপুরে সেই তিন নবজাতকদের বাড়িতে উপহার পাঠালেন পুলিশ সুপার

মাঝ নদীতে আটকা ফেরি উদ্ধার

চট্টগ্রামে একদিনে ৬৬ জনের করোনা শনাক্ত

হবিগঞ্জে কাঁঠালের বাম্পার ফলন

পদ্মা সেতুতে সেনা টহল জোরদার

পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা বায়েজিদের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর

দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় বাবার কান ও জিহ্বা কেটে দিল ছেলে!

পাহাড় কেটে বাড়ি নির্মাণের দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

কোম্পানীগঞ্জে পদ্মা সেতু নিয়ে কটূক্তি : বিএনপি নেতা গ্রেপ্তার

ছবি

চাঁদপুর সেন্ট্রাল গার্ডেন রোটার‍্যাক্ট ক্লাবের ইয়ার ইন্ডিং ও ক্লাব এওয়ার্ড অনুষ্ঠিত

ছবি

পরিবেশ দুষণবিরোধী অভিযান: দুই হোটেলকে ১ লাখ টাকা জরিমানা

ছবি

কিশোরগঞ্জে মাদকবিরোধী দিবসে র‌্যালি আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ

ছবি

বিএসএমইউতে বঙ্গবন্ধুর চেয়ার ও শেখ হাসিনা কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ

tab

সারাদেশ

উজানের ঢলে রাজশাহীর পদ্মা, ভাঙন আতঙ্কে তীরের মানুষ

জেলা প্রতিনিধি, রাজশাহী:

বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/June/23Jun22/news/%E0%A7%A7%E0%A7%AF.jpg

দেশের উজান থেকে নেমে আসা ঢলে দিন দিন রাজশাহী পয়েন্টে বাড়ছে পদ্মার পানি। পদ্মার পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবছরই কীর্তিনাশা পদ্মার দুই পাড়ের মানুষ শত শত ঘর-বাড়ি হারান। পদ্মার পানি বাড়তে শুরু করায় রাজশাহীর চারঘাট-বাঘা, পবা ও গোদাগাড়ী এলাকায় এরই মধ্যে ভাঙন আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্র জানায়, রাজশাহী পয়েন্টে বুধবার (২২ জুন) সন্ধ্যা ৬টায় পদ্মার পানির উচ্চতা মাপা হয়েছে ১২ দশমিক ৬৬ মিটার। আর রাজশাহীতে পদ্মার পানির বিপৎসীমা নির্ধারণ করা রয়েছে ১৮ দশমিক ৫০ মিটার। ফলে উচ্চতার এই গণিত বলছে, এখন বিপৎসীমার ৫ দশমিক ৮৪ মিটার নিচ দিয়ে বইছে রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মার পানি।

এখন রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর ও সদর ইউনিয়নের প্রায় চারটি গ্রামে ভাঙন শুরু হয়েছে। এছাড়া রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সর্ব দক্ষিণ পূর্বে থাকা সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন চকরাজাপুরেও ভাঙন দেখা দিয়েছে। বাঘা উপজেলার সীমান্তবর্তী পদ্মা নদীর চরাঞ্চল চকরাজাপুর এখন বর্ষায় পানিতে পরিপূর্ণ। তবে রাজশাহীর চারঘাট ও বাঘা উপজেলা এলাকায় পদ্মা নদীর ভাঙন রোধে ৭২২ কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ চলমান আছে। আগামী মৌসুমে এই প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। এ কাজ শেষ হলেই ভাঙন রোধ হবে বলছে, পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।

পাউবো বলছে, রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা ও বাঘা উপজেলায় পদ্মা নদীর বাম তীরের স্থাপনাগুলো প্রতি বছর বর্ষায় আরও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। তাই পদ্মা নদীর এই পয়েন্টগুলোয় থাকা বাঁধ ও স্থাপনাগুলোকে ভাঙন থেকে রক্ষায় ওই প্রকল্পের কাজ বছরজুড়েই চলমান থাকে।

https://sangbad.net.bd/images/2022/June/23Jun22/news/%E0%A7%A8%E0%A7%A6.jpg

এদিকে পদ্মার পানি হু-হু করে বাড়তে থাকায় ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে রাজশাহীর পবা ও গোদাগাড়ী উপজোর নদীর তীরবর্তী এলাকায়ও। বর্ষা মৌসুমের শুরু থেকেই এবার বৃষ্টিপাত হওয়ায় বিগত বছরের তুলনায় পদ্মার রাজশাহী পয়েন্টে আগেভাগেই পানি এসেছে। এতে বন্যার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। যদিও গেল ২০ বছরে রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে দুই বার। এর মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত টানা ৮ বছর রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেনি। কেবল ২০০৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মার সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল ১৮ দশমিক ৮৫ মিটার। এরপর ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মা বিপৎসীমা অতিক্রম করেছিল। ওই বছর পদ্মার পানির উচ্চতা দাঁড়িয়েছিল ১৮ দশমিক ৭০ মিটার। এরপর আর এই রেকর্ড ভাঙেনি।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) গেজ রিডার এনামুল হক জানান, মূলত গত ১৭ মে থেকে রাজশাহীতে পদ্মার পানি বাড়তে শুরু করেছে। ওইদিন সন্ধ্যা ৬টায় রাজশাহী পয়েন্ট পদ্মা নদীর পানির উচ্চতা মাপা হয়েছিল ৮ দশমিক ৭৫ মিটার। এরপর ২৯ মে পর্যন্ত পানির উচ্চতা ছিল ৯ মিটারের মধ্যে। ৩০ মে পানির উচ্চতা কিছুটা বেড়ে দাঁড়ায় ৯ দশমিক ৭৪ মিটারে।

এরপর গত ১ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ৯ দশমিক ৮০ মিটার। ওইদিন থেকে পানি আবার পানি কমে ৯ দশমিক ৭৪ মিটার হয়। এরপর ৬ জুন থেকে ২১ জুন পর্যন্ত পানি কেবল বাড়ছেই। এর মধ্যে ৬ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ৯ দশমিক ৮২ মিটার, ১০ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১০ দশমিক ২৫ মিটার, ১৫ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১১ দশমিক ২২ মিটার, ২০ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১২ দশমিক ৩৫ মিটার এবং সর্বশেষ ২২ জুন সন্ধ্যা ৬টায় ছিল ১২ দশমিক ৬৬ মিটার। অর্থাৎ বর্তমানে রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মার বিপৎসীমার (১৮ দশমিক ৫০) ৫ দশমিক ৮৪ মিটার নিচ দিয়ে প্র্রবাহিত হচ্ছে পদ্মার পানি।

তবে রাজশাহীতে বিপৎসীমা অতিক্রম না করলেও এর কাছাকাছি গেলেই শহর এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়। এতে তীরবর্তী মানুষগুলো চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন। এর আগে, ২০২১ সালের ২০ আগস্ট এই পয়েন্টে পদ্মার পানির উচ্চতা ছিল ১৭ দশমিক ৮৫ মিটার। যোগ করেন গেজ রিডার।

রাজশাহীর পাউবো বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম শেখ বলেন, পাউবোর পক্ষ থেকে গোটা দেশের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি ও বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এই সময় পানি বাড়াটা স্বাভাবিক। তবে সাধারণত হঠাৎ করে বেশি বেড়ে গেলে ভাঙন দেখা দেয়। তাই ভাঙন ঠেকাতে পাউবো ১০ হাজার জিও ব্যাগ মজুদ রেখেছে। প্রয়োজন হলে অবশ্যই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া যাবে।

back to top