alt

সারাদেশ

৭ বছর পর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ঈশ্বরপুর বাজার এলাকার বিল্লাল হোসেন ওরফে বিলু খুনের মামলার আব্দুল আজিজ (৫৫) নামের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামিকে ২৭ বছর পর গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে নরসিংদী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে মঙ্গলবার র‍্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) নোমান আহমদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

গ্রেপ্তার আব্দুল আজিজ নরসিংদীর শিবপুর থানাধীন মৈশাদী গ্রামের আলফাজ উদ্দিন মোল্লার ছেলে।

র‍্যাবের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ গ্রেপ্তার আজিজ জানিয়েছেন বিলু ও তিনি (আজিজ) পাশাপাশি গ্রামের বাসিন্দা। বিলু ও আজিজ সেসময় স্থানীয় খলাপাড়া এলাকায় ‘ন্যাশনাল জুট মিল’-এ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। আজিজের ভগ্নিপতি জনৈক কাদিরের লাউ চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৯৯৫ সালের ৭ ডিসেম্বরে সকালে বিলুকে তার বাসা থেকে ডেকে নিয়ে আজিজ ও তার সঙ্গীরা প্রকাশ্যে খুন করেন।

এ ঘটনায় ওইদিনেই নিহতের ভাই জালাল উদ্দিন বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় স্থানীয় ফালান, কাদির, ছাদির, কালাম, বাজিত, আ. আজিজ, ওসমান, আ. ছামাদ, হুমায়ুন, রুস্তম আলীসহ মোট ১০ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার পর থেকে আসামি আব্দুল আজিজ অন্যদের সঙ্গে আত্মগোপনে থাকায় থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করতে ব্যর্থ হয়। পরে পর্যাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ ও উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে ২০১৮ সালের ২৩ এপ্রিল আদালত বিল্লাল হোসেন বিলুকে হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে আব্দুল আজিজসহ সর্বমোট ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন।

ওই ঘটনার পর থেকে আসামি আব্দুল আজিজ দীর্ঘ ২৭ বছর পলাতক ছিলেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৮ জন বর্তমানে জেল হাজতে আটক আছেন এবং একজন জেল-হাজতে মৃত্যুবরণ করেন। অপর তিনজন ফালান, আলম এবং মানিক এখনও পলাতক রয়েছেন।

আব্দুল আজিজ স্ত্রী সবমেহের ওরফে স্বপ্না ও চার সন্তানকে নিয়ে নরসিংদীর শিবপুর থানাধীন মৈশাদী গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করেন। ১৯৯৫ সালে ঘটনার পর থেকে আব্দুল আজিজ আর কোনোদিন কালীগঞ্জের নিজ স্থায়ী ঠিকানায় যাননি। এনআইডিতে নিজের ঠিকানা পরিবর্তন করে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে নরসিংদীর শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করছিলেন। আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় পরিচয় গোপন করার জন্য পেশা পরিবর্তন করে কাঁচা তরকারির ব্যবসা করে আসছিলেন তিনি।

ছবি

সখীপুর উপজেলা পরিষদ গেটে খাবারের সন্ধানে বানর

সারাদেশে নারায়ণগঞ্জ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মহা উদাহরণ: আইভী

ছবি

এসএসসি’র প্রশ্নফাঁস: আরও দুই শিক্ষক রিমান্ডে

ছবি

শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যা, লাশ প্রতিবেশীর চালের ড্রামে

ছবি

টেকনাফে ২ দিন পর মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পেলেন অপহৃত বাবা-ছেলে

ছবি

মহাসড়কে টোল আদায় না করতে মেয়রদের প্রতি নির্দেশনা

ছবি

রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

ছবি

সবজির হাটে মালবাহী ট্রাকচাপায় নিহত ৪

ছবি

রংপুরে পদ্মা সেতুর আদলে পুজা মন্ডপ

ছবি

নারায়ণগঞ্জে গলা কেটে খুনের পর অটোরিকশা ছিনতাই : গ্রেপ্তার ১

জামালপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের দুর্নীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন

ডেঙ্গু : সেপ্টেম্বরে হাসপাতালে ভর্তি ৯ হাজার ৯১১ রোগী

ফুলপুরে স্ত্রীকে পিটিয়ে মারার অভিযোগে স্বামী আটক

ছবি

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে এবার রেকর্ড ৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা

ছবি

রংপুরেমুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ

ছবি

‘৬ লাখ টাকা’ মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পেলেন টেকনাফের দুই কৃষক

ছবি

কক্সবাজারে ৩০৫টি পূজা মন্ডপে দুর্গোৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু

ছবি

কক্সবাজারে বিকেএসপির আঞ্চলিক কেন্দ্র পরিদর্শন করলেন সংসদীয় কমিটি

ছবি

টেকনাফ থেকে আবারও কৃষক অপহরণ!

ছবি

কক্সবাজারে আরও ১২টি দোকান উচ্ছেদ করল কউক

ছবি

ফরিদপুরে মুখোমুখি রাজেন্দ্র কলেজ ও জেলা প্রশাসন সীমানা প্রাচির নির্মাণ কাজ বন্ধ

ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা : আটক ৩

ছবি

সিরাজগঞ্জে ফাঁকা বাড়িতে মা ও দুই ছেলের লাশ

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেপ্তার ৩ জন

রিকশাচালকের রক্তাক্ত মরদেহ

ছবি

প্রতিবন্ধী পরিবারকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা

ছবি

পাগলা মস‌জি‌দের দানবাক্সে ১৫ বস্তা টাকা, চলছে গণনা

ফুলছড়িতে স্মার্ট কার্ড বিতরণে অব্যবস্থাপনা নাগরিক ভোগান্তি

কক্সবাজারে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত দুই পর্যটক হাসপাতালে

ডিবি পরিচয়ে ১০ দোকানে ডাকাতি

জমি বিবাদে দুই ভাতিজাকে অ্যাসিড নিক্ষেপ চাচার

ছবি

সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে মানববন্ধন

ছবি

ফরিদপুরে ট্রাকচাপায় যুবক নিহত

ছবি

দুর্বৃত্তদের গুলিতে প্রাণ গেল যুবলীগ নেতার

ছবি

নিত্যপণ্যের বাড়তি দামে কোন পরিবর্তন নেই

আবারও মায়ানমার সীমান্তে গোলাগুলি ও মর্টারের শব্দ

tab

সারাদেশ

৭ বছর পর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ঈশ্বরপুর বাজার এলাকার বিল্লাল হোসেন ওরফে বিলু খুনের মামলার আব্দুল আজিজ (৫৫) নামের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামিকে ২৭ বছর পর গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে নরসিংদী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে মঙ্গলবার র‍্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) নোমান আহমদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

গ্রেপ্তার আব্দুল আজিজ নরসিংদীর শিবপুর থানাধীন মৈশাদী গ্রামের আলফাজ উদ্দিন মোল্লার ছেলে।

র‍্যাবের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ গ্রেপ্তার আজিজ জানিয়েছেন বিলু ও তিনি (আজিজ) পাশাপাশি গ্রামের বাসিন্দা। বিলু ও আজিজ সেসময় স্থানীয় খলাপাড়া এলাকায় ‘ন্যাশনাল জুট মিল’-এ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। আজিজের ভগ্নিপতি জনৈক কাদিরের লাউ চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৯৯৫ সালের ৭ ডিসেম্বরে সকালে বিলুকে তার বাসা থেকে ডেকে নিয়ে আজিজ ও তার সঙ্গীরা প্রকাশ্যে খুন করেন।

এ ঘটনায় ওইদিনেই নিহতের ভাই জালাল উদ্দিন বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় স্থানীয় ফালান, কাদির, ছাদির, কালাম, বাজিত, আ. আজিজ, ওসমান, আ. ছামাদ, হুমায়ুন, রুস্তম আলীসহ মোট ১০ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার পর থেকে আসামি আব্দুল আজিজ অন্যদের সঙ্গে আত্মগোপনে থাকায় থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করতে ব্যর্থ হয়। পরে পর্যাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ ও উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে ২০১৮ সালের ২৩ এপ্রিল আদালত বিল্লাল হোসেন বিলুকে হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে আব্দুল আজিজসহ সর্বমোট ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন।

ওই ঘটনার পর থেকে আসামি আব্দুল আজিজ দীর্ঘ ২৭ বছর পলাতক ছিলেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৮ জন বর্তমানে জেল হাজতে আটক আছেন এবং একজন জেল-হাজতে মৃত্যুবরণ করেন। অপর তিনজন ফালান, আলম এবং মানিক এখনও পলাতক রয়েছেন।

আব্দুল আজিজ স্ত্রী সবমেহের ওরফে স্বপ্না ও চার সন্তানকে নিয়ে নরসিংদীর শিবপুর থানাধীন মৈশাদী গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করেন। ১৯৯৫ সালে ঘটনার পর থেকে আব্দুল আজিজ আর কোনোদিন কালীগঞ্জের নিজ স্থায়ী ঠিকানায় যাননি। এনআইডিতে নিজের ঠিকানা পরিবর্তন করে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে নরসিংদীর শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করছিলেন। আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় পরিচয় গোপন করার জন্য পেশা পরিবর্তন করে কাঁচা তরকারির ব্যবসা করে আসছিলেন তিনি।

back to top