alt

সারাদেশ

কেশবপুরে ৪৪ ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার ভাতা বন্ধ, সন্দেহে আরও ৯

প্রতিনিধি, কেশবপুর (যশোর) : শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২

যশোরের কেশবপুরে ৪৯ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইকালে ৪৪ জন ভূয়া প্রমাণিত হওয়ায় তাদের ভাতার সরকারি অংশ বন্ধ করা হয়েছে। এরপরও বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান গং কর্তৃক আরও ৫ জনকে অমুক্তিযোদ্ধা আখ্যা দিয়ে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বরাবরে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এছাড়া, যাচাই-বাছাইকালে সন্দেহের তালিকায় রয়েছেন আরও ৪ জন মুক্তিযোদ্ধা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা বেসামরিক গেজেট যাচাই-বাছাই নির্দেশিকা ২০২০ অনুসারে গত ২০২১ সালের ৩০ জানুয়ারি সকালে কেশবপুর উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। জামুকার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সংশোধিত তালিকা মোতাবেক কেশবপুর উপজেলার বেসামরিক গেজেট প্রাপ্ত ৪৯ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে যাচাই-বাছাই করা হয়। যাচাই-বাছাইকালে লাল বার্তাসহ অন্যান্য বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের উপস্থিতিতে কমিটি কর্তৃক ৩ ধরনের তালিকা প্রস্তুত করা হয়। এ তালিকা গত ২০২১ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি যাচাই-বাছাই কমিটি কর্তৃক প্রস্তুতকৃত তালিকা পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালক বরাবর প্রেরণ করা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ৪৪ জন অমুক্তিযোদ্ধা সন্দেহাতিতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাদের ভাতার সরকারি অংশ বন্ধ করা হয়। এসব অমুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযুদ্ধের উদ্দেশ্যে ভারতে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছিলেন বলে নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা বলে দাবি করেন। কিন্ত যাচাই-বাছাই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, এরা প্রশিক্ষণের জন্যে অপেক্ষামান ছিলেন। আদৌ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন কিনা তা স্পষ্ট নয়। উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাগণ তাদের পক্ষে স্বাক্ষ্য দেননি, ফলে এরা মুক্তিযোদ্ধা নয়।

এদিকে, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান গং, ছবেদ আলী বিশ্বাসসহ ১১ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্তৃক বুড়িহাটি গ্রামের মো. মোসলেম উদ্দীন, চিংড়া গ্রামের আব্দুল খালেক, মেহেরপুর গ্রামের আলা উদ্দীন আহমেদ, নতুন মূলগ্রামের কামাল উদ্দীন আহম্মেদ ও বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের বাবর আলী সরদারকে অমুক্তিযোদ্ধা আখ্যা দিয়ে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বরাবরে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ১৮ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান কর্তৃক এদের বিরুদ্ধে তদন্ত কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। ধার্যদিনে বুড়িহাটি গ্রামের মোসলেম উদ্দীন হাজির হলেও তিনি স্বপক্ষে কোন যুক্তি দেখাতে ব্যর্থ হলে তার ভাড়া করা অন্য মুক্তিযোদ্ধারা সাক্ষ্য না দিয়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ উঠেছে।

এছাড়া, উপজেলা বীর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটি মাদারডাঙ্গা গ্রামের পরিতোষ দত্ত, রেজাকাটি গ্রামের রশিদুল হক, মাগুরাডাঙ্গা গ্রামের অলিয়ার রহমান ও আড়–য়া গ্রামের শৈলেন্দ্র নাথ রায়কে সন্দেহের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বরাবরে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। এরা দেশের অভ্যন্তরে সরাসরি কোন সম্মুখযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেনি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ রয়েছে।

ছবি

মাদক বহনকারী পিকআপের ধাক্কায় উল্টে গেল র‌্যাবের গাড়ি, নিহত ৩

ছবি

শরীয়তপুরের ডমুড্যা দেশের দ্বিতীয় ডিজিটাল ভিলেজ হচ্ছে

৩০ দিনের মধ্যে খাল দখলদারদের তালিকার নির্দেশ

১২ ঘণ্টার ব্যবধানে ফের খুন বৃদ্ধা

১২ লাখের সড়কে নামমাত্র কাজ

ছবি

ঘোড়াঘাটে আমন ধানের বাম্পার ফলন ও দাম পেয়ে কৃষকরা খুশি

ছবি

৫১ বছরেও বীরাঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি বঞ্চিত মানদা

দুই জেলায় ইয়াবা গ্রেপ্তার তিনজন

ছবি

সাভারে কোটি টাকার হেরোইনসহ মাদক কারবারি আটক

মজুরি ১শ’ টাকার পরিবর্তে ৩শ’ দাবি পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের

ছবি

পাখির কিচিরমিচিরে মুখর ডাকবাংলো

পীরগাছা মহিলা কলেজে অবৈধভাবে অধ্যক্ষ নিয়োগের পাঁয়তারা

ছবি

আশ্রয়ণের ১৪ ঘরের ৭টিই বিক্রি প্রশ্নের মুখে তালিকা প্রণয়ন

আর্জেন্টিনা সমর্থকদের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১৫

দোকান বরাদ্দের ইজারা বাতিল দাবিতে সবজি ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট

ছবি

৪৫০ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার, ১১ জনের রিমান্ড আবেদন

ছবি

হাতির আক্রমণে প্রাণ গেল কৃষকের

ছবি

নারায়ণগঞ্জে নেতাকে না পেয়ে ছেলেকে নিয়ে গেছে পুলিশ

ছবি

নিজের গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন, তরুণের মৃত্যু

ছবি

মিরসরাইয়ে ছাত্রদল নেতাকে ‘পিটিয়ে’ পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

রংপুরে চালকল মালিকদের খাদ্য বিভাগের সঙ্গে চুক্তি করতে অনীহা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে ডাবল মাডার : ৪ বছর পর রহস্য উদ্ঘাটন

ছবি

খাগড়াছড়িতে পরিবহন ধর্মঘট

ছবি

রামুতে পাহাড় ধসে একই পরিবারের ৪ জন নিহত

গাজীপুরে গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫ ইটভাটা, ২৪ লাখ টাকা জরিমানা

ছবি

নানিয়ারচরে ইউপিডিএফ সংগঠককে গুলি করে হত্যা!

ছবি

অনুমোদন ছাড়াই চলছে ইটভাটা

ছবি

বিরামপুরে বাসের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ, নারীসহ দুজনের মৃত্যু

ছবি

মেসিভক্তের বিয়ের ‘আর্জেন্টিনা গেট’, নির্মাণকারী ব্রাজিল সমর্থক

ছবি

কালীগঞ্জ : মা ও শিশু হাসপাতালে নার্স দিয়েই চলছে চিকিৎসাসেবা

ছবি

বাবা-মার সঙ্গে ঝগড়া করে ঘর পুড়িয়ে দিল ছেলে

ছবি

প্রেমিকার বাবা–ভাইয়ের পিটুনিতে তরুণের মৃত্যু

ফরিদপুরে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত জেলা প্রশাসকের মতবিনিময়

হাসপাতাল-ক্লিনিকের লাইসেন্স দেখে চিকিৎসককে সেবা প্রদানের নির্দেশ

তিতাসে পুলিশের সামনে থেকে তুলে নিয়ে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

ছবি

  কক্সবাজারে প্রধানমন্ত্রী সড়ক বিভাগের ৩টি সড়ক উদ্বোধন করবেন 

tab

সারাদেশ

কেশবপুরে ৪৪ ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার ভাতা বন্ধ, সন্দেহে আরও ৯

প্রতিনিধি, কেশবপুর (যশোর)

শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২

যশোরের কেশবপুরে ৪৯ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইকালে ৪৪ জন ভূয়া প্রমাণিত হওয়ায় তাদের ভাতার সরকারি অংশ বন্ধ করা হয়েছে। এরপরও বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান গং কর্তৃক আরও ৫ জনকে অমুক্তিযোদ্ধা আখ্যা দিয়ে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বরাবরে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এছাড়া, যাচাই-বাছাইকালে সন্দেহের তালিকায় রয়েছেন আরও ৪ জন মুক্তিযোদ্ধা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা বেসামরিক গেজেট যাচাই-বাছাই নির্দেশিকা ২০২০ অনুসারে গত ২০২১ সালের ৩০ জানুয়ারি সকালে কেশবপুর উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। জামুকার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সংশোধিত তালিকা মোতাবেক কেশবপুর উপজেলার বেসামরিক গেজেট প্রাপ্ত ৪৯ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে যাচাই-বাছাই করা হয়। যাচাই-বাছাইকালে লাল বার্তাসহ অন্যান্য বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের উপস্থিতিতে কমিটি কর্তৃক ৩ ধরনের তালিকা প্রস্তুত করা হয়। এ তালিকা গত ২০২১ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি যাচাই-বাছাই কমিটি কর্তৃক প্রস্তুতকৃত তালিকা পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালক বরাবর প্রেরণ করা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ৪৪ জন অমুক্তিযোদ্ধা সন্দেহাতিতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাদের ভাতার সরকারি অংশ বন্ধ করা হয়। এসব অমুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযুদ্ধের উদ্দেশ্যে ভারতে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছিলেন বলে নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা বলে দাবি করেন। কিন্ত যাচাই-বাছাই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, এরা প্রশিক্ষণের জন্যে অপেক্ষামান ছিলেন। আদৌ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন কিনা তা স্পষ্ট নয়। উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাগণ তাদের পক্ষে স্বাক্ষ্য দেননি, ফলে এরা মুক্তিযোদ্ধা নয়।

এদিকে, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান গং, ছবেদ আলী বিশ্বাসসহ ১১ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্তৃক বুড়িহাটি গ্রামের মো. মোসলেম উদ্দীন, চিংড়া গ্রামের আব্দুল খালেক, মেহেরপুর গ্রামের আলা উদ্দীন আহমেদ, নতুন মূলগ্রামের কামাল উদ্দীন আহম্মেদ ও বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের বাবর আলী সরদারকে অমুক্তিযোদ্ধা আখ্যা দিয়ে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বরাবরে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ১৮ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান কর্তৃক এদের বিরুদ্ধে তদন্ত কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। ধার্যদিনে বুড়িহাটি গ্রামের মোসলেম উদ্দীন হাজির হলেও তিনি স্বপক্ষে কোন যুক্তি দেখাতে ব্যর্থ হলে তার ভাড়া করা অন্য মুক্তিযোদ্ধারা সাক্ষ্য না দিয়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ উঠেছে।

এছাড়া, উপজেলা বীর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটি মাদারডাঙ্গা গ্রামের পরিতোষ দত্ত, রেজাকাটি গ্রামের রশিদুল হক, মাগুরাডাঙ্গা গ্রামের অলিয়ার রহমান ও আড়–য়া গ্রামের শৈলেন্দ্র নাথ রায়কে সন্দেহের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বরাবরে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। এরা দেশের অভ্যন্তরে সরাসরি কোন সম্মুখযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেনি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ রয়েছে।

back to top