alt

সারাদেশ

সংলাপ? আ’লীগ নেতাদের বিভিন্ন বক্তব্য, বিএনপি নেতাদের প্রশ্ন

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের এক সদস্য ‘সংলাপের’ সম্ভাবনার কথা বললেও তা নাকচ করে দিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং এক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এদিকে ক্ষমতাসীন নেতাদের ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি নেতারা।

গত মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ১৪ দলের সমাবেশে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় বিএনপির সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহের কথা বলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু। তিনি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক।

আমির হোসেন আমু বলেন, ‘আসুন, গণতন্ত্রকে অব্যাহত রাখার স্বার্থে আমরা আপনাদের সঙ্গে বসতে রাজি আছি। শেখ হাসিনা বলেছেন, আলোচনার দ্বার খোলা। তিনি বলেছেন, যে কোনভাবে তিনি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে তিনি প্রস্তুত। আমরা বলতে চাই, বিগত সময়ে জাতিসংঘ যেভাবে তারানকো সাহেবকে পাঠিয়েছিলেন। আামাদের দুই দলকে নিয়ে এক সঙ্গে বসে মিটিং করেছিলেন। আজকেও প্রয়োজনে এই ধরনের দলাদলি না করে জাতিসংঘের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি আসুক।’

আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ‘আমরা বিএনপির সঙ্গে মুখোমুখি বসে আলোচনা করে দেখতে চাই। কোথায় ফারাক? সুষ্ঠু, অবাধ নির্বাচনে বাধা কোথায়? কীভাবে সেটা নিরসন করা যায়। এটা আলোচনার মধ্য দিয়েই সুরাহা হতে পারে। অন্য কোন পথে নয়।’

যদিও বুধবার (৭ জুন) আওয়ামী লীগের দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এই বিষয়টি নাকচ করে দেন। এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আলোচনার বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত নিইনি। আমাদের নিজেদের সমস্যা আমরা আলোচনা করব, প্রয়োজন হলে নিজেরাই সমাধান করব।’

আর ক্ষমতাসীন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমির হোসেন আমু আমাদের দলের অন্যতম জ্যেষ্ঠ নেতা। তিনি যে বক্ত্যবটি দিয়েছেন সেটি তার ব্যক্তিগত বক্তব্য। এটি দল, সরকার এমনকি ১৪ দল কোথাও এ নিয়ে আলোচনা হয়নি।’

আমির হোসেন আমু নিজেও দিয়েছেন নতুন বক্তব্য

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে বুধবার ঢাকায় এক আলোচনা সভায় আমু বলেছেন, ‘আলোচনার জন্য কাউকে বলা হয় নাই, কাউকে দাওয়াত দেয়া হয় নাই। কাউকে আহ্বান করা হয় নাই। কাউকে আহ্বান করার সুযোগ নাই। এটা আওয়ামী লীগের বাড়ির দাওয়াত নয় যে দাওয়াত করে এনে খাওয়াব।’

সংলাপ নিয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু এবং দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে বক্তব্য দিয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘আমু সাহেবের কথা নাকি কাদের সাহেবের কথা, কোনটা সঠিক? আমু সাহেব জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় বিএনপির সঙ্গে সংলাপের কথা বললেন, আর কাদের সাহেব সংলাপের বিষয়ে বলেছেন সিদ্ধান্ত হয়নি।’

তবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন ভিন্ন কথা

বুধবার বিকেলে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, বিএনপির সঙ্গে সংলাপ বিষয়ে আমির হোসেন আমু যে বক্তব্য রেখেছেন, তাকে কেন গুরুত্ব দিতে হবে।

বিএনপি মহাসচিবের যুক্তি হলো, আমু ক্ষমতাসীন দলের মুখপাত্র কি-না, সেটি তার জানা নেই। তাই তার এ বিষয়ের বক্তব্যকে গুরুত্ব দেয়ার মানে হয় না।

বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিদেশি কূটনৈতিকদের অযাচিত হস্তক্ষেপ নিয়ে আপত্তিও তুলেছেন সরকারের একাধিক মন্ত্রী। দিয়েছেন সতর্ক বার্তা।

সার্বিক বিষয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এক নেতা সংবাদকে বলেন, ‘বিষয়টি আসলে ভুল বুঝাবুঝি। আমু ভাই যেটা বলেছেন, তা পলিটিক্যাল। যখন কোন সিদ্ধান্ত আসবে সেটা নেত্রীর (শেখ হাসিনা) পক্ষ থেকে আসবে।’

তিনি বলেন, ‘বিদেশিদের চাপ আগেও ছিল, এখনও আছে। এটা অস্বীকার করার উপায় নেই। এসব চাপ নিয়েই আওয়ামী লীগ রাজনীতি করছে, চাপ নিয়েই সরকার চালাচ্ছে।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৮ সালে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ করলেও এবার তিনি কোন ধরনের আলোচনার ঘোর বিরোধী। সংবিধানের বাইরে গিয়ে কোন নির্বাচন হবে না, এটি তার অবস্থান।

ছবি

বন্যা সিলেটে কমেছে, বাড়ছে রংপুরে

কক্সবাজারে ‘আশানুরূপ’ পর্যটক সমাগম

ছবি

সুনামগঞ্জে বন্যার পানি কমলেও কমেনি দূর্ভোগ।

ছবি

হাইমচরে মেঘনার ভাঙনে দিশেহারা জালিয়ারচরবাসী

জামালপুরে সড়ক ভবনে দরপত্র ছিনতাই, কর্মকর্তা লাঞ্চিত

ছবি

বৃষ্টিপাত ও পাহাড় ধসে ৩৩টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১২০০ বসতঘর ক্ষতিগ্রস্ত

ছবি

টেকনাফে বন‍্যার পানি নামতে শুরু করেছে, ফুটে উঠছে ক্ষতের চিহ্ন

ছবি

কক্সবাজারে ঈদের শেষভাগে পর্যটকের উপস্থিতি : ব্যবসায় চাঙ্গাভাব

ছবি

নেত্রকোণায় ২০০ বস্তা চিনিসহ ভারতীয় ট্রাক জব্দ

ছবি

যাদুকাটায় নির্মাণাধীন সেতু, ড্রেজার-ট্রলারের ধাক্কায় কাজ ক্ষতিগ্রস্ত

ছবি

সিলেটে বন্যার পানি দেখতে গিয়ে নৌকাডুবে যুবকের মৃত্যু

ছবি

মৃত হজযাত্রীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৯০০, নিখোঁজ অনেকে

ছবি

পদ্মার চরাঞ্চলে রাসেলস ভাইপারের আতঙ্ক

ছবি

উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পাঁচ জেলা প্লাবিত

ছবি

বন্যায় ভাসছে সিলেট

ছবি

সুনামগঞ্জে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত , ত্রানের জন্য হাহাকার

নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ২০

ছবি

সুনামগঞ্জের বন্যা কবলিত মানুষের বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট

বাগেরহাটে বজ্রপাতে ২ জন ও বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে ১ জন নিহত

সরিষাবাড়ীতে সাবেক স্বামীর ছুরিকাঘাতে নারী নিহত

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে হেডফোনে কথা বলার সময় ট্রেনের ধাক্কায় নারীর মৃত্যু

ছবি

সমুদ্র সৈকত থেকে ৬০ রোহিঙ্গা আটক, বাস চালকদের জরিমানা

ছবি

জনপ্রতিনিধিদের দুষলেন ওবায়দুল কাদের

ছবি

মোটরসাইকেলে ঘুরতে বেরিয়ে প্রাণ গেলো দুজনের

ছবি

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড় ধসে ১০জনের মৃত্যু

ছবি

সিলেটে পানিবন্দি ৪ লাখের ৪ হাজার গেছেন আশ্রয়কেন্দ্রে

ঢাকা-মহাসড়কে প্রাণ গেল মোটরসাইকেল আরোহী তরুণ ও কিশোরীর

ডুবছে সুনামগঞ্জ, মানুষের দূর্ভোগ বাড়ছে

ছবি

বন্যার কারণে সিলেটের সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা

ছবি

সেন্টমার্টিনে আবারও খাদ্য সঙ্কট

ছবি

সুনামগঞ্জে ঈদের আনন্দ মলিন হয়ে গেছে আকস্মিক বন্যায়

ঈশ্বরগঞ্জে ঈদ আনন্দ উপভোগ করা হলনা চাচা ভাতিজার

সখীপুরে গৃহবধূ নিখোঁজের পর পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার

দুই ভাইয়ের চিরদিনের ছুটি

সিলেটে তিন নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

ছবি

ঘড়ি ছাড়াই হাতের দিকে তাকিয়েই সময় বলে দেন ইয়াছিন!

tab

সারাদেশ

সংলাপ? আ’লীগ নেতাদের বিভিন্ন বক্তব্য, বিএনপি নেতাদের প্রশ্ন

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের এক সদস্য ‘সংলাপের’ সম্ভাবনার কথা বললেও তা নাকচ করে দিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং এক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এদিকে ক্ষমতাসীন নেতাদের ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি নেতারা।

গত মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ১৪ দলের সমাবেশে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় বিএনপির সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহের কথা বলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু। তিনি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক।

আমির হোসেন আমু বলেন, ‘আসুন, গণতন্ত্রকে অব্যাহত রাখার স্বার্থে আমরা আপনাদের সঙ্গে বসতে রাজি আছি। শেখ হাসিনা বলেছেন, আলোচনার দ্বার খোলা। তিনি বলেছেন, যে কোনভাবে তিনি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে তিনি প্রস্তুত। আমরা বলতে চাই, বিগত সময়ে জাতিসংঘ যেভাবে তারানকো সাহেবকে পাঠিয়েছিলেন। আামাদের দুই দলকে নিয়ে এক সঙ্গে বসে মিটিং করেছিলেন। আজকেও প্রয়োজনে এই ধরনের দলাদলি না করে জাতিসংঘের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি আসুক।’

আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ‘আমরা বিএনপির সঙ্গে মুখোমুখি বসে আলোচনা করে দেখতে চাই। কোথায় ফারাক? সুষ্ঠু, অবাধ নির্বাচনে বাধা কোথায়? কীভাবে সেটা নিরসন করা যায়। এটা আলোচনার মধ্য দিয়েই সুরাহা হতে পারে। অন্য কোন পথে নয়।’

যদিও বুধবার (৭ জুন) আওয়ামী লীগের দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এই বিষয়টি নাকচ করে দেন। এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আলোচনার বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত নিইনি। আমাদের নিজেদের সমস্যা আমরা আলোচনা করব, প্রয়োজন হলে নিজেরাই সমাধান করব।’

আর ক্ষমতাসীন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমির হোসেন আমু আমাদের দলের অন্যতম জ্যেষ্ঠ নেতা। তিনি যে বক্ত্যবটি দিয়েছেন সেটি তার ব্যক্তিগত বক্তব্য। এটি দল, সরকার এমনকি ১৪ দল কোথাও এ নিয়ে আলোচনা হয়নি।’

আমির হোসেন আমু নিজেও দিয়েছেন নতুন বক্তব্য

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে বুধবার ঢাকায় এক আলোচনা সভায় আমু বলেছেন, ‘আলোচনার জন্য কাউকে বলা হয় নাই, কাউকে দাওয়াত দেয়া হয় নাই। কাউকে আহ্বান করা হয় নাই। কাউকে আহ্বান করার সুযোগ নাই। এটা আওয়ামী লীগের বাড়ির দাওয়াত নয় যে দাওয়াত করে এনে খাওয়াব।’

সংলাপ নিয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু এবং দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে বক্তব্য দিয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘আমু সাহেবের কথা নাকি কাদের সাহেবের কথা, কোনটা সঠিক? আমু সাহেব জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় বিএনপির সঙ্গে সংলাপের কথা বললেন, আর কাদের সাহেব সংলাপের বিষয়ে বলেছেন সিদ্ধান্ত হয়নি।’

তবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন ভিন্ন কথা

বুধবার বিকেলে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, বিএনপির সঙ্গে সংলাপ বিষয়ে আমির হোসেন আমু যে বক্তব্য রেখেছেন, তাকে কেন গুরুত্ব দিতে হবে।

বিএনপি মহাসচিবের যুক্তি হলো, আমু ক্ষমতাসীন দলের মুখপাত্র কি-না, সেটি তার জানা নেই। তাই তার এ বিষয়ের বক্তব্যকে গুরুত্ব দেয়ার মানে হয় না।

বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিদেশি কূটনৈতিকদের অযাচিত হস্তক্ষেপ নিয়ে আপত্তিও তুলেছেন সরকারের একাধিক মন্ত্রী। দিয়েছেন সতর্ক বার্তা।

সার্বিক বিষয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এক নেতা সংবাদকে বলেন, ‘বিষয়টি আসলে ভুল বুঝাবুঝি। আমু ভাই যেটা বলেছেন, তা পলিটিক্যাল। যখন কোন সিদ্ধান্ত আসবে সেটা নেত্রীর (শেখ হাসিনা) পক্ষ থেকে আসবে।’

তিনি বলেন, ‘বিদেশিদের চাপ আগেও ছিল, এখনও আছে। এটা অস্বীকার করার উপায় নেই। এসব চাপ নিয়েই আওয়ামী লীগ রাজনীতি করছে, চাপ নিয়েই সরকার চালাচ্ছে।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৮ সালে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ করলেও এবার তিনি কোন ধরনের আলোচনার ঘোর বিরোধী। সংবিধানের বাইরে গিয়ে কোন নির্বাচন হবে না, এটি তার অবস্থান।

back to top