alt

অর্থ-বাণিজ্য

এক বছরের রিজার্ভ কমেছে প্রায় ৯ বিলিয়ন ডলার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২৩

দেশে ডলারের বাজারে অস্থিরতা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। বেঁধে দেয়া দরে ব্যাংক ও মানি চেঞ্জারগুলোতে ডলার পাওয়া যাচ্ছে না। আর খোলাবাজারে ডলার বিক্রি অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে পড়েছে। ডলারের নিয়ন্ত্রণ কালোবাজারিদের দখলে। খোলাবাজারে কালোবাজারিরা প্রতি ডলার ১২৮ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করেছেন। তবুও ক্রেতারা চাহিদা মতো ডলার পাচ্ছেন না।

দিন দিন ডলার সংকট আরও প্রকট হচ্ছে। মার্কিন মুদ্রাটির সংকটে আমদানিতে কড়াকড়ি করা হয়েছে। সংকট নিরসনে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে। পরিস্থিতি সামাল দিতে রিজার্ভ থেকে ডলার সরবরাহ করা হচ্ছে। মজুত থেকে ডলার বিক্রি ও আমদানি দায় মেটাতে রিজার্ভের ওপর চাপ আরও বাড়ছে।

চলতি মাস নভেম্বরের প্রথম ২২ দিনে রিজার্ভ কমেছে ১.৩১ বিলিয়ন বা ১৩১ কোটি ডলার। আর চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের সাড়ে চার মাসে কমেছে ৬ বিলিয়ন ডলার। আর এক বছরের হিসাবে রিজার্ভ কমেছে ৯ বিলিয়ন (৮.৯৩ বিলিয়ন) ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত ৩১ অক্টোবর বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ২ হাজার ৬৪৭ কোটি ডলার বা ২৫.৪৭ বিলিয়ন ডলার। চলতি মাস নভেম্বরের ২২ দিনে ১ দশমিক ৩১ বিলিয়ন ডলার কমে গত ২২ নভেম্বর রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ২৫ দশমিক ১৬ বিলিয়ন ডলারে। এটি বাংলাদেশ ব্যাংকের গ্রস রিজার্ভ হিসাব। আর আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল সংস্থা বা আইএমএফ স্বীকৃত বিপিএম-৬ অনুযায়ী দেশে খরচ করার রিজার্ভ আছে ১৯ দশমিক ৫২ বিলিয়ন ডলার।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি বছরে জুন মাসে গ্রস রিজার্ভ ছিল ৩১ দশমিক ২০ বিলিয়ন ডলার। গত বছরের ২২ নভেম্বর রিজার্ভ ছিল ৩৪ দশমিক শূন্য ৯ বিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ চলতি অর্থবছরের ৪ মাস ২২ দিনে রিজার্ভ কমেছে ৬ দশমিক শূন্য ৪ বিলিয়ন ডলার। আর এক বছরের ব্যবধানে কমেছে ৮ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন ডলার।

আইএমএফের ব্যালান্স অব পেমেন্টস অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট পজিশন ম্যানুয়াল (বিপিএম-৬) বলছে- রিজার্ভ গণনায় বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন তহবিলের পাশাপাশি বিমানকে দেয়া ঋণ গ্যারান্টি, পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষকে দেয়া ঋণ, ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংকে রাখা আমানত এবং নির্দিষ্ট গ্রেডের নিচে থাকা সিকিউরিটিতে বিনিয়োগ রিজার্ভের অন্তর্ভুক্ত নয়। বাংলাদেশ ব্যাংক এগুলোকেও রিজার্ভ হিসেবে দেখিয়ে আসছিল। এসব হিসাব বাদ দেয়ার কারণে রিজার্ভ থেকে ৫ দশমিক ৬৪ বিলিয়ন ডলার কমে যায়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ডলার সংকটের কারণে বাজার ঠিক রাখা ও জরুরি আদমদানিতে রিজার্ভ থেকে বাজারে ডলার ছাড়া হচ্ছে। আবার ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকাউন্ট নেগেটিভ থাকায় রিজার্ভ কমছে। অন্যদিকে রপ্তানি ও রেমিট্যান্স প্রবাহ কাক্সিক্ষত না হওয়ায় রিজার্ভের ওপর বাড়তি চাপ তৈরি হচ্ছে।

দেশের মধ্যে নেয়া ডলার সংকট নিরসনের কোনো উদ্যোগই কাজে আসছে না। তবে এর মাঝেই নতুন করে আশা জাগাচ্ছে রেমিট্যান্স। ডলার সংকটময় পরিস্থিতিতে এ মুদ্রাটি আয়ের অন্যতম উৎস রেমিট্যান্স বাড়তে শুরু করেছে। চলতি মাস নভেম্বরের প্রথম ১৭ দিনে প্রায় ১১৮ কোটি ৭০ লাখ ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে দেশে। আর প্রতিদিন গড়ে আসছে প্রায় ৭ কোটি (৬.৯৮ কোটি) ডলার। এভাবে রেমিট্যান্স আসার ধারা অব্যাহত থাকলে মাস শেষে দুই বিলিয়ন বা ২০৯ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যাবে। এর আগে সবশেষ গত আগস্টে ২ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছিল রেমিট্যান্স।

দেশের মধ্যে চলা ডলারের চরম সংকটের মধ্যেই শনিবার (২৫ নভেম্বর) প্রতি ডলারে ৫০ পয়সা কমানো হয়। প্রতি ডলারে ৫০ পয়সা করে কমিয়ে আমদানিতে ১১০ টাকা ৫০ পয়সা এবং রপ্তানি ও রেমিট্যান্সে ১১০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন এবিবি ও বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনকারী ব্যাংকের সংগঠন বাফেদার যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় মধ্যস্থতা করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

ছবি

ভারত: চাল রপ্তানিতে শুল্ক আরোপের মেয়াদ বাড়াল ৩১ মার্চ

ছবি

উৎপাদন খরচ বাড়লেও বাড়েনি বইয়ের দাম

ছবি

সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমবে ১০ টাকা

ছবি

অর্থপাচারের ৮০ শতাংশই ব্যাংকিং চ্যানেলে : বিএফআইইউ

ছবি

সূচক বেড়ে পুঁজিবাজারে লেনদেন চলছে

ছবি

জিআই পণ্যের তালিকা করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

ছবি

দেশ-বিদেশে পর্যটক আনতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে : পর্যটনমন্ত্রী

ছবি

কৃষি ব্যাংকের খেলাপি ঋণ কমানো, লাভে নেয়াই লক্ষ্য : শওকত আলী খান

ছবি

অস্তিত্বের জন্য বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি সীমাবদ্ধ রাখতে হবে: সাবের হোসেন চৌধুরী

ছবি

ড. ইউনূসের ‘জবরদখলে’র অভিযোগ নিয়ে যা বলল গ্রামীণ ব্যাংক

ছবি

খেজুরের গুড়, মিষ্টি পান ও নকশিকাঁথা পেল জিআই স্বীকৃতি

ছবি

কর নেট বাড়ানোর জন্য ধীরে ধীরে কাজ করছি : এনবিআর চেয়ারম্যান

ছবি

জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ০৭ শতাংশ

ছবি

পার্বত্য চট্রগ্রাম মেলায় বেচাকেনা কম, হতাশ উদ্যোক্তারা

টাকা-ডলার অদলবদলের সুবিধা চালু

ছবি

মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ লাখ ৭৩ হাজার ৩৬০ টাকা

ছবি

রমজানে রাজধানীতে ২৫টি স্থানে কম দামে মাংস ও ডিম বিক্রির উদ্যোগ

ছবি

কেন্দ্রীয় ব্যাংকে টাকা–ডলার অদলবদলের সুবিধা চালু

ছবি

তালিকাভূক্ত ব্যাংকের মধ্যে সর্বোচ্চ ক্যাশ ফ্লো রূপালী ব্যাংকের

ছবি

পুঁজিবাজারে ২২টি ব্যাংকের ক্যাশ ফ্লো বেড়েছে

ছবি

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির বিশেষ নীরিক্ষায় চমকপ্রদ তথ্য বের হচ্ছে: বিএসইসি চেয়ারম্যান

ছবি

সূচকের উত্থানে পুঁজিবাজারে লেনদেন চলছে

টাঙ্গাইল শাড়ি নিয়ে ফেসবুক পোস্ট সরিয়েছে ভারত: নানক

ছবি

সূচক বেড়ে পুঁজিবাজারে লেনদেন চলছে

ছবি

বেসরকারি ঋণের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা বড় চ্যালেঞ্জ: ঢাকা চেম্বার সভাপতি

ছবি

ছয় মাসে ৪৫৯ কোটি ডলারের বাণিজ্য ঘাটতি

ছবি

খেজুরের আমদানি শুল্ক আরো কমানোর দাবি ব্যবসায়ীদের

ছবি

পাট খাতের বৈশ্বিক রপ্তানি আয়ের ৭২ শতাংশ এখন বাংলাদেশের দখলে: কৃষিমন্ত্রী

ছবি

তিন মাসে খেলাপি ঋণ কমেছে, তবে ২০২২ সালের হিসেবে এখনও বেশি

ছবি

ভাষা শহীদদের স্মরণে বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণার নির্দেশ পলকের

বাংলাদেশ দেউলিয়া হয়ে যায়নি ,সঠিক পথে ফিরেছে: অর্থমন্ত্রী

প্রায় বন্ধ নাফনদী পাড়ের বাণিজ্য, রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে সরকার

ছবি

প্রতারণামূলক তথ্য দিয়ে টাঙ্গাইল শাড়ির স্বত্ব নিয়েছে ভারত, এবার চায় ঢাকাই মসলিন

ছবি

নারায়ণগঞ্জ বকেয়া বেতন না দিয়ে কারখানা বন্ধ শ্রমিকদের বিক্ষোভ

ছবি

নারায়ণগঞ্জে বকেয়া বেতন দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ

চাল তেল-চিনি ও খেজুরের শুল্ক কমানো হচ্ছে

tab

অর্থ-বাণিজ্য

এক বছরের রিজার্ভ কমেছে প্রায় ৯ বিলিয়ন ডলার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২৩

দেশে ডলারের বাজারে অস্থিরতা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। বেঁধে দেয়া দরে ব্যাংক ও মানি চেঞ্জারগুলোতে ডলার পাওয়া যাচ্ছে না। আর খোলাবাজারে ডলার বিক্রি অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে পড়েছে। ডলারের নিয়ন্ত্রণ কালোবাজারিদের দখলে। খোলাবাজারে কালোবাজারিরা প্রতি ডলার ১২৮ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করেছেন। তবুও ক্রেতারা চাহিদা মতো ডলার পাচ্ছেন না।

দিন দিন ডলার সংকট আরও প্রকট হচ্ছে। মার্কিন মুদ্রাটির সংকটে আমদানিতে কড়াকড়ি করা হয়েছে। সংকট নিরসনে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে। পরিস্থিতি সামাল দিতে রিজার্ভ থেকে ডলার সরবরাহ করা হচ্ছে। মজুত থেকে ডলার বিক্রি ও আমদানি দায় মেটাতে রিজার্ভের ওপর চাপ আরও বাড়ছে।

চলতি মাস নভেম্বরের প্রথম ২২ দিনে রিজার্ভ কমেছে ১.৩১ বিলিয়ন বা ১৩১ কোটি ডলার। আর চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের সাড়ে চার মাসে কমেছে ৬ বিলিয়ন ডলার। আর এক বছরের হিসাবে রিজার্ভ কমেছে ৯ বিলিয়ন (৮.৯৩ বিলিয়ন) ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত ৩১ অক্টোবর বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ২ হাজার ৬৪৭ কোটি ডলার বা ২৫.৪৭ বিলিয়ন ডলার। চলতি মাস নভেম্বরের ২২ দিনে ১ দশমিক ৩১ বিলিয়ন ডলার কমে গত ২২ নভেম্বর রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ২৫ দশমিক ১৬ বিলিয়ন ডলারে। এটি বাংলাদেশ ব্যাংকের গ্রস রিজার্ভ হিসাব। আর আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল সংস্থা বা আইএমএফ স্বীকৃত বিপিএম-৬ অনুযায়ী দেশে খরচ করার রিজার্ভ আছে ১৯ দশমিক ৫২ বিলিয়ন ডলার।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি বছরে জুন মাসে গ্রস রিজার্ভ ছিল ৩১ দশমিক ২০ বিলিয়ন ডলার। গত বছরের ২২ নভেম্বর রিজার্ভ ছিল ৩৪ দশমিক শূন্য ৯ বিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ চলতি অর্থবছরের ৪ মাস ২২ দিনে রিজার্ভ কমেছে ৬ দশমিক শূন্য ৪ বিলিয়ন ডলার। আর এক বছরের ব্যবধানে কমেছে ৮ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন ডলার।

আইএমএফের ব্যালান্স অব পেমেন্টস অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট পজিশন ম্যানুয়াল (বিপিএম-৬) বলছে- রিজার্ভ গণনায় বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন তহবিলের পাশাপাশি বিমানকে দেয়া ঋণ গ্যারান্টি, পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষকে দেয়া ঋণ, ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংকে রাখা আমানত এবং নির্দিষ্ট গ্রেডের নিচে থাকা সিকিউরিটিতে বিনিয়োগ রিজার্ভের অন্তর্ভুক্ত নয়। বাংলাদেশ ব্যাংক এগুলোকেও রিজার্ভ হিসেবে দেখিয়ে আসছিল। এসব হিসাব বাদ দেয়ার কারণে রিজার্ভ থেকে ৫ দশমিক ৬৪ বিলিয়ন ডলার কমে যায়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ডলার সংকটের কারণে বাজার ঠিক রাখা ও জরুরি আদমদানিতে রিজার্ভ থেকে বাজারে ডলার ছাড়া হচ্ছে। আবার ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকাউন্ট নেগেটিভ থাকায় রিজার্ভ কমছে। অন্যদিকে রপ্তানি ও রেমিট্যান্স প্রবাহ কাক্সিক্ষত না হওয়ায় রিজার্ভের ওপর বাড়তি চাপ তৈরি হচ্ছে।

দেশের মধ্যে নেয়া ডলার সংকট নিরসনের কোনো উদ্যোগই কাজে আসছে না। তবে এর মাঝেই নতুন করে আশা জাগাচ্ছে রেমিট্যান্স। ডলার সংকটময় পরিস্থিতিতে এ মুদ্রাটি আয়ের অন্যতম উৎস রেমিট্যান্স বাড়তে শুরু করেছে। চলতি মাস নভেম্বরের প্রথম ১৭ দিনে প্রায় ১১৮ কোটি ৭০ লাখ ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে দেশে। আর প্রতিদিন গড়ে আসছে প্রায় ৭ কোটি (৬.৯৮ কোটি) ডলার। এভাবে রেমিট্যান্স আসার ধারা অব্যাহত থাকলে মাস শেষে দুই বিলিয়ন বা ২০৯ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যাবে। এর আগে সবশেষ গত আগস্টে ২ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছিল রেমিট্যান্স।

দেশের মধ্যে চলা ডলারের চরম সংকটের মধ্যেই শনিবার (২৫ নভেম্বর) প্রতি ডলারে ৫০ পয়সা কমানো হয়। প্রতি ডলারে ৫০ পয়সা করে কমিয়ে আমদানিতে ১১০ টাকা ৫০ পয়সা এবং রপ্তানি ও রেমিট্যান্সে ১১০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন এবিবি ও বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনকারী ব্যাংকের সংগঠন বাফেদার যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় মধ্যস্থতা করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

back to top