alt

অর্থ-বাণিজ্য

৪ হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন হারিয়েছে শেয়ারবাজার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০
image

আগের সপ্তাহে পতন হলেও গত সপ্তাহ উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। সপ্তাহটিতে শেয়ারবাজারের প্রধান প্রধান সূচক বেড়েছে। একই সঙ্গে টাকার পরিমাণে লেনদেন বেড়েছে। তবে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। আর সূচক ও লেনদেন বাড়লেও সপ্তাহটিতে বিনিয়োগকারীরা ৪ হাজার কোটি টাকা মূলধন হারিয়েছে। শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, চলতি সপ্তাহে উভয় শেয়ারবাজার মিলে বিনিয়োগকারীরা ৪ হাজার ৫৫ কোটি ৮৬ লাখ ৮২ হাজার টাকা মূলধন হারিয়েছে। এরমধ্যে ডিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৫৫১ কোটি ৯৭ লাখ ৫৩ হাজার টাকায়য়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৫৭৫ কোটি ৫ লাখ ২১ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বিনিয়োগকারীরা ১ হাজার ৯৭৬ কোটি ৯২ লাখ ৩২ হাজার টাকা বা ০.৪৯ শতাংশ মূলধন হারিয়েছে। আর সিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ২৯ হাজার ৪০১ কোটি ১২ লাখ ৯০ হাজার টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিব লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ২৭ হাজার ৩২২ কোটি ১৮ লাখ ৪০ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইর বিনিয়োগকারীরা ২ হাজার ৭৮ কোটি ৯৪ লাখ ৫০ টাকা মূলধন হারিয়েছে।

গত সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৪ হাজার ২৪০ কোটি ৭৯ লাখ ২১ হাজার ৪৪০ টাকার লেনদেন হয়েছে যা আগের সপ্তাহ থেকে ৮৮২ কোটি ৫৪ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৩ টাকা বা ২৬.২৮ শতাংশ বেশি হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩ হাজার ৩৫৮ কোটি ২৪ লাখ ৫৫ হাজার ৮২৭ টাকার। ডিএসইতে গত সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছে ৮৪৮ কোটি ১৫ লাখ ৮৪ হাজার ২৮৮ টাকার। আগের সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছিল ৬৭১ কোটি ৬৪ লাখ ৯১ হাজার ১৬৫ টাকার অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে গড় লেনদেন ১৭৬ কোটি ৫০ লাখ ৯৩ হাজার ১২৩ টাকা বেশি হয়েছে। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪১.৭৪ পয়েন্ট বা ০.৮৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৯১৪.০৪ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১.২০ পয়েন্ট বা ০.১১ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২১.৯৮ পয়েন্ট বা ১.৩২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১১৪.১৭ পয়েন্টে এবং ১৬৯২.৪৪ পয়েন্টে। গত সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৫৯টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৫টির বা ৩৪.৮১ শতাংশের, কমেছে ১৮৩টির বা ৫০.৯৭ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টির বা ১৪.২৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গত সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১১৬ কোটি ১২ লাখ ৮৭ হাজার ১০১ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১১৪ কোটি ৯০ লাখ ৯০ হাজার ৯২৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ১ কোটি ২১ লাখ ৯৬ হাজার ১৭৫ টাকা বা ১.০৬ শতাংশ বেড়েছে। সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৪৬.২৬ পয়েন্ট বা ১.০৫ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ২৯.৬৮ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ৯২.২০ পয়েন্ট বা ১.১৪ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ৭২.১৯ পয়েন্ট বা ০.৬২ শতাংশ এবং সিএসই-৫০ সূচক ৬.২৫ পয়েন্ট বা ০.৬৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৮ হাজার ৪৩২.৯৫ পয়েন্টে, ১১ হাজার ৬৪৫.২৮ পয়েন্টে এবং ১০০৫.৩৪ পয়েন্টে। অপর সূচক সিএসআই ১.৯৬ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ কমে ৮৯৪.০১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩১০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১১০টির বা ৩৫.৪৮ শতাংশের দর বেড়েছে, ১৫৪টির বা ৪৯.৬৭ শতাংশের কমেছে এবং ৪৬টির বা ১৪.৮৩ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

মিউচুয়াল ট্রাস্টও ইভ্যালি, আলেশা মার্টের সঙ্গে কার্ড লেনদেনে নিষেধাজ্ঞা দিল

বন্ড ইস্যুতে সংশোধনী আনছে পূবালী-ব্যাংক এশিয়া

ছবি

ব্র্যাক ব্যাংকের নতুন ডিএমডি চৌধুরী মইনুল ইসলাম

ছবি

হজ্ব ও ওমরাহ পালনের জন্য চালু করা হলো জীবন বীমা

ব্যবসা সম্প্রসারণে ঢাকায় আসছে কঙ্গোর প্রতিনিধি দল

ইকমার্স সাইট থেকে পণ্য বুঝে পেয়ে দাম পরিশোধ

ব্র্যাকের পর লেনদেনে নিষেধাজ্ঞা দিল আরও দুই ব্যাংক

লেনদেন কমলেও সূচক বেড়েছে শেয়ারবাজারে

১৫ ফেব্রুয়ারির পর এলসি খোলা যাবে না

ছবি

দুই বছরে ২ দশমিক ৬ ট্রিলিয়ন ডলারের হালাল পণ্যের বাজার সৃষ্টি হবে

লেনদেনের বড়পতনেও সূচক বেড়েছে অর্ধশত পয়েন্ট

ছবি

ডিএসইতে সূচক বাড়লেও সিএসইতে কমেছে

ছবি

বেসরকারি খাত শক্তিশালী করতে আইনকানুন সংস্কার প্রয়োজন

ছবি

চ্যালেঞ্জ থাকলেও সামষ্টিক অর্থনীতির গতি ঊর্ধ্বমুখী : অর্থমন্ত্রী

ছবি

ইভ্যালিসহ ১০ ই-কমার্সে কেনাকাটায় ব্র্যাক ব্যাংকের নিষেধাজ্ঞা

ফের শেয়ারবাজারে বড় পতন

বেক্সিমকোর সুকুক বন্ডের অনুমোদন

ছবি

প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করে বিড়ি শ্রমিকদের দোয়া

শান্তা ফিক্সড ইনকাম ফান্ডের খসড়া প্রসপেক্টাস অনুমোদন

ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্সের আইপিও অনুমোদন

ছবি

সূচকের পতনে শেষ হলো লেনদেন

ছবি

১৫৯ জনকে ছাঁটাই করলো গ্রামীণফোন, প্রতিবাদ কর্মীদের

ছবি

ইএফডির জন্য বৈষম্যের স্বীকার ব্যবসায়ীরা

৮ জুলাই থেকে চালু হচ্ছে ই-রিটার্ন সিস্টেম

করোনা মোকাবিলায় সাড়ে ১৩ কোটি টাকা সহায়তা স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের

‘এমবিএল রেইনবো’ নিয়ে ভার্চুয়াল প্রশিক্ষণ মার্কেন্টাইল ব্যাংকের

ব্রোকারেজ হাউজে রাখা অর্থের সুদের ভাগ পাবেন বিনিয়োগকারীরা

চারটি অর্থনৈতিক অঞ্চলে জমি ইজারা পেল ছয় প্রতিষ্ঠান

ছবি

ডিএসইতে সূচকের মিশ্র প্রবণতায় লেনদেন চলছে

ই-মেইলের লিংক ক্লিকেই রিজার্ভের টাকা চুরি

ছবি

কাজুবাদাম, কফির সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সমন্বিত উদ্যোগ চলছে: কৃষিমন্ত্রী

ছবি

২০২৫ সালের মধ্যে ৩০০ বিলিয়ন ডলারের বাজার হবে অগমেন্টেড রিয়েলিটি

বর্তমান বাজার ব্যবস্থায় বৈষম্যহীন সমাজ প্রশ্নসাপেক্ষ

ছবি

বীমা কোম্পানির পরিচালকদের ৬০ শতাংশ শেয়ার ধারণ করতে হবে : আইডিআরএ

ছবি

ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শন করলেন বিএসইসি চেয়ারম্যান

বাণিজ্য সম্প্রসারণে একযোগে কাজ করবে বাংলাদেশ-ভিয়েতনাম

tab

অর্থ-বাণিজ্য

৪ হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন হারিয়েছে শেয়ারবাজার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০

আগের সপ্তাহে পতন হলেও গত সপ্তাহ উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। সপ্তাহটিতে শেয়ারবাজারের প্রধান প্রধান সূচক বেড়েছে। একই সঙ্গে টাকার পরিমাণে লেনদেন বেড়েছে। তবে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। আর সূচক ও লেনদেন বাড়লেও সপ্তাহটিতে বিনিয়োগকারীরা ৪ হাজার কোটি টাকা মূলধন হারিয়েছে। শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, চলতি সপ্তাহে উভয় শেয়ারবাজার মিলে বিনিয়োগকারীরা ৪ হাজার ৫৫ কোটি ৮৬ লাখ ৮২ হাজার টাকা মূলধন হারিয়েছে। এরমধ্যে ডিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৫৫১ কোটি ৯৭ লাখ ৫৩ হাজার টাকায়য়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৫৭৫ কোটি ৫ লাখ ২১ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বিনিয়োগকারীরা ১ হাজার ৯৭৬ কোটি ৯২ লাখ ৩২ হাজার টাকা বা ০.৪৯ শতাংশ মূলধন হারিয়েছে। আর সিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ২৯ হাজার ৪০১ কোটি ১২ লাখ ৯০ হাজার টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিব লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ২৭ হাজার ৩২২ কোটি ১৮ লাখ ৪০ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইর বিনিয়োগকারীরা ২ হাজার ৭৮ কোটি ৯৪ লাখ ৫০ টাকা মূলধন হারিয়েছে।

গত সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৪ হাজার ২৪০ কোটি ৭৯ লাখ ২১ হাজার ৪৪০ টাকার লেনদেন হয়েছে যা আগের সপ্তাহ থেকে ৮৮২ কোটি ৫৪ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৩ টাকা বা ২৬.২৮ শতাংশ বেশি হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩ হাজার ৩৫৮ কোটি ২৪ লাখ ৫৫ হাজার ৮২৭ টাকার। ডিএসইতে গত সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছে ৮৪৮ কোটি ১৫ লাখ ৮৪ হাজার ২৮৮ টাকার। আগের সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছিল ৬৭১ কোটি ৬৪ লাখ ৯১ হাজার ১৬৫ টাকার অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে গড় লেনদেন ১৭৬ কোটি ৫০ লাখ ৯৩ হাজার ১২৩ টাকা বেশি হয়েছে। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪১.৭৪ পয়েন্ট বা ০.৮৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৯১৪.০৪ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১.২০ পয়েন্ট বা ০.১১ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২১.৯৮ পয়েন্ট বা ১.৩২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১১৪.১৭ পয়েন্টে এবং ১৬৯২.৪৪ পয়েন্টে। গত সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৫৯টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৫টির বা ৩৪.৮১ শতাংশের, কমেছে ১৮৩টির বা ৫০.৯৭ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টির বা ১৪.২৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গত সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১১৬ কোটি ১২ লাখ ৮৭ হাজার ১০১ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১১৪ কোটি ৯০ লাখ ৯০ হাজার ৯২৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ১ কোটি ২১ লাখ ৯৬ হাজার ১৭৫ টাকা বা ১.০৬ শতাংশ বেড়েছে। সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৪৬.২৬ পয়েন্ট বা ১.০৫ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ২৯.৬৮ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ৯২.২০ পয়েন্ট বা ১.১৪ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ৭২.১৯ পয়েন্ট বা ০.৬২ শতাংশ এবং সিএসই-৫০ সূচক ৬.২৫ পয়েন্ট বা ০.৬৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৮ হাজার ৪৩২.৯৫ পয়েন্টে, ১১ হাজার ৬৪৫.২৮ পয়েন্টে এবং ১০০৫.৩৪ পয়েন্টে। অপর সূচক সিএসআই ১.৯৬ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ কমে ৮৯৪.০১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩১০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১১০টির বা ৩৫.৪৮ শতাংশের দর বেড়েছে, ১৫৪টির বা ৪৯.৬৭ শতাংশের কমেছে এবং ৪৬টির বা ১৪.৮৩ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

back to top