alt

অর্থ-বাণিজ্য

জুন পর্যন্ত গণপূর্তের নতুন কোন প্রকল্প অনুমোদন নয় : অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : বুধবার, ০৫ মে ২০২১
image

চলতি (২০২০-২১) অর্থবছরের বাজেটের সময় কম থাকায় আগামী জুন মাস পর্যন্ত গণপূর্ত বিভাগের নতুন কোন প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার (৫ মে) দুপুরে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আজকের বৈঠকে গণপূর্ত বিভাগের যে প্রকল্পগুলো ছিল সেগুলো আমরা বিবেচনা করিনি, কারণ এখন সময় নেই। এই অর্থবছরে কাজগুলো শেষ করা যাবে না। অর্থ বছরের সময় আছে মাত্র একমাস। সেজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি গণপূর্ত বিভাগের যেগুলো চলমান কাজ সেগুলো চলবে এবং বিদেশি অর্থায়নের কাজগুলো চলবে।

এছাড়া নতুন যেসব প্রকল্পের কাজ শেষ করতে লম্বা সময় লাগে এবং এক থেকে দেড়মাসের মধ্যে শেষ করা যাবে না সেগুলো পরে শুরু করতে হবে। কারণ এখন যে ম্যাটেরিয়ালস এবং খরচ তা স্বাভাবিক অবস্থায় নেই, এগুলোর প্রাইজও আমরা সেভাবে জানি না। এগুলোর ওপর ভিত্তি করে আমরা কোন প্রকল্প অনুমোদন দিতে পারব না। সেজন্য আমরা ঠিক করেছি এখন থেকে আগামী জুন পর্যন্ত গণপূর্ত বিভাগের নতুন কোন প্রকল্প আমরা অনুমোদন দেব না। এটা আমরা পরিষ্কার করে দিয়েছি।’

চলতি অর্থবছরে নতুন কোন পূর্ত কাজ অনুমোদন দেয়া হবে না, অর্থ বিভাগের সেই পরিপত্র বাস্তবায়ন করা হচ্ছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘অর্থ বিভাগের সার্কুলারে পরিপ্রেক্ষিতেই আজ আমরা গণপূর্ত বিভাগের নতুন প্রকল্পের অনুমোদন দেইনি। যেসব প্রকল্প এসেছিল আমরা তা বিবেচনা করিনি।’

এদিকে আজ সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় ‘ঢাকাস্থ মিরপুর পাইকপাড়ায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বহুতল আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ’ শীর্ষক গণপূর্ত অধিদপ্তরের পাঁচটি প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। যার একটিও অনুমোদন করেনি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

এর আগে গত ২৬ এপ্রিল জারি করা অর্থবিভাগের এক পরিপত্রে বলা হয়েছে, চলমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও সরকারের কৃচ্ছ সাধন নীতির আলোকে চলতি অর্থবছরের (২০২০-২১) অবশিষ্ট সময়ে পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটের আওতায় নতুন কোন পূর্ত কাজের কার্যাদেশ প্রদান করা যাবে না। তবে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও কৃষি মন্ত্রণালয় এ পরিপত্রের আওতা বহির্ভূত থাকবে বলেও পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়।

ছবি

অর্ধেক আসন খালি রেখে কমিউনিটি সেন্টার খোলার দাবি

সূচক ও লেনদেন দুটোই কমেছে শেয়ারবাজারে

বাংলাদেশে ভ্যাট নিবন্ধন নিল ফেইসবুক

ছবি

রূপালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদে কাজী ছানাউল হকের যোগদান

চূড়ান্ত উৎপাদন শুরু করেছে রিং সাইন টেক্সটাইল

বেপজা অর্থনৈতিক অঞ্চলের শিল্প প্লট বরাদ্দ শুরু

খাবারের মান নিয়ন্ত্রণে দেড় কোটি টাকার বেশি জরিমানা

করোনায় অসচ্ছল মানুষের পাশে প্রাণ ইউএইচটি মিল্ক

বাজেট প্রতিক্রিয়ায় তামাক চাষি-ব্যবসায়ীদের সংবাদ সম্মেলন

ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের নতুন প্রোডাকশন লাইন উদ্বোধন

ছবি

লেনদেনের ধীরগতিতে নিম্নমুখী সূচক

ছবি

বাংলাদেশের মোট বৈদেশিক দেনা ৬ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে

ছবি

সিনজেনটা বাংলাদেশ লিমিটেডের ২০% লভ্যাংশ ঘোষণা

ছবি

আমরা সংসদে আছি শুধু ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ বলার জন্য: সাবের হোসেন

শেয়ারবাজারে ১২ হাজার ৭০০ কোটি টাকার লেনদেন

ছবি

ব্যাংক হিসাবে চার্জমুক্ত থাকবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত

ছবি

বাজেটের সুফল বাস্তবায়নের ওপর নির্ভরশীল

ছবি

উন্নত জাতের ‘সুবর্ণ রুই’ উদ্ভাবন

ইগলু আইসক্রিম ফ্যাক্টরিতে জরিমানা

২৫ হাজার কৃষকের থেকে সরাসরি পণ্য কিনছে আরিফ গ্রুপ

ছবি

এবি ব্যাংকের ৩৯তম বার্ষিক সাধারণ সভা

প্রধানমন্ত্রীর করোনা তহবিলে ২ কোটি টাকা দিয়েছে সাইফ পাওয়ারটেক

ছবি

ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্সের ১০ শতাংশ লভ্যাংশ অনুমোদন

ছবি

বোরো ধানের বাম্পার ফলনের পরও চালের বাজার অস্থির

ছবি

ইউনিলিভার বাংলাদেশের নতুন সিইও এবং এমডি জাভেদ আখতার

ছবি

ব্লুঅরচার্ড মাইক্রোফাইন্যান্স ফান্ড থেকে ১৫ মিলিয়ন ডলার বৈদেশিক ঋণ নিলো লংকাবাংলা ফাইন্যান্স

ছবি

শিল্পের কাঁচামাল আমদানিতে উৎসে কর না রাখার সুপারিশ বিসিআই’র

ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা পর্যটন স্পটগুলোর

ছবি

ইউনিলিভার বাংলাদেশের নতুন এমডি জাভেদ আখতার

ছবি

টাইলস-স্যানিটারি পণ্যে আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি

ছবি

স্বর্ণের ভ্যাট কমানোর দাবি বাজুসের

স্টার্টাপে ৫ কোটি পর্যন্ত বিনিয়োগ করবে ইভ্যালি

গতবছর ১০ কোটি ৬১ লাখ টাকা মুনাফা করেছে জনতা ক্যাপিটাল

প্রথম ঘন্টায় ডিএসইতে হাজার কোটি টাকা লেনদেন

ছবি

এক বছরে একটি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৮৯১ শতাংশ

ছবি

মাইক্রোবাস আমদানিতে সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি বারভিডার

tab

অর্থ-বাণিজ্য

জুন পর্যন্ত গণপূর্তের নতুন কোন প্রকল্প অনুমোদন নয় : অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

বুধবার, ০৫ মে ২০২১

চলতি (২০২০-২১) অর্থবছরের বাজেটের সময় কম থাকায় আগামী জুন মাস পর্যন্ত গণপূর্ত বিভাগের নতুন কোন প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার (৫ মে) দুপুরে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আজকের বৈঠকে গণপূর্ত বিভাগের যে প্রকল্পগুলো ছিল সেগুলো আমরা বিবেচনা করিনি, কারণ এখন সময় নেই। এই অর্থবছরে কাজগুলো শেষ করা যাবে না। অর্থ বছরের সময় আছে মাত্র একমাস। সেজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি গণপূর্ত বিভাগের যেগুলো চলমান কাজ সেগুলো চলবে এবং বিদেশি অর্থায়নের কাজগুলো চলবে।

এছাড়া নতুন যেসব প্রকল্পের কাজ শেষ করতে লম্বা সময় লাগে এবং এক থেকে দেড়মাসের মধ্যে শেষ করা যাবে না সেগুলো পরে শুরু করতে হবে। কারণ এখন যে ম্যাটেরিয়ালস এবং খরচ তা স্বাভাবিক অবস্থায় নেই, এগুলোর প্রাইজও আমরা সেভাবে জানি না। এগুলোর ওপর ভিত্তি করে আমরা কোন প্রকল্প অনুমোদন দিতে পারব না। সেজন্য আমরা ঠিক করেছি এখন থেকে আগামী জুন পর্যন্ত গণপূর্ত বিভাগের নতুন কোন প্রকল্প আমরা অনুমোদন দেব না। এটা আমরা পরিষ্কার করে দিয়েছি।’

চলতি অর্থবছরে নতুন কোন পূর্ত কাজ অনুমোদন দেয়া হবে না, অর্থ বিভাগের সেই পরিপত্র বাস্তবায়ন করা হচ্ছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘অর্থ বিভাগের সার্কুলারে পরিপ্রেক্ষিতেই আজ আমরা গণপূর্ত বিভাগের নতুন প্রকল্পের অনুমোদন দেইনি। যেসব প্রকল্প এসেছিল আমরা তা বিবেচনা করিনি।’

এদিকে আজ সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় ‘ঢাকাস্থ মিরপুর পাইকপাড়ায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বহুতল আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ’ শীর্ষক গণপূর্ত অধিদপ্তরের পাঁচটি প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। যার একটিও অনুমোদন করেনি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

এর আগে গত ২৬ এপ্রিল জারি করা অর্থবিভাগের এক পরিপত্রে বলা হয়েছে, চলমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও সরকারের কৃচ্ছ সাধন নীতির আলোকে চলতি অর্থবছরের (২০২০-২১) অবশিষ্ট সময়ে পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটের আওতায় নতুন কোন পূর্ত কাজের কার্যাদেশ প্রদান করা যাবে না। তবে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও কৃষি মন্ত্রণালয় এ পরিপত্রের আওতা বহির্ভূত থাকবে বলেও পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়।

back to top