alt

অর্থ-বাণিজ্য

আঙ্কটাডের প্রতিবেদন : বৈশ্বিক বাণিজ্য ২৮ ট্রিলিয়নে পৌঁছবে, রয়েছে শঙ্কাও

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক : শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১

সম্প্রতি করোনার ধাক্কা কাটিয়ে উঠে ব্যবসা-বাণিজ্যের গতি যখন বাড়ছে ঠিক তখনই করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট চোখ রাঙ্গাচ্ছে। তারপরও চলতি বছর বাণিজ্যে বড় একটি উলম্ফন হবে বলে জানিয়েছে বাণিজ্য ও উন্নয়নবিষয়ক জাতিসংঘ সম্মেলন আঙ্কটাড। সম্প্রতি সংস্থাটি জানিয়েছে, এ অবস্থায়ও ২০২১ সালে বৈশ্বিক বাণিজ্য ২৮ লাখ কোটি ডলারে পৌঁছবে। তবে কভিডের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ ২০২২ সালের বাণিজ্য নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

বছরজুড়েই বাণিজ্য বৃদ্ধি শক্তিশালী এবং দ্বিতীয়ার্ধে স্থিতিশীল ছিল। তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) বাণিজ্যের পরিমাণ রেকর্ড ২৪ শতাংশ বেড়েছে। এটি কভিডপূর্ব স্তরের তুলনায় উল্লেখযোগ্য বেশি। তবে কয়েকদিন ধরে কভিডের নতুন ধরনের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টি বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি করেছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত গ্লোবাল ট্রেড আপডেট শীর্ষক প্রতিবেদনে আঙ্কটাড জানিয়েছে, ২০২১ সালে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ইতিবাচক প্রবণতা মূলত মহামারীজনিত বিধিনিষেধের কারণে দেয়া আর্থিক প্রণোদনা ও পণ্যের ক্রমবর্ধমান দাম এবং শক্তিশালী চাহিদার ফলাফল।

বৈশ্বিক বাণিজ্য বৃদ্ধির ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা রেখেছে পণ্য বাণিজ্য। জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে পণ্য বাণিজ্য আগের প্রান্তিকের তুলনায় দশমিক ৭ শতাংশ বেড়ে ৫ লাখ ৬০ হাজার কোটি ডলারে পৌঁছেছে। প্রান্তিকভিত্তিক পণ্য বাণিজ্যের এ পরিমাণ সর্বকালের সর্বোচ্চ। আঙ্কটাড আশা করছে, চলতি বছর পণ্য বাণিজ্য ২২ লাখ কোটি ডলারের রেকর্ড স্পর্শ করবে।

এ সময়ে পণ্য বাণিজ্য রেকর্ড পরিমাণ বাড়লেও পরিষেবা বাণিজ্যে শ্লথগতি রয়ে গেছে। তৃতীয় প্রান্তিকে পরিষেবাগুলোর বাণিজ্য ২ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়ে ১ লাখ ৫০ হাজার কোটি ডলারের কাছাকাছি পৌঁছেছে। ২০২১ সালে এ বাণিজ্য ৬ লাখ কোটি ডলারে পৌঁছানোর পূর্বাভাস দিয়েছে জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থাটি। যদিও আঙ্কটাড গত সপ্তাহে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া কভিডের নতুন ধরন ওমিক্রনের সম্ভাব্য প্রভাবকে বিবেচনায় নেয়নি।

ওমিক্রনের প্রভাব নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও আশার বাণী শোনাচ্ছেন অর্থনীতিবিদরা। তাদের ভাষ্য, কভিড-১৯ প্রতিরোধী টিকাদান কার্যক্রম এবং দ্রুত বিধিনিষেধের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়ার ক্ষমতা বিশ্বকে যেকোন খারাপ পরিস্থিতিতে সহায়তা করবে।

আঙ্কটাড জানিয়েছে, ২০২১ সালের প্রথমার্ধে শক্তিশালী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার অবশ্য দ্বিতীয়ার্ধে এসে ধীর হয়ে গেছে। তৃতীয় প্রান্তিকে চীন ১৬ শতাংশ বাণিজ্য বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে। তাইওয়ানের ২৩ শতাংশ বৃদ্ধির পর চীনের প্রবৃদ্ধি দ্বিতীয় ছিল। এরপর কেবল ভিয়েতনাম, ব্রাজিল ও অস্ট্রেলিয়া দুই অংকের বাণিজ্য প্রবৃদ্ধি রেকর্ড করেছিল।

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও মূল্যস্ফীতির চাপের কারণে অর্থনৈতিক সম্ভাবনা ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্যপ্রবাহে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। এরই মধ্যে ইইউতে সংক্রমণ বেড়েছে। ফলে আরোপ করা কভিডজনিত বিধিনিষেধ ভোক্তা চাহিদাকে দুর্বল করে দিতে পারে। তাছাড়া চিপ ঘাটতির কারণে অটোমোবাইল শিল্পের মতো গুরুত্বপূর্ণ খাতগুলোয় বাণিজ্য দুর্বলতা লক্ষ করা গেছে।

আঞ্চলিক ভিত্তিতে উন্নয়নশীল দেশগুলোর বাণিজ্য শক্তিশালী ছিল। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে পূর্ব এশিয়ার উন্নয়নশীল অর্থনীতির বাণিজ্য প্রবৃদ্ধি তৃতীয় প্রান্তিকে বিশ্বজুড়ে বিস্তৃত হয়েছে। এ সময়ে অর্থনীতির বেশিরভাগ খাত শক্তিশালী বাণিজ্যের সাক্ষী হয়েছে। এক্ষেত্রে উচ্চ চাহিদা ও জীবাশ্ম জ্বালানির দাম বাড়ার কারণে জ্বালানি-সম্পর্কিত পণ্যগুলো নেতৃত্ব দিয়েছে। খনিজ, ধাতুর পাশাপাশি রাসায়নিক ও যানবাহনের বাণিজ্য গড় হারে বেড়েছে।

নতুন বেতন কাঠামো বাস্তবায়নে এক বছর সময় চায় ব্যাংক মালিকরা

ছবি

প্রত্যাশা অনুযায়ী ক্রেতা আসছে না, বাণিজ্য মেলায় টিকিট বিক্রি কম

প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরু ৬ ফেব্রুয়ারি

আগামী বছরই উৎপাদনে যাচ্ছে জাপানি অর্থনৈতিক অঞ্চল

ব্যাংকে সব নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

তিন সপ্তাহ পর শেয়ারবাজারে পতন, মূলধন কমলো ২ হাজার ৩শ’ কোটি টাকা

ছবি

ঘুরে দাঁড়িয়েছে শিল্প-অবকাঠামো খাত, বৈশ্বিক ইস্পাত উৎপাদনে বড় উত্থান

ছবি

জেএমআই হসপিটালের আইপিওর আবেদন শুরু ২৭ ফেব্রুয়ারি

ছবি

শ্রীলঙ্কায় বেক্সিমকো ফার্মার বিনিয়োগের পথ সহজ হলো

ছবি

সাশ্রয়ী দামের ফাস্ট চার্জিং স্মার্টফোন ভিশন ৩

আরও ১২৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা গ্রামীণফোনের

ব্লক মার্কেটে ৩০ কোটি টাকার লেনদেন

খারাপ পরিস্থিতিতেও চলবে ব্যাংকে লেনদেন

ছবি

বিদেশে বিনিয়োগের সুযোগ দিয়ে বিধিমালা জারি

সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

বাজেট প্রস্তাব চেয়েছে এনবিআর

ছবি

অর্থবছর শেষে মাথাপিছু আয় হবে দুই হাজার ৭৮৫ ডলার

ডিএসইতে সূচক বাড়লেও সিএসইতে পতন

কঠোর আইনের মাধ্যমে অর্থপাচার রোধ করেছে দ.কোরিয়া, বাংলাদেশেও দরকার

কিউকমে আটকে থাকা টাকা ফেরত পেতে শুরু করেছে গ্রাহকরা

ছবি

ব্যাংকারদের বেতন কাঠামো বাস্তবায়নে সময় চায় মালিকপক্ষ

এটিএম বুথ ও মোবাইল ব্যাংকিংয়ে নগদ টাকা বাড়ানোর নির্দেশ

বাস্তবায়ন হচ্ছে না বেসরকারি ব্যাংকের নতুন বেতন

পেপারবিহীন যুগে ডিএসই

পাঁচ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

ডিএসইতে সূচক বাড়লেও সিএসইতে পতন

ছবি

এবার বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর উদ্যোগ

আদালত মনোনীত ফার্ম দিয়ে ইভ্যালির অডিট করানো যাবে

অদক্ষতার অজুহাতে পদত্যাগে বাধ্য করা যাবে না, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

ফ্রিজ, এসি আমদানিতে স্ট্যান্ডার্ড এনার্জি রেটিং আরোপের দাবি

ইউনিয়ন ব্যাংকের শেয়ার লেনদেন শুরু

বাণিজ্য মেলা বন্ধের সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি

ছবি

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত ব্যাংককর্মীকে পদত্যাগে বাধ্য করা যাবে না

ছবি

করোনা মোকাবিলায় সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ

মূল্য সংশোধন শেষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে পুঁজিবাজার

কিউকম গ্রাহকদের আটকে থাকা অর্থ ফেরত দেয়া শুরু

tab

অর্থ-বাণিজ্য

আঙ্কটাডের প্রতিবেদন : বৈশ্বিক বাণিজ্য ২৮ ট্রিলিয়নে পৌঁছবে, রয়েছে শঙ্কাও

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১

সম্প্রতি করোনার ধাক্কা কাটিয়ে উঠে ব্যবসা-বাণিজ্যের গতি যখন বাড়ছে ঠিক তখনই করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট চোখ রাঙ্গাচ্ছে। তারপরও চলতি বছর বাণিজ্যে বড় একটি উলম্ফন হবে বলে জানিয়েছে বাণিজ্য ও উন্নয়নবিষয়ক জাতিসংঘ সম্মেলন আঙ্কটাড। সম্প্রতি সংস্থাটি জানিয়েছে, এ অবস্থায়ও ২০২১ সালে বৈশ্বিক বাণিজ্য ২৮ লাখ কোটি ডলারে পৌঁছবে। তবে কভিডের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ ২০২২ সালের বাণিজ্য নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

বছরজুড়েই বাণিজ্য বৃদ্ধি শক্তিশালী এবং দ্বিতীয়ার্ধে স্থিতিশীল ছিল। তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) বাণিজ্যের পরিমাণ রেকর্ড ২৪ শতাংশ বেড়েছে। এটি কভিডপূর্ব স্তরের তুলনায় উল্লেখযোগ্য বেশি। তবে কয়েকদিন ধরে কভিডের নতুন ধরনের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টি বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি করেছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত গ্লোবাল ট্রেড আপডেট শীর্ষক প্রতিবেদনে আঙ্কটাড জানিয়েছে, ২০২১ সালে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ইতিবাচক প্রবণতা মূলত মহামারীজনিত বিধিনিষেধের কারণে দেয়া আর্থিক প্রণোদনা ও পণ্যের ক্রমবর্ধমান দাম এবং শক্তিশালী চাহিদার ফলাফল।

বৈশ্বিক বাণিজ্য বৃদ্ধির ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা রেখেছে পণ্য বাণিজ্য। জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে পণ্য বাণিজ্য আগের প্রান্তিকের তুলনায় দশমিক ৭ শতাংশ বেড়ে ৫ লাখ ৬০ হাজার কোটি ডলারে পৌঁছেছে। প্রান্তিকভিত্তিক পণ্য বাণিজ্যের এ পরিমাণ সর্বকালের সর্বোচ্চ। আঙ্কটাড আশা করছে, চলতি বছর পণ্য বাণিজ্য ২২ লাখ কোটি ডলারের রেকর্ড স্পর্শ করবে।

এ সময়ে পণ্য বাণিজ্য রেকর্ড পরিমাণ বাড়লেও পরিষেবা বাণিজ্যে শ্লথগতি রয়ে গেছে। তৃতীয় প্রান্তিকে পরিষেবাগুলোর বাণিজ্য ২ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়ে ১ লাখ ৫০ হাজার কোটি ডলারের কাছাকাছি পৌঁছেছে। ২০২১ সালে এ বাণিজ্য ৬ লাখ কোটি ডলারে পৌঁছানোর পূর্বাভাস দিয়েছে জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থাটি। যদিও আঙ্কটাড গত সপ্তাহে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া কভিডের নতুন ধরন ওমিক্রনের সম্ভাব্য প্রভাবকে বিবেচনায় নেয়নি।

ওমিক্রনের প্রভাব নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও আশার বাণী শোনাচ্ছেন অর্থনীতিবিদরা। তাদের ভাষ্য, কভিড-১৯ প্রতিরোধী টিকাদান কার্যক্রম এবং দ্রুত বিধিনিষেধের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়ার ক্ষমতা বিশ্বকে যেকোন খারাপ পরিস্থিতিতে সহায়তা করবে।

আঙ্কটাড জানিয়েছে, ২০২১ সালের প্রথমার্ধে শক্তিশালী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার অবশ্য দ্বিতীয়ার্ধে এসে ধীর হয়ে গেছে। তৃতীয় প্রান্তিকে চীন ১৬ শতাংশ বাণিজ্য বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে। তাইওয়ানের ২৩ শতাংশ বৃদ্ধির পর চীনের প্রবৃদ্ধি দ্বিতীয় ছিল। এরপর কেবল ভিয়েতনাম, ব্রাজিল ও অস্ট্রেলিয়া দুই অংকের বাণিজ্য প্রবৃদ্ধি রেকর্ড করেছিল।

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও মূল্যস্ফীতির চাপের কারণে অর্থনৈতিক সম্ভাবনা ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্যপ্রবাহে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। এরই মধ্যে ইইউতে সংক্রমণ বেড়েছে। ফলে আরোপ করা কভিডজনিত বিধিনিষেধ ভোক্তা চাহিদাকে দুর্বল করে দিতে পারে। তাছাড়া চিপ ঘাটতির কারণে অটোমোবাইল শিল্পের মতো গুরুত্বপূর্ণ খাতগুলোয় বাণিজ্য দুর্বলতা লক্ষ করা গেছে।

আঞ্চলিক ভিত্তিতে উন্নয়নশীল দেশগুলোর বাণিজ্য শক্তিশালী ছিল। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে পূর্ব এশিয়ার উন্নয়নশীল অর্থনীতির বাণিজ্য প্রবৃদ্ধি তৃতীয় প্রান্তিকে বিশ্বজুড়ে বিস্তৃত হয়েছে। এ সময়ে অর্থনীতির বেশিরভাগ খাত শক্তিশালী বাণিজ্যের সাক্ষী হয়েছে। এক্ষেত্রে উচ্চ চাহিদা ও জীবাশ্ম জ্বালানির দাম বাড়ার কারণে জ্বালানি-সম্পর্কিত পণ্যগুলো নেতৃত্ব দিয়েছে। খনিজ, ধাতুর পাশাপাশি রাসায়নিক ও যানবাহনের বাণিজ্য গড় হারে বেড়েছে।

back to top