alt

অর্থ-বাণিজ্য

ফের লকডাউন হলে অর্থনীতিতে বড় ধাক্কা লাগবে: এফবিসিসিআই

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : বুধবার, ১২ জানুয়ারী ২০২২

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেছেন, আমরা এলডিসি গ্রাজুয়েশন করতে যাচ্ছি। তবে এখানে চ্যালেঞ্জ থাকবে। তখন আমাদের ট্যাক্স সুবিধা থাকবে না। তখন ব্যবসাকে টিকিয়ে রাখতে হলে আমাদের সক্ষমতা বাড়াতে হবে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত ‘মিট দ্য রিপোটার্স’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি।

অনুষ্ঠানে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু এবং সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম হাসিবসহ সংগঠনটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মো. জসিম উদ্দিন বলেন, আমরা যদি এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর চ্যালেঞ্জগুলো বহন করতে না পারি, তাহলে অনেক পিছিয়ে যাবো। আমাদের ইনভেস্টমেন্ট গোল, গবেষণা বাড়াতে হবে। আর দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত হতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা দায়িত্বে আসার পর অলরেডি এলডিসি নিয়ে ৪টি ডকুমেন্ট দিয়েছি। আমাদের এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর যে চ্যালেঞ্জ আছে, তা মোকাবেলা করতে হলে যুব-শ্রেণীকে যথাযথা কাজে লাগাতে হবে। আমাদের শিক্ষিত যুবকদের কাজে লাগিয়ে বেকারত্ব দূর করতে হবে। তবেই এলডিসি পরবর্তিতে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা সম্ভব হবে।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, কারোনার প্রথম দুই দফায় দেয়া লকডাউনে আমাদের অর্থনীতির অনেক ক্ষতি হয়েছে। এখন আমরা সেই অবস্থান থেকে বের হয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি। আমরা এখন অনেক বিদেশি অর্ডার পাচ্ছি। কিন্তু এখনই যদি আবারও লকডাউনে যেতে হয়, তাহলে অর্থনীতিতে আরো বড় ধাক্কা লাগবে। আমরা চাইবো আর লকডাউনে না গিয়ে স্বাস্থবিধির যথাযথ সচেতনতা বাড়ানোর পদক্ষেপ। আমরা এফবিসিসিআই’র পক্ষ থেকেও পূর্বে স্বাস্থ্য সচেতনতার ব্যবস্থা করেছিলাম। আবারও সেই ব্যবস্থা করবো।

তিনি বলেন, আমাদের ব্যাংকগুলোকে ছোট উদ্যোক্তাদের লোন দেয়ার ব্যপারে আগ্রহী করে তুলতে হবে। আমরা এফবিসিসিআইও সেই লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। শুধু বড় বড় ব্যবসায়ীদেরকে বড় বড় লোন দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব না। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদেরও লোন দিয়ে ব্যবসার পরিধি বাড়ানোর সুযোগ করে দিতে হবে।

সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকার আজকে কিছু এলাকাকে রেড জোন ও ইয়োলো জোনে বিভক্ত করে দিয়েছেন। এই জোনগুলোতে আলাদা আলদভাবে নজরদারিতে রাখা হবে। রেড জোনে কিছুটা কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। আমাদের সাধারণ মানুষ এবং ব্যবসয়ীদেরও উচিত স্বাস্থবিধি মানতে সরকারের পদক্ষেপকে মূল্যায়িত করা। কেননা দেশ যদি আবারও লকডাউনে যায় তাহলে সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

ছবি

সময় না বাড়ালে ৫০ শতাংশ ব্যবসায়ীই খেলাপি হবেন

ছবি

ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে মোবাইল ব্যাংকিং, নভেম্বরে লেনদেন ৯০ হাজার কোটি টাকা

ছবি

ডিজিটাল কমার্স খাতে স্থিতিশীলতা আনতে চালু হচ্ছে ইউবিআইডি: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

ছবি

শর্ত পূরণে ব্যর্থ সাকিব, পিপলস ব্যাংকের আবেদন বা‌তিল

ছবি

ব্যাংকারদের সর্বনিম্ন বেতন বেঁধে দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক

সূচকের উত্থান হলেও কমেছে লেনদেন

বিজিএমইএকে কৌশলগত সহায়তা দেবে ডেলমরগান

রপ্তানিতে সিআইপি কার্ড পেলেন ১৭৬ ব্যবসায়ী

ইরাক বাড়াতে চায় বাণিজ্য, বিনিয়োগে আগ্রহী

দেশে চা উৎপাদনে সর্বোচ্চ রেকর্ড

বিনিয়োগকারী সংকটে অবমূল্যায়িত শেয়ার দর

ব্যাংকারদের সর্বনিম্ন বেতন বেঁধে দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক

২২২ কোম্পানির দর বেড়ে লেনদেন চলছে পুঁজিবাজারে

ছবি

চা উৎপাদনে ইতিহাসের সর্বোচ্চ রেকর্ড

ছবি

নিত্যপণ্যের দাম : ব্যবসায়ীদের কাছে ১৫ দিন সময় চাইলো সরকার

সূচকের সঙ্গে লেনদেনও বেড়েছে শেয়ারবাজারে

ছবি

মাতারবাড়ী সমুদ্র বন্দরে এক লাখ টনের জাহাজ ভিড়তে পারবে : নৌ-প্রতিমন্ত্রী

গবেষণা ও উদ্ভাবনে একসঙ্গে কাজ করবে বুয়েট-ওয়ালটন

ছবি

গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীরা

সূচক বাড়লেও লেনদেন মন্দা পুঁজিবাজারে

বস্ত্র খাতের শেয়ারের তেজিভাব, সূচক-লেনদেন ঊর্ধ্বমুখী

ভ্রমণ ও পর্যটনকে হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছে অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি (ওটিএ)

ছবি

বড় ঋণে কঠোর হলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক, এক গ্রুপকে ২৫ শতাংশের বেশি নয়

বাংলাদেশে ‘কিচেন মার্কেট’ করবে ভারত

বাংলাদেশ-দ.কোরিয়ার মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণের সম্ভাবনা রয়েছে : ফারুক

সূচকের সঙ্গে লেনদেনও বেড়েছে শেয়ারবাজারে

আইনি জটিলতায় শিল্পনীতির সুবিধা নিতে পারছেন না উদ্যোক্তারা : এফবিসিসিআই

সূচক উর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন চলছে

ছবি

নির্মাণখাত রক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এফবিসিসিআই’র চিঠি

সূচক ও লেনদেনের সামান্য উত্থান

বাংলাদেশকে ‘সার্কুলার ইকোনমি’ মডেল অনুসরণ করতে হবে : শিল্পমন্ত্রী

ইভ্যালি বোর্ডকে ২ কোটি ৩৫ লাখ টাকা তোলার অনুমতি

ছবি

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের স্বতন্ত্র পরিচালক হলেন হাফিজ আহমেদ

সূচক বেড়ে লেনদেন চলছে পুঁজিবাজারে

ছবি

তৈরি পোশাক সর্বোচ্চ রপ্তানি যুক্তরাষ্ট্রে, প্রবৃদ্ধি ৪৬ শতাংশ

ছবি

ছুটির দিনে বাণিজ্য মেলায় ক্রেতাদের ভিড়

tab

অর্থ-বাণিজ্য

ফের লকডাউন হলে অর্থনীতিতে বড় ধাক্কা লাগবে: এফবিসিসিআই

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

বুধবার, ১২ জানুয়ারী ২০২২

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেছেন, আমরা এলডিসি গ্রাজুয়েশন করতে যাচ্ছি। তবে এখানে চ্যালেঞ্জ থাকবে। তখন আমাদের ট্যাক্স সুবিধা থাকবে না। তখন ব্যবসাকে টিকিয়ে রাখতে হলে আমাদের সক্ষমতা বাড়াতে হবে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত ‘মিট দ্য রিপোটার্স’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি।

অনুষ্ঠানে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু এবং সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম হাসিবসহ সংগঠনটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মো. জসিম উদ্দিন বলেন, আমরা যদি এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর চ্যালেঞ্জগুলো বহন করতে না পারি, তাহলে অনেক পিছিয়ে যাবো। আমাদের ইনভেস্টমেন্ট গোল, গবেষণা বাড়াতে হবে। আর দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত হতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা দায়িত্বে আসার পর অলরেডি এলডিসি নিয়ে ৪টি ডকুমেন্ট দিয়েছি। আমাদের এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর যে চ্যালেঞ্জ আছে, তা মোকাবেলা করতে হলে যুব-শ্রেণীকে যথাযথা কাজে লাগাতে হবে। আমাদের শিক্ষিত যুবকদের কাজে লাগিয়ে বেকারত্ব দূর করতে হবে। তবেই এলডিসি পরবর্তিতে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা সম্ভব হবে।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, কারোনার প্রথম দুই দফায় দেয়া লকডাউনে আমাদের অর্থনীতির অনেক ক্ষতি হয়েছে। এখন আমরা সেই অবস্থান থেকে বের হয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি। আমরা এখন অনেক বিদেশি অর্ডার পাচ্ছি। কিন্তু এখনই যদি আবারও লকডাউনে যেতে হয়, তাহলে অর্থনীতিতে আরো বড় ধাক্কা লাগবে। আমরা চাইবো আর লকডাউনে না গিয়ে স্বাস্থবিধির যথাযথ সচেতনতা বাড়ানোর পদক্ষেপ। আমরা এফবিসিসিআই’র পক্ষ থেকেও পূর্বে স্বাস্থ্য সচেতনতার ব্যবস্থা করেছিলাম। আবারও সেই ব্যবস্থা করবো।

তিনি বলেন, আমাদের ব্যাংকগুলোকে ছোট উদ্যোক্তাদের লোন দেয়ার ব্যপারে আগ্রহী করে তুলতে হবে। আমরা এফবিসিসিআইও সেই লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। শুধু বড় বড় ব্যবসায়ীদেরকে বড় বড় লোন দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব না। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদেরও লোন দিয়ে ব্যবসার পরিধি বাড়ানোর সুযোগ করে দিতে হবে।

সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকার আজকে কিছু এলাকাকে রেড জোন ও ইয়োলো জোনে বিভক্ত করে দিয়েছেন। এই জোনগুলোতে আলাদা আলদভাবে নজরদারিতে রাখা হবে। রেড জোনে কিছুটা কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। আমাদের সাধারণ মানুষ এবং ব্যবসয়ীদেরও উচিত স্বাস্থবিধি মানতে সরকারের পদক্ষেপকে মূল্যায়িত করা। কেননা দেশ যদি আবারও লকডাউনে যায় তাহলে সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

back to top