alt

অর্থ-বাণিজ্য

এফবিসিসিআই সভাপতি সয়াবিন আমদানিতে ৫% ভ্যাটও প্রত্যাহার চান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ১২ মে ২০২২

আমদানিতে যে ৫ শতাংশ ভ্যাট এখন বহাল রয়েছে, তা প্রত্যাহারের সুপারিশ জানিয়েছেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। সয়াবিন তেলের বাজারে অস্থিরতা থামাতে এ সুপারিশ করেন তিনি। পাশাপাশি রাইস ব্র্যান, সানফ্লাওয়ার ও ক্যানোলাসহ যে কোনো ধরনের ভোজ্যতেল করমুক্তভাবে আমদানির সুযোগ দেওয়ার পক্ষেও বলেন তিনি।

রাজধানীর মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এমন সুপারিশ করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন, টি কে গ্রুপের পরিচালক মো. শফিউল আতহার তাসলিম, এস আলম গ্রুপের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক কাজী সালাহ উদ্দিন, সিটি গ্রুপের উপদেষ্টা অমিতাভ চক্রবর্তী, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সহ সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম তালুকদার, মৌলভীবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. গোলাম মাওলা এবং নিউ মার্কেট ডি ব্লক ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের প্রমুখ।

ইউক্রেইন যুদ্ধের পর ভোজ্য তেলের বাজারে যে অস্থিরতা আরো বেড়ে যায়। এই পরিস্থিতিতে প্রথমে ভোজ্য তেল পরিশোধন পর্যায়ে ১৫ শতাংশ এবং বিপণন পর্যায়ে ৫ শতাংশসহ মোট ২০ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করা হয়। এরপর আমদানি পর্যায়েও ভ্যাট ১৫ শতাংশ থেকে ৫ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়। এরপরও এই মাসের শুরুতে সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৪০ টাকা বেড়েছে।

এই পরিস্থিতিতে সয়াবিন আমদানিতে বাকি ৫ শতাংশ ভ্যাটও তুলে নিতে সরকারকে সুপারিশ করলেন এফবিসিসিআই সভাপতি।

তিনি বলেন, “বিশ্ব বাজার পরিস্থিতির কারণে দেশের বাজারে ভোজ্য তেল নিয়ে যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তা সামাল দেওয়ার জন্য বর্তমানে আমদানি পর্যায়ে যে ৫ শতাংশ ভ্যাট আছে, তাও তুলে দেওয়ার জন্য আমি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, “আর ফিনিশড গুডসের আমদানি উৎসাহিত করার রাইসব্র্যান, সানফ্লাওয়ার ও ক্যানোলা অয়েলসহ সব ধরনের ভোজ্য তেল বিনা শুল্কে আমদানির সুযোগ দেওয়া উচিত। এতে যে কেউ তেল আমদানির সুযোগ পারে এবং বাজারে যোগান বাড়বে। এতে বাজারও স্বাভাবিক থাকবে বলে আমি মনে করি।”

ভোজ্য তেলের খোলা বিক্রি বন্ধের পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, “চলমান পরিস্থিতিতে বোতলের গায়ে মূল্য লেখা থাকার কারণে খুচরা ব্যবসায়ীরা খোলা তেল হিসাবে ২২০ টাকা লিটার বিক্রি করছেন। ভবিষ্যতে যাতে এই রকম পরিস্থিতির আর উদ্ভব না হওয়ার জন্য খোলা তেল বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ।”

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, “এরকম সঙ্কটময় সময়ে আপনাদের লাভ কম করা উচিৎ। এই পরিস্থিতি তো অবশ্যই স্বাভাবিক হবে। তখন আপনার স্বাভাবিক লাভ করতে পারবেন। তিনি বলেন, “অল্প কয়েকজন অসৎ ব্যবসায়ীদের কারণে পুরো ব্যবসায়ী সমাজের বদনাম হতে পারে না। তাই আপানারা নিজেদের উদ্যোগে যারা এরকম মজুদ করে বেশি দামে তেল বিক্রি করছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেন।”

আলোচনায় মিল মালিক প্রতিনিধিদের মধ্যে এস আলম গ্রুপের সালাহ উদ্দিন মুক্তবাজার অর্থনীতিতে বাজারে হস্তক্ষেপ বন্ধের পক্ষে মত জানান।

তিনি বলেন, “২০০৯-১০ সালেও এরকম একটা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল। এর আগে তত্বাবধায়ক সরকারের আমলেও এরকম হয়েছিল। কিন্তু পরে বিষয়টি ব্যবসায়ীদের উপর ছেড়ে দেওয়ায় বাজার ঠিকই নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।”

টি কে গ্রুপের পরিচালক শফিউল বলেন, “সরকার যদি আমাদের বিশ্বাস না করে বা আমরা বেশি লাভ করছি বলে মনে করে, তাহলে টিসিবির মাধ্যমে তেল আমদানি করুক। এরপর প্রয়োজনে আমরা পরিশোধন করে দেব। এরপর সরকারই বাজারজাত করুক।”

“ইন্দোনেশিয়ার উৎপাদনের মাত্র ২০ শতাংশ সে দেশের চাহিদা। বাকিটা রপ্তানি করতেই হবে। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই আবারও দেশটি পাম অয়েল রপ্তানি শুরু করতে পারে।”

ছবি

রাজস্ব আদায়ে ১০ মাসে ৩১ শতাংশ পিছিয়ে এনবিআর

পতনের বৃত্তেই ঘুরপাক খাচ্ছে শেয়ারবাজার

ছবি

আনারসের পাতা থেকে তৈরি হচ্ছে সুতা; রপ্তানি হচ্ছে নেদারল্যান্ডসে

বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে ব্রোকারেজ ব্যবসায় আসছে শ্রীলঙ্কান কোম্পানি

অফিসিয়াল ফেইসবুক পেজ খুলবে বিএসইসি

বহুজাতিক কোম্পানির ‘চক্রান্ত’ প্রতিহত করতে বিড়ি শ্রমিকদের সমাবেশ

ছবি

বাংলাদেশের মান-সম্মান বিশ্বে বেড়েছে: অর্থমন্ত্রী

বিক্রয়চাপে ২৫৩ প্রতিষ্ঠানের দর পতন

অনিয়ম ও জালিয়াতির মাধ্যমে নেয়া ঋণে সুদ মওকুফ নয়

ছবি

বৈদেশিক মুদ্রায় চাপ কমাতে শতাধিক বিলাস পণ্যে শুল্কারোপ

একদিন পরই ফের পতন শেয়ারবাজারে

ছবি

১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ

ব্যবসা-বাণিজ্য নতুন সম্ভাবনা খুঁজতে পশ্চিমবঙ্গ সফরে ডিসিসিআই প্রতিনিধিদল

দেশে প্রথম ‘কিচেন অ্যান্ড বাথ এক্সপো’ শুরু ২ জুন

সূচক বাড়লেও লেনদেনে ধীরগতি

ছবি

নতুন নির্দেশানা :‘বিশেষ প্রয়োজনে’ বিদেশ যেতে পারবেন ব্যাংকাররাও

ছবি

রেমিট্যান্সে প্রণোদনায় এখন নেই কাগজপত্রের ঝামেলা

ছবি

টাকার মান কমল আরও ৪০ পয়সা

পুঁজিবাজারে প্রথম ঘণ্টায় সূচক বাড়লো ১১৮ পয়েন্ট

দুই জাহাজে ভারত থেকে এলো লাখ টন গম

২০ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব অর্থনীতি সমিতির

শেয়ারবাজারে ব্যাপক পতনে দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা

মার্জিন ঋণের সুবিধা বাড়িয়ে নির্দেশনা জারি

ছবি

ব্যাংকারদের বিদেশ যাওয়া বন্ধ করল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

ছবি

অনুমতি ছাড়াই স্বর্ণ ব্যবসায় সাকিব, ব্যাখ্যা চায় বিএসইসি

দর পতনে সপ্তাহের শুরু

ছবি

জ্বালানির কর কমালো ভারত

ছবি

এখনই গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য না বাড়ানোর আহ্বান এফবিসিসিআইয়ের

প্রয়োজনের অতিরিক্ত ও বিলাস পণ্য না কেনার আহ্বান ভোক্তা অধিদপ্তরের

ছবি

আগামী বাজেটে সারে ভর্তুকি বাড়ছে

ছবি

স্বর্ণের দামে রেকর্ড, ভ‌রি ছাড়াল ৮২ হাজার

ছবি

বিনায়ন সেনের অভিমত : জিডিপি ও মজুরির হার বাড়ার মধ্যে ‘বিশাল ব্যবধান’

ছবি

পোশাক শ্রমিকদের বেতন ও ওভারটাইম বেড়েছে, তবে তা খেয়ে ফেলছে নিত্যপণ্যের বাড়তি দামে

২১ হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন কমেছে শেয়ারবাজারে

সংবাদপত্র শিল্পে কর ছাড় চান সম্পাদকরা

শেয়ারবাজারে প্রি-ওপেনিং সেশন স্থগিত

tab

অর্থ-বাণিজ্য

এফবিসিসিআই সভাপতি সয়াবিন আমদানিতে ৫% ভ্যাটও প্রত্যাহার চান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ১২ মে ২০২২

আমদানিতে যে ৫ শতাংশ ভ্যাট এখন বহাল রয়েছে, তা প্রত্যাহারের সুপারিশ জানিয়েছেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। সয়াবিন তেলের বাজারে অস্থিরতা থামাতে এ সুপারিশ করেন তিনি। পাশাপাশি রাইস ব্র্যান, সানফ্লাওয়ার ও ক্যানোলাসহ যে কোনো ধরনের ভোজ্যতেল করমুক্তভাবে আমদানির সুযোগ দেওয়ার পক্ষেও বলেন তিনি।

রাজধানীর মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এমন সুপারিশ করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন, টি কে গ্রুপের পরিচালক মো. শফিউল আতহার তাসলিম, এস আলম গ্রুপের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক কাজী সালাহ উদ্দিন, সিটি গ্রুপের উপদেষ্টা অমিতাভ চক্রবর্তী, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সহ সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম তালুকদার, মৌলভীবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. গোলাম মাওলা এবং নিউ মার্কেট ডি ব্লক ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের প্রমুখ।

ইউক্রেইন যুদ্ধের পর ভোজ্য তেলের বাজারে যে অস্থিরতা আরো বেড়ে যায়। এই পরিস্থিতিতে প্রথমে ভোজ্য তেল পরিশোধন পর্যায়ে ১৫ শতাংশ এবং বিপণন পর্যায়ে ৫ শতাংশসহ মোট ২০ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করা হয়। এরপর আমদানি পর্যায়েও ভ্যাট ১৫ শতাংশ থেকে ৫ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়। এরপরও এই মাসের শুরুতে সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৪০ টাকা বেড়েছে।

এই পরিস্থিতিতে সয়াবিন আমদানিতে বাকি ৫ শতাংশ ভ্যাটও তুলে নিতে সরকারকে সুপারিশ করলেন এফবিসিসিআই সভাপতি।

তিনি বলেন, “বিশ্ব বাজার পরিস্থিতির কারণে দেশের বাজারে ভোজ্য তেল নিয়ে যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তা সামাল দেওয়ার জন্য বর্তমানে আমদানি পর্যায়ে যে ৫ শতাংশ ভ্যাট আছে, তাও তুলে দেওয়ার জন্য আমি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, “আর ফিনিশড গুডসের আমদানি উৎসাহিত করার রাইসব্র্যান, সানফ্লাওয়ার ও ক্যানোলা অয়েলসহ সব ধরনের ভোজ্য তেল বিনা শুল্কে আমদানির সুযোগ দেওয়া উচিত। এতে যে কেউ তেল আমদানির সুযোগ পারে এবং বাজারে যোগান বাড়বে। এতে বাজারও স্বাভাবিক থাকবে বলে আমি মনে করি।”

ভোজ্য তেলের খোলা বিক্রি বন্ধের পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, “চলমান পরিস্থিতিতে বোতলের গায়ে মূল্য লেখা থাকার কারণে খুচরা ব্যবসায়ীরা খোলা তেল হিসাবে ২২০ টাকা লিটার বিক্রি করছেন। ভবিষ্যতে যাতে এই রকম পরিস্থিতির আর উদ্ভব না হওয়ার জন্য খোলা তেল বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ।”

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, “এরকম সঙ্কটময় সময়ে আপনাদের লাভ কম করা উচিৎ। এই পরিস্থিতি তো অবশ্যই স্বাভাবিক হবে। তখন আপনার স্বাভাবিক লাভ করতে পারবেন। তিনি বলেন, “অল্প কয়েকজন অসৎ ব্যবসায়ীদের কারণে পুরো ব্যবসায়ী সমাজের বদনাম হতে পারে না। তাই আপানারা নিজেদের উদ্যোগে যারা এরকম মজুদ করে বেশি দামে তেল বিক্রি করছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেন।”

আলোচনায় মিল মালিক প্রতিনিধিদের মধ্যে এস আলম গ্রুপের সালাহ উদ্দিন মুক্তবাজার অর্থনীতিতে বাজারে হস্তক্ষেপ বন্ধের পক্ষে মত জানান।

তিনি বলেন, “২০০৯-১০ সালেও এরকম একটা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল। এর আগে তত্বাবধায়ক সরকারের আমলেও এরকম হয়েছিল। কিন্তু পরে বিষয়টি ব্যবসায়ীদের উপর ছেড়ে দেওয়ায় বাজার ঠিকই নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।”

টি কে গ্রুপের পরিচালক শফিউল বলেন, “সরকার যদি আমাদের বিশ্বাস না করে বা আমরা বেশি লাভ করছি বলে মনে করে, তাহলে টিসিবির মাধ্যমে তেল আমদানি করুক। এরপর প্রয়োজনে আমরা পরিশোধন করে দেব। এরপর সরকারই বাজারজাত করুক।”

“ইন্দোনেশিয়ার উৎপাদনের মাত্র ২০ শতাংশ সে দেশের চাহিদা। বাকিটা রপ্তানি করতেই হবে। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই আবারও দেশটি পাম অয়েল রপ্তানি শুরু করতে পারে।”

back to top