alt

অর্থ-বাণিজ্য

বিনিয়োগকারীদের অভিযোগ

১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২

ভুয়া সফটওয়্যার ব্যবহার করে বিনিয়োগকারীদের ১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে বন্ধ ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ নামে একটি ব্রোকারেজ হাউসের বিরুদ্ধে। ২০২১ সালের মার্চ থেকে কার্যক্রম সাসপেন্ড (বন্ধ) করা হলেও চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সদস্য এ প্রতিষ্ঠানটি ব্রোকারেজ খোলা রেখে ভুয়া লেনদেন চালিয়ে গেছে বলে দাবি বিনিয়োগকারীদের।

মঙ্গলবার (২৪ মে) ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরামের (সিএমজেএফ) অডিটরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন বিনিয়োগকারীদের একটি প্রতিনিধি দল। তবে আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জুনু চৌধুরী।

বিনিয়োগকারীদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে মোহম্মদ আইয়ুব খান লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ঢাকা অফিসে আমাদের ৩০ জন বিনিয়োগকারীর সব শেয়ার বিক্রি করে প্রায় ১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। শেয়ার বিক্রি সংক্রান্ত কোন এসএসএস এবং মেইল ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ থেকে আমরা কখনো পেতাম না। বিষয়টি তাদের জানানো হলে তারা সব ঠিক হয়ে যাবে বলে আমাদের আশ্বস্ত করতেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয়নি বাধ্য হয়ে আমরা অন্য হাউজে বিও হিসাব খুলে শেয়ার হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত নেই। কিন্তু সেটাও সম্ভব হয়নি। পরে জানতে পেরেছি, ২০২১ সালের মার্চ থেকে ফার্স্টলিড সিকিউরিটিজের লেনদেন বন্ধ করে রেখেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। হাউজ বন্ধ থাকলেও ডুপ্লিকেট সফটওয়্যার ব্যবহার করে শেয়ার লেনদেন করা হতো। চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি আমরা সিএসইর সিআরও বরাবর শেয়ার হস্তান্তরের আবেদন করি। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও চিটাগাং স্টক এক্সচেঞ্জ আমাদের কোন শেয়ার হস্তান্তর করেনি। এরপর আমার বিএসইসির চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ করলেও কমিশন থেকে আমরা কোন সদ্ উত্তর পাইনি। তবে সিডিবিএল থেকে জানানো হয় আমাদের হিসাবে কোন শেয়ার নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানটি আমাদের শেয়ার বিক্রি করে অর্থ আত্মসাৎ করায় আমরা পথে বসে গেছি। আমরা খুব আর্থিক কষ্টে আছি। এখন আমাদের টাকা বা শেয়ার যত দ্রুত সম্ভব ফেরত পেতে পারি প্রধানমন্ত্রী এবং বিএসইসি চেয়ারম্যানের কাছে দাবি জানাই। ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের মাধ্যমে শেয়ারবাজারে তার ৫৬ লাখ টাকা বিনিয়োগ ছিল। এর মধ্যে ৫০ লাখ টাকার শেয়ার কেনা ছিল এবং ৫ লাখ ৯৬ হাজার টাকা আইপিও আবেদনের জন্য জমা রাখা হয়ে ছিল।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘২০২১ সালের ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের কার্যক্রম বন্ধ করা হলেও চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তারা ব্রোকারেজ হাউজ খোলা রাখে। আমরা হাউজে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে লেনদেন করতাম। হাউজ খোলা থাকায় বুঝতেই পারিনি এর কার্যক্রম বিএসইসি বন্ধ করে দিয়েছে।’

আইয়ুব খান আরও বলেন, ‘ব্রোকারেজ হাউজ খোলা রেখে ভুয়া লেনদেন করা হলেও এই সময়ে আমরা হাউজটি থেকে টাকা তুলেছি। আমরা টাকা চাইলে কখনো চেকে এবং কখনো নগদ টাকা দেয়া হতো। কিন্তু ৬ ফেব্রুয়ারি হাউসটিতে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার পর আমরা বুঝতে পারি এর কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ আলী, মোহাম্মদ আলী চোকদার, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, কৃষ্ণ রায়, কামরুজ্জামান, সাইফুল ইসলাম এবং মোহাম্মদ আইনুর।

ছবি

পদ্মা সেতু উদ্বোধন : বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানালো বিশ্বব্যাংক

ভোজ্যতেলের দাম কমানোর দাবি ক্যাবের

বেসিক বেতন ২০ হাজার টাকা চায় গার্মেন্ট শ্রমিকরা

সাপ্তাহিক লেনদেনের ২৮ শতাংশ ১০ কোম্পানির শেয়ারে

ছবি

ডুয়্যাল কারেন্সি মাস্টার কার্ড নিয়ে এলো ইসলামী ব্যাংক

শেষ হলো চতুর্থ ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো

ঢাকায় তিন দিনব্যাপী বাইক শো শুরু

‘শেয়ারবাজার থেকে মূলধন তুললে ব্যবসা পরিচালনা সহজ হবে’

ছবি

দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম সোয়েটার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ডিএসএসএল

ছবি

বিশ্ববাজারে কমেছে তেলের দাম, দেশে সমন্বয়ের দাবি

ছবি

ঊর্ধ্বমুখী আলু, ঝাঁজ বেড়েছে পেঁয়াজের

বন্ড ছাড়বে মালেক স্পিনিং

ছবি

পাকিস্তানের অর্থনীতি আমাদের চেয়ে ৪০ গুণ নিচে : বাণিজ্যমন্ত্রী

ব্যাংকে মুক্তিযোদ্ধা-বয়স্কদের দ্রুত সেবা দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা

দর পতনের শীর্ষে অ্যাপেক্স ট্যানারি

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সূচক সামান্য বাড়লো

আগ্রহের শীর্ষে মেঘনা ইন্স্যুরেন্স

মেরিকোর লেনদেন চালু রোববার

ছবি

শিল্প খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধি ৩৩.৭৫%

রাশিয়া : চীন-ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য পুনর্বিন্যাস করছে

ছবি

আইডিয়া এবং বিইউপি: সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

ছবি

দেশে কোটিপতিদের সংখ্যা বাড়ছে

পতনের বৃত্ত থেকে উত্থানে পুঁজিবাজার

ভবন নির্মাণে অস্বাভাবিক ব্যয়, আছিয়া সি ফুডসকে শোকজ

নাভানা ফার্মাসিটিক্যালসের বিডিং শুরু ৪ জুলাই

ছবি

মুদ্রানীতি আসছে ৩০ জুন

ওয়ান ব্যাংকের ৪০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

ছবি

চড়া দামে গোখাদ্য কিনে ঈদে পর্যাপ্ত দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় চাঁদপুরের খামারিরা

ছবি

ই-ক্যাব নির্বাচন: আবারও সভাপতি শমী কায়সার, তমাল সাধারণ সম্পাদক

ছবি

রেমিট্যান্স ২০ দশমিক ১৬ বিলিয়ন ডলার ছাড়ালো

আগুনের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের নথিপত্রের ক্ষতি হয়নি

সূচকের সঙ্গে কমেছে লেনদেনও

১১ মাসে প্রায় ২৬ হাজার কোটি টাকা কৃষিঋণ বিতরণ

করমুক্ত আয়সীমা বৃদ্ধি করা উচিত : ড. সেলিম উদ্দিন

তামাকপণ্যে কর বৃদ্ধির সুপারিশ ৯৭ এমপির

পোশাক শিল্পের আমদানি-রপ্তানি জটিলতার দ্রুত সমাধান চায় বিজিএমইএ

tab

অর্থ-বাণিজ্য

বিনিয়োগকারীদের অভিযোগ

১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২

ভুয়া সফটওয়্যার ব্যবহার করে বিনিয়োগকারীদের ১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে বন্ধ ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ নামে একটি ব্রোকারেজ হাউসের বিরুদ্ধে। ২০২১ সালের মার্চ থেকে কার্যক্রম সাসপেন্ড (বন্ধ) করা হলেও চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সদস্য এ প্রতিষ্ঠানটি ব্রোকারেজ খোলা রেখে ভুয়া লেনদেন চালিয়ে গেছে বলে দাবি বিনিয়োগকারীদের।

মঙ্গলবার (২৪ মে) ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরামের (সিএমজেএফ) অডিটরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন বিনিয়োগকারীদের একটি প্রতিনিধি দল। তবে আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জুনু চৌধুরী।

বিনিয়োগকারীদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে মোহম্মদ আইয়ুব খান লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ঢাকা অফিসে আমাদের ৩০ জন বিনিয়োগকারীর সব শেয়ার বিক্রি করে প্রায় ১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। শেয়ার বিক্রি সংক্রান্ত কোন এসএসএস এবং মেইল ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজ থেকে আমরা কখনো পেতাম না। বিষয়টি তাদের জানানো হলে তারা সব ঠিক হয়ে যাবে বলে আমাদের আশ্বস্ত করতেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয়নি বাধ্য হয়ে আমরা অন্য হাউজে বিও হিসাব খুলে শেয়ার হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত নেই। কিন্তু সেটাও সম্ভব হয়নি। পরে জানতে পেরেছি, ২০২১ সালের মার্চ থেকে ফার্স্টলিড সিকিউরিটিজের লেনদেন বন্ধ করে রেখেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। হাউজ বন্ধ থাকলেও ডুপ্লিকেট সফটওয়্যার ব্যবহার করে শেয়ার লেনদেন করা হতো। চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি আমরা সিএসইর সিআরও বরাবর শেয়ার হস্তান্তরের আবেদন করি। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও চিটাগাং স্টক এক্সচেঞ্জ আমাদের কোন শেয়ার হস্তান্তর করেনি। এরপর আমার বিএসইসির চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ করলেও কমিশন থেকে আমরা কোন সদ্ উত্তর পাইনি। তবে সিডিবিএল থেকে জানানো হয় আমাদের হিসাবে কোন শেয়ার নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানটি আমাদের শেয়ার বিক্রি করে অর্থ আত্মসাৎ করায় আমরা পথে বসে গেছি। আমরা খুব আর্থিক কষ্টে আছি। এখন আমাদের টাকা বা শেয়ার যত দ্রুত সম্ভব ফেরত পেতে পারি প্রধানমন্ত্রী এবং বিএসইসি চেয়ারম্যানের কাছে দাবি জানাই। ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের মাধ্যমে শেয়ারবাজারে তার ৫৬ লাখ টাকা বিনিয়োগ ছিল। এর মধ্যে ৫০ লাখ টাকার শেয়ার কেনা ছিল এবং ৫ লাখ ৯৬ হাজার টাকা আইপিও আবেদনের জন্য জমা রাখা হয়ে ছিল।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘২০২১ সালের ফার্স্ট লিড সিকিউরিটিজের কার্যক্রম বন্ধ করা হলেও চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তারা ব্রোকারেজ হাউজ খোলা রাখে। আমরা হাউজে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে লেনদেন করতাম। হাউজ খোলা থাকায় বুঝতেই পারিনি এর কার্যক্রম বিএসইসি বন্ধ করে দিয়েছে।’

আইয়ুব খান আরও বলেন, ‘ব্রোকারেজ হাউজ খোলা রেখে ভুয়া লেনদেন করা হলেও এই সময়ে আমরা হাউজটি থেকে টাকা তুলেছি। আমরা টাকা চাইলে কখনো চেকে এবং কখনো নগদ টাকা দেয়া হতো। কিন্তু ৬ ফেব্রুয়ারি হাউসটিতে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার পর আমরা বুঝতে পারি এর কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ আলী, মোহাম্মদ আলী চোকদার, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, কৃষ্ণ রায়, কামরুজ্জামান, সাইফুল ইসলাম এবং মোহাম্মদ আইনুর।

back to top