alt

অর্থ-বাণিজ্য

বাংলাদেশের আরও এক শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধা দিল চীন

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২

এক শতাংশ বাড়িয়ে বাংলাদেশের ৯৯ শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধার ঘোষণা দিয়েছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। রোববার (৭ আগস্ট) রাজধানী ঢাকার হোটেল সোনারগাঁওয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠকে এ ঘোষণা দেন সফররত চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে চীন আরও ১ শতাংশ বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সে কারণে এখন থেকে চীনের বাজারে ৯৯ শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ। এর মধ্যে পোশাকশিল্পসহ অন্য শিল্পপণ্য রয়েছে।’

বৈঠকের একটি সূত্র জানায়, ‘এক চীন’ নীতিতে সমর্থনের জন্য বাংলাদেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন চীনের এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তাইওয়ানের সঙ্গে উত্তেজনাপূর্ণ সময়ে ‘এক চীন’ নীতিতে অটল থাকায় ঢাকার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বেইজিং।

চীনের প্রবল বিরোধিতার মুখেও মঙ্গলবার (২ আগস্ট) তাইওয়ান সফর করেন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নি¤œকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। নিজেদের অংশ মনে করা ভূখন্ডে পেলোসির এ সফরকে ‘এক চীন’ নীতির প্রতি হুমকি হিসেবে দেখেছে বেইজিং। এর প্রতিক্রিয়ায় বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) থেকে তাইওয়ান ঘিরে সামরিক মহড়া শুরু করে চীন, যা শেষ হয় আজ।

এমন বাস্তবতায় বাংলাদেশ সফরে আসেন চীনের শীর্ষ কূটনীতিক ওয়াং ই। রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে দুই দেশ চারটি বিষয়ে সমঝোতা স্মারকে সই করে। এগুলো হলো পিরোজপুরে অষ্টম বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ সেতুর হস্তান্তর সনদ, দুর্যোগ মোকাবিলায় সহায়তার জন্য পাঁচ বছর মেয়াদি সমঝোতা স্মারকের নবায়ন, ২০২২-২৭ মেয়াদে সাংস্কৃতিক সহযোগিতা সমঝোতা স্মারকের নবায়ন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চীনের ফার্স্ট ইনস্টিটিউট অফ ওশেনোগ্রাফির মধ্যে মেরিন সায়েন্স নিয়ে সমঝোতা স্মারক।

বাংলাদেশের ৯৮ শতাংশ পণ্যে চীন শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার দিলেও দুই দেশের মধ্যে বড় বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে। ২০২০-২০২১ অর্থবছরে বাংলাদেশ ৬৮০ দশমিক ৬৫ মিলিয়ন ডলারের পণ্য চীনে রপ্তানি করেছে। এর বিপরীতে চীন থেকে আমদানি করেছে প্রায় ১৩ বিলিয়ন ডলারের পণ্য।

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে চীনা বিনিয়োগ ও প্রযুক্তি স্থানান্তরের বিষয়ে আলোচনা হওয়ার কথা তুলে ধরে শাহরিয়ার বলেন, ‘বিশেষ করে আনোয়ারায় যে চায়নিজ ইকোনমিক জোন তৈরি হচ্ছে, সেখানে অধিক পরিমাণ চীনা কারখানা, প্রযুক্তি স্থানান্তর করতে তারা সহায়তা করবেন। আনোয়ারায় ওই বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল দ্রুত চালু করার জন্য বাংলাদেশের তরফ থেকে যাতে যথাযথ উদ্যোগ নেয়া হয়, সেজন্য বৈঠকে তাগাদা দিয়েছে চীনা পক্ষ।’

সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে (পিপিপি) ক্ষেত্রে নতুন করে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সম্ভাবনা নিয়েও বৈঠকে চীনের পক্ষ থেকে প্রস্তাব তোলা হয়েছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এটা নতুন প্রস্তাব। শুধু উল্লেখ করেছেন। আমরা পরে এটা নিয়ে আরও আলোচনা করব।’ এটা চীনের বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভের (বিআরআই) সঙ্গে সম্পৃক্ত কি-না জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘না বোধহয়।’

আবদুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক শেষে ওয়াং ই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখান থেকে তিনি সরাসরি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যান।

বানিজ্য মন্ত্রণালয় মনআরও ৯ মাস ভোজ্যতেলে ভ্যাট মওকুফ চায়

চিনির দাম বৃদ্ধি করতে চায় ব্যবসায়ীরা

ক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা জানালেন, বাংলাদেশে উদ্যোক্তাদের ভোগান্তির শেষ নেই

ছবি

বিদ্যুতের দাম বাড়ছে, ঘোষণা আগামী সপ্তাহে

ছবি

কমলো রপ্তানি আয়, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে মূল্যস্ফীতির প্রভাব

ছবি

বিএমসিসিআই প্রতিনিধিদলের সাথে মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের গভর্নরের বৈঠক

ছবি

৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন রেমিট্যান্স

ছবি

রিজার্ভ চুরি: তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে তলব

ছবি

রপ্তানিতে যুদ্ধের ধাক্কা, সেপ্টেম্বরে কমেছে ৬.২৫ শতাংশ

ছবি

১২ কেজি এলপিজির দাম কমলো ৩৫ টাকা

ছবি

১০ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের নগদ লভ্যাংশ প্রেরণ

ছবি

উঠে গেল ভোজ্যতেলের ভ্যাট মওকুফ সুবিধা

ছবি

ইউরোপে পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ৪৫ শতাংশ

ছবি

আগস্টে সঞ্চয়পত্র বিক্রি মাত্র আট কোটি টাকার

বড় অঙ্কের লেনদেন মাত্র ১০ কোম্পানির শেয়ারে

ছবি

নীতি সহায়তা পেলে কম দামে মাংস, ডিম সরবরাহ সম্ভব : এফবিসিসিআই

নানা চ্যালেঞ্জের মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি ‘স্থিতিশীল’ থাকবে

ছবি

বাজার মূলধন কমলো তিন হাজার কোটি টাকা

ছবি

বিনিয়োগ বাড়াতে বাংলাদেশকে আরও পরিচিত করার আহ্বান ঢাকা চেম্বারের

বিশ্বজুড়ে মন্দার আশঙ্কা, ঝুঁকি ৯৮ দশমিক এক শতাংশ

আড়াই হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন হারিয়েছে শেয়ারবাজার

আরও এক লাখ টন চাল আমদানির অনুমতি দিতে চিঠি

সহযোগী প্রতিষ্ঠানকে ঋণ দিতেও সুদ মওকুফে অনুমোদন লাগবে

ছবি

শীত আসার আগে বাজার গরম

ছবি

১০০০ নারী উদ্যোক্তা পেল আইডিয়া প্রকল্প থেকে ৫ কোটি টাকার অনুদান

বড় ধরনের সমস্যায় বেশিরভাগ নতুন জীবন বীমা খাত

ছবি

কলড্রপের জন্য টকটাইম দেয়া শুরু করেছে গ্রামীণফোন

ছবি

ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে ৯ লাখ টাকা জরিমানা

এসবিএসি ব্যাংকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উদ্যাপন

সূচকের সামান্য উত্থান, অর্ধেক শেয়ারের দর অপরিবর্তিত

১৪৬২ কোটি টাকা ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক

ছবি

মানি লন্ডারিং রোধে বিএফআইইউ ও সিআইডির বৈঠক

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে বৈদেশিক মুদ্রার সুদহার বাড়ালো বাংলাদেশ ব্যাংক

ছবি

মূল্যস্ফীতির লাগাম টানতে বাড়ল রেপো সুদহার

ছবি

হিলি স্থলবন্দর : টানা ৮ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

ছবি

রপ্তানি ও প্রবাসী আয় বাড়ায় স্বস্তিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

tab

অর্থ-বাণিজ্য

বাংলাদেশের আরও এক শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধা দিল চীন

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২

এক শতাংশ বাড়িয়ে বাংলাদেশের ৯৯ শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধার ঘোষণা দিয়েছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। রোববার (৭ আগস্ট) রাজধানী ঢাকার হোটেল সোনারগাঁওয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠকে এ ঘোষণা দেন সফররত চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে চীন আরও ১ শতাংশ বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সে কারণে এখন থেকে চীনের বাজারে ৯৯ শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ। এর মধ্যে পোশাকশিল্পসহ অন্য শিল্পপণ্য রয়েছে।’

বৈঠকের একটি সূত্র জানায়, ‘এক চীন’ নীতিতে সমর্থনের জন্য বাংলাদেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন চীনের এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তাইওয়ানের সঙ্গে উত্তেজনাপূর্ণ সময়ে ‘এক চীন’ নীতিতে অটল থাকায় ঢাকার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বেইজিং।

চীনের প্রবল বিরোধিতার মুখেও মঙ্গলবার (২ আগস্ট) তাইওয়ান সফর করেন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নি¤œকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। নিজেদের অংশ মনে করা ভূখন্ডে পেলোসির এ সফরকে ‘এক চীন’ নীতির প্রতি হুমকি হিসেবে দেখেছে বেইজিং। এর প্রতিক্রিয়ায় বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) থেকে তাইওয়ান ঘিরে সামরিক মহড়া শুরু করে চীন, যা শেষ হয় আজ।

এমন বাস্তবতায় বাংলাদেশ সফরে আসেন চীনের শীর্ষ কূটনীতিক ওয়াং ই। রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে দুই দেশ চারটি বিষয়ে সমঝোতা স্মারকে সই করে। এগুলো হলো পিরোজপুরে অষ্টম বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ সেতুর হস্তান্তর সনদ, দুর্যোগ মোকাবিলায় সহায়তার জন্য পাঁচ বছর মেয়াদি সমঝোতা স্মারকের নবায়ন, ২০২২-২৭ মেয়াদে সাংস্কৃতিক সহযোগিতা সমঝোতা স্মারকের নবায়ন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চীনের ফার্স্ট ইনস্টিটিউট অফ ওশেনোগ্রাফির মধ্যে মেরিন সায়েন্স নিয়ে সমঝোতা স্মারক।

বাংলাদেশের ৯৮ শতাংশ পণ্যে চীন শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার দিলেও দুই দেশের মধ্যে বড় বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে। ২০২০-২০২১ অর্থবছরে বাংলাদেশ ৬৮০ দশমিক ৬৫ মিলিয়ন ডলারের পণ্য চীনে রপ্তানি করেছে। এর বিপরীতে চীন থেকে আমদানি করেছে প্রায় ১৩ বিলিয়ন ডলারের পণ্য।

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে চীনা বিনিয়োগ ও প্রযুক্তি স্থানান্তরের বিষয়ে আলোচনা হওয়ার কথা তুলে ধরে শাহরিয়ার বলেন, ‘বিশেষ করে আনোয়ারায় যে চায়নিজ ইকোনমিক জোন তৈরি হচ্ছে, সেখানে অধিক পরিমাণ চীনা কারখানা, প্রযুক্তি স্থানান্তর করতে তারা সহায়তা করবেন। আনোয়ারায় ওই বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল দ্রুত চালু করার জন্য বাংলাদেশের তরফ থেকে যাতে যথাযথ উদ্যোগ নেয়া হয়, সেজন্য বৈঠকে তাগাদা দিয়েছে চীনা পক্ষ।’

সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে (পিপিপি) ক্ষেত্রে নতুন করে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সম্ভাবনা নিয়েও বৈঠকে চীনের পক্ষ থেকে প্রস্তাব তোলা হয়েছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এটা নতুন প্রস্তাব। শুধু উল্লেখ করেছেন। আমরা পরে এটা নিয়ে আরও আলোচনা করব।’ এটা চীনের বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভের (বিআরআই) সঙ্গে সম্পৃক্ত কি-না জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘না বোধহয়।’

আবদুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক শেষে ওয়াং ই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখান থেকে তিনি সরাসরি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যান।

back to top