alt

অর্থ-বাণিজ্য

নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির সুযোগ নিচ্ছে একটি মহল : বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২

দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির সুযোগে একটি মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। সোমবার (১৫ আগস্ট) রংপুরের পীরগাছা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

টিপু মুনশি বলেন, ?‘সারাবিশ্বে এখন অর্থনৈতিক অস্থিরতা চলছে। বিশ্বের অন্য দেশের মতো বাংলাদেশেও পণ্যের দাম বেড়েছে। আমরা বৈশ্বিক পরিস্থিতির শিকার। ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তেল, গ্যাস, চাল ইত্যাদির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। এ পরিস্থতির সুযোগ নিয়ে একটি মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। সাশ্রয়ী হয়ে আমাদের পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে। আশা করা যায়, আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।’

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে নির্মম এ হত্যাকা-ের (১৫ আগস্টের হত্যাকা-) প্রতিশোধ নেয়া হবে মন্তব্য করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ?‘মহান মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শক্তিই বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছে। আজ থেকে ৪৭ বছর আগে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হলেও তার আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি।’

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ?‘বঙ্গবন্ধুর পুরো জীবনটাই সংগ্রামের। ভারত-পাকিস্তান যেদিন ভাগ হয়েছিল, সেদিনই বঙ্গবন্ধু বুঝতে পেরেছিলেন, পাকিস্তান বাঙালিদের জন্য নয়। আমাদের প্রয়োজন একটি স্বাধীন রাষ্ট্র। বঙ্গবন্ধু জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়গুলো জেলে কাটিয়েছেন, দেশ স্বাধীন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি। সে কাজটি করতে পারেননি তিনি। আজ তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। দীর্ঘ ২১ বছর দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নিয়ে উন্নতি করছেন। দেশ আজ শক্তিশালী অর্থনীতির ওপর দাঁড়িয়ে আছে।’

বাংলাদেশের উন্নয়ন এখন দৃশ্যমান এবং বিশ্ববাসী বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করছে বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ শামসুল আরেফীনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন পীরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু নাছের শাহ মো. মাহবুবুর রহমান, রংপুরের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল আলম, পীরগাছা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. তছলিম উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল্লাহ আল মাহমুদ তছলিম।

ছবি

ইভ্যালির দেনা প্রায় ৪০০ কোটি টাকা: শামীমা নাসরিন

ছবি

পরীক্ষামূলকভাবে সরকারি সিকিউরিটিজের লেনদেন শুরু ১০ অক্টোবর

ছবি

জিডিপি প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৬.১ শতাংশ: বিশ্ব ব্যাংক

মিউচ্যুয়াল ফান্ডে দারুণ বিনিয়োগ

খুব সহজেই ইভ্যালিতে বিনিয়োগ আসা সম্ভব : শামীমা নাসরিন

সূচক বাড়লেও টাকার পরিমাণে লেনদেন কমেছে

ছবি

টাকা এক জায়গায় বিনিয়োগ করবেন না : ড. রুমানা ইসলাম

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে এনবিআর-এর পাওনা প্রায় ৪৬৮ কোটি টাকা

ছবি

তেল উৎপাদন কমানোর সিদ্ধান্ত: দাম বাড়বে

সেপ্টেম্বরে মূল্যস্ফীতি ৯ দশমিক ১ শতাংশে নেমেছে

ছবি

ডিজেলের দর পুনর্নির্ধারণের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে বিজিএমইএর চিঠি

ছবি

সেপ্টেম্বরে ইএফডিতে ভ্যাট এলো ৩০ কোটি টাকা

শীঘ্রই ঘুরে দাঁড়াবে রপ্তানি আয় : পরিকল্পনামন্ত্রী

আইপিওতে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ

ছবি

আইপিওতে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে ডিএসই

কিশোরগঞ্জে মাসব্যাপী বাণিজ্যমেলা উদ্বোধন

ছবি

দুই মাসে বাণিজ্য ঘাটতি ৪৫৫ কোটি ৫০ লাখ ডলার

রেগুলেটর হিসেবে আমাদের কাজই ক্যাপিটাল মার্কেটকে সহায়তা করা : গভর্নর

সূচকের পতন, লেনদেনও কমেছে

স্বীকৃতি পেল আরও দুটি কারখানা, সবুজ কারখানার শীর্ষে বাংলাদেশ

ছবি

সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমল ১৪ টাকা

ছবি

রবির নতুন সিইও রাজীব শেঠি

ভোজ্য তেলে ভ্যাট মওকুফ : আরো ৯ মাস চায় বানিজ্য মন্ত্রনালয়

চিনির দাম বাড়াতে চায় ব্যবসায়ীরা

ক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা জানালেন, বাংলাদেশে উদ্যোক্তাদের ভোগান্তির শেষ নেই

ছবি

বিদ্যুতের দাম বাড়ছে, ঘোষণা আগামী সপ্তাহে

ছবি

কমলো রপ্তানি আয়, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে মূল্যস্ফীতির প্রভাব

ছবি

বিএমসিসিআই প্রতিনিধিদলের সাথে মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের গভর্নরের বৈঠক

ছবি

৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন রেমিট্যান্স

ছবি

রিজার্ভ চুরি: তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে তলব

ছবি

রপ্তানিতে যুদ্ধের ধাক্কা, সেপ্টেম্বরে কমেছে ৬.২৫ শতাংশ

ছবি

১২ কেজি এলপিজির দাম কমলো ৩৫ টাকা

ছবি

১০ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের নগদ লভ্যাংশ প্রেরণ

ছবি

উঠে গেল ভোজ্যতেলের ভ্যাট মওকুফ সুবিধা

ছবি

ইউরোপে পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ৪৫ শতাংশ

ছবি

আগস্টে সঞ্চয়পত্র বিক্রি মাত্র আট কোটি টাকার

tab

অর্থ-বাণিজ্য

নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির সুযোগ নিচ্ছে একটি মহল : বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২

দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির সুযোগে একটি মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। সোমবার (১৫ আগস্ট) রংপুরের পীরগাছা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

টিপু মুনশি বলেন, ?‘সারাবিশ্বে এখন অর্থনৈতিক অস্থিরতা চলছে। বিশ্বের অন্য দেশের মতো বাংলাদেশেও পণ্যের দাম বেড়েছে। আমরা বৈশ্বিক পরিস্থিতির শিকার। ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তেল, গ্যাস, চাল ইত্যাদির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। এ পরিস্থতির সুযোগ নিয়ে একটি মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। সাশ্রয়ী হয়ে আমাদের পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে। আশা করা যায়, আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।’

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে নির্মম এ হত্যাকা-ের (১৫ আগস্টের হত্যাকা-) প্রতিশোধ নেয়া হবে মন্তব্য করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ?‘মহান মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শক্তিই বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছে। আজ থেকে ৪৭ বছর আগে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হলেও তার আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি।’

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ?‘বঙ্গবন্ধুর পুরো জীবনটাই সংগ্রামের। ভারত-পাকিস্তান যেদিন ভাগ হয়েছিল, সেদিনই বঙ্গবন্ধু বুঝতে পেরেছিলেন, পাকিস্তান বাঙালিদের জন্য নয়। আমাদের প্রয়োজন একটি স্বাধীন রাষ্ট্র। বঙ্গবন্ধু জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়গুলো জেলে কাটিয়েছেন, দেশ স্বাধীন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি। সে কাজটি করতে পারেননি তিনি। আজ তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। দীর্ঘ ২১ বছর দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নিয়ে উন্নতি করছেন। দেশ আজ শক্তিশালী অর্থনীতির ওপর দাঁড়িয়ে আছে।’

বাংলাদেশের উন্নয়ন এখন দৃশ্যমান এবং বিশ্ববাসী বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করছে বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ শামসুল আরেফীনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন পীরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু নাছের শাহ মো. মাহবুবুর রহমান, রংপুরের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল আলম, পীরগাছা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. তছলিম উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল্লাহ আল মাহমুদ তছলিম।

back to top