alt

অর্থ-বাণিজ্য

এবার রিজার্ভ নামলো ৩৬ বিলিয়ন ডলারে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

ডলার সংকটে গত কয়েক বছরের মধ্যে বৈদেশিক মুদ্রার মজুত (রিজার্ভ) সর্বনিম্ন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দিন শেষে রিজার্ভের পরিমাণ নেমে দাঁড়িয়েছে ৩৬ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন ডলারে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৩৭ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) জুলাই-আগস্টের বকেয়া (১ দশমিক ৭৪ বিলিয়ন ডলার) পরিশোধ করায় রিজার্ভ ৩৭ দশমিক ৬ বিলিয়নে নেমে আসে। গত বছরের ২৫ আগস্ট রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪৮ দশমিক ৬০ বিলিয়ন ডলার। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে রিজার্ভ কমেছে সা‌ড়ে ১১ বিলিয়ন ডলার।

জানা গেছে, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বিশ্ববাজারে পণ্যমূল্য অনেক বেড়ে গেছে। ফলে বিগত কয়েক মাস ধরে আমদানি ব্যয়ে বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে। বাজারে বৈদেশিক মুদ্রার সরবরাহ ঠিক রাখতে গিয়ে প্রচুর ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এতে রিজার্ভ কমে এসেছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরুতে রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪৬ দশমিক ১৫ বিলিয়ন ডলার। ২০২১-২২ অর্থবছরের শেষ দিন গত ৩০ জুন রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪১ দশমিক ৮৬ বিলিয়ন ডলার।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, সাধারণত কোনো দেশে তিন মাসের আমদানি বিল পরিশোধের জন্য প্রয়োজনীয় বৈদেশিক মুদ্রা থাকলেই সেটিকে আদর্শ রিজার্ভ ধরা হয়। আমাদের বর্তমান রিজার্ভ দিয়ে পাঁচ মাসের বেশি আমদানি বিল পরিশোধ করা সম্ভব। সুতরাং রিজার্ভ নিয়ে হতাশ হওয়ার কিছু নেই।

তিনি বলেন, সরকার আমদানিতে বিভিন্ন শর্ত আরোপ করেছে। এতে আমদানি কমতে শুরু করেছে। রপ্তানি আয় বাড়ছে। পাশাপাশি সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে। আর করোনার পর গত দেড় বছরে জনসম্পদ রপ্তানি বেড়েছে। এর ফলে সামনে রেমিট্যান্স সংগ্রহ আরও বেড়ে যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে জুলাইয়ের তুলনায় আগস্টে আমদানির ক্ষেত্রে এলসি (ঋণপত্র) নিষ্পত্তি কমেছে ২৫ শতাংশ। আগস্টে এলসি বাবদ পরিশোধ হয়েছে ৫ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন ডলার, যা আগের মাসে ছিল ৭ দশমিক ৪২ বিলিয়ন ডলার।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে ৬ দশমিক ৮৫ বিলিয়ন ডলার। ফেব্রুয়ারিতে ৬ দশমিক ৫৫ বিলিয়ন, মার্চে ৭ দশমিক ৬৭ বিলিয়ন, এপ্রিলে ৬ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন, মে মাসে ৭ দশমিক ২৫ বিলিয়ন ও জুন মাসে ৭ দশমিক ৭৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে।

ছবি

শীতের শুরুতেই বাজার গরম

ছবি

ইভ্যালির দেনা প্রায় ৪০০ কোটি টাকা: শামীমা নাসরিন

ছবি

পরীক্ষামূলকভাবে সরকারি সিকিউরিটিজের লেনদেন শুরু ১০ অক্টোবর

ছবি

জিডিপি প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৬.১ শতাংশ: বিশ্ব ব্যাংক

মিউচ্যুয়াল ফান্ডে দারুণ বিনিয়োগ

খুব সহজেই ইভ্যালিতে বিনিয়োগ আসা সম্ভব : শামীমা নাসরিন

সূচক বাড়লেও টাকার পরিমাণে লেনদেন কমেছে

ছবি

টাকা এক জায়গায় বিনিয়োগ করবেন না : ড. রুমানা ইসলাম

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে এনবিআর-এর পাওনা প্রায় ৪৬৮ কোটি টাকা

ছবি

তেল উৎপাদন কমানোর সিদ্ধান্ত: দাম বাড়বে

সেপ্টেম্বরে মূল্যস্ফীতি ৯ দশমিক ১ শতাংশে নেমেছে

ছবি

ডিজেলের দর পুনর্নির্ধারণের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে বিজিএমইএর চিঠি

ছবি

সেপ্টেম্বরে ইএফডিতে ভ্যাট এলো ৩০ কোটি টাকা

শীঘ্রই ঘুরে দাঁড়াবে রপ্তানি আয় : পরিকল্পনামন্ত্রী

আইপিওতে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ

ছবি

আইপিওতে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে ডিএসই

কিশোরগঞ্জে মাসব্যাপী বাণিজ্যমেলা উদ্বোধন

ছবি

দুই মাসে বাণিজ্য ঘাটতি ৪৫৫ কোটি ৫০ লাখ ডলার

রেগুলেটর হিসেবে আমাদের কাজই ক্যাপিটাল মার্কেটকে সহায়তা করা : গভর্নর

সূচকের পতন, লেনদেনও কমেছে

স্বীকৃতি পেল আরও দুটি কারখানা, সবুজ কারখানার শীর্ষে বাংলাদেশ

ছবি

সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমল ১৪ টাকা

ছবি

রবির নতুন সিইও রাজীব শেঠি

ভোজ্য তেলে ভ্যাট মওকুফ : আরো ৯ মাস চায় বানিজ্য মন্ত্রনালয়

চিনির দাম বাড়াতে চায় ব্যবসায়ীরা

ক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা জানালেন, বাংলাদেশে উদ্যোক্তাদের ভোগান্তির শেষ নেই

ছবি

বিদ্যুতের দাম বাড়ছে, ঘোষণা আগামী সপ্তাহে

ছবি

কমলো রপ্তানি আয়, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে মূল্যস্ফীতির প্রভাব

ছবি

বিএমসিসিআই প্রতিনিধিদলের সাথে মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের গভর্নরের বৈঠক

ছবি

৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন রেমিট্যান্স

ছবি

রিজার্ভ চুরি: তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে তলব

ছবি

রপ্তানিতে যুদ্ধের ধাক্কা, সেপ্টেম্বরে কমেছে ৬.২৫ শতাংশ

ছবি

১২ কেজি এলপিজির দাম কমলো ৩৫ টাকা

ছবি

১০ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের নগদ লভ্যাংশ প্রেরণ

ছবি

উঠে গেল ভোজ্যতেলের ভ্যাট মওকুফ সুবিধা

ছবি

ইউরোপে পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ৪৫ শতাংশ

tab

অর্থ-বাণিজ্য

এবার রিজার্ভ নামলো ৩৬ বিলিয়ন ডলারে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

ডলার সংকটে গত কয়েক বছরের মধ্যে বৈদেশিক মুদ্রার মজুত (রিজার্ভ) সর্বনিম্ন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দিন শেষে রিজার্ভের পরিমাণ নেমে দাঁড়িয়েছে ৩৬ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন ডলারে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৩৭ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) জুলাই-আগস্টের বকেয়া (১ দশমিক ৭৪ বিলিয়ন ডলার) পরিশোধ করায় রিজার্ভ ৩৭ দশমিক ৬ বিলিয়নে নেমে আসে। গত বছরের ২৫ আগস্ট রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪৮ দশমিক ৬০ বিলিয়ন ডলার। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে রিজার্ভ কমেছে সা‌ড়ে ১১ বিলিয়ন ডলার।

জানা গেছে, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বিশ্ববাজারে পণ্যমূল্য অনেক বেড়ে গেছে। ফলে বিগত কয়েক মাস ধরে আমদানি ব্যয়ে বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে। বাজারে বৈদেশিক মুদ্রার সরবরাহ ঠিক রাখতে গিয়ে প্রচুর ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এতে রিজার্ভ কমে এসেছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরুতে রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪৬ দশমিক ১৫ বিলিয়ন ডলার। ২০২১-২২ অর্থবছরের শেষ দিন গত ৩০ জুন রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৪১ দশমিক ৮৬ বিলিয়ন ডলার।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, সাধারণত কোনো দেশে তিন মাসের আমদানি বিল পরিশোধের জন্য প্রয়োজনীয় বৈদেশিক মুদ্রা থাকলেই সেটিকে আদর্শ রিজার্ভ ধরা হয়। আমাদের বর্তমান রিজার্ভ দিয়ে পাঁচ মাসের বেশি আমদানি বিল পরিশোধ করা সম্ভব। সুতরাং রিজার্ভ নিয়ে হতাশ হওয়ার কিছু নেই।

তিনি বলেন, সরকার আমদানিতে বিভিন্ন শর্ত আরোপ করেছে। এতে আমদানি কমতে শুরু করেছে। রপ্তানি আয় বাড়ছে। পাশাপাশি সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে। আর করোনার পর গত দেড় বছরে জনসম্পদ রপ্তানি বেড়েছে। এর ফলে সামনে রেমিট্যান্স সংগ্রহ আরও বেড়ে যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে জুলাইয়ের তুলনায় আগস্টে আমদানির ক্ষেত্রে এলসি (ঋণপত্র) নিষ্পত্তি কমেছে ২৫ শতাংশ। আগস্টে এলসি বাবদ পরিশোধ হয়েছে ৫ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন ডলার, যা আগের মাসে ছিল ৭ দশমিক ৪২ বিলিয়ন ডলার।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে ৬ দশমিক ৮৫ বিলিয়ন ডলার। ফেব্রুয়ারিতে ৬ দশমিক ৫৫ বিলিয়ন, মার্চে ৭ দশমিক ৬৭ বিলিয়ন, এপ্রিলে ৬ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন, মে মাসে ৭ দশমিক ২৫ বিলিয়ন ও জুন মাসে ৭ দশমিক ৭৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে।

back to top