alt

অর্থ-বাণিজ্য

প্রথম পণ্য উৎপাদনে প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা

প্রতিনিধি, সিলেট : : মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

মৌলভীবাজার শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে পণ্য উৎপাদন শুরু হয়েছে। প্রথম পণ্য উৎপাদন শুরু করলেন একজন যুক্তরাজ্য প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা। অন্য শিল্প প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়ন কাজও দ্রুতগতিতে চলছে। এই অর্থনৈতিক অঞ্চল সিলেট বিভাগে ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ও অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে মাইলফলক হবে মনে করছেন কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এর উদ্যোগে এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে মৌলভীবাজার শেরপুরে তিন জেলার মোহনায় ৩৫২ একর ভূমিতে গড়ে তুলা হয়েছে শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চল। শিল্প-কারখানা স্থাপনের জন্য ৬টি কোম্পানিকে ভূমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সেখানে দেশীয় ৪টি কোম্পানির বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়ন কাজ চলছে।

এ অর্থনৈতিক অঞ্চলে অবকাঠামো কাজ শেষ করে প্রথম পণ্য উৎপাদন শুরু করেছেন একজন প্রবাসী নারী বিনিয়োগকারী। বাসা-বাড়ি, অফিসে ব্যবহৃত আধুনিক, দৃষ্টিনন্দন বিদেশি দরজা, জানালাসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন হচ্ছে সেখানে। শব্দ, তাপ নিরোধক এবং পরিবেশ বান্ধব পণ্যটি সারাদেশে বাজারজাত করে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ করে দিতে চায় এ শিল্পপ্রতিষ্ঠান।

প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা পলি ইসলাম বলেন, আমি বর্তমানে ইংল্যান্ডে একজন ইমিগ্রেশন লইয়ার, এর পাশাপাশি ব্যবসাও করছি। ছোটবেলা থেকে ব্যবসায়ী হওয়ার চিন্তাটা মাথায় ঘুরপাক খায়। এর কারণ হলো ইংল্যান্ডে আমার বাবা একজন রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী ছিলেন, মূলত তাকে দেখেই ব্যবসায়ী হওয়ার আগ্রহ। সেই আগ্রহ থেকে ব্যবসায় আসা এবং আমার স্বামীকেও যুক্ত করি। বর্তমানে আমাদের কিছু বন্ধুরা আগ্রহ প্রকাশ করলে তাদেরও আমাদের সঙ্গে নিই। আমরা বাংলাদেশে মৌলভীবাজারের শ্রীহট্ট ইকোনমিক জোনে ভূমি নিয়ে স্থাপনা নির্মাণ করে উৎপাদন শুরু করেছি। বর্তমানে ১০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছি, পর্যায়ক্রমে শত কোটি টাকা বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি বলেন, এখন ৩০০ মানুষকে কর্মসংস্থান করে দিয়েছি। ভবিষ্যতে কম করে হলেও ১ হাজার মানুষ এখানে কাজ করবে এবং স্থানীয়রা সে সুযোগ পাবেন। সুতরাং এখানে স্থানীয়দের কর্মসংস্থানের বড় একটা সুযোগ রয়েছে।

শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে ‘ডাবলগ্লজিং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঈনুল ইসলাম বলেন, আমরা মূলত বিদেশি দরজা-জানালা এখানে তৈরি করছি। যেগুলো বিদেশ থেকে আনতে হতো সেগুলো উৎপাদন করে সাশ্রয়ী মূল্যে আমরা বিক্রি করবো সারাদেশে। বিদেশ থেকে কাঁচামাল এনে মেশিন এবং কারিগরের সাহায্যে আমরা তৈরি করি। দৃষ্টিনন্দন বিদেশি দরজা, জানালাসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন হচ্ছে এবং শব্দ ও তাপ নিরোধক এবং পরিবেশ বান্ধব পণ্যগুলো তৈরি করছি আমরা।

ব্রিটিশ-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এর পরিচালক মাহতাব মিয়া জানান, আমরা প্রবাসী ব্যবসায়ীরা রেমিট্যান্স যোদ্ধা থেকে বিনিয়োগ যোদ্ধা হতে চাই। তবে বিনিয়োগে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা কমিয়ে ওয়ানস্টপ সার্ভিস চালুর দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, এই দাবি ব্রিটিশ-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এর সকল ব্যবসায়ী এবং প্রতিনিধিদের।

মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান বলেন, সিলেট বিভাগের মধ্যস্থলে অবস্থিত শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে শিল্প গড়ে তুলতে সকল সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে। এখানে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে প্রায় ৪৫ হাজার মানুষের এবং অত্র অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্যে মাইলফলক সৃষ্টি হবে। এই ইকোনমিক জোনটি মৌলভীবাজারে হলেও মৌলভীবাজারের পাশাপাশি এর সুবিধা পাবে হবিগঞ্জ ও সিলেট জেলাও। এই কারণে তিন জেলার মোহনায় করতে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দেন।

শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে সকল শিল্প-প্রতিষ্ঠান উৎপাদনে আসলে মৌলভীবাজারসহ এই অঞ্চলে শিল্পোন্নয়নসহ অর্থনীতি আরও চাঙ্গা হবে বলে আশাবাদী কর্তৃপক্ষ।

ছবি

আমিরাতেই প্রাণের পণ্য তৈরি করবে ইমার্জিং ওয়ার্ল্ড

ছবি

বাড়তি দরে রেমিট্যান্স সংগ্রহে ব্যাংকগুলোকে বাফেদার সতর্কতা

ছবি

কাস্টমস দিবসে ‘সার্টিফিকেট অব মেরিট’ পেলেন ১৭ কর্মকর্তা

ছবি

গুগলের শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আসছে জনপ্রিয় চ্যাটজিপিটি

ছবি

শুরু হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা ২০২৩

সূচক বেড়েছে, তবে কমেছে লেনদেন

২৮ জানুয়ারি পিপিবির পোল্ট্রি কনভেনশন ও মেলা

ছবি

বাংলাদেশ ও কোরিয়ার মধ্যে বাণিজ্য ৩ দশমিক ৩৫ বিলিয়ন ডলার

ছবি

শেয়ারদর বৃদ্ধির শীর্ষে ইস্টার্ন হাউজিং

ছবি

বাড়ল চিনির দাম, ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই কার্যকর

ছবি

সিএসইর ৭ স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগ

ছবি

জনশক্তি রপ্তানি দ্বিগুণ, তবু কমল রেমিট্যান্স

ছবি

৯ মাসে ঋণ আদায়ের চেয়ে অবলোপন দ্বিগুণ

ছবি

‘দ্রব্যমূল্য কমাতে শুল্ক ছাড়’ দৃষ্টিভঙ্গির বদল চায় এনবিআর

ছবি

লক্ষ্যের ধারে-কাছেও যেতে পারছে না বিদেশি বিনিয়োগ

ছবি

সাত মাসেই ৮৫০ কোটি ডলার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক

এলসি খোলার জটিলতায় বিপাকে খুলনার ব্যবসায়ীরা

রোজায় নিত্যপণ্যের দাম বাড়ালে ব্যবস্থা নিতে ডিসিদের নির্দেশ

তৈরি পোশাক কেনা বাড়ানো ও উপযুক্ত দাম নিশ্চিতের আহ্বান

বেপজা অর্থনৈতিক অঞ্চলে ভাইয়া অ্যাপারেলসের বিনিয়োগ

গ্রিন ফ্যাক্টরির প্লাটিনাম সনদ পেল আমানত শাহ

টানা ৩ দিন উত্থান শেয়ারবাজারে

ছবি

ঢাকা ত্যাগ করেছেন বিশ্বব্যাংক এমডি

ছবি

টানা ২৬ দিন ডলারের বিপরীতে পাকিস্তানি রুপির দরপতন

ছবি

মেট্রোরেলঃ চালু হলো পল্লবী স্টেশন, ৭ মিনিটে আগারগাঁও

ছবি

ডলার বিক্রিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন রেকর্ড

বিপিজিএমইএর ১৫তম প্লাস্টিক মেলা ২২ ফেব্রুয়ারি

শেয়ারবাজারে উত্থান

ছবি

ফেয়ার গ্রুপের তৈরি হুন্দাই এসইউভি মিলবে ৯ লাখ টাকা কমে

রমজানে পণ্য সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সহায়তা চায় ডিসিসিআই

এআই খাতে বিনিয়োগ ক্রমেই বাড়ছে, বাড়ছে কর্মী ছাঁটাই

ছবি

উদ্যোক্তাদের প্রযুক্তি সেবা দিচ্ছে সিস্টেমআই

১০ কোটি টাকার ওপরে ঋণ দিতে পারবে না ন্যাশনাল ব্যাংক : কেন্দ্রীয় ব্যাংক

ছবি

ফেব্রুয়ারিতে সাবমেরিন ক্যাবলে বিদ্যুৎ যাচ্ছে কুতুবদিয়া দ্বীপে

ছবি

ফেব্রুয়ারির প্রথম দিনেই শুরু হচ্ছে অমর একুশে বইমেলা

ছবি

ডিজিটাল অভিযাত্রায় বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: বিশ্ব ব্যাংক

tab

অর্থ-বাণিজ্য

প্রথম পণ্য উৎপাদনে প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা

প্রতিনিধি, সিলেট :

মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

মৌলভীবাজার শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে পণ্য উৎপাদন শুরু হয়েছে। প্রথম পণ্য উৎপাদন শুরু করলেন একজন যুক্তরাজ্য প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা। অন্য শিল্প প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়ন কাজও দ্রুতগতিতে চলছে। এই অর্থনৈতিক অঞ্চল সিলেট বিভাগে ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ও অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে মাইলফলক হবে মনে করছেন কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এর উদ্যোগে এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে মৌলভীবাজার শেরপুরে তিন জেলার মোহনায় ৩৫২ একর ভূমিতে গড়ে তুলা হয়েছে শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চল। শিল্প-কারখানা স্থাপনের জন্য ৬টি কোম্পানিকে ভূমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সেখানে দেশীয় ৪টি কোম্পানির বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়ন কাজ চলছে।

এ অর্থনৈতিক অঞ্চলে অবকাঠামো কাজ শেষ করে প্রথম পণ্য উৎপাদন শুরু করেছেন একজন প্রবাসী নারী বিনিয়োগকারী। বাসা-বাড়ি, অফিসে ব্যবহৃত আধুনিক, দৃষ্টিনন্দন বিদেশি দরজা, জানালাসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন হচ্ছে সেখানে। শব্দ, তাপ নিরোধক এবং পরিবেশ বান্ধব পণ্যটি সারাদেশে বাজারজাত করে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ করে দিতে চায় এ শিল্পপ্রতিষ্ঠান।

প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা পলি ইসলাম বলেন, আমি বর্তমানে ইংল্যান্ডে একজন ইমিগ্রেশন লইয়ার, এর পাশাপাশি ব্যবসাও করছি। ছোটবেলা থেকে ব্যবসায়ী হওয়ার চিন্তাটা মাথায় ঘুরপাক খায়। এর কারণ হলো ইংল্যান্ডে আমার বাবা একজন রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী ছিলেন, মূলত তাকে দেখেই ব্যবসায়ী হওয়ার আগ্রহ। সেই আগ্রহ থেকে ব্যবসায় আসা এবং আমার স্বামীকেও যুক্ত করি। বর্তমানে আমাদের কিছু বন্ধুরা আগ্রহ প্রকাশ করলে তাদেরও আমাদের সঙ্গে নিই। আমরা বাংলাদেশে মৌলভীবাজারের শ্রীহট্ট ইকোনমিক জোনে ভূমি নিয়ে স্থাপনা নির্মাণ করে উৎপাদন শুরু করেছি। বর্তমানে ১০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছি, পর্যায়ক্রমে শত কোটি টাকা বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি বলেন, এখন ৩০০ মানুষকে কর্মসংস্থান করে দিয়েছি। ভবিষ্যতে কম করে হলেও ১ হাজার মানুষ এখানে কাজ করবে এবং স্থানীয়রা সে সুযোগ পাবেন। সুতরাং এখানে স্থানীয়দের কর্মসংস্থানের বড় একটা সুযোগ রয়েছে।

শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে ‘ডাবলগ্লজিং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঈনুল ইসলাম বলেন, আমরা মূলত বিদেশি দরজা-জানালা এখানে তৈরি করছি। যেগুলো বিদেশ থেকে আনতে হতো সেগুলো উৎপাদন করে সাশ্রয়ী মূল্যে আমরা বিক্রি করবো সারাদেশে। বিদেশ থেকে কাঁচামাল এনে মেশিন এবং কারিগরের সাহায্যে আমরা তৈরি করি। দৃষ্টিনন্দন বিদেশি দরজা, জানালাসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন হচ্ছে এবং শব্দ ও তাপ নিরোধক এবং পরিবেশ বান্ধব পণ্যগুলো তৈরি করছি আমরা।

ব্রিটিশ-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এর পরিচালক মাহতাব মিয়া জানান, আমরা প্রবাসী ব্যবসায়ীরা রেমিট্যান্স যোদ্ধা থেকে বিনিয়োগ যোদ্ধা হতে চাই। তবে বিনিয়োগে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা কমিয়ে ওয়ানস্টপ সার্ভিস চালুর দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, এই দাবি ব্রিটিশ-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এর সকল ব্যবসায়ী এবং প্রতিনিধিদের।

মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান বলেন, সিলেট বিভাগের মধ্যস্থলে অবস্থিত শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে শিল্প গড়ে তুলতে সকল সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে। এখানে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে প্রায় ৪৫ হাজার মানুষের এবং অত্র অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্যে মাইলফলক সৃষ্টি হবে। এই ইকোনমিক জোনটি মৌলভীবাজারে হলেও মৌলভীবাজারের পাশাপাশি এর সুবিধা পাবে হবিগঞ্জ ও সিলেট জেলাও। এই কারণে তিন জেলার মোহনায় করতে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দেন।

শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে সকল শিল্প-প্রতিষ্ঠান উৎপাদনে আসলে মৌলভীবাজারসহ এই অঞ্চলে শিল্পোন্নয়নসহ অর্থনীতি আরও চাঙ্গা হবে বলে আশাবাদী কর্তৃপক্ষ।

back to top